আসসালামু আলাইকুম,
কেমন আছেন সবাই? আশা করছি মহান আল্লাহর রহমতে আলহামদুলিল্লাহ ভালোই আছেন। এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের টেলিগ্রাম এর API ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে এমন একটি App এর কথা বলবো যেটি Telegram এর Original যে App টি আছে সেটির থেকেও বেশি ফিচারে ভর্তি। Original Telegram App এ নিয়মিত প্রচুর Feature যুক্ত করা হচ্ছে। কিন্তু কিছু কিছু এমন Feature আছে যা এখনো যুক্ত করা হচ্ছে না কিন্তু সেগুলো বেশ গুরুত্বপূর্ণ ও দরকারী। এই App টির মধ্যে আপনারা সেসব Feature গুলো দেখতে পারবেন যেগুলো আপনারা সাধারনত Original Telegram App এ দেখেন না। আপনারা App এর ফিচারগুলো দেখে অবাক ও মুগ্ধ দুটোই হবেন। কেননা আপনাদের অনেকেরই হয়তোবা ধারনাই নেই যে টেলিগ্রামের মাধ্যমে এত কিছু করা যায়। মূলত Original Telegram App এ যেসব ফিচার অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি বা যেসব ফিচার এর অভাব রয়েছে সেসব ফিচার দিয়েই এই App গুলোকে ডেভেলপাররা তৈরি করেছেন।

প্রচুর ফিচারে ভরা এই App টি আপনার একবার হলেও ব্যবহার করে দেখা উচিত। আপনারা যারা Telegram ব্যবহার করেন তারাই বুঝবেন আমি কেন এ কথা বলছি।

আর কথা না বাড়িয়ে মূল টপিকে চলে যাই।

 

🔥 App Name : Plus Messenger

Link : Playstore

অনেকেই হয়তো এই এপ্লিকেশনটির সম্পর্কে জানেন। যারা জানেন না তাদের জন্যে তো অবশ্যই এই পোস্টটি। আমি এক এক করে সবগুলো ফিচারের কথা বলে দিবো। পোস্টটা লম্বা হতে পারে। তবে আশা করছি আপনারা নিরাশ হবেন না পড়ে। আমি আমার যথাসম্ভব ভালোভাবে বোঝানোর চেষ্টা করবো।

তো চলুন শুরু করা যাক।

🔥১) Category :

Log in করার পরই আপনারা দেখতে পাবেন সুন্দর Interface এর একটি Homepage।
উপরে Search Option এর সাথে পাবেন Folder এর একটি Icon। এখানে ক্লিক করলে আপনারা দেখতে পাবেন Category এর একটি আলাদা Option আপনি পাচ্ছেন। এটি টেলিগ্রামের ফোল্ডারদের মতো না এবং টেলিগ্রামের ফোল্ডারদের সাথেও Add হবে না। এটা আপনারা জন্যে আলাদা একটি Space তৈরি করবে আলাদাভাবে ব্যবহার করার জন্য। আপনাকে এই ক্যাটাগরিটি এক্সেস করতে হলে অবশ্যই এই আইকনের ক্লিক করতে হবে।

🔥২) Inbox :

1) Go To First Message :

যেকোনো ইনবক্সে যাওয়ার পর আপনারা উপরের 3 dot menu তে ক্লিক করে বিভিন্ন Options পাবেন যা আপনাদের উপকারে আসার জন্যেই এখানে দেওয়া হয়েছে। সবচেয়ে কাজের যে Option টি আমার কাছে লেগেছে সেটি হচ্ছেঃ “Go To First Message” এর যে Option টি দেওয়া হয়েছে সেটি। এটাতে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনাকে একেবারে ইনবক্সের সেই প্রথম মেসেজে নিয়ে যাবে। অনেক Useful একটা Feature। যাদের গ্রুপ, চ্যানেল বা কারো ইনবক্সে প্রচুর মেসেজের কারনে একেবারে প্রথমে যেতে কষ্ট করে স্ক্রল করে করে যেতে হয় এই সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্যে অনেক বড় এক সমাধান। অনেকেই এই Feature টির অভাববোধ করেন টেলিগ্রামের মূল এপ্লিকেশনে। কিন্তু এই এপ্লিকেশনটিতে আপনারা এই সুবিধাটা পাচ্ছেন।

2) Save To Cloud :

এই এপ্লিকেশনটিতে আপনারা একটি অসাধারন ফিচার পাচ্ছেন যা Telegram এর Original App এ নেই।
যেকোনো মেসেজকে এক ক্লিকেই আপনারা ক্লাইডে সেভ করে ফেলতে পারবেন। এটা করার জন্য মেসেজটি Select করুন এবং উপরে অনেকগুলো Icon দেখতে পাবেন মেসেজটি নিয়ে আপনি কি করতে চান সেটির জন্য। যেমনঃ Download, Cut, Copy, Paste, Share, Save To Cloud, Delete এগুলো।

আপনি Cloud এর আইকনে ক্লিক করবেন এবং মেসেজটি বা ফাইলটি যেটি আপনি সিলেক্ট করেছিলেন সেটি ক্লাউডে চলে যাবে।

তো এই ক্লাউডের Access কোথায় পাবেন?

Saved Messages এ গেলেই পেয়ে যাবেন আপনার কাংখিত ফাইলটি বা মেসেজটি। Telegram এ এই কাজটি করার জন্য আমাদেরকে File/Message টি সিলেক্ট করে শেয়ার করতে হতো Saved Messages এ। এই কাজটাকে আরো সহজ করতে এই ফিচারটি এখানে দেওয়া হয়েছে।
অনেক উপকারী একটি ফিচার যা সবারই কাজে লাগবে।

🔥৩) Mark and Select To Do (Features) :

নামটা আমার নিজেরই দেওয়া। কিন্তু যাই হোক কাজগুলো আপনাদেরকে বুঝিয়ে দিলেই নামের কথা ভুলে যাবেন।

আপনি যেকোনো Chat কে App টির Homepage থেকে সিলেক্ট করার পর যেসব Option এখানে পাবেন Use করার জন্য তা Telegram এর Original App এ পাবেন না। এক এক করে বলছি।

যেকোনো Chat mark করে Select করার পর উপরে ডানদিকে 3 dot এ ক্লিক করার পর আপনারা মোট ৯ টি Option পাবেন সিলেক্ট করার জন্য।

Telegram এর Original App এ যে Option গুলো পাচ্ছেনঃ Pin, Add to Folder, Mark as Read, Delete from cache এই ৪টি। বাকী ৫ টি কি কি সেগুলোই বলছি।

1) Remove from Folder : যদি Chat টি কোনো নির্দিষ্ট ফোল্ডারে আপনি Save করে রাখেন তবে সেই ফোল্ডারটি থেকে Remove করে দিতে পারবেন।

2) Add To Favourites : যেকোনো এক বা একাধিক Chat কে Select করে Favourites এ Add করতে পারবেন।

3) Add To Homescreen : এই Option টি আপনারা অন্য টেলিগ্রাম এপ্লিকেশনগুলোতে পাবেন না। অনেকেই কোনো Group/Channel/Chat কে দ্রুত Access করতে চান বারে বারে Telegram App এ না ঢুকে। আপনারা এই ফিচারটির মাধ্যমে ঐ Chat কে আপনাদের ফোনের Launcher এর Homescreen এ Add করে সহজেই Access করতে পারবেন যা অনেক Useful একটি ফিচার।

4) Add To Category : একটু আগে Category এর কথা যা বলছিলাম এখানে সেটিই করতে পারবেন। যেকোনো Chat কে সরাসরি আপনার তৈরি করা Category তে Add করতে পারবেন।

5) Copy Link : অনেক Useful একটি ফিচার। অনেকেই এই ফিচারটি খুজে থাকেন। Telegram Chat এ ঢুকা ব্যতিত সহজেই সরাসরি যেকোনো গ্রুপ/চ্যানেল এর লিংক কপি করতে পারবেন।

6) Select All Chats? এর মাধ্যমে সবগুলো Chat একেবারে এক এক করে সিলেক্ট না করে একেবারে সিলেক্ট করতে পারবেন। যদিও এ নিয়ে সবাই জানে তবুও এই গুরুত্বপূর্ণ ফিচারটিও টেলিগ্রামে দেওয়া নেই।

 

এরপর Side এ Slide করলেই একটি Menu পেয়ে যাবেন। এখানে যেসব ফিচার আপনারা পাচ্ছেন সেগুলো বলছি। কিন্তু তার আগে বলে দিই যেগুলো Telegram এ Already আছে সেগুলো নিয়ে কথা বলবো না। যেগুলো এক্সট্রা ফিচার টেলিগ্রামে নেই সেগুলো নিয়েই কথা বলবো। তাই বলে যে যেগুলোর কথা বলছি না সেগুলো নেই এমনটা না। আমার এই পোস্ট দেওয়ার মূল উদ্দেশ্যই হচ্ছে এক্সট্রা ফিচারগুলো নিয়ে কথা বলা।

শুরু করা যাক।

🔥৪) New Secret Chat :

টেলিগ্রামে মেনুতে Dedicated এমন Option নেই। কিন্তু এই এপ্লিকেশনটিতে আপনারা এই সুবিধাটা পাচ্ছেন। এর মাধ্যমে নতুন কোনো Secret Chat খুব সহজেই Open করতে পারবেন।

🔥৫) New Channel :

এটাও টেলিগ্রামে নেই। কিন্তু থাকাটা খুবই জরুরি ছিল। যাই হোক এটাও আপনারা এই এপ্লিকেশনটিতে পাচ্ছেন।

🔥৬) Folders :

telegram এর original app এ folders এর access এর জন্যে settings এ যেতে হয়। কিন্তু মেনুতেই দিয়ে দিলে সুবিধা হতো আরো বেশি। এই এপ্লিকেশনটিতে সেই সুবিধাটা পাচ্ছেন।

🔥৭) Categories :

Categories এর সেকশনটি এখান থেকেও এক্সেস করতে পারবেন।

🔥৮) Download Themes :

এই Option টাতে ক্লিক করলেই আপনাকে Playstore এ নিয়ে যাবে একটি নির্দিষ্ট এপ্লিকেশন থেকে Themes Download করার জন্য। আমি এ নিয়ে আগেই পোস্ট দিয়ে রেখেছি। আমার প্রোফাইলে গিয়ে দেখে আসতে পারেন।

🔥৯) Theming :

আপনি কি Customization করতে ভালোবাসেন? তবে এই Feature টি আপনার জন্যেই। আপনাদের Settings এ গিয়ে Themes Customization এর Option খুজার ঝামেলা পোহাতে হবে না। এটি Menu তেই Slide করে পেয়ে যাবেন।
Theming এ ঢোকার পর আপনারা সবচেয়ে বড় যে সুবিধাটা দেখতে পাবেন সেটি হচ্ছে সবকিছু সুন্দরভাবে Categorize করে দেওয়া। Telegram এ যেসব Colour গুলো পাওয়া যায়না এখানে সেসব প্রত্যেকটি Colour ই পাবেন Customize করার জন্য। আপনাকে আলাদা আলাদা করে Colour select করতে হবে না। আপনি যেভাবে ইচ্ছা Colour Customization করতে পারবেন।

এরপরও আপনারা যদি Satisfied না হয়ে থাকেন তবে আপনাদের জন্য থাকছে আরো সুবিধা।

আপনার কি অন্যান্য Telegram App গুলোতে কিভাবে Theme Customize করতে হয় মাথায় ঢুকে না?

তবে আপনি এখন থেকে আরো অনেক সহজেই Theme Customization করতে পারবেন।

এখানে প্রত্যেকটা বিষয় আলাদা আলাদা করে দেওয়া আছে আপনার বোঝার সুবিধার্থে। যেমনঃ Screen Customize করার জন্যে এখানে আলাদা ভাবে সবগুলো Customization এর Options গুলো দেওয়া আছে। মোট ৬ টি Screen customization এর Options পাবেন। কিন্তু এদের প্রত্যেকটির ভিতরে আবার আলাদা আলাদা করে সবকিছু সাজানো আছে দেখতে পাবেন। প্রত্যেকটা বিষয় এত সুন্দর ভাবে সাজানো আছে যে আপনি যদি Customization সম্পর্কে একটুও ধারনা না রাখেন তবুও আপনার সমস্যা হবে না। আপনি নিজে নিজেই Customize করতে পারবেন আপনার ইচ্ছামতো। অন্যান্য Telegram App গুলো থেকে এই App টির Customization System টা আমার ভালো লেগেছে। Telegram এর মূল App এ এভাবে Options গুলো সাজানো থাকলে আরো ভালো হতো। প্রত্যেকেরই সুবিধা হতো।

আমি পোস্টের শেষে সবকিছুরই স্ক্রিনশট দিয়ে দিচ্ছি বোঝার সুবিধার্থে।

🔥১০) Chats Counters :

এই ফিচারটি বেশিরভাগ মানুষেরই কাজ করবে। বিশেষ করে তাদের জন্যে যারা আমার মতো প্রচুর Group/Channel/Chat এ একইসাথে Joined হয়ে আছেন। কিন্তু সব এলোমেলো ভাবে সাজানো। কতটা Group/Channel ইত্যাদি আছে বুঝতেই পারছেন না। সবকিছু একদম জগাখিচুরি লেগে গিয়েছে।

এই ফিচারটির মাধ্যমে আপনারা আপনাদের Telegram Account এ কতগুলো Group/Channel/Chat এ Join হয়ে আছেন সবগুলোর Countdown দেখতে পাবেন। এছাড়াও আপনার Hidden/Secret Chats সহ আপনি কতগুলো Group/Channel Manage করছেন সব Details ই এখানে পেয়ে যাবেন।

 

এরপর আসি Plus Settings এ। এখানে আপনারা প্রচুর ফিচার পাবেন যা লিখে বোঝানো সম্ভব না। তবুও আমি কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচারের কথা বলবো যা আপনার জানা জরুরি।

🔥১১) General :

এখানে ৩ টি Option পাবেন।

1) আপনার Device এ থাকা Font টি Force করে ব্যবহারের জন্য।

2) আপনার ফোনের Default Emoji Force করে ব্যবহারের জন্য।

3) App Update কিভাবে চেক করা হবে সেটি Select করার জন্য।

 

🔥১২) Dialogs :

এই ফিচারটি দেওয়া হয়েছে আপনার সুবিধার জন্যই। এখানে আরো অনেক ফিচার পাবেন যা আমি এক এক করে বলে দিচ্ছি।

1) Hide Tabs/Folders

2) Close App On Back Pressed

3) show last tab on start

4) tabs height

5) show tab title

6) tabs text size

7) change emoji to icon in tabs

8) hide main tab

9) hide cloud folders

10) show tabs on bottom

11) disable tabs scrolling

12) infinite swipe among tabs

13) tabs swipe sensitivity

14) allow changing sorting method on double-click on tab

15) hide tabs counters

16) count only unmounted messages

17) count chats instead of mesages

18) limit tabs counters

19) don’t change header title

20) show sorting method in header

21) show sorting method only if not default

22) show set default folder

23) show pinned chats first

24) show unmuted chats first when sorting by unread

25) show all in admin tab

26) show folders if forwarding

27) show ‘archieved chats’ in any tab

28) show ‘select chats’ option in header

29) show categories icon

30) click on contact pic

31) click on group pic

32) show ‘add category’ in categories list

33) archieve chats by swiping to left

34) open menu by swiping to right

35) remove ‘archieved chats’ from list

36) do not close preview on release

37) open ‘saved messages’ by clicking floating button

 

এক কথা আপনার ইচ্ছামতো Gestures ব্যবহার করতে পারবেন ও পুরো Application টিকেই Customize করতে পারবেন। এসব ফিচার টেলিগ্রামে থাকলে কত যে উপকার হতো তা বলে বোঝানোর মত নয়। যাই হোক, টেলিগ্রামে নেই তো কি হয়েছে? এই এপ্লিকেশনটিতে তো পাচ্ছেনই।

 

🔥১৩) Messages :

এখানে আপনার নিজের মতো Customize করার ২০-৩০ টি নয় বরং ৫৯ টি Option পাচ্ছেন! সবগুলো নিয়ে বলতে গেলে পোস্ট প্রচুর বড় হয়ে যাবে আর আপনারা এমনেই না পড়ে চলে যান। এরপর আর পোস্টে যা পড়েন তা-ও পড়বেন না। তাই আমি এগুলোর স্ক্রিনশট দিয়ে দিবো শেষের দিকে। দেখে নিবেন।

🔥১৪) Navigation Drawer :

আপনারা এখানে ৬ টি Option পাচ্ছেন Navigation Drawer টি Customize করার জন্যে।

1) use avatar as background :

2) show username instead of mobile

3) show menu options

4) show plus options

5) show online contacts

6) move version to settings screen

 

🔥১৫) Profile :

এখানে পাচ্ছেন ৫ টি অপশন। সেগুলো হচ্ছেঃ

1) show full bio/info

2) shared media

3) enable ‘go to message’

4) show old media rows

5) show full screen avatar on single tap

 

🔥১৬) Notifications :

এখানে আরো ১১ টি অপশন পাচ্ছেন আপনার ইচ্ছামতো পাল্টানোর জন্য।

🔥১৭) Privacy And Security :

এখানে আরো ৯ টি অপশন পাচ্ছেন আপনার ইচ্ছামতো পাল্টানোর জন্য।

🔥১৮) Shared Media :

এখানে আরো ৬ টি অপশন পাচ্ছেন আপনার ইচ্ছামতো পাল্টানোর জন্য।

🔥১৯) এরপর Save Settings, Restore Settings, Reset Settings নামের ৩ টি Settings পাচ্ছেন Backup & Restore & Reset করার জন্য। আপনি এ পর্যন্ত যেসব সেটিংস গুলো Customize করেছেন সেগুলো পুনরায় Access করার জন্যে এই ফিচারগুলো দেওয়া হয়েছে। অথবা আপনি যদি কোনো সেটিংসে গোলমাল করে ফেলেন তবুও যেন আপনাকে ঝামেলা না পোহাতে হয় সেটির সমাধানও এখানে দেওয়া আছে।

এছাড়াও বাকী যেসব ফিচার থাকার কথা এখানে সবই আছে। আমি সব ফিচারগুলোর বিস্তারিত বর্ণনা করতে পারিনি বলে দূঃখিত। কারন আমার পক্ষে এত লিখা সম্ভব না। এতে পোস্ট অনেক বড় হয়ে যাবে আর এক পোস্ট লিখতে লিখতে আমার কয়েক দিন বা সপ্তাহ লেগে যাবে। তাই এগুলো আপনারা নিজেরা ব্যবহার করে Explore করুন।
আমি যত Shortcut এ ব্যাখ্যা করতে পারি সে চেষ্টাই করি। কিন্তু এইসব এপ্লিকেশনগুলো এত এত ফিচারে ভরা যে একটা নিয়ে বলতে গেলে আরেকটা বাদ পড়ে যায়। এতে আমার কিছুই করার নেই। বড় আর্টিকেল লিখা যে কতটা কষ্টের তা একজন Writer ই জানেন। যাই হোক, আমার ভুলগুলোর জন্যে আমি আপনাদের বলবো ভুলগুলো ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমি প্রথমেই বলেছি এটি আমার দেখা সেরা Telegram Alternative গুলোর একটি। কারন এই App টিতে আমি অনেক ফিচারই পেয়েছি যা টেলিগ্রাম এর অফিশিয়াল এপ্লিকেশনটিতে এখনো এড করা হয়নি। আর ভবিষ্যতে করা হবেও নাকি সন্দেহ আছে।

 

এতক্ষন যা যা বললাম সবকিছুর প্রমান হিসেবে স্ক্রিনশটসঃ

 

 

অবশেষে বলবো, অনেক কথা বলে ফেলেছি। এসব ফিচার আপনারা টেলিগ্রাম এর অরিজিনাল এপ্লিকেশনে পাবেন না। এক্সট্রা ফিচারের মাধ্যমে আপনারা আপনাদের অনেক কাজ আরাও সহজ ভাবে করতে পারবেন। এ কারনেই এই পোস্টটি লিখা। আশা করি কারো না কারো অবশ্যই কাজে লাগবে। যদি কাজে আসে তবে অবশ্যই আমাকে জানাবেন।

আরো একটি কথা বলে রাখি। এই App ছাড়াও আরো বেশ কিছু ভালো ভালো App আছে যা Telegram এর থেকেও বেশি ফিচারে পরিপূর্ণ। আমি ঐগুলো নিয়েও পোস্ট লিখবো ইনশাল্লাহ। আশা করছি আপনাদের কাজে দিবে।

ইনশাল্লাহ দেখা হবে পরের পোস্টে।
ধন্যবাদ।
This is 4HS4N
Logging Out….

 

2 thoughts on "Telegram Alternative (Part-3) Telegram এর বিকল্প App যেখানে Telegram এর চেয়ে বেশি ফিচার পাবেন!"

  1. Abu Hatem Contributor says:
    Ak sathe koyta account login kre rakha jay bro?
    1. (Mr. Merciless) Contributor says:
      আপনার কাছে যতগুলো নাম্বার আছে, তবে আমার যতদূর মনে আছে, ৫/১০টার বেশি এক ডিভাইসে লগিন না রাখাই ভালো।

Leave a Reply