টর্চলাইট একটি বাংলা মুভি, মুভিটির কাহিনী বাস্তবের সাথে খানিকটা মিল আছে।
মুভিটির নামটি শুনতে একটু বিশ্রি টাইপের লাগে, আমি এই অদ্ভুত নাম দেখেই মুভিটি দেখা শুরু করলাম যে, বাংলা মুভি তার নাম কেনো টর্চলাইট দিলো একটু দেখা দরকার।

মুভিটি আমার মনে হয় একসাথে সবার দেখা উচিৎ নয়, কারণ মুভিটি যৌনসংক্রান্ত একটি মুভি, এটি একসাথে মা বাবা, ভাই বোন মিলে দেখতে যাবেন না।

মুভিটি দ্বারা পরিচালক কিছু ইশারা ইঙ্গিত করেছেন যে, মুভিটির মধ্য নায়িকাদের ধর্ম হলো ইসলাম সে একটি হিন্দু ছেলেকে ভালোবাসে, নায়িকাদের ফ্যামিলিতে তার শুধু বাবা আছে, তার বাবা তার প্রেমের সম্পর্ক মেনে নেন, কিন্তু সমাজের কিছু মাস্তান নেতাদের চোখে ভালো লাগেনি।

নেতাদের একজনের মধ্য নায়িকার সাথে যৌন মিলনের ইচ্ছে হয়, তাই নেতাজি লোক পাঠিয়ে নায়িকার বাবার সাথে কথা বলে, নায়িকার বাবাকে বলে আপনার মেয়ে কি একটা হিন্দু সমাজের ছেলের সাথে বিবাহ দিবেন, তাহলে তো আপনার ধর্মের সবাই আপনাকে কলন্ক দিবে।

এই বুঝিয়ে টুঝিয়ে রাজি করালো, এবং বললো আমার একটি ছোট ভাই আছে তার সাথে বিবাহ দিন আমি আপনার মেয়ের যাবতীয় খরচ বহন করবো, আর আমার ছোট ভাইটিও খুব ভালো।

এবং অবশেষে বৃদ্ধ মেয়ের বাপ রাজি হলো এবার বিবাহ হলো, বেশ ভালোই কাটছিলো তাদের বৈবাহিক জীবন আনন্দে উল্লাসে একদিন নায়িকার স্বামী অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং মরার কাছাকা‌ছি হসপিটালে নিয়ে যায়, এবং কিছু টাকা জোগাড় করতে বলে হাজার বিশ, ঘরে টাকা নেই তাই বিবাহের সব গহনা বিক্রি করে দেয় মেয়েটি এবং পরে ডাক্তার বলে আরো অনেক টাকা লাগবে অপারেশন করাতে এবং অপারেশন করাতে না পারলেও জিবীত রাখতে হলে দুঘন্টা অন্তর অন্তর ঔষধ খাওয়াতে হবে।

একটা মেয়ের কাছে বিবাহের পরে সব থেকে মুল্যবান হলো তার স্বামী, এই স্বামীর চিকিৎসা এবং ঔষধের টাকা জোগাড় করার জন্য নায়িকা নিজের দেহ ব্যবসার কাজে নামলেন।

দেহ ব্যবসা শুরু করলো, এভাবে তাদের সংসার চলতে লাগলো।

একদিন তার স্বামী এই কষ্টের জীবন, রাখবে না বলে গলায় ফাস দিয়ে আত্তহত্তা করার চেষ্টা করলো, কিন্তু মেয়েটির জন্য মরতে পারেনি।

একদিন বাসে নায়িকার সঙ্গে এই মুভির নায়কের সাথে দেখা, এক লম্পট এক ভদ্র মহিলাকে পাছায় খোচা মারা, গুতা মারা, ঠেলা মারা দেখে, নায়িকা ওই মহিলাকে সরিয়ে নিজে আগালেন লম্পটের কাছে এবং বললো যা করার করে নাও সামনেই নেমে যাবো, এই দেখে অসাধারণ ভাবে হিরো পাগল হয়ে গেলো এই নায়িকার প্রেমে।

এবং ঘুরতে শুরু করলো, এবং একদিন তার আসল গল্প জানতে পারলো এই প্রেমিক সাহেব এবং তাকে সাহায্য করতে চাইলো।

নায়িকা রাতে রাস্তায় টর্চ নিয়ে দাড়িয়ে গাড়ি দেখলে গাড়ির দিকে সিগনাল দিয়ে তার চেহারা শরির দেখিয়ে তার রেট বলে, এবং দামাদামি ফাইনাল হলে কাজে যায়।
এভাবে টাকা জোগাড় করে স্বামীর চিকিৎসার জন্য এবং চিকিৎসা করিয়ে তার স্বামী সুস্হ হয়, কিন্তু যেই তার স্বামী তাকে নিয়ে ঘর থেকে বের হয় সবাই তাকে নিয়ে মজা করে, বলে তুমি সেই জিনিস আমাকে অনেক সুখ দিয়েছো, বিশ্রি বিশ্রি নোংরা কথা আমার মুখে এসব বের হয়না সরি হ্যা।
এসব দেখে স্বামী নায়িকে অনেক গালাগাল করে এবং তাকে নানা অপবাদ দেয়, এবং তার স্বামী অন্য একটি মেয়েকে বিবাহ করে।

এই শুনে মেয়েটি, তার স্বামীকে খুন করে।

এই ছিলো মুভিটির রিভিউ।
অনেক কিছুই সংক্ষেপে স্কিপ করে গেছি, আপনারা দেখে নিবেন দেখতে চাইলে, মুভিটির ৩৬০ কোয়ালিটি রেজুলেশনের সাইজ ৪৫০ মেগাবাইট প্রায়।
মুভিটি ইউটিউবে এবং গুগলে ও অনেক লিন্ক পেয়ে যাবেন ডাউনলোড করার।

আমার ছোট্ট একটি ওয়েবসাইট ঘুরে আসার আমন্ত্রণ রইলো TrickPure24.Com

14 thoughts on "বাংলা নতুন মুভি টর্চলাইট (রিভিউ)"

  1. saihum Contributor says:
    pura kahini e to bole dilen🙄 upore likhe den spoiler alert
    1. স্বপ্ন Author Post Creator says:
      🤔
  2. DM Sayed Contributor says:
    bro apnar fb id ta dewa jabe ??
    kisu kotha ase….
    1. স্বপ্ন Author Post Creator says:
      Sorry bro link add korini
    1. স্বপ্ন Author Post Creator says:
      😆
  3. Mi Akhil Contributor says:
    Are vai sob tu bole dilen…tyle eta review holo kamne…spoiler dile 1st e boila niten…mia post edit koren…aiche movie review dite…
  4. Emrus Author says:
    ভাইয়া, রিভিউতে স্পয়লার আছে।
    এরকম হলে মুভি দেখে কেউ মজা পাবেনা।
    রিভিউ সুন্দর হয়নি।
    গল্পের মতো হয়েছে।
    রিভিউ লেখার ক্ষেত্রে সবকিছু দেখতে হয়।
    1. স্বপ্ন Author Post Creator says:
      ভাইয়া আমি দুঃখিত।
  5. Shaom Contributor says:
    পুরান ছবিকে কপি করে বাংলা বানাতে প্রচুর পারে !
  6. YASIR-YCS Author says:
    😑😑baল পুরা কাহিনি বলে দিসে

Leave a Reply