Hello বন্ধুরা, সবাই কেমন আছেন? আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। আপনাদের আশীর্বাদে আমিও ভালো আছি।

আজকে আবারো আপনাদের সামনে হাজির হলাম আরো একটি নতুন টিউটোরিয়াল নিয়ে। আজকের টিউটোরিয়াল এ আলোচনা করবো Darkweb নিয়ে।

Darkweb হচ্ছে আমাদের internet দুনিয়ার একটি বড় অচেনা জগৎ, বা রহস্য জগত। আমরা internet এর যে অংশটি ব্যবহার করি সেটিকে মূলত সার্ফেস ওয়েব বলা হয়…

এই সার্ফেস ওয়েব এর পরেও ইন্টারনেটের একটি বিশাল বড় জগত রয়েছে যেটা সাধারণত আমরা ব্যবহার করতে পারি না.. এর মধ্যে রয়েছে ডিপ ওয়েব আর ডার্ক ওয়েব। এই পোস্টটিতে শুধু ডার্ক ওয়েব নিয়ে কথা বলব।
ডিপ ওয়েব নিয়ে পরবর্তীতে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হবে।

এই ডার্কওয়েবে মতো অনেক কিছুই অজানা-অচেনা তথ্য থাকে অনেক সময় সিক্রেট নিউজ, গোপনীয় সরকারি দস্তাবেজ আরো অনেক সময় কিছু অবৈধ তথ্য এই ডার্ক ওয়েবে জমা থাকে । এমনকি এই ডার্কওয়েবে অনেক সময় এমন তথ্য থাকে যার সাহায্যে একজন মানুষ অন্য মানুষের বিপুল ক্ষতি করতে পারে। এই ডার্কওয়েবে অনেক সময় অবৈধ লেনদেন, চোরাকারবার ইত্যাদি কার্য এই ডার্ক ওয়েব ইহয়ে থাকে যা সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে।
আমাদের চেনা সার্চ ইঞ্জিন যেমন গুগল ,বিং এই সব তথ্য দিতে পারে না…ডার্ক ওয়েব এদের থেকে লুকানো অবস্থায় থাকে এবং এগুলো লুকানোর সার্ভারে গোপন জায়গাতে জমা থাকে…🌗

উনিশশো নব্বই দশক থেকে আম-জনতার জন্য খুলে দেয়া হয়েছিল ইন্টারনেট। কিন্তু এর ব্যবহারবিধি সীমাবদ্ধ ছিল বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারি দপ্তর এবং আরো বিভিন্ন রিসার্চ কাজের জন্য.. এর বাইরে সাধারণ মানুষ খুব একটা ইন্টারনেট ৯০ দশকে ব্যবহার করতেন না বা বলা ভালো ব্যবহার করার সুযোগই ছিল না..কিন্তু ধীরে ধীরে এই ইন্টারনেটের সাথে সমান্তরাল ভাবে কিছু প্রাইভেট নেটওয়ার্কে জন্ম হলো..মূলত সরকারি আইপি অ্যাড্রেস ,লোকেশন এগুলি গোপন রেখে এই নেটওয়ার্কগুলি তাড়াতাড়ি ইউজারকে ব্যবহার করতে দিতো..এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ফ্রী নেট যেটি ২০০০ সালে প্রচলিত হয়েছিল এবং সেই সময়ের একটি বহুল জনপ্রিয় নেটওয়ার্ক ছিল….
বর্তমান ডার্ক ওয়েব তার মূল টেকনোলজি হলো অনিয়ন রাউটিং সেই অনিয়ন রাউটিং টেকনোলজি বা প্রযুক্তি তৈরি করেছিল মার্কিন নেভির রিসার্চ ল্যাবরেটরি….এটি তৈরি হয়েছিল মূলত সরকারি প্রতিরক্ষা বিভাগে এর গোপন দস্তাবেজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য। এইভাবেই প্রাথমিকভাবে ডার্কওয়েবে সূচনা হয়েছিল বলা যেতে পারে।

⚫ডার্কওয়েবে আমরা কিভাবে প্রবেশ করব ?

ডার্ক ওয়েব মূলত জনপ্রিয় বিভিন্ন কারণে এখানে যেমন একাধারে কিছু অবৈধ কার্যকলাপ হতে থাকে যেমন অন্যদিকে এখানে এমন অনেক কিছু সফটওয়্যার পাওয়া যায় যেগুলি আমরা সহজে ইন্টারনেটে খুঁজে পাই না বা আমরা সেগুলি ইন্টারনেটে খুঁজে পেলেও আমাদের চড়া দামে কিনতে হয়….কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই এত দাম দিয়ে ওইগুলো সম্ভব হয়না সফটওয়্যার গুলি পাইরেটেড ভার্সন খুঁজে বেড়ায় ডার্ক ওয়েব এইরকম অনেক সফটওয়্যার টুল সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রদান করে…. কিন্তু এক্ষেত্রে জেনে রাখা দরকার যে ডার্ক ওয়েব থেকে পাওয়া এ সমস্ত সফটওয়্যার বা টুলগুলি সব সময় ভালো হয় না…অনেক সময়ই এই সমস্ত টুল গুলিতে ভিডিও রকমের স্পাইওয়্যার আগে থেকে দিয়ে রাখে যার ফলে আপনি যখন এগুলো ইউজ করতে যান তখন আপনার কম্পিউটারের ডাটা আবার তথ্য চুরির একটি সম্ভাবনা থেকেই যায়….ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার আগে এবং ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করার আগে আমাদের সবার যথেষ্ট পরিমাণ সতর্ক থাকতে হবে।

ডার্ক ওয়েব লিঙ্ক সম্পর্কে জানার আগে বা এখন এই ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার আগে সর্বক্ষেত্রে আপনাদের মনে রাখতে হবে আপনাদের সিকিউরিটির ব্যাপারটা ডার্ক ওয়েব এ প্রবেশ করার পর আর সাধারণ নিয়মের মধ্যে পড়ে না..যেহেতু সাধারণ ওয়েব দুনিয়ার মধ্যে পড়ে না তাই এখানে প্রবেশ করার ক্ষেত্রে আপনাকে বিশেষ ব্রাউজার ইউজ করতে হবে.. ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার জন্য অনেক রকম ব্রাউজার বাজারে প্রচলিত রয়েছে তার মধ্যে টর ব্রাউজারটি হল সব থেকে বহুল প্রচলিত এবং উল্লেখযোগ্য।
টর ব্রাউজার আপনি সহজেই আপনার উইন্ডোজ কিংবা লিনাক্স মেশিনের থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন এবং ইউজ করতে পারবেন। তবে আমাদের সাজেশন থাকবে আপনি এই টর ব্রাউজার ইউজ করার আগে আপনি ভালো একটি ভিপিএন বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক সফটওয়্যার ইউজ করুন।

কারণ এই ভিপিএন বা ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক আপনার নিরাপত্তাকে অনেক গুণে বাড়িয়ে দেয়। উদাহরণস্বরূপ বলা যেতে পারে এক্সপ্রেস ভিপিএন নামে যে ভিপিএন রয়েছে তার মধ্যে রয়েছে মিলিটারি গ্রেডের 256-bit এনক্রিপশন তাই এক্ষেত্রে আপনি ইউজ করলে আপনার পরিচিতি সম্পূর্ণ গোপন থাকে এবং সহজেই আপনি ডার্ক ওয়েবের বিভিন্ন ওয়েবসাইট বেশি চিন্তা না করে সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন…

⚫ ডার্কওয়েবের ৮ টি জনপ্রিয় ওয়েব

💫১.হিডেন wiki

এটি এক নম্বরে রয়েছে কারণ এটি অন্যতম জনপ্রিয় ডার্ক ওয়েব লিংক ।স্বাভাবিক ওয়েবে আমরা যেমন উইকিপিডিয়া ইউজ করি তেমনি এটি ডার্কওয়েবের উইকিপিডিয়া বলা যেতে পারে এখানে ডার্ক ওয়েবের বিভিন্ন ওয়েবসাইট গুলোর লিস্ট এর মত করে সুন্দরভাবে সাজানো রয়েছে এই সমস্ত লিঙ্ক থেকে আপনি সহজে ডার্ক ওয়েবের বিভিন্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারবেন এখানে মনে রাখবেন ডার্ক ওয়েবের বেশিরভাগ ওয়েবসাইটের এই ডোমেইন এক্সটেনশন অফ অনিয়ন।

💫২. ডাকডাকগো

সার্চ ইঞ্জিন ডাকডাকগো। গুগল এ যখন আমরা সার্চ করি তখন এই সার্চ ইঞ্জিন গুলি আমাদের কিছু ব্যক্তিগত তথ্য তাদের নিজের সংগ্রহে রেখে দেয় কিন্তু এই ডাকডাকগো ব্রাউজারটি ব্যক্তিগত তথ্য সম্পূর্ণ গোপনীয় রাখে এবং আপনার ব্যক্তিগত তথ্যের কোন অংশ তারা তাদের নিজেদের কাছে জমা রাখে না এটি একটি ফ্রী ওয়েবসাইট এবং সহজেই আপনি টর ব্রাউজার এর মাধ্যমে ডাকডাকগো সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করতে পারবেন।

💫৩. হিডেন অ্যানসারস

তিন নম্বরে রয়েছে হিডেন অ্যানসারস। এই হিডেন অ্যানসার এ আপনি এমন কিছু চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি পাবেন যেগুলি আপনি বাস্তব জগতে কখনো শোনেননি এই ওয়েবসাইট এ আরে আপনি কিছু বিখ্যাত ব্যক্তিত্বদের চরম স্বীকারোক্তি দেখতে পাবেন যেগুলি শুনে আপনি সম্পূর্ণ আশ্চর্য হয়ে যাবেন। তবে এটির সুবিধা হল স্বীকারোক্তি সম্পূর্ণভাবে গোপন ভাবে প্রকাশ করে এবং এর মালিক কে তার গোপনীয়তা লুকিয়ে রাখে। কিন্তু আপনি যদি আসল তথ্য খুঁজে তুলতে চান আপনি এই তথ্যটি এই ওয়েবসাইট থেকে পেতে পারেন।

💫৪. মেইল টু টর

আমরা যেমন ভাবে ইমেইল পাঠানোর জন্য জিমেইল ইয়াহু মেইল সার্ভার করি তেমনি ডার্ক ওয়েবের ইমেইল পাঠানোর জন্য সার্ভিসের নাম হল মেইল টু টর। আপনি নিজের আইপি এড্রেস এবং পরিচয় সম্পূর্ণ গোপন রেখে একটি এড্রেস থেকে অন্য এড্রেসে ইমেইল পাঠাতে পারেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

💫৫.প্রো Publica

প্রো Publica ওয়েবসাইটটি হল হিডেন অ্যানসারস এর মতই একটি ওয়েবসাইট ,নিউজ পোর্টাল বলা চলে। সবাই নিজেদের বক্তব্য কোন কিছুর বিধিনিষেধ কথা না ভেবেই সত্য প্রকাশ করে উত্তর-মধ্য থাকে। বিভিন্ন সরকারি দস্তাবেজ সংক্রান্ত তথ্য বিভিন্ন গোপনীয় সংবাদপত্রের ডকুমেন্ট এবং আরো এইরকম কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্যপ্রো Publica তে থাকে। মূলত বাক স্বীকারোক্তির কথা ভাবে প্রচার করে এবং তাদের ওয়েবসাইটে এটি মেনে চলে।

💫৬. ফেইসবুকিং ডার্ক ওয়েব ভার্সন

সোশ্যাল মিডিয়ার নেটওয়ার্ক ফেইসবুক ডাক ওয়েবে ব্যবহার করতে পারবেন… ফেসবুক ডার্ক ওয়েবের জন্য তাদের অনিয়ন সার্ভিস দিয়ে থাকে। যেখানে আপনি সম্পূর্ণ গোপনভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় একে অপরের সাথে যোগাযোগ রাখতে পারবেন ফেসবুক এর সাহায্যে।

💫৭. টর লাইব্রেরী

সাত নম্বরে রয়েছে টর লাইব্রেরী। বিভিন্ন নকল সফটওয়্যার ই-বুক সিনেমা ইত্যাদি পাওয়া যায় এখানে.. টর লাইব্রেরী এই রকমই একটি সংগ্রহ যেখানে আপনি আপনার প্রয়োজনে যাবতীয় সফটওয়্যার সিনেমা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পাবেন । কিন্তু এটি ব্যবহার করার আগে আপনাকে মাথায় রাখতে হবে টর লাইব্রেরী থেকে পাওয়া সমস্ত কিছু সফটওয়্যার সব সময় নিরাপদ হয় না। তো আমার সাজেশন থাকবে যে দয়া করে খুব প্রয়োজন ছাড়া ওখান থেকে কোন কিছু ডাউনলোড করবেন না অথবা ডাউণলোড করার আগে আপনার কম্পিউটার এ ভালো এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার দিয়ে চেক করে নিবেন।।

💫৮.গ্যালাক্সি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

এটি একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট যেটি আপনি ডার্ক ওয়েব থেকে ব্যবহার করতে পারবেন নেটওয়ার্কিং সাইটের মাধ্যমে আপনি ফেসবুকের মতোই অনেক অনলাইন বন্ধুত্ব এবং একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে পারবেন সম্পূর্ণ নিজের তথ্য গোপন রেখে।

ডার্ক ওয়েব এবং ডিপ ওয়েব এর বীভৎসতা:

আমরা ইন্টারনেট এর যে অংশ ব্যাবহার করি, তা হলো, সারফেস৷ ১০০ ভাগের ১০ ভাগ, আর ৯০ ভাগই হলো, ডার্ক ওয়েব৷ এখানে পৃথিবীর সব নরপিচাশ ও হিংস্র বর্বরদের বিচরণ৷ ভয়ংকর সব অপরাধ এখানে করা হয়৷ মানুষের উপর করা ভয়াবহ ও নিষ্ঠুর সব নির্যাতন ও এক্সপেরিমেন্ট গুলোর ভিডিও এখানে উচ্চমূল্যে বিক্রি করা হয়৷ চাইল্ড এবিউজ, অর্থাৎ মেয়ে শিশুদের কে অপহরণ করে নিয়ে তাদের উপর ভয়ংকর যৌন নির্যাতন চালানো হয় এবং তা ভিডিও করে এখানে ছাড়া হয়৷ মানুষ আকৃতির কিছু জন্তু এগুলো টাকা দিয়ে দেখে আর মজা নেয়৷ এখানের সদস্যরা মানুষের গোশত খায় & সেগুলো নিয়ে একজন আরেকজনের সাথে আলোচনা করে৷

সবচেয়ে ভয়ংকর ও নিশংস্র বিষয় হলো, এখানে একজন মানুষকে বন্দি করে রাখা হয় আর সদস্যদের ইচ্ছা অনুযায়ী ভিডিও কলের মাধ্যমে টাকার বিনিময়ে তাঁকে নির্যাতন করা হয়৷ যে যেমন নির্যাতন করাতে চাইবে, ঠিক সেভাবেই নির্যাতন করা হবে৷
যেমন: কেউ বললো “তার হাত কেটে ফেলো, সেটাই করা হবে৷ আর ওই ভিকটিমের চিৎকার শুনে সে আনন্দ পাবে৷”
এছাড়াও আরো অনেক অনেক ভয়ানক কাহিনী সেখানে হয়৷
এদেরকে আপনি কী বলবেন?

সর্বশেষে একেবারে নতুন যারা.. আপনাদের উদ্দেশ্যে এই কথাটি বলে রাখি যে.. ডার্ক ওয়েব ইন্টারনেটের একটি খুবই অ্যাডভান্স এডভান্টেজ বিষয়.. ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার আগে সম্পূর্ণভাবে সতর্কভাবে আপনারা এটি ব্যবহার করবেন.. ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যয় ভিপিএন এক্সেস্ করবেন.. যদি তেমন কোনো প্রয়োজন না থাকে তবে এই ডার্ক ওয়েব থেকে দূরে থাকাই উত্তম….

অসংখ্য ধন্যবাদ এতক্ষণ আমার সাথে থাকার জন্য। আশা করি আপনাদের বুঝাতে পেরেছি। নিয়মিতTrickbd ভিজিট করবেন।
ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন। বাই

13 thoughts on "Darkweb, ইন্টারনেট দুনিয়ার বড় অচেনা জগৎ।"

  1. Sk Shipon Author says:
    সুন্দর লিখেছেন, আরো চাই এমন পোস্ট।
    1. Jibon Krishna Das Contributor Post Creator says:
      Thanks for your feedback ☺️
  2. tamimking Contributor says:
    এসব ওয়েবসাইটের লিংক কই পাবো ? দয়া করে জানাবেন।
    1. Jibon Krishna Das Contributor Post Creator says:
      Google e search koren othoba amake personaly inbox koren
  3. MD Shakib Hasan Author says:
    ভয়ংকর একটা জগৎ
    1. Jibon Krishna Das Contributor Post Creator says:
      Hmmm
    2. MD Shakib Hasan Author says:
      একবার ভিজিট করার চেষ্টা করেছিলা।
  4. Tushar Ahmed Author says:
    গত কয়েকদিন ধরে এ নিয়ে আমি একটা পোস্ট লিখতেছিলাম!
    আপনি আমার আগেই করে ফেললেন! 😒
    1. Jibon Krishna Das Contributor Post Creator says:
      Bepar na. Best of luck 🤞
    2. Sk Shipon Author says:
      কস্ট নিয়েন না ভাইয়া।আপনি আরো ভাল কিছু বিষয়ে লিখুন।
  5. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
    ভাইয়া বর্তমানে সবাই ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে জানে নতুন কিছু লিখুন
  6. mdniarif Contributor says:
    bhai link gulo koi pabo r payle o kmne bujbo j ei ta dark web er link

Leave a Reply