ব্লগিং হ্যাকস!

নিয়ম মেনে, বানান ঠিক রেখে, কপি পেস্ট না করে একের পর এক লিখে চলেছে অথচ কেউ তার পোস্টে নজরও দিচ্ছে না – এমন ঘটনা প্রায়ই দেখা যায়। নতুন ব্লগাররা তাদের ব্লগে যখন প্রথম প্রথম লিখতে শুরু করে তখন এরকম সমস্যার সম্মুখিন হয়। আবার বিভিন্ন কমিউনিটি যেমন ট্রিকবিডির মত সাইটেও এমনটা অনেকের সাথেই ঘটে।

তাহলে ব্যাপারটা কি? আমি সব ঠিক রেখে পোস্ট লিখে চলেছি অথচ কেউ পড়ছে না কেন? উত্তরটা হল পোস্টে আকর্ষণের অভাব। আর আকর্ষণটা আসে নিজের ক্রিয়েটিভিটি থেকে।

এখন আমাদের সবার মধ্যেই ক্রিয়েটিভ বস্তু আছে ঠিকই তবে তা ব্যবহার করতে পারি হাতে গোণা কয়েকজন (আমি অবশ্য ব্যবহার করতে পারি না ? ?)। তবে কিছু টেকনিক ফলো করলে খুব সহজেই নিজের সৃজনশীলতাকে কাজে লাগিয়ে পোস্টকে আরো সুন্দর করে সাজানো যায় এবং খুব সহজেই পাঠকের নজর কাড়া যায়। নিজের উর্বর মস্তিস্ক ব্যবহার করে তেমনি কিছু টেকনিক আমি শেয়ার করলাম।

তবে আগেই জানিয়ে রাখি এখানে আমি কোনো গতানুগতিক টিপস দিব না। কারন আমার ভালভাবেই জানা আছে সেই সব টিপস এখানকার পাঠকরা অনেক আগে থেকেই জানে। আর যদি জেনে না থাকেন তাহলে ওল্ড পোস্ট ঘাটুন!

ব্লগিং নিয়ে আরো পড়ুন:

ব্লগিং হ্যাকস!

প্রথম লাইনেই জাদু দেখান

নিজের সমস্ত প্রতিভা প্রয়োগ করুন প্রথম লাইনের ওপর আর সেটাকে করে তলুন এক কথায় কিকএস লাইন। প্রথম কয়েক লাইন পড়েই পাঠক সিন্ধান্ত নিয়ে ফেলে সে বাকি পোস্টটুকু পড়বে কি না। তাই এখানেই পাঠককে আকৃষ্ট করতে হবে।

আমার ব্যক্তিগত টিপস হল একটি শক দিন। এমন কিছু বলুন যা তারা এক্সপেক্ট করে নি। তাহলেই স্রেফ কৌতূহলবশতই পাঠক পোস্টটি নাড়াচাড়া করবে।

হিজিবিজি বাদ

পোস্ট হিজিবিজি করার স্বভাব অনেকের মাঝেই দেখা যায়। এটা একটা বদ অভ্যাস ছাড়া আর কিছুই নয়। অযথা স্ক্রিনশট, ছবি, কালার ফালারওয়ালা পোস্ট কেউই পছন্দ করে না।

একটি পরিসংখ্যান বলে একজন পাঠক প্রতি পোস্ট পড়তে গড়ে ৯৬ সেকেন্ড নেয়। তাই স্বাভাবিকভাবেই পোস্ট সর্বদা সংক্ষিপ্ত ও সরল হওয়া উচিত।

পোস্টে বিভিন্ন ট্যাগ (যেমন বোল্ড, ইটালিক, হ্যাড ট্যাগ) ব্যবহার করুন। এগুলো পাঠককে বুঝতে সহায়তা করবে তার কি পড়তে হবে এবং কেন পড়তে হবে। বিশেষ করে লিস্টিং এর দিকে বেশি মনোযোগ দিন। যেমন আমি এই পোস্টে টিপসগুলো লিস্টিং করেছি। এতে পাঠক খুব সহজেই পড়তে পারবে।

টাইটেল নিয়ে হেলাফেলায় নয়

টাইটেলের গুরুত্ব নিশ্চয়ই আমাকে বলে দিতে হবে না। এটা অনেকটা পোস্টের হৃদপিন্ডের মত কাজ করে। হৃদপিন্ড যেমন দেহে রক্ত সঞ্চালন করতে থাকে তেমনি টাইটেল প্রতি মুহূর্তে পোস্টে রিড করার এনার্জি সরবরাহ করতে থাকে।

টাইটেল একবারে লেখা যায় না। টাইটেল লিখুন এরপর পোস্টটি লিখুন, পোস্ট লেখা শেষ হলে আবার টাইটেল এডিট করুন। এভাবে নিজের পোস্টকে একটি পার্ফেক্ট টাইটেল দিতে সক্ষম হবেন। টাইটেল সর্বদাই হবে সংক্ষিপ্ত, তথ্যবহুল অথচ আকর্ষণীয়।

আলাদা আকর্ষণ যুক্ত করুন

মোটামুটি ৯০% পাঠকই কোনো না উদ্দেশ্য নিয়ে ব্লগে আসে এবং পোস্টে ক্লিক করে। যেমন ট্রিকবিডিতে পাঠক বেশিরভাগ সময় আসে ফ্রি নেট বা নতুন কোনো আর্নিং সোর্সের ধান্ধায়। তো তারা পোস্টগুলোও পড়ে তেমনই ভাবে – হেলাফেলা করে।

চিন্তা করুন অবস্থাটা। আপনি লিখলেন কত কষ্ট করে অথচ তারা কিনা এটা এত অবহেলার সাথে পড়ছে! পড়াটাই স্বাভাবিক। মানুষ একমাত্র আগ্রহ হয় সেইসব স্থানে যেখানে তারা ইন্টেরটেইমেন্ট পায়।

অর্থাৎ আপনার পোস্টে পাঠককে আনন্দ দেয়ার মত যথেষ্ট উপাদান থাকতে হবে। পোস্টে হিউমার যুক্ত করুন, পাঠকদের একটু হাসান। হিউমার না পরলেও এমন কিছু করুন যেন পাঠক আপনার পোস্টটি পড়ে একই সাথে উপকৃত এবং আনন্দিত হয়।

আর এটা করতে পারলেই কেল্লা ফতে! দেখবেন পাঠকরা অটোমেটিক ইন্টারেক্টিভ হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ তারা আপনার পোস্টে লাইক কমেন্ট (যদি অপশন থাকে) করছে। আর জানেনই তো এগুলোই হল ব্লগার-রাইটারদের সর্বোচ্চ প্রাপ্তি।

এডিট চলবে বার বার

হ্যা আপনার লেখা ভাল হতে পারে। তবে মনে রাখবেন এডিটিং লেখাকে আরো ভাল করে। বলা হয় “A good book isn’t written, it’s rewritten.” একই কথা পোস্টের বেলায়ও খাটে।

যত মনোযোগ দিয়েই লিখুন না কেন পোস্টে কিছু ভুল ত্রুটি থাকতে পারে। একবার রিভিশন দিয়ে ফেললে সেগুলো খুব সহজেই ধরা যায়। আবার যখন নিজের সদ্য পোস্টটি নিজেই পড়বেন তখন নিজেকে পাঠকের দৃষ্টিকোণ থেকে বিচার করতে শুরু করবেন। এভাবে নিজের কি কি ডেভেলপমেন্ট প্রয়োজন তা খুব সহজেই বুঝতে পারবেন।

বার বার এডিং করে পোস্টের প্রায় সকল ক্রুটিগুলো মুছে ফেলুন। এডিটিং নিজের লেখাকে আরো উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যায়। বার বার রিরাইট করে পোস্টকে আরো আকর্ষণীয় করে তোলা সম্ভব।

এন্ড্রোয়েড এক্সক্লুসিভ:

ওহ আর স্টোক নেই!

তো আজ এই পর্যন্তই থাক। ভাল থাকবেন, সুস্থ থাকবেন আর লিখতে থাকবেন। আর অবশ্যই লেখা পোস্ট করতে থাকবেন।

? ? ? ? ? ?

© #আহমেদ
ছবি: গুগোল থেকে

12 thoughts on "ব্লগিং হ্যাকস: কিভাবে নিজের পোস্টকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলব? চলুন জেনে নেয়া যাক সবচেয়ে দুর্লভ কিছু ট্রিকস || ব্লগিং এর ব্যাপার"

  1. Saimon Saimon Author says:
    Nice Trick………….
    Special Thanks For That…….
    1. #Ahmed #Ahmed Author Post Creator says:
      welcome ? ?
      stay in touch!! ✌ ✌
  2. Sadik Sadik Author says:
    কিছু মনে করবেন না৷নিজির ভুলগুলো নিজে ধরা যায় না৷আপনি h1 ট্যাগগুলো না ব্যবহার করে h4 ব্যবহার করুন দেখতে ভালো লাগবে৷ এবং লেখাগুলো বোল্ড করার কোন যুক্তি ছিলো না৷ক্রেটিভিটি দিয়ে অতিরিক্ত টাইটেল লিখলে তো গালি খেতে হবে৷ তবে কিছু কিছু idea অনবদ্য৷ “A good book isn’t written, it’s rewritten.” Best line ভাই.
    1. #Ahmed #Ahmed Author Post Creator says:
      কিছু মনে করি নি। h1 ট্যাগই লেখার জন্য আমার বেশি বেটার লাগে। বোল্ড করে আমি লেখাগুলোকে আরো ইন্টারেস্টিং করার চেষ্টা করেছি। তবে হ্যা, অতিরিক্ত বড় টাইটেল লেখাটা আমার মুদ্রা দোষে পরিণত হয়েছে। গঠনমূলক সমালোচনার জন্য ধন্যবাদ।
  3. Mr. Rocky Contributor says:
    ভাই কিভাবে টাইটেল এর পাশে
    ছবি দিব
    1. #Ahmed #Ahmed Author Post Creator says:
      পোস্ট সাবমিট করার পর thumbnail হিসেবে আপলোড করলেই চলবে।
  4. . Contributor says:
    অসাধারণ আহমেদ ভাই। ভাই আপনারতো উচিত ছিল হুমায়ন আহমেদ হওয়ার।? যা লিখেন ও ভাই। ?
    1. #Ahmed #Ahmed Author Post Creator says:
      দূর ভাই! কি যে বলেন না….লজ্জায় ফেলে দিলেন।।
  5. Somrat Tanvirrahman Contributor says:
    bro apnar satha aktu kotha bola lagba. Number ta den please????
    1. #Ahmed #Ahmed Author Post Creator says:
      সরি ভাই নম্বর দেয়া যাবে না। কিন্তু ফেসবুকে আসতে পারেন। ?
      http://fb.me/istiak.ahmed.anik0

Leave a Reply