যারা দেশের বাইরে থাকেন অনেকে ভয়েপ আইডির কথা শুনেছেন আবার অনেকে ব্যবহারও করছেন আজকে আমি ভয়েপ সম্পর্কে কিছুটা ধারনা দেয়ার চেষ্টা করব। ভয়েপ কিভাবে কাজ করে সেটা লিখলে অনেক সময়ের প্রয়োজন তাই শুধু এর ব্যবহারের নিয়মকানুন সম্পর্কে লিখলাম।

ভয়েপ আইডি দিয়ে কল করার জন্য অবশ্যই আপনার মোবাইল বা ল্যাপটপ ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে, না হলে আপনি কল করতে পারবেন না। ভয়েপ দিয়ে আপনি বাংলাদেশের যেকোন সিম বা ল্যান্ডফোনে সরাসরি কল করতে পারবেন মানে আপনি যার কাছে ফোন করবেন তার ফোনে কোন নেট কানেকশন লাগবেনা শুধু সিম চালু থাকলেই হবে। ভয়েপে প্রতি মিনিট কল রেট প্রায় $0.025 সেন্ট এটা আপনার ভয়েপ আইডি প্রভাইডার ভিত্তিতে কম বেশি হবে এবং আপনি কোন দেশ থেকে কোন দেশে কল করবেন সেটার উপরেও নির্ভর করে, আমি এভারেজ রেট ধরলাম। আপনি যদি ১০ ডলার লোড করেন তাহলে প্রায় ৪০০ মিনিট কথা বলতে পারবেন বাংলাদেশে যার মেয়াদ আনলিমিটেড থাকবে আর যদি অন্য দেশে কথা বলেন তাহলে কম বেশি হবে ইউরোপ কান্ট্রিগুলোতে কল রেট অনেক কম হয়। এখন কিভাবে ভয়েপ আইডি করবেন কিভাবে ডলার লোড করবেন, কল করবেন পদ্ধতি গুলো দেখুন।

ল্যাপটপ বা মোবাইল এর মাধ্যমে ভায়েপ দিয়ে কল করতে পারবেন দুইটি পদ্ধতিই দেখাব।

এন্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহারকারীর জন্য:

প্রথমে প্লেস্টোর থেকে MobileVoip নামে এপটি এখানে ক্লিক করে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিন। ইনস্টল করার পর এপটি অপেন করুন

এপটি অপেন করার পর মেনুতে ক্লিক করবেন এখানে আপনাকে লগিন করতে বলবে আপনি যদি নতুন হন তাহলে আপনাকে নতুন করে একটি আইডি পাসওয়ার্ড তৈরি করে সেই আইডি পাসওয়ার্ড  দিয়ে লগিন করতে হবে। আইডি তৈরি করার জন্য লগিন বাটনে ক্লিক করুন।

লগিনে ক্লিক করার পর লগিন নিচে দেখবেন New User আছে এখানে ক্লিক করুন আইডি করার জন্য

New User এ ক্লিক করার পর এই রকম একটা লিস্ট আসবে এখানে যে প্রোভাইডারের কাছ থেকে ভয়েপ আইডি নিতে চান সেটা সিলেক্ট করতে হবে, এক এক প্রোভাইডার একেক দেশে একেক রকমের কল রেট দিয়ে থাকে  আপনি যে দেশে থাকেন সেখান থেকে আপনি যে দেশে কল করবেন সেখানে সর্বনিম্ন কল রেট যে প্রোভাইডার দিয়ে থাকে সেটাতে আইডি করবেন। রেট দেখার জন্য যেকোন একটা সিলেক্ট করে নিচে দেখবেন Rates নামে একটা বাটন আছে এখানে ক্লিক করে রেট ভালভাবে চেক করে নিবেন। যে প্রোভাইডার আপনার  কাঙ্খিত দেশে সবচেয়ে কম রেট ‍দিবে সেটাতে একাউন্ট করবেন।

আমি Frynga নামক ভয়েপ প্রোভাইডার এর আইডি ব্যবহার করি, এটার কল রেট এভারেজ $0.025 আপনি চাইলে অন্য প্রোভাইডার থেকেও আইডি করতে পারেন আমি Frynga তে আইডি করা দেখাব। তো আপনি New User এ ক্লিক করার পর যে মেনুটি দেখাবে সেখান থেকে Frynga তে ক্লিক করবেন, ক্লিক করার পর এই রক আসবে এখানে ভয়েপ আইডির তথ্যগুলো দিতে হবে যেমন ইউজারনেম (এটা দিয়ে পরবর্তিতে লগিন করবেন), পাসওয়ার্ড (পরবর্তিতে লগিন করার সময় লাগবে), ইমেইল এড্রেস (যেকোন ইমেইল হলেই হবে, জিমেইল ব্যবহার করতে পারেন), কান্ট্রি দিতে হবে এবং মোবাইল নাম্বার দিতে হবে সবকিছু ঠিকঠাক মত দিয়ে Register বাটনে ক্লিক করলেই একাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে

এবং আপনার দেয়া ইমেইলে একটা ভেরিফাই মেইল দেয়া হবে আপনার মেইলটা অপেন করে ইমেইলটা ভেরিফাই করে নিবেন।

 

ভেরিফাই করার পর আপনার একাউন্টে লগিন করবেন

এখানে আপনার Username and Password দিয়ে লগিন করবেন লগিন করার পর  এই রকম আসবে

Buy Credit এ ক্লিক করে একাউন্টে ডলার লোড করতে হবে তা না হলে কল করতে পারবেন না, Buy Credit এ ক্লিক করার পর রিডাইরেক্ট করে আপনার ফোনের ব্রাউজারে এরকম আসবে

এখানে আপনি কি দিয়ে ডলার কিনতে চান সেটা দিয়ে ডলার কিনতে হবে। আপনি চাইলে যে দেশে থাকেন সে দেশের Paypal আইডি তৈরি করে পেপাল আইডিতে আপনার ব্যাংকের কার্ড এড করে পেপাল এর মাধ্যমে ডলার কিনতে পারবেন পেপাল আপনার ব্যাংকের কার্ড থেকে ডলার এর জন্য চার্জ কাটবে তবে যেকোন কার্ড সাপোর্ট করবেনা আপনি যখন ব্যাংক একাউন্ট করবেন তখন বলতে হবে আমাকে  ভিসা বা মাষ্টারকার্ড দিন তাহলেই ভিসা বা মাষ্টারকার্ড দিবে এবং এই কার্ড দিয়ে সরাসরি কার্ড দিয়েও ডলার কিনতে পারবেন পেপাল একাউন্ট ছাড়াই, আপনার কার্ডটি যদি VISA কার্ড হয় তাহলে VISA তে ক্লিক করে কার্ডের নাম্বার, এক্সপায়ার ডেইট, CVC কোড দিয়ে ওকে দিলেই ডলার কিনা হয়ে যাবে তবে আপনার ব্যাংক একাউন্টে অবশ্যই টাকা থাকতে হবে নাহলে হবেনা। তবে সরাসরি কার্ড দিয়ে না কিনাটাই ভাল কারন কার্ড ওয়েবসাইটে যত কম ব্যবহার করবেন ততই আপনার জন্য ভাল, কারন এই Fryga র ওয়েবসাইট ভবিষ্যতে চাইলে আপনার অনুমতি ছাড়াই আপনার কার্ড থেকে চার্জ করতে পারবে। তাই পেপাল সবচেয়ে ভাল হবে পেপালে শুধুমাত্র একবার কার্ড এড করলে পেপাল এর মাধ্যমে কার্ড দিয়ে যত খুশি ওয়েবসাইট থেকে কিনাকাটা করতে পারবেন, পেপাল হল সবচেয়ে নিরাপদ এটা ওয়ান টাইম ট্রানজেকশন করে অর্থাং আপনি যেখান থেকেই যা কিছুই কিনুন না কেন ওরা চাইলেও আপনার একাউন্ট থেকে কোন ভাবেই অতিরিক্ত চার্জ করতে পারবেনা তাই পেপাল এর মাধ্যমে কিনাটাই আমি সবচেয়ে ভাল মনে করি।

যদি ভিসা কার্ড না পান তাহলে পেপাল একাউন্ট করে সে একাউন্টে অন্য কারো পেপাল একাউন্ট থেকে ডলার কিনেও করতে পারবেন অথবা Skrill এ একাউন্ট করে ‍Skrill এ অন্য কারো কাছে থেকে ডলার কিনে সেটা দিয়েও ডলার কিনতে পারেন।

ডলার লোড  করার পর আপনার ভয়েপ এপটিতে ক্লিক করার পর আপনার ব্যলেন্স দেখাবে এবং আপনি কল করতে পারবেন। কল করার জন্য বাংলাদেশের নাম্বারের আগে অবশ্যই +88 দিয়ে নিবেন নাহলে কল ঢুকবেনা যেমন : +8801712345678

 

এখন আসি ল্যাপটপ বা কম্পিউটার দিয়ে কিভাবে ভয়েপ ব্যবহার করবেন। গুগলে সার্চ দিবেন Mobilevoip লিখে

উপরের প্রথম ওয়েবসাইটটিতে ঢুকবেন অথবা এখানে ক্লিক করে সরাসরি ঢুকতে পারেন। এখানে যাবার পর এই রকম আসবে এখানে আপনি যেই প্রোভাইডারের একাউন্ট করতে চান সেটা সিলেক্ট করে SIGN UP বাটনে ক্লিক করবেন।

Frynga সিলেক্ট করে সাইন আপ বাটনে ক্লিক করলে এখানে থেকে রিডাইরেক্ট করে ফ্রিঙ্গার ওয়েবসাইটে নিয়ে যাবে একাউন্ট করার জন্য

এখানে তথ্যগুলো দিয়ে রেজিষ্টার করে নিবেন এখানে অতিরিক্ত একটা সিকিউরিটি কোড দিতে হবে Enter the letters or solve the math problem above এই বক্সটিতে উপরের সবুজ লেখা অক্ষরগুলো ভালভাবে দেখে লিখে দিতে হবে। আপনি চাইলে এখানে উপরে Rates মেনুতে ক্লিক করে কল রেট চেক করে নিতে পারেন

ঠিকঠাকমত username, password, email দিয়ে রেজিষ্টার করার পর লগিন করবেন।

লগিন করার পর Buy Credit করতে বলবে

আপনি ক্রেডিট কিনে ফেলবেন আপনার পেপাল বা ভিসা কার্ড বা মাষ্টারকার্ড বা স্ক্রিল একাউন্ট দিয়ে। ডলার কিনার পর নিচে ডানপাশে দেখবেন Make Call Now এই রকম একটা অপশন থাকবে এখানে ক্লিক করবেন

ক্লিক করার পর এই রকম আসবে এখানে উপরে কল করার আইকনটিতে ক্লিকে করে নাম্বার লিখে Call বাটনে ক্লি করলে কল চলে যাবে এবং প্রতি মিনিট কত ডলার করে কাটবে, কত মিনিট কথা বললেন তার জন্য কত ডলার কাটল সব দেখতে পারবেন। কল করার জন্য নাম্বারের আগে অবশ্যই +88 দিয়ে নাম্বার লিখবেন। উদাহারন +8801711223344

চাইলে এখান থেকে আপনার ল্যাপটপ বা মোবাইল বা আইফোন এর জন্য সফ্টওয়ার ডাউনলোড করে ইনস্টল করে সেখানে এই username & password দিয়ে লগিন করে সহজেই কল করতে পারবেন। একটা আইডি করলেই এই আইডি দিয়ে frynga.com ওয়েবসাইট থেকে কল করতে পারবেন বা উইন্ডোজের জন্য সফ্টওয়ার ইনস্টল করেও কল করতে পারবেন বা আপনার মোবাইলের জন্য MobileVoip এপ ইনস্টল করেও লগিন করে কল করতে পারেন, মোবাইল দিয়ে উপরের নিয়মে Frynga তে একাউন্ট করে থাকলেও এই একাউন্ট ল্যাপটপ দিয়ে Frynga.com এ লগিন করেও কল করতে পারবেন।

আশাকরি সবাই ভয়েব এর ব্যবহার সম্পর্কে কিছুটা ধারনা পাবেন।

4 thoughts on "ভয়েপ নিয়ে বিস্তারিত। কিভাবে ভয়েপ আইডি করবেন। ভয়েপ ডলার কিভাবে কিনবেন। কিভাবে ভয়েপ দিয়ে কথা বলবেন"

  1. Trickbd Member Contributor says:
    localphone to akta voip service?
  2. Fåhäd [Trickbd Fan] Author says:
    Dollar free te paoyar kuno way ace ki?

Leave a Reply