Home » Online Earning » ফরেক্স শিখুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ( ১০ম পর্বঃ লট, লিভারেজ, লাভ ও লস কি? ) ০২ – ট্রেড পরিচিতি

1 week ago (Dec 03, 2017) 293 views

ফরেক্স শিখুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ( ১০ম পর্বঃ লট, লিভারেজ, লাভ ও লস কি? ) ০২ – ট্রেড পরিচিতি

Category: Online Earning Tags: by

প্রিয় ট্রিকবিডি সাইটের সকল ভিজিটরকে আমার সালাম।আশা করি আপনারা সকলে ভালো আছেন। আর আমিও এই সাইটের সাথে থেকে অনেক ভালো আছি। এবার টিউনে ফিরে আসি।

 

লট, লিভারেজ, লাভ ও লস

নিম্নের জিনিসগুলি আপনার ট্রেডের জন্য অতি প্রয়োজনীয়। তাই এখানে যা যা আছে তা ভাল করে বুঝে নিবেন।

পিপ কি?

পিপ হল একটা কারেন্সি পেয়ারে সবচেয়ে ছোট অংকের পরিবর্তন। ১ পিপ = ০.০০০১ এবং ২ পিপ = ০.০০০২। উদাহরনস্বরূপ যদি EUR/USD ভ্যালু ১.৫০৩০ থেকে ১.৫০৩১ তে যায় তাহলে একে ১ পিপ গননা করা হয়।

ফ্রাকশনাল পিপ

আবার জাপানী পেয়ারগুলোতে কারেন্সি ২ ডেসিমেলে ধরা হয়। এই ক্ষেএে শেষ ডেসিমেলটাতে পিপ গননা করা হয়। ধরুন USD/JPY যদি ১১৯.৫২ ভেকে ১১৯.৫১ তে যায় তাহলে একে ১ পিপ ধরা হবে।

কারেন্সি কোটেশন আবার ৪ ডিজিটের জায়গায় ৫ ডিজিটেরও থাকে (ECN ব্রোকারগুলোতে)। সেগুলোকে ফ্রাকশনাল পিপ অথবা পিপেট বলা হয়ে থাকে।

লট গননা করা

অতিতে স্পট ফরেক্স লটে ট্রেড হত। স্ট্যান্ডার্ড লট সাইজ ছিল ১০০,০০০ ইউনিট। এখন আমরা ছোট লট সাইজে ট্রেড করতে পারি। সেগুলো নিম্নে দেয়া হল:

লট              নাম্বার
স্ট্যান্ডার্ড         ১০০,০০০ ইউনিট
মিনি                ১০,০০০ ইউনিট
মাইক্রো             ১০০০ ইউনিট
ন্যানো               ১০০ ইউনিট

আমরা অনেক জায়গায় “পিপ” ব্যাবহার করেছি। পিপ হল কারেন্সি কোটে সবচেয়ে ছোট সংখ্যাটি। যেমন ১.৩৫৭৪ কোটে ৪ সংখ্যাকে পিপ বলে। যখন কারেন্সি ভ্যালু ১.৩৫৭৫ অথবা ১.৩৫৭৪ তে যাবে, তখন আমরা এটাকে ১ পিপ মুভ বলি। যদি অনেক বেশি অর্থ দিয়ে ট্রেড না করি তাহলে তেমন লাভ পাওয়া যাবে না।

ধরুন আমরা ১ লট মানে ১০০,০০০ ইউনিট দিয়ে ট্রেড করব। দেখি এখন পিপ ভ্যালু কিভাবে গননা করব:

যখন USD বেস কারেন্সি:(০.০১/এক্সচেঞ্জ রেট) X ১০০,০০০= $XX প্রতি পিপ

(১) USD/JPY এর এক্সচেঞ্জ রেট ১১৯.৮০০ তাহলে (০.০১/১১৯.৮০)*১০০.০০০= $৮.৩৪ প্রতি পিপ।

(২) USD/CHF এর এক্সচেঞ্জ রেট ১.৪৫৫৫ তাহলে (.০০০১/১.৪৫৫৫)*১০০.০০০= $৬.৮৭ প্রতি পিপ।

যখন ডলার বেস কারেন্সি নয়, এর গননা একটু বিভিন্ন রকমের:

USD কোট কারেন্সি: (০.০১/ এক্সচেঞ্জ রেট) X ১০০,০০০ X এক্সচেনজ রেট = $XX প্রতি পিপ

(১) EUR/USD এক্সচেঞ্জ রেট ১.১৯৩০ তাহলে (.০০০১/১.১৯৩০)* ১০০.০০০= €৮.৩৮ X ১.১৯৩০= $৯.৯৯৭৩৪ অথবা $১০ প্রতি পিপ।

(২) GBP/USD এক্সচেঞ্জ রেট ১.৮০৪০ তাহলে (.০০০১/১.৮০৪০)*১০০,০০০ = £৫.৫৪*১.৮০৪০ = $৯.৯৯৪১৬ প্রতি পিপ।

ব্রোকাররা ভিন্নভাবে পিপ ভ্যালু গননা করতে পারে। তারা যেভাবেই পিপ ভ্যালু গননা করুক না কেন, আপনি যদি জিজ্ঞেস করেন তাহলে তারা পিপ ভ্যালু গননা করার সূএ আপনাকে ব্যাখ্যা করবে।

লিভারেজ কি?

এতক্ষনে আপনি হয়ত অনেক মাথা ঘামিয়েছেন যে মানুষ অল্প অর্থ দিয়ে কিভাবে এই মার্কেটে ট্রেড করবে আর ভাল লাভ করবে। ধরুন আপনার গার্লফ্রেন্ডের বাবা আপনাকে বললো যে আপনি যদি $১,০০০ কামিয়ে তাকে দেখাতে পারেন তাহলে সে তার মেয়েকে আপনার হাতে তুলে দিবে আর $১০০,০০০ আপনাকে দিবে যাতে আপনি সেটা দিয়ে কিছু করতে পারেন।

ফরেক্স ব্রোকারও আপনার সাথে এই রকম কিছু করে থাকে। ব্রোকার আপনার অল্প অর্থের বিপরীতে আপনাকে বড় অঙ্কের অর্থ দিবে যাতে আপনি ফরেক্স মার্কেটে ট্রেড করে লাভ করতে পারেন। আপনার শ্বশুর আপনাকে দেয়া অর্থ ফেরত নেবে না কিন্তু আপনার ব্রোকার আপনাকে দেয়া অর্থ ফেরত নেবে। এর কারন হল ব্রোকার আপনাকে অর্থ ধার দেয় ট্রেড করতে আর যখন আপনি ট্রেড ক্লোজ করেন, তখন ব্রোকার তার টাকা আবার ফেরত নিয়ে যায়। চলুন দেখি কিভাবে:

ধরুন আপনার কাছে $৫০০ আছে। GBP/USD এর বর্তমান মূল্য ১.৫০০০। আপনি ১ মাইক্রো লট (অর্থাৎ $১ প্রতি পিপ) কিনতে চাচ্ছেন। আপনার পছন্দসই লেভারেজ হল ১:১০০। এর মানে ১০,০০০ ইউনিট GBP/USD কিনতে যা লাগবে আপনার ব্রোকার আপনাকে তার ১% এর বিনিময়ে সেই ট্রেড শুরু করতে দিবে। তাহলে দেখি:

১ মাইক্রো লট GBP/USD কিনতে প্রয়োজন $১৫,০০০।

আপনার একাউন্টে আছে $৫০০।

লেভারেজ হল ১:১০০ মানে GBP/USD এর প্রকৃত মূল্যের ১% এর বিনিময়ে আপনি এই ট্রেডটি শুরু করতে পারবেন।

$১৫,০০০ এর ১% হল $১৫০।

আপনার ব্রোকার $১৫০ নিয়ে আপনাকে ট্রেড শুরু করতে দিবে। এই $১৫০ আপনি আপনার একাউন্টে মার্জিন হিসেবে দেখবেন। আপনি যখন ট্রেড ক্লোজ করে দিবেন তখন আপনার ব্রোকার আপনার একাউন্টে $১৫০ ফেরত দিয়ে দেবে।

লাভ-লোকসান কিভাবে হিসাব করবেন?

আমরা পিপ ভ্যালু ও লেভারেজ সম্পর্কে জানলাম। এখন দেখি লাভ-লোকসান কিভাবে হিসাব করব। আমরা এখানে আগের উদাহরনটা ব্যাবহার করব:

আপনি ১.৫০০০ তে GBP/USD কিনেছিলেন।

GBP/USD ১.৫০৫০ তে যাওয়ার পর আপনি ট্রেড ক্লোজ করে দিলেন।

তাহলে আপনার পিপ ভ্যালু হল (০.০০০১ X ১.৫০০০) X ১০,০০০= ০.৬৬৭ X ১.৫০০০ = $১

আপনার লাভ হল ১.৫০৫০-১.৫০০০ = ৫০ পিপস X $১ প্রতি পিপ = $৫০

এখানে স্প্রেডের খেলাও ছিল। আপনি যখন বাই করেন তখন আসক প্রাইসে বাই করেন আর সেই ট্রেড যখন ক্লোজ করেন তখন বিড প্রাইসে ক্লোজ করেন। ঠিক উল্টাভাবে আপনি যখন সেল করেন তখন বিড প্রাইসে সেল করেন আর সেই ট্রেড যখন ক্লোজ করেন তখন আসক প্রাইসে ক্লোজ করেন।

 

পোস্টে কোন ভুল ত্রুটি হলে ক্ষমা করে দিবেন।

ভুজতে সমস্যা হলে কমেন্ট করুন অথবা ফেচবুকে জানাবেন।

যুদি একটু সময় হয় তাহলে আমার সাইটে ঘুরে আসবেনঃ tricklikhun.com

Report

About Post: 22489

Nurul Amin

নিজে জানবো এবং অন্যদের জানানোর চেষ্টা করবো। আমার ওয়েবসাইটে ঘুরে আসবেন প্লিজঃ http://tricklikhun.com

8 responses to “ফরেক্স শিখুন প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ( ১০ম পর্বঃ লট, লিভারেজ, লাভ ও লস কি? ) ০২ – ট্রেড পরিচিতি”

  1. Oleraj Oleraj (Contributor) says:

    Good….But Forex niya mathay kissu dukhtece na……Video akare dile valo hoto…..video helpful hobe

Leave a Reply