আসলামুআলাইকুম,
সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল
অপারেটিং সিস্টেম গুলোর মধ্যে
অ্যান্ড্রয়েড অন্যতম।আর এন্ড্রয়েড
ডিভাইস রুট করাটাও অনেকটা সহজ
উপায়।
অনেকেই হয়ত এই রকম ভাবতে পারেন
যে আপনার এন্ড্রয়েড ডিভাইসটির রুট
করার কোন প্রয়োজন নেই। কিন্তু
আপনি যখন রুট করার সুবিধাগুলো
জানতে পারবেন তখন হয়তবা আপনার
এই ধরনের চিন্তা বা কথা মাথায়
আসবে না। তাহলে জেনে নিন
ডিভাইস রুট করার কয়েকটি সুবিধা।

১. হিডেন ফিচার আনলক করুন


রুট করার মাধ্যমে আপনি এন্ড্রয়েড
ডিভাইসের কিছু হিডেন ফিচার
আনলক করতে পারেন। মাঝে মাঝে
আপনার পছন্দের ফিচারগুলো আপনার
ডিভাইসে থাকে না। রুট করার পর
বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে আপনার
ডিভাইসে পছন্দের ফিচার যোগ
করতে পারেন। যেমন – এক্সপোসড্
ইন্সটলার ইত্যাদি।

২. ডিভাইসের স্পিড বুস্ট করুন


রুট করার মাধ্যমে আপনি আপনার
ডিভাইসের স্পিড বৃদ্ধি করতে
পারবেন। বিভিন্ন অ্যাপ যেমন –
সেটসিপিইউ (setcpu)। এই অ্যাপটির
মাধ্যমে আপনি আপনার ডিভাইসের
cpu ওভারক্লক করে আপনার
ডিভাইসের স্পিড বুস্ট করতে পারেন।

৩. ব্যাটারি লাইফ বুস্ট করুন

রুট করার আরেকটি সুবিধা হলো
আপনি ডিভাইসের ব্যাটারি লাইফ
বুস্ট করতে পারবেন। সেটসিপিইউ
(setcpu) অ্যাপটি দিয়ে আপনি
আপনার ডিভাইসের cpu ডাউনক্লকও
করতে পারেন। এতে আপনার
ডিভাইসের ব্যাটারি লাইফ বুস্ট
হবে।

৪. অ্যাপের মধ্যে অ্যাড ব্লক করুন


অ্যাপস গুলোর এড অনেকটাই বিরক্তি
জনক। কোন অ্যাপ ব্যবহারের সময় বার
বার এডগুলো বিরিক্ত করে।রুট করার
মাধ্যমে আপনি অ্যাপের মধ্যে অ্যাড
ব্লক করতে পারেন। বিভিন্ন অ্যাপ
যেমন – AdFree, Adblock Plus, Ad
Away – এসব অ্যাপ আপনার
ডিভাইসের অ্যাপগুলির অ্যাড ব্লক
করে দিবে।

৫. ব্যাকআপ করুন


ডিভাইস্টি রুট করার মাধ্যমে আপনি
সহজেই আপনার পুরো সিস্টেমের
ব্যাকআপ নিতে পারেন। রুট ছাড়াও
আপনি কিছু অ্যাপের ব্যাকআপ নিতে
পারবেন। তবে রুট থাকলে আপনি পুরো
সিস্টেমের ব্যাকআপ নিতে পারেন।
এক্ষেত্রে আপনাকে কিছু অ্যাপের
সাহায্য নিতে হবে। যেমন –
Titanium Backup

৬. প্রি-ইন্সটলড্ অ্যাপ মুছে ফেলুন


রুট করলে আপনি প্রি-ইন্সটলড্ অ্যাপ
মুছে ফেলতে পারেন। Titanium
Backup অ্যাপটি দিয়ে ব্যাকআপ
করানো ছাড়াও অ্যাপটি দিয়ে
আপনার ডিভাইসের প্রি-ইন্সটলড্
অ্যাপগুলি মুছে ফেলতে পারেন।

৭. কাস্টম রম ইন্সটল করুন


রুট করার পর আপনি আপনার
ডিভাইসে অন্য কোনো রম(যেমন –
CyanogenMod, Replicant ইত্যাদি)
ইন্সটল করতে পারেন। এতে আপনার
ডিভাইসে নতুন ফিচার যুক্ত হবে।

৮.ইন্টারনেট স্পীড


আপনার ডিভাইসটি রুট করার মাধ্যমে
ভাল মানের ইন্টারনেট স্পীড পেতে
পারেন।রুট করার ডিভাইসে ফোনের
ক্যাস সমূহ বেশীকশন অবস্থান করতে
পারে না।
আপনাদের সাথে ডিভাইস রুট করার ৮
টি সুবিধা আলোচনা করলাম। রুট
করার আরও কিছু সুবিধা ও ফিচার
আছে।তাই আর দেরী না করে এখনই
আপনার ডিভাইসটি রুট করে ফেলুন।
ধন্যবাদ সবাইকে ।
‌যে কোন প্র‌য়োজ‌নে ‌ফেসবু‌কে আমি

4 thoughts on "এন্ড্রয়েড ডিভাইস রুট করার কিছু সুবিধা!"

  1. Jhinku Jhinku Contributor says:
    ভাইয়া আমার মোবাইলের কেমেরা কেটে গেছে কিভাবে ফেরত আনব মোবাইল রুট করা


    1. rajib sharif yasin rajib Contributor says:
      ফালতু প্রশ্ন?????
  2. sohank709 Contributor says:
    ভাই আমি কিভাবে root করব and root করলে phone কি কোন problem হবে।
  3. SIAMKHANRAFIYN Contributor says:
    Rom বানাব কি করে।

Leave a Reply