হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আপনাদের কে আমাদের এই সাইটে আমার পক্ষ থেকে জানাই স্বাগতম। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে কম দামী সেরা ৩ টি স্মার্ট ওয়াচ এই বিষয় টি নিয়ে কথা বলবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করে দেওয়া যাক।

বর্তমানে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে স্মার্ট ফোনের পাশা পাশি স্মার্ট ওয়াচ ও আমাদের সকলের মাঝে চলে এসেছে। যেহেতু নতুন এগুলো লঞ্চ করেছে (যদিও ১-২ বছর আগে, তাও প্রায় নতুন ই বলা যায়) তাই এই স্মার্ট ওয়াচ এখনো খুব বেশি জনপ্রিয় না হলেও বেশ ভালোই নাম কুড়িয়েছে এতদিনে।

তো এই স্মার্ট ওয়াচ গুলো নতুন হওয়ায় অনেকে ঠিক বুঝতে পারেন না যে কোন স্মার্ট ওয়াচ টি ভালো হবে। কেননা এখন বাজারে প্রায় অনেক কোম্পানী এর অনেক গুলো সিরিজের স্মার্ট ওয়াচ লঞ্চ হয়ে গেছে। তো এর মধ্য থেকে বেস্ট গুলো বেছে নেওয়া আসলেই মুশকিল। তো তার পরেও আমি আজকে আপনাদের জন্য সেরা ৩ টি স্মার্ট ওয়াচ এর রিভিউ তুলে ধরার চেষ্টা করবো। আশা করি আপনাদের তা ভাল লাগবে।

Mibro Lite

বাংলাদেশের বাজারে এখন পর্যন্ত পাওয়া সব থেকে কম দামী এমোলেড প্যানেল ডিসপ্লে এর স্মার্ট ওয়াচ এটিই। শুধু ডিসপ্লে নয়, এর বডি বিল্ড ও ডিজাইন ও অনেক সুন্দর অনেকটা প্রিমিয়াম লুক দেয়। এই স্মার্ট ওয়াচ টি কেনার সময় বক্স কন্টেন্ট হিসেবে পাবেন স্মার্ট ওয়াচ টি ও একটি চার্জিং ডক যেটি ম্যাগনেটিক চার্জার।

এটি অন্যান্য স্মার্ট ওয়াচ এর মতো স্কয়ার না৷ এটি বৃত্তাকার। এটার ডিসপ্লে বেশু বড় ও না আবার বেশি ছোট ও না। এটি ছেলে মেয়ে উভয়ের হাতেই বেশ মানাবে। এটা আবার বেশি মোটাও না অনেকটা স্লিম যা হাতে নিলে বেশি ভার ও অনুভূতি হয় না। এটার বডি ফ্রেম আবার ম্যাটাল দিয়ে তৈরি। বডি ফ্রেম এর ডান সাইডে একটি বাটন আছে যা হোম বাটন হিসেবে কাজ করবে।

এই স্মার্ট ওয়াচ এর স্ট্যাপ্ট (বেল্ট) টি অনেকটা ভালো, রাবার সিস্টেম যা অনেক্ষণ হাতে পড়ে থাকলেও হাতে কোনো রকম ব্যাথা অনুভূতি হবে না। মানে অনেক সফট। এর নিচের দিকে সেন্সর ও চার্জিং সিস্টেম রয়েছে, যা ম্যাগনেটিক ডক দিয়ে চার্জ হবে। এর ডিসপ্লে এর সাইজ ১.২ ইঞ্চি এর এমোলেড ডিসপ্লে ২৪০ × ২৪০ হলো এর রেজুলেশন। আর এটি কিন্তু ওয়াটারপ্রুভ। পানিতে পড়লে বা বৃষ্টিতে ভিজলে কোনো সমস্যা নেই।

এই স্মার্ট ওয়াচ দিয়ে কল আসলে সেটা দেখতে কিংবা কেটে দিতে পারবেন কিন্তু রিসিভ করতে পারবেন না, কারণ এতে মাইক্রো সেন্সর নেই। আর এতে বাংলাও সাপোর্ট করে না। এর ব্যাটারি ২০০ মিলিএম্পিয়ারের যা স্ট্যান্ড বাই মোডে ১৪-১৫ দিনের মতো ব্যাক আপ দিবে আপনাকে। এই স্মার্ট ওয়াচ টি এর মূল্য হলো ৩৫৯০ টাকা বা অলমোস্ট ৩৬০০ টাকা।

HW 22 Pro

এটি আগের স্মার্ট ওয়াচ এর মতো গোল নয় এটা স্কয়ার আকারের। যা দেখতে অনেকটা ভালো দেখায়। ডান সাইডে একটি বাটন রয়েছে যা মাল্টিভেশনাল বাটন হিসবে কাজ করবে। আর নিচের দিকে রয়েছে সেন্সর যা দিয়ে ম্যাগনেটিক চার্জ হবে।

আরো দেখুনঃ সফটওয়্যার কী? সফটওয়্যারের বিভিন্ন প্রকারভেদ।

এই স্মার্ট ওয়াচের স্ক্রিপ্ট টি আগের টা এর মতো বেশি স্লিম না অনেকটা মোটা। দেখতে অনেকটা প্রিমিয়াম লাগে। আপনি চাইলে এটা পরিবর্তন করতে পারবেন বা দীর্ঘদিন এটাই ব্যবহার করতে পারবেন। এটির ডিসপ্লে ১.২৮ ইঞ্চি। এর রেজুলেশন ২৪০ × ২৮০ ।

এটি ওয়াটারপ্রুভ একটি স্মার্ট ওয়াচ, তবে দীর্ঘক্ষণ এটা পানিতে রাখলে সমস্যা হবে, যেমন সাতার কাটার সময় কিংবা অনেক্ষণ পানিতে পড়ে থাকা। তবে হাত ধোয়ার সময় পানি লাগলে কিংবা বৃষ্টিতে হালকা ভিজলে কোনো সমস্যা হবে না।

এর ব্যাটারি টি হলো ২৫০ মিলিএম্পিয়ারের, যা দিয়ে হ্যাভি ইউজার রা ৭ দিনের মতো ব্যাক আপ পাবেন। এটির বক্সেও আপনারা আগের ফোনের মতোই স্মার্ট ওয়াচ, ম্যাগনেটিক চার্জার ও ইউজার ম্যানুয়াল পেয়ে যাবেন। এর দাম রাখা হয়েছে ২১৯০ টাকা বা অলমোস্ট ২২০০ টাকা।

DT 100 Pro Max

আপনারা যদি কম টাকায় অ্যাপল এর মতো লুক এমন স্মার্ট ওয়াচ কিনতে চান তাহলে এই স্মার্ট ওয়াচ টি আপনি কিনতে পারেন। এটার বডি বিল্ড অনেকটা স্লিম, যা দেখতে অনেকটা এপল ওয়াচ এর মতোই। এই ফোনের ডান সাইডে একটি বাটন এবং মাইক্রো রয়েছে যা দিয়ে কথা বলতেও পারবেন। আর নিচের দিকে দুইটা তেই ম্যাগনেটিক চার্জিং সেন্সর পাবেন।

অন্যান্য স্মার্ট ওয়াচের মতো এই স্মার্ট ওয়াচের স্ক্রিপ্ট টা ও অনেকটা সফট। যা দীর্ঘক্ষণ পড়ে থাকলেও বিরক্ত হবেন না আপনি। এটি এর ডিসপ্লে সাইজ ১.৭৮ ইঞ্চি। এটি এর ডিসপ্লে অনেকটা কালার ফুল। যা দেখতে অনেক ভালো লাগবে আপনাদের৷

এর টাচ রেস্পন্স ও অনেকটা ভালো। এটি এর ব্যাটারি ব্যাক আপ আপনি ফোনে কানেক্ট করে রাখলে ৩-৪ দিন পাবেন আর কানেক্ট না থাকলে ৪-৫ দিন এর মতো পাবেন। ফুল চার্জ করতে ২ ঘন্টা এর মতো সময় লাগে। আর এটি ও ওয়াটার প্রুভ। তবে আগের মতোই বেশিক্ষণ পানিতে থাকলে সমস্যা।

এই স্মার্ট ওয়াচ টি তে আপনি কথা বলতে পারলেও আলাদা করে সিম কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন না। আপনাকে ব্লুটুথ কানেক্ট করে রেখে কথা বলতে হবে। এই স্মার্ট ওয়াচ টি এর দাম ২৫৯০ টাকা বা ২৬০০ টাকাই বলা যায়।

[বিদ্রঃ এই স্মার্ট ওয়াচ গুলো এর দাম অনলাইন থেকে কালেক্ট করা হয়েছে। তবে যায়গা ও সময়ের ভেদে এই দাম গুলো একটু কম বা বেশি হতে পারে।]

এই আরটিকেলটি সর্বপ্রথম প্রকাশ করা হয়েছে TempNmail.Com ওয়েবসাইটে।

তো বন্ধুরা আশা করি পোস্ট টি আপনাদের কাছে ভালো লেগেছে। ভালো লেগে থাকলে কিন্তু অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আবার দেখা হবে পরবর্তী কোনো পোস্ট এ। সে পর্যন্ত সকলে ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। আল্লাহ হাফেয।

4 thoughts on "কম দামী সেরা ৩ টি স্মার্ট ওয়াচ, দেখুন সম্পূর্ণ বাংলা রিভিউ.!!"

  1. Fardin.jr.18 Contributor says:
    dt pro max নামে কোন smartwatch বাজারে নাই😪
    1. Ripa Akter Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভাইয়া ভুলটি ধরিয়ে দেওয়ার জন্য। dt100 pro max হবে এটি।😍
  2. imriyad Contributor says:
    mibro lite kinlam 1 mas er kasakasi.
    completely satisfied

    daam- 3000 chilo🙄

  3. Moderator Contributor says:
    Kontay sim dhukano jay?

Leave a Reply