Home » Online Earning » ফরেক্স শিখুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ( ৮ম পর্বঃ ফরেক্সে কিভাবে উপার্জন করা যায়? ) ০২ – ট্রেড পরিচিতি

2 weeks ago (Nov 28, 2017) 193 views

ফরেক্স শিখুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ( ৮ম পর্বঃ ফরেক্সে কিভাবে উপার্জন করা যায়? ) ০২ – ট্রেড পরিচিতি

Category: Online Earning Tags: by

প্রিয় ট্রিকবিডি সাইটের সকল ভিজিটরকে আমার সালাম।আশা করি আপনারা সকলে ভালো আছেন। আর আমিও এই সাইটের সাথে থেকে অনেক ভালো আছি। এবার টিউনে ফিরে আসি।

 

ফরেক্সে কিভাবে উপার্জন করা যায়?

আপনি ফরেক্স মার্কেটে কারেন্সি কেনাবেচা করেন। আপনি এই চিন্তা করে কারেন্সি কেনাবেচা করেন যে, কারেন্সির মূল্য একটা অন্যটার তুলনায় বাড়বে অথবা কমবে ।

ধরুন আপনি €১০,০০০ ইউরো কিনতে চাচ্ছেন ইউএস ডলারের বিনিময়ে।

€১ = $১.৩৫

তাহলে €১০,০০০ কিনতে আপনার লাগবে

$১.৩৫ X ১০,০০০ = $১৩,৫০০

১মাস পরে ইউরোর দাম ১.৪২০০ হলো। আপনি আপনার ট্রেডটা ক্লোজ করে দিলেন। তাহলে আপনি পাচ্ছেন

$১৪,২০০-$১৩,৫০০= $৭০০

যদি ১ডলারের দাম ৭৫ টাকা হয় তাহলে

$১৩,৫০০= $৭৫ X ১৩,৫০০= ১,০১২,৫০০ টাকা মাত্র

মন খারাপ করবেন না। আপনার ট্রেড করতে এত টাকার প্রয়োজন নেই।

ফরেক্সে কারেন্সি মূল্য কিভাবে পড়ব

কারেন্সির মূল্য সবসময় জোড়ায় গননা করা হয়। কারন আপনি যখন একটি কারেন্সি কিনেন তখন অন্য একটি কারেন্সি বিক্রি করেন।

না বুঝে থাকলে উপরের উদাহরনটা আবার দেখুন। আপনি ইউএস ডলার দিয়ে ইউরো কিনেছিলেন। কারেন্সি ভ্যালুকে আমরা নিম্নের ছবির মত দেখে থাকি। ছবিটিতে €১ জন্য কত ডলার প্রয়োজন তা দেখাচ্ছে।

বাই সেল প্রাইস

এখানে ইউরো হলো বেস কারেন্সি আর ইউএসডি হলো কোট কারেন্সি। যখন আপনি কিনেন তখন আপনি দেখতে পারেন যে আপনার ১ ইউনিট বেস কারেন্সি কিনতে কত ইউনিট কোট কারেন্সি প্রয়োজন। আপনি যখন বিক্রি করেন তখন আপনি দেখতে পারেন যে, আপনি ১ ইউনিট কোট কারেন্সির বিনিময়ে কত বেস কারেন্সি পাবেন।

আপনি তখন কিনবেন যখন মনে করবেন যে, বেস কারেন্সির মুল্য বৃদ্ধি পাবে। আপনি তখন বিক্রি করবেন যখন মনে করবেন যে, বেস কারেন্সির মুল্য কমবে।

Long নাকি Short

আপনি প্রথমে নির্ধারন করবেন যে, আপনি কারেন্সির পেয়ার (জোড়া) বাই না সেল করবেন। যদি আপনি বাই (ক্রয়) করতে চান তাহলে আপনি চিন্তা করছেন যে কারেন্সির ভ্যালূ বাড়বে। এই কেনাকে Long বলা হয়।

যদি আপনি সেল (বিক্রয়) করতে চান তাহলে আপনি চিন্তা করছেন যে কারেন্সির ভ্যালু কমবে। এই সেল করাকে Short বলা হয়। মনে রাখাবেন

Buy = Long

Sell = Short

Bid/Ask

যে কোন কারেন্সি পেয়ারে দুইটি প্রাইস দেখা যায়। নিচের ছবিটি দেখুন। প্রথমটি হল Bid প্রাইস আর পরেরটি হল Ask প্রাইস। Bid প্রাইসের ভ্যালু সবসময় Ask প্রাইসের চেয়ে কম থাকবে।

Bid – Ask = Spread

Spread হল ব্রোকারের লভ্যাংশ যা আপনার ট্রেডের ভিতর থেকে কেটে নেয়। লক্ষ্য করবেন যে আপনি যখন Buy অর্ডার দেন, তখন ট্রেড Ask মূল্যে শুরু হয় আর যখন Sell অর্ডার দেন, তখন ট্রেড Bid মূল্যে শুরু হয়। তাছাড়া আরো লক্ষ্য করবেন যে, আপনার ট্রেড কিছুটা লস দিয়ে শুরু হয়েছে। এটার কারন হল যে ব্রোকার আপনার ট্রেড থেকে স্প্রেড কেটে নিয়েছে। মনে রাখবেন যে সব কারেন্সির স্প্রেড সমান না।

 

এখন খুব সহজে আপনিও পারবেন প্রতিদিন ৪০০-৮০০ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে একটি বাংলাদেশের সাইট এর মাধ্যমে। Instant payment নিতে পারবেন Bkash, Rocket এবং PayPal এ। (100% Guaranteed Income With Payment Proof)

পোস্টে কোন ভুল ত্রুটি হলে ক্ষমা করে দিবেন।

ভুজতে সমস্যা হলে কমেন্ট করুন অথবা ফেচবুকে জানাবেন।

যুদি একটু সময় হয় তাহলে আমার সাইটে ঘুরে আসবেনঃ tricklikhun.com

Report

About Post: 22489

Nurul Amin

নিজে জানবো এবং অন্যদের জানানোর চেষ্টা করবো। আমার ওয়েবসাইটে ঘুরে আসবেন প্লিজঃ http://tricklikhun.com

2 responses to “ফরেক্স শিখুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ( ৮ম পর্বঃ ফরেক্সে কিভাবে উপার্জন করা যায়? ) ০২ – ট্রেড পরিচিতি”

  1. mehzad mehzad1122 (Contributor) says:

    at last, forex থেকে ঠিক কিভাবে উপার্জন করা যায় তা আপনার এই পর্যায়ক্রমিক পর্বগুলোর এই পর্বে আসলো। তাও বিস্তারিত জানতে আগামী পর্ব পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে!
    আপনি যথাসম্ভব english কোন site থেকে আমাদের জন্য কষ্ট করে অনুবাদ করে trickbd তে পোস্ট করছেন। forex সম্পর্কে অনেক নাজানা কৌতূহল আপনার এই পর্বগুলোতে চোখ বুলিয়ে জানতে পারছি।
    শুভকামনা রইল।

  2. Tanvirrahman (Contributor) says:

    এর কিছুই বুঝি না ভাই।

Leave a Reply