রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বর্তমানে সারা বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক ভাবে বিভিন্ন সমস্যা তৈরি হয়েছে যার প্রভাব বাংলাদেশে পড়েছে।

ইতিমধ্যে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে, বিদ্যুৎ সরবরাহ কমে গেছে, তাছাড়া নানান ভাবে বাংলাদেশ পিছিয়ে যাচ্ছে। এ বিষয়ে আপনারা হয়তো অবগত আছেন।

যার প্রভাব বর্তমানে স্কুল-কলেজ ও পড়েছে এ ক্ষেত্রে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে স্কুল-কলেজে প্রভাব নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানিয়েছে,

এর আগে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছিল নতুন কারিকুলাম অনুযায়ী 2023 সাল থেকে শুক্র এবং শনিবার স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে অর্থাৎ সাপ্তাহিক ছুটির দিন নির্ধারণ করা হয়েছিল।

কিন্তু বর্তমানে এই জ্বালানি সংকট মোকাবেলা করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় চাচ্ছে বর্তমান বছর থেকেই এই সিদ্ধান্ত চালু করা হবে।

অর্থাৎ বর্তমান সময় থেকে চলতি বছরে স্কুল কলেজ সপ্তাহে দুই দিন বন্ধ থাকবে এবং 5 দিন খোলা থাকবে।

এই পাঁচ দিনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাদের ক্লাস কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রী বলেন বর্তমানে সারা দেশে সমস্যা দেখা দিয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় লোডশেডিং হচ্ছে তাছাড়া মন্ত্রণালয় থেকে সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাত আটটার মধ্যে সকল প্রকার দোকান পাট বন্ধ করা হবে এবং বিভিন্ন এলাকায় দুই থেকে তিন ঘণ্টা পর্যন্ত থাকছে।

অন্যান্য গ্রামপর্যায়ে এলাকায় 7 থেকে 8 ঘণ্টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকছে না। এই অবস্থায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় চাচ্ছে শুক্র এবং শনিবার স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে অর্থাৎ সাপ্তাহিক ছুটি।

আরও পড়ুনঃ ইউনিক আইডি ফরম পূরণ করার নিয়ম জেনে নিন — ২০২২

আরও পড়ুনঃ How to watch live asia Cup 2022

এক্ষেত্রে কতদিন পর্যন্ত থাকবে জানতে চাইলে তিনি বলেন যতদিন বিদ্যুৎ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয় ততদিন এই রকম থাকবে।

যদি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয় তখন হয়তোবা আবার সপ্তাহে ছয় দিন ক্লাস করা হবে।

14 thoughts on "সপ্তাহে ২ দিন বন্ধ থাকবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান!"

    1. Shakib Author says:
      agger schedule er moto
  1. Uzzal Mahamud Author says:
    আলোর জন্য শিক্ষা। সেই শিক্ষার জন্য আছ আলো বন্ধ
  2. ᏝᎥᏦᏂᎧᏁ Author says:
    আমাদের সময় এইগুলো হয় না। আমরা চলে গেলে হয়🙂
  3. Sadaq Contributor says:
    সিদ্ধান্ত যারা নেয় তাদের বুদ্ধির ঘাটতি আছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বৃহস্পতি-শুক্র, আর অন্যান্য প্রতিষ্ঠান শুক্র-শনি বন্ধ করলে যানযট কমাতে কাজে লাগত। বৃহষ্পতিবারের জ্যাম কমে যেত অনেকটা, শনিবারে স্কুলযাত্রা সহজ হত।
  4. Levi Author says:
    🥲🥲🥲
  5. Lucifa Expert Author says:
    2din khola rakhi baki 5 din bondo rakhto 🙂
    1. Shakib Author says:
      😂😂😂
  6. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
    এই দিকে ২ দিন ছুটি হওয়া তে খুশি হওয়া আমি😇😇😇
  7. Shakib Author says:
    valoi korse student der jonno 🤣
  8. Rakib Author says:
    কি লাভ আমাদের সময় ত আর করে নাই

Leave a Reply