আসসালামুয়ালিকুম,
হেই গাইস ইমরান বলছিলাম স্বাগত জানাচ্ছি আমার ২১৭ নম্বর পোস্টে সবাইকেই।
বর্তমান মার্কেটে মিড রেঞ্জ সেগমেন্টে শুধুমাত্র ওয়ানপ্লাস রাজত্ব করছে এবং তাদের বাজারটাকে দখল করার জন্য স্যামসাং তাদের Galaxy S10 lite এবং Note 10 lite নামে দুইটি স্মার্টফোন উন্মোচন করেছে।
যদিও কিনা জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে এই দুটি ফোনকে লঞ্চ করা হবে ‌। তো ফ্রেন্ডস আজকে কথা বলব Samsung Galaxy S10 lite নিয়ে, কারণ ফোনটিতে রয়েছে ২০১৯ সালের ফ্লাগশিপ চিপসেট এবং অলমোস্ট ফ্লাগশিপ লেভেলের স্মার্টফোন।

ডিজাইন এবং বিল কোয়ালিটির কথা বলতে গেলে স্যামসাং কোনরকম কম্প্রোমাইজ করে নি Galaxy S10 lite স্মার্টফোনের মধ্যে, পিছনে এবং সামনের দিকে রয়েছে কর্নিং গরিল্লা গ্লাসের সাপোর্ট এবং এবং ফেম টা হচ্ছে মেটালের তবে পিছনের সাইটের যে ডিজাইনটি রয়েছে অর্থাৎ ক্যামেরা কাটাউট সেটা কিন্তু দেখতে অনেকটা অদ্ভুত মনে হচ্ছে।


Display
আর ফ্রন্ট সাইড এর ডিসপ্লে হিসাবে স্যামসাং এখানে ব্যবহার করেছে সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে যার রেজুলেশন ফুল এইচডি প্লাস। তাছাড়া ডিসপ্লেটির সাইজ হচ্ছে গিয়ে 6.7 ইঞ্চি এবং এখানে অলওয়েজ অন ডিসপ্লে, এবং এইচ ডি আর এর সাপোর্ট দেয়া হয়েছে‌।


Software and chipset
তাছাড়া সফটওয়্যার হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড১০ এর সাথে ওয়ান ইউ আই ২ কে ইউজ করা হয়েছেন এবং ভাল পারফরমেন্সের জন্য কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন৮৬৫ ইউজ করছে যেটা কিনা একটি ফ্লাগশিপ প্রসেসর, ফোনটি লাইট ভার্সন হলেও তারা কিন্তু শক্তিশালী প্রসেসর ব্যবহার করেছে ফোনটির মধ্যে।

Internal storage
স্টেজের কথা বলতে গেলে 6 128 এবং 8 128 জিবির সাথে আসবে এই ফোনটি এবং micro-usb সাহায্যে ১TB পর্যন্ত স্টরেস এক্সপেন্ড করা যাবে।


Rear camera
রিয়ার সাইটে রয়েছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ এরমধ্যে মেন সেন্সরটি হচ্ছে ৪৮ মেগাপিক্সেলের যেটা কিনা নরমালে ২০ মেগাপিক্সেলের কাজ করবে তার সাথে দ্বিতীয় ক্যামেরাটি হচ্ছে একটি ২০ মেগাপিক্সেলের এর আল্ট্রা ওয়াইড ক্যামেরা এবং তৃতীয় ক্যামেরাটি হচ্ছে ৫ মেগা পিক্সেলের একটি মাইক্রো সেন্সর।

Video recording
ভিডিও রেকর্ডিংয়ের কথা বলতে গেলে অবশ্যই ৪k থার্টি এফপিএস এ ভিডিও রেকর্ড করা পসিবল এবং ইয়াস আই এর সাপোর্ট ও রয়েছে তাছাড়া আল্ট্রা স্লো মোশনের ফিচার রয়েছে এই ফোনটির মধ্যে।

Front camera & battery backup
সামনে রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা, তার সাথে ব্যাটারি হিসেবে ৪৫০০ মিলি এম্পিয়ার এর ব্যাটারি কে ইউজ করেছে যেটা কিনা ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টেড।


Security & sensor
সিকিউরিটির ক্ষেত্রে আন্ডার ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর তবে এটি অপটিক্যাল ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার তার সাথে প্রয়োজনীয় সব সেন্সর এবং স্যামসাং এর সকল ধরনের ফিচারস আমরা দেখতে পাবো।

Official price
প্রাইজের কথা বলতে গেলে স্যামসাং ৬০০ থেকে ৬৫০ ডলার এর মধ্যে এই ফোনটি কে বাজারে আনতে পারে যেটা কিনা বাংলাদেশি টাকায় ৫৫ থেকে ৬০ হাজার টাকার কাছাকাছি।

তো স্পেসিফিকেশন গত দিক দিয়ে বুঝাই যাচ্ছে যে স্যামসাং ওয়ান প্লাস কে কমপ্লিট করার জন্যই এই ফোনটিকে মার্কেটে এনেছে তবে ওয়ানপ্লাস থেকে এই ফোনের ডিসপ্লে একটু পিছিয়ে থাকবে oneplus 7 pro ফোনটির মধ্যে ডুয়েল প্যানেল সুপার এমোলেড প্যানেল ব্যবহার করেছিল ওয়ান প্লাস যেটা কিনা গ্যালাক্সি এস টেন লাইট এর থেকে কিছুটা বেটার।

তবে Galaxy S10 lite ফোনটির ব্যাটারি ব্যাকআপ কিছুটা বেশি হবে ওয়ান প্লাস এর থেকে তাছাড়া স্যামসাংয়ের ব্যান্ড ভ্যালু ওয়ানপ্লাস এর থেকে অনেক বেশি এবং অফলাইনে এস টেন লাইট স্মার্টফোনকে অনার্সে আমরা পেয়ে যাব। সো এখন এটাই দেখার পালা যে ৫৫ থেকে ৬০ হাজার টাকার মধ্যে এই স্মার্টফোনটি মার্কেটে কেমন পারফরম্যান্স করে।

পোস্টটি ভাল লাগলে লাইক দিয়ে যাবেন আর শেয়ার করে বন্ধুকে জানিয়ে দিবেন, আর কমেন্ট করে নিশ্চয়ই জানাবেন নেক্সট টাইমে কোন স্মার্টফোন রিভিউ চাচ্ছেন।
তো আজকের মত এ পর্যন্তই দেখা হচ্ছে পরবর্তীতে ততক্ষণ পর্যন্ত ভালো থাকুন আল্লাহাফেজ।
Skrill ,Neteller ,PayPal ,Webmoney সহ ইত্যাদি ডলার কেনাবেচা করুন এই ফেসবুক পেজ থেকে। আর ১২৮ জিবি মেমোরি কার্ড পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৫১০ টাকা দিয়ে ডেলিভারি চার্জ প্রযোজ্য।

অর্ডার করতে কল করুন +8801771768114 অথবা 01903394198 এই নাম্বারে।

5 thoughts on "মিড বাজেটের Galaxy S10 lite কি তাহলে ওয়ানপ্লাস কিলার? Best mid budget smartphone!"

  1. MD Shakib Hasan MD Shakib Hasan Author says:
    👍


  2. cyot Contributor says:
    ওইটা ৮৬৫ না ব্রো ওইটা ৮৫৫। ৮৬৫ এখনো অফিশিয়াল রিলিজ হয়নি।
  3. Al Habibi Contributor says:
    ভাইয়া আপনার সাথে একটু কন্টাক করার দরকার ছিল।
    1. Nirab Hossain Imran Author Post Creator says:
      FB.com/imrankhan770

Leave a Reply