#পোস্ট ১৫


আসসালামু আলাইকুম, সবাইকে।

ফাইল শেয়ারিং যা আমাদের দৈনন্দিন জীবনের একটি অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিজের ডিভাইসগুলার মধ্যে হোক অথবা বন্ধুদের ডিভাইসদের সাথে হোক ফাইল শেয়ারিং আমাদের প্রয়োজন হয়েই থাকে। 

এই ফাইল শেয়ারিং-এর অভিজ্ঞতাকে তিক্ত করে তুলেছে Shareit

বিভিন্ন কুরুচিপূর্ণ প্রোমোশনের পাশাপাশি অত্যাধিক অ্যাডসহ অনেক বেশি পারমিশন চায় এই অ্যাপটি। 

একারণেই আজ আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো কিছু জনপ্রিয় এবং ঝামেলামুক্ত কিছু পদ্ধতি যার মাধ্যমে ফাইল শেয়ারিং করার অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ বদলে যেতে বাধ্য।

(বিদ্রঃ প্রতিটি লিংক টাইটেলেই দেওয়া আছে।)


 

Send AnyWhere

এটি একটি দারুণ অ্যাপ। অন্যান্য ফাইল শেয়ারিং অ্যাপের মতোই সবকিছু। কিন্তু এখানে সুবিধা হলো অবাঞ্চিত কোনো পারমিশন দিতে হয় না। পাশাপাশি সাইন-ইন করার অপশন আছে।

অর্থ্যাৎ আপনি যদি একাধিক ডিভাইসে একই একাউন্ট দিয়ে সাইন-ইন করেন তবে সেই ডিভাইসে খুব সহজেই ফাইল সেন্ড করতে পারবেন সেটা হোক একই স্থানে অথবা দূরবর্তী কোনো স্থানে।

যেমনঃ আপনার বাসা থেকে অন্য জেলায় থাকা আপনার কোনো বন্ধুর ডিভাইসে।

 

আর যদি সাইন-ইন না করতে চান তবে সাধারণভাবেই কোড দিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে সব থেকে ভালো বিষয় হলো, এটি ব্যবহার করতে শুধু ইন্টারনেট কানেকশনের প্রয়োজন হবে। এছাড়া ব্লুটুথ অথবা লোকেশন পারমিশনের প্রয়োজন হবে না। তাই পিসিতেও ব্যবহার করতে পারবেন। 

 

পিসি ইউজারদের জন্য আরো সুবিধা হলো এটি ব্রাউজারেই ব্যবহার করতে পারবেন। ব্রাউজার থেকে সরাসরি মোবাইলে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। আমার দৈনন্দিন জীবনে সব থেকে বেশি ব্যবহার করি এই অ্যাপটি। দারুণভাবে সব ডিভাইজের সাথে synchronize করতে পারে।

ToffeeShare

এটি আমি রিকমেন্ড করবো যদি আপনি দূরের কারো সাথে ফাইল শেয়ার করতে চান সেক্ষেত্রে ব্যবহার করা ভালো হবে। এটি মূলত ব্রাউজারে ব্যবহার করার জন্য বেশি উপযোগী। তবে অ্যাপ ভার্সনও আছে তবে অ্যাপের প্রয়োজন হয় না।

 

এই ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার কাঙ্খিত ফাইলটি পেস্ট করলে সাথে সাথেই লিংক চলে আসবে। সেই লিংক আপনার বন্ধুকে দিলে সে সেখান থেকে ডাউনলোড করতে পারবে। তবে সেক্ষেত্রে আপনার ডিভাইসটি অন থাকতে হবে। কারণ কোনো স্থানে আপলোড হবে না সরাসরি আপনার টরেন্টের মতো কাজ করবে অনেকটা। স্পিডও পাবেন টরেন্টের মতো।

 

আরো সুবিধা হলো এখানে কোনো ফাইল লিমিট নেই। একইরকম অনেক ওয়েবসাইট আছে তবে সেগুলাতে ফাইল লিমিট আছে কিন্তু এটাতে কোনো লিমিট নেই তাই আমি রিকমেন্ড করতে পারি।

 

File Manager+

এটি একটি ফাইল ম্যানেজার অ্যাপ। তবে এটি দিয়ে অনেক এডভান্স কাজ করা যায়। যার মধ্যে ফাইল শেয়ারিং অন্যতম।  তবে এটির মাধ্যমে ফাইল শেয়ার করতে পারবেন শুধু একই ওয়াইফাইতে কানেক্টেড থাকা ডিভাইসগুলার মধ্যে।

 

অ্যাপে প্রবেশ করলেই সর্বশেষ অপশন দেখাবেন Access from Network. সেখানে ক্লিক করে সেটাপ করে নিলে FTP লিংক পাবেন। সেটি অন্য যে ডিভাইসে ফাইল শেয়ার করতে চাচ্ছেন সেখানে একই অ্যাপের মধ্যে Remote অপশনে গিয়ে অ্যাড করে নিবেন। এরপরে সেখান থেকে শেয়ার করতে পারবেন খুব সহজেই। 

 

এটির বিস্তারিত লিখতে গেলে পোস্টটি অনেক বড় হয়ে যাবে তাই টিউটোরিয়াল দিচ্ছি না।


 

প্রথমোক্ত ২ টি মাধ্যমেই আশা করি খুব সহজেই ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। ৩য়টির প্রয়োজন পড়বে না। তবুও যদি আপনি কৌতূহলী থাকেন তবে নিজে নিজে ট্রাই করলেই পারবেন। যদি না পারেন তবে কমেন্টের মাধ্যমে আমাকে জানাতে পারেন। আপনাদের রেসপন্স পেলে ৩য়টির বিস্তারিত টিউটোরিয়াল পোস্ট করবো।

 

আজ এখানেই শেষ করছি। কোন পদ্ধতিটি আপনার সব থেকে ভালো লেগেছে সেটি আমাকে জানাতে পারবেন। অথবা আপনি অন্য কোনো মাধ্যম জেনে থাকলে সেটিও বলতে পারবেন। আমি নিজেও ব্যবহার করতে দেখবো।


পরবর্তী পোস্ট দেখার আমন্ত্রণ রইলো । ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। আর আমার জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ হাফেজ। <3


আমার সম্পর্কে  About me

 

11 thoughts on "ঝামেলামুক্তভাবে ফাইল শেয়ার করার কিছু জনপ্রিয় মাধ্যম।"

  1. Abubokor Neo Contributor says:
    মনে রাখতে হবে, যেহেতু এখানে রিয়েল টাইমে ফাইল শেয়ার হবে সেহেতু অন্য পাশ থেকে ফাইলটি ডাউনলোড করার আগ পর্যন্ত উইন্ডো ক্লোজ করা যাবে না।
    1. SR Shoruv Author Post Creator says:
      জ্বী।
  2. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
    Shareit ভালো ভাই এ।আর কাছে
    1. SR Shoruv Author Post Creator says:
      ??
    2. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
      কিছু না
  3. M. M. Anik Contributor says:
    Google files always best
  4. TAHER Author says:
    গুগলেরটা ভালো।
    এগুলো তেমন ব্যবহার করে না
  5. Levi Author says:
    এবার অন্তত shareit এর অ্যাডস থেকে রেহাই পাওয়া যাবে।
  6. MD Shakib Hasan Author says:
    যার কাছে যেটা ভালো

Leave a Reply