আসসালামুওয়ালাইকুম


—আশা করি সবাই ভাল আছেন।

—আমি ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক করার বিভিন্ন উপায় দেখাবো যা সব হ্যাকার সাধারণত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার জন্য ব্যবহার করে। তাই হ্যাকারদের থেকে সতর্ক থাকুন এবং হ্যাকারদের থেকে আপনার ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট রক্ষা করুন।এই সমস্ত পদ্ধতিগুলি সাবধানে পড়তে হবে, সকল আক্রমণ থেকে সতর্ক হোন এবং হ্যাকারদের থেকে আপনার ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট রক্ষা করুন।

—নোট: – এই পোস্টটি শুধুমাত্র নিরাপত্তার উদ্দেশ্যে।শীর্ষ উপায় কিভাবে হ্যাকার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করতে পারেন 2016- 2017 সালে বেশিরভাগ হ্যাকার ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক করার জন্য এই পদ্ধতি ব্যবহার করে। তাই হ্যাকারদের কাছ থেকে নিজেদের রক্ষা করুন এই পোস্টটি পড়তে হবে, এবং হ্যাকারদের থেকে সতর্ক থাকুন।

—ফিশিং:
এটির দ্বারা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ড হ্যাক করুন
ফিশিং এখনও ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার জন্য ব্যবহৃত সবচেয়ে জনপ্রিয় আক্রমণ ভেক্টর। ফিশিং আক্রমণ চালানোর জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি আছে। একটি সহজ ফিশিং আক্রমণে একটি হ্যাকার একটি জাল লগ পৃষ্ঠা তৈরি করে যা প্রকৃত ফেসবুক পেজের মতই দেখায় এবং তারপর ভিজিটরকে লগ ইন করতে অনুরোধ করে। একবার ভুয়া পৃষ্ঠাটি মাধ্যমে শিকার লগ ইন, শিকার “ইমেল ঠিকানা” এবং “পাসওয়ার্ড “একটি টেক্সট ফাইলের মধ্যে সংরক্ষিত হয়, এবং হ্যাকার তারপর টেক্সট ফাইল ডাউনলোড এবং শিকার প্রমাণপত্রাদি তার হাত পায়।

—কিলগিং:
এটির দ্বারা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ড হ্যাক কী-লগিং হল ফেসবুক পাসওয়ার্ড হ্যাক করার সবচেয়ে সহজ উপায়। Keylogging কখনও কখনও এত বিপজ্জনক হতে পারে যে এমনকি কম্পিউটারের ভাল জ্ঞান সঙ্গে একটি ব্যক্তি এটি জন্য পড়ে যেতে পারে। একটি Keylogger মূলত একটি ছোট প্রোগ্রাম যা, একবার শিকার এর কম্পিউটারে ইনস্টল করা হয়, তার / তার কম্পিউটার শিকার ধরনের সব রেকর্ড করবে তারপর লগগুলি হয় এফেক্ট বা হ্যাকার ইমেল ঠিকানাতে সরাসরি আক্রমণকারীকে ফেরত পাঠায়।

—চুরি:
এর প্রায় 80% লোক ফেসবুকে অ্যাক্সেস করার জন্য তাদের ব্রাউজারে সংরক্ষিত পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে। এটি বেশ সুবিধাজনক, কিন্তু কখনও কখনও অত্যন্ত বিপজ্জনক হতে পারে। Stealer এর সফটওয়্যার বিশেষভাবে ডিজাইন করা হয়েছে সংরক্ষিত ইন্টারনেট ব্রাউজারে সংরক্ষিত সংরক্ষিত পাসওয়ার্ডগুলি ক্যাপচার করা।

—সেশন হাইজ্যাকিং:
দ্বারা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট পাসওয়ার্ড হ্যাক করুন
আপনি একটি HTTP (অ নিরাপদ) সংযোগে ফেসবুক অ্যাক্সেস করা হলে অধিবেশন অপহরণ করা খুব বিপজ্জনক হতে পারে। অধিবেশন অপহরণ আক্রমণে, একটি হ্যাকার ব্রাউজার কুকিকে চুরি করে, যা ব্যবহারকারীকে একটি ওয়েবসাইটে ওয়েবসাইটে প্রমাণ করার জন্য ব্যবহার করা হয় এবং এটি ব্যবহার করে শিকারের অ্যাকাউন্ট অ্যাক্সেস করতে ব্যবহার করা হয়। সেশন হাইজ্যাকিং ব্যাপকভাবে ল্যান এবং ওয়াইফাই সংযোগগুলিতে ব্যবহৃত হয়।

—ফায়ারশিপ:
সাইডহাকিং আক্রমণ 2010 সালের শেষের দিকে সাধারণ হয়ে, তবে এটি এখনও একটি দিন এখন জনপ্রিয়। Firesheep ব্যাপকভাবে আক্রমণের আক্রমণ চালানোর জন্য ব্যবহৃত হয়। Firesheep কেবল তখনই কাজ করে যখন আক্রমণকারী এবং শিকার একই WiFi নেটওয়ার্কে থাকে। একটি সাইডহাকিং আক্রমণ মূলত http session হাইজ্যাকিং এর জন্য অন্য একটি নাম, কিন্তু এটি আরও বেশি WiFi ব্যবহারকারীদের জন্য লক্ষ্যবস্তু।

—মোবাইল ফোন হ্যাকিং:
লক্ষ লক্ষ ফেসবুক ব্যবহারকারীরা তাদের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ফেসবুকে প্রবেশ করে। হ্যাকাররা যদি মোবাইল ফোনে অ্যাক্সেস পেতে পারে তবে তার ফেসবুক একাউন্টে প্রবেশ করতে পারে। তাদের একটি মোবাইল ফোন গুপ্তচরবৃত্তি সফ্টওয়্যার একটি সেলফোন নিরীক্ষণ ব্যবহৃত একটি প্রচুর। সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ফোন গুপ্তচরবৃত্তি সফ্টওয়্যার এর: মোবাইল গুপ্তচর, এবং গুপ্তচর ফোন গোল্ড।

—ডিএনএস স্পুফিং:
যদি শিকার এবং আক্রমণকারী উভয়ই একই নেটওয়ার্কে থাকে, তাহলে একজন আক্রমণকারী একটি DNS স্পুফিং আক্রমণ ব্যবহার করতে পারেন এবং মূল ফেসবুক পাতাকে তার নিজের জাল পৃষ্ঠাতে পরিবর্তন করতে পারেন এবং সেইজন্য শিকারের ফেসবুক একাউন্ট অ্যাক্সেস পেতে পারেন।

—ইউএসবি হ্যাকিং:
যদি কোনও আক্রমণকারী আপনার কম্পিউটারে শারীরিক অ্যাক্সেস থাকে তবে তিনি ইন্টারনেট ব্রাউজারে সংরক্ষিত পাসওয়ার্ডগুলিকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এক্সট্রাক্ট করতে ফাংশন সহ একটি ইউএসবি প্রোগ্রাম সন্নিবেশ করতে পারেন।

—ম্যান ইন দ্যা মিডল অ্যাটাক:
এক্ষেত্রে শিকার এবং আক্রমণকারী একই ল্যান এবং একটি সুইচ ভিত্তিক নেটওয়ার্কের উপর, একটি হ্যাকার ক্লায়েন্ট এবং সার্ভারের মধ্যে নিজেকে স্থাপন করতে পারেন, বা তিনি একটি ডিফল্ট গেটওয়ে হিসাবে কাজ করতে পারে এবং তাই মধ্যে সব ট্রাফিক ক্যাপচার করতে পারেন।

—-বোটনেটস:
Botnets সাধারণত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকিং জন্য ব্যবহার করা হয় না, কারণ এটি উচ্চ সেটআপ খরচ। তারা আরও উন্নত আক্রমণ পরিচালনা করতে ব্যবহার করা হয়। একটি Botnet মূলত আপোস কম্পিউটারের একটি সংগ্রহ। সংক্রমণ প্রক্রিয়া কী লগিং হিসাবে একই, তবে একটি Botnet আপস করা কম্পিউটারের সাথে আক্রমণ চালানোর জন্য অতিরিক্ত বিকল্প দেয়। সর্বাধিক জনপ্রিয় Botnets মধ্যে Spyeye এবং জিউস অন্তর্ভুক্ত।

বেশিরভাগ হ্যাকার এই পদ্ধতি ব্যবহার করে ফেইসবুক একাউন্টের পাসওয়ার্ড হ্যাক করার চেষ্টা করে।

—পোষ্টটি সতর্কতা করার জন্য করলাম।এ বিষয়ে আগে পোষ্ট হয়ে থাকলে আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

ধন্যবাদ।

41 thoughts on "ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট সেফটি সম্পর্কিত কিছু টিপস।[যেভাবে হ্যাকাররা ফেইসবুক হ্যাক করে]"

    1. RüPõm Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ।
  1. gsm sohan Author says:
    NICE POST VAI…. apnar post amar onek upokare aseche…… Next valo kicu share korben za apni chara khub kom people jane…..
    Best of luck
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      support deyar jonno ধন্যবাদ ভাই। আমার মডেল টেস্ট এক্সাম চলছে।দোয়া কইরেন জেনো ভালো হয়।।।।
  2. Mostakim✅ Subscriber says:
    হো,,,, ভাই পোস্টটা চরম হইছে।।
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ।
    2. Mostakim✅ Subscriber says:
      স্বাগতম
  3. MD.Alomgir Hossain Author says:
    কেউ কি আমাকে অথর হতে সাহায্য করতে পারেন?
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      ji bolen…
  4. MD.Alomgir Hossain Author says:
    আসলে ভাই,আমি বলতে চাচ্ছি যে,আমি ২টা কপিমুক্ত পোষ্ট করেছি।এখন কিভাবে ওঠোর হতে পারবো?
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      3ta kore…trainer req koren…inshaallah hoye jaben..
  5. MD.Alomgir Hossain Author says:
    কিভাবে রিকোয়েস্ট দিব
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      আগে ৩ টা পোষ্ট করেন।তারপর এই লিঙ্ক এ ক্লিক করেন https://trickbd.com/trainer-request
    2. Hasan Boy Contributor says:
      hello bro facebook apps dia …..pkcar carle …ai pkcar ta …abar cara jabe kinto post ar maje like o commend takbe janle bolen plz
    3. RüPõm Author Post Creator says:
      বুঝাইয়া বলেন।বুঝি নাই।
    4. Hasan Boy Contributor says:
      facebook a kono pk jodi uplod de ..ai pka ja like takbe .abar ai pktake retan uplod dile ager like gola sob takbe…na bojle apnar fb link ta den
    5. RüPõm Author Post Creator says:
      update pro pic korlei to hoy…
      http://www.facebook.com/web.rupom
  6. SK SHARIF Author says:
    আপনাকে পোস্ট করতে কে বলেছে? আপনার ফাইনাল এক্সামের আগ পর্যন্ত পোস্ট করা নিষিদ্ধ! দোয়া দিয়ে কিছু হয়না আগে ভাল ছাত্র হোন
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      তাও তো কথা।কিন্তু ট্রিকবিডি ছাড়া যে থাকতে পারি না।এখন কি করবো বলেন???
    2. SK SHARIF Author says:
      পড়ার টেবিলে বসে থাক্রন
    3. RüPõm Author Post Creator says:
      seta somvob na….
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      facebook.com/web.rupom
  7. fazlu Contributor says:
    কপিমুক্ত 4 টা পোস্ট করে ট্রেইনার রিকোয়েস্ট দিছি বাট
    এপ্রোভের কোন নাম গন্ধ ও নাই ।
    এডমিনদের কি চোখে পড়েনা নাকি ।
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      কি জানি ভাই।।।
  8. RS Rabby Contributor says:
    পোষ্ট টা ভাল্লাগছে ভাই,,,,,,,,,,
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ।
  9. Mahedi Hasan Khoka Contributor says:
    Google theke translate korsen naki copy korsen?
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      keno amn mone holo jante pari??
    2. Mahedi Hasan Khoka Contributor says:
      Sentence er structure dekhe mone holo
    3. RüPõm Author Post Creator says:
      ভাই ভুল আছে না।বেশিই unique???
    4. RüPõm Author Post Creator says:
      পোষ্ট টা ইংরাজিতে হক আর বাংলাই আর কথাও পাইলে বইলেন।
    5. Mahedi Hasan Khoka Contributor says:
      Be careful about spelling
    6. RüPõm Author Post Creator says:
      ওকে ব্রো।
  10. Umar Faruk Author says:
    Copy post টেকটিউস
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      proman den…
    2. RüPõm Author Post Creator says:
      techtune a aj porjonto ami ek bar o visit kori nai….
    3. Umar Faruk Author says:
      অপেক্ষা করুন
    4. RüPõm Author Post Creator says:
      thik ache vai…
  11. Hridoy Khan Contributor says:
    Bai Facebook Friend Request Asa Bondho kore Ki Babe Bolben plz
    1. RüPõm Author Post Creator says:
      kivabe bole bhujabo…settings a giye privacy te giye dekhen..option ache..
      ami on fb http://facebook.com/web.rupom

Leave a Reply