ক্রিকেট বিশ্বে প্রতিবছর ১৪৫ বিলিয়ন ডলারের
বাজার সৃষ্টি হয়েছে। এতে বিশ্ব ক্রিকেটাঙ্গনে
দিন দিন অনিয়ম বৃদ্ধি পাচ্ছে। ম্যাচ ফিক্সিংয়ে
বাংলাদেশও ঝুঁকিতে রয়েছে বলে উল্লেখ করা
হয়। বার্লিনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ট্রান্সপারেন্সি
ইন্টারন্যাশনাল (টিআই)-এর ‘গ্লোবাল করাপশন
রিপোর্ট : স্পোর্ট’ শীর্ষক এক
প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।
মঙ্গলবার রাজধানীর ধানমণ্ডিস্থ ট্রান্সপারেন্সি
ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) কার্যালয়ে এ
প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। টিআইবির নির্বাহী
পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান প্রতিবেদনটি

উপস্থাপন করেন।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত
ভার্সন বিশেষ করে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে
(বিপিএল) খেলোয়াড়, দল, সংগঠন এবং অন্য
অংশীদারদের জন্য দ্রুত অর্থ প্রাপ্তির একটি
উপায় হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ম্যাচ ফিক্সিংয়ে
জড়িত ব্যক্তিরা খেলোয়াড়, আম্পায়ার, দল,
সংগঠকদের সাথে সম্পর্কে গড়ে তুলে এক
সময় খেলায় বিভিন্ন ধরনের ফিক্সিংয়ের ঘটনা ঘটায়।
প্রতিবেদনে বাংলাদেশও ম্যাচ ফিক্সিংয়ে ঝুঁকিতে
রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল
বৈশ্বিক ক্রিকেটে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে
দাঁড়িয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ক্রিকেট দল
টেস্ট ও ওয়ানডে ম্যাচে ভালো করছে। মুনাফা
লাভের জন্য ব্যবসায়ীরা বিপিএলে যোগ
দিচ্ছে। এতে বিশ্বব্যাপী ক্রিকেটে ম্যাচ
ফিক্সিং, স্পট ফিক্সিং, ইলিগ্যাল ব্যাটিংয়ের ঝুঁকি দিন দিন
বাড়ছে। এ ঝুঁকি বাংলাদেশের ক্রিকেটেও
রয়েছে।

One thought on "ম্যাচ ফিক্সিংয়ের ভয়াবহ ঝুঁকিতে বাংলাদেশ"

  1. Sajadul Islam Sajadul Islam Contributor says:
    Right.
    Er Example sakib e.


Leave a Reply