আমরা অনেকে অইটেল কোম্পানি সাথে পরিচত।আগে আইটেল ফোনগুলো এত জনপ্রিয় ছিল না।

এখন দেখা যাচ্ছে আইটেল তারা বাজারে নতুন মডেল ফোন বাজারে আনছে।তাদের এই ফোনগুলোতে কম প্রাইজে ভালো ফিচার দিচ্ছে যা ক্রেতাদের সন্তুষ্টির অজন করতে পারছে।

অন্য কোম্পানি যেখানে বাজারে দখল করছে তখন আইটেল কিন্তু পিছেয়ে নেই তারা বাজারে কম মূল্য ভালো ফোন ফিচার নিয়ে আসছে।

সম্পতিক সময়ে আইটেল ফোন গুলো বাজারে ভালো চাহিদা তেরী করেছে।ক্রেতারা তাদের কম দামে ভালো ফিচার পাচ্ছে।

আমরা অনেকে আইটেল ভিশন১ সাথে পরিচিত অনেকে এটাকে গরিবের আইফোন বলেছিল।ফোনটি কম দামে ভালো ফিচার দিয়েছিল ফলে ভালো বিক্রি হয়েছিল ফোন টি।

আইটেল ভিশন১ ফোনে র‍্যাম ২জিবি থাকায় তারা আবার নতুন আপডেট ফোন বাজারে আনে আইটেল ভিশন ১ প্লাস।

আইটেল তারা ভিশন ১ ফোনটির ভালো রিভিউ পাওয়ায় তারা নতুন করে আইটেল ভিশন ১ প্লাস ফোন টি বাজারে এনেছে।

আপনাদের অনেকে জানার ইচ্ছে আইটেল ভিশন ১ প্লাস নতুন করে কি ফিচার দিয়েছে

আসুন রিভিউ টি জেনে নেই

নেটওয়াকঃ

আপনারা ভিশন ১ প্লাস ফোনে ২জি/৩জি সুবিধার সাথে ৪জি লাইট সুবিধা পেয়ে যাবেন।ফোনে দুটি ন্যানো সিম ও একটি মাইক্রো এইচডি কাড ব্যবহার করতে পারবেন।

অপারেটিং সিস্টেমঃ

ফোনে অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে Android 9(pie)।যা পরবতী আপডেট করা যাবে।

প্রসেসরঃ

আইটেল ভিশন ১ প্লাস প্রসেসর ১.৬ গিগাহার্জ অক্টা-কর প্রসেসর সাথে চিপসেট Unisoc SC9863A দিয়েছে।

ডিসপ্লেঃ

ফোনটিতে ডিসপ্লে হিসাবে ৬.৫ ইঞ্চি(৭২০x১৫৬০) ওয়াটার ড্রপ ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে।ডিসপ্লে ফুল এচডি যা লুক অসাধারণ।

ক্যামেরাঃ

আইটেল ভিশন ১ প্লাস পিছনে ২ টি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে (১৩+০.০৮)মেগাপিক্সেল সাথে ফ্লাশ।

ফোনের সামনে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দিয়েছে।ফোনের পিছনের ক্যামেরা ডেলাইটে ভালো ছবি ক্যাপচা করে।

বাজেট হিসাবে সামনে ক্যামেরা খারপ ছবি উঠে না ভালো ছবি উঠে।

ব্যাটারিঃ

ফোনের বিশাল ৫০০০ আম্পিয়ার ব্যাটারি ব্যাবহার করা হয়েছে যা আপনি নরমাল ইউজার হলে ২দিন পার হয়ে যাবে কিন্ত হেবি ইউজার গেম+নেট ব্রাউজিং করলে ৭-৮ ঘন্টা টানা ব্যবহার করতে পারবেন।

ফোনে ১০ ওয়াড চাজার ব্যবহার করা হয়েছে যা চাজ হতে প্রায় ৩ঘন্টার মতো লাগবে।

ভাসন ও স্টোরেজঃ

ফোনের বাজারে ৩জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ পাবেন আপনি চাইলে ১২৮ জিবি পযন্ত স্টোরেজ মাইক্রোএইচডি কাড ব্যবহার করতে পারবেন।

সিকিউরিটিঃ

ফোনের ফেস লক সহ ফিগার প্রিন্ট। ফোন টিতে ফিংগার প্রিন্ট খুব ভালো ফাস্ট ছিল যা এই বাজেটে।

গেমিংঃ

ফোনে গেমিং কথা বলতে গেলে ছোট বড় সব গেম খেলতে পারবেন যেমনঃফ্রি ফায়ার ও পাবজি।

ফ্রি ফায়ার অনায়াস খেলাতে পারবেন কিন্তু পাবজি একটু গ্রাফিক্স ঘারতি দেখা যাবে।

দাম ও কালারঃ

Itel Vision 1 plus ৩জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ দাম-৮,৪০০।এটি দুটি কালার পাওয়া যাবে Gradient Purple , Gradient Blue।

শেষ কথাঃ

আপনাদের যাদের বাজেট ৮০০০-৯০০০ টাকা তাদের জন্য এই বাজেট এই ফোন ভালো হবে এই দামে আইটেল ভালো ফিচার এড করেছে।

এমন টিপস ও ট্রিক পেতে ভিজিট করতে পারেন  Projukti71.Com  ওয়েবসাইটে

12 thoughts on "Itel Vision 1 plus দাম ও ফিচার সম্পর্কে জেনে নিন"

  1. MD Shiful Islam MD Shiful Islam Author says:
    Itel Temn Valo brand are na
    Tobe rate hisabe chole


    1. Sohan Sohan Author Post Creator says:
      hmmm kintu new set gola khrup na
    1. Sohan Sohan Author Post Creator says:
      tnx
  2. salim Contributor says:
    Ami realme c2s er ashai bosa achi
    1. Ashikur Rahaman Ashikur Rahaman Contributor says:
      Hahaha amio
    2. Sohan Sohan Author Post Creator says:
      oh
  3. ShaRiar IMRAN Tech+Time Contributor says:
    Vivo te Valo Game khela jay na……..T Itel
  4. Alimulislamadib Contributor says:
    bro 4500-5000 takay best phone suggest korben please?
  5. ChotoNabab ChotoNabab Contributor says:
    phn akhn kinbo nh price gula age komuk..kalk tv te dekhlam kombe naki
  6. Rasel Contributor says:
    Phn ta bazare paowa jabe ?


  7. Md Rumon Mahmud Author says:
    Realme c2s মোবাইলটা পাওয়া যাবে ভাই খুব জরুরী দরকার

Leave a Reply