আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা,আশা করি সবাই ভালো আছেন।আগের মতো আমি আজকে আবারো আপনাদের মাঝে হাজির হয়েছি নতুন একটি ট্রিকস নিয়ে।আশা করছি ট্রিকসটি আপনাদের কাছে ভালো লাগবে।তো আজকের পোস্টটি শুরু করছি।

আপনারা অনেকেই গুগল এডসেন্স এর নাম শুনে থাকবেন।আর অনেকেই এটি সম্পর্কে সম্যক ধারণাও পেয়ে গেছেন।তো আজকে আমি এ বিষয়েই আপনাদের সাথে কথা বলব।

আপনাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা জানতে চেয়েছেন যে গুগল এডসেন্স কিভাবে পাবো? আর এই গুগল এডসেন্স পাওয়ার জন্য কি কি দরকার হয়?-এগুলোর সবকিছুর উত্তর আমি দেওয়ার চেষ্টা করব।

অ্যাডসেন্স পাওয়ার জন্য যা যা করতে হবে

1. প্রিমিয়াম ডোমেইন ব্যবহার :


যদি আপনি নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে একটি ফ্রি ডোমেইন নাম ব্যবহার
করছেন, তাহলে সেটা বদলে ফেলুন।দ্রুত এডসেন্স অনুমোদন পাওয়ার জন্য একটি প্রিমিয়াম ডোমেইন (.com, .info, .xyz, .net, .org) থাকাটা অনেক জরুরি।তাই এই কাজটি অত্যন্ত জরুরি।তাছাড়া যদি আপনি চান তাহলে গুগলের ব্লগস্পট (blogspot) ফ্রি তে ব্যাবহার করতে পারবেন।এটি ফ্রি হলেও,যেহেতু এটি গুগলের সেহেতু,এটিও আপনি ব্যবহার করতে পারবেন।

2.অন্যান্য এড ব্যবহার না করা:


যখন আপনি গুগল এডসেন্সের জন্য apply করবেন, তখন যাতে আপনার ব্লগে অন্য কোনো এড network এর বিজ্ঞাপন না থাকে। এতে,এডসেন্স অনেক সহজেই আপনার অনুরোধ রিজেক্ট করে দিতে পারে।মানে,আপনার সাইটের ব্লগে পূর্বে যদি কোনো এড থাকে তাহলে সেটা রিমুভ করতে হবে।তা যদি না হয়,তাহলে আপনি কোনো মতেই এডসেন্স পাবেন না। তাই, এটিও একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।এটির দিকে আমাদের লক্ষ রাখা উচিত।

3.দ্রুত এবং পরিষ্কার সাইট:


একটা বিষয় অবশ্যই মনে রাখবেন যে,আপনার বানানো ব্লগ যাতে অনেক ফাস্ট এবং পরিষ্কার থাকে। মানে,ব্লগের loading speed ভালো হতে হবে এবং তার সাথে ব্লগ দেখতে যাতে অনেক পরিষ্কার (clean) আর স্পষ্ট থাকে। একটি ভালো এবং পরিষ্কার থিম ব্লগে অবশ্যই ব্যবহার করবেন।যা,আপনার সাইটকে এডসেন্স পাওয়ার ক্ষেত্রে হেল্প করবে।

4.কিছু গুরুত্বপূর্ণ পেজ সাইটে যুক্ত করুন


ব্লগ বা ওয়েবসাইটে এডসেন্স পাওয়ার জন্য কিছু অনেক জরুরি পেজ অবশ্যই থাকতে হবে। যেমন:

১. Privacy policy
২. Contact Us
৩. Disclaimer
৪. About Us

যদি এই পেজ গুলি ব্লগে বানানো থাকে,তাহলে যেকোনো ব্লগ বা ওয়েবসাইট দেখতে অনেক professional বা পেশাগত লাগে। তাই, জলদি এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়। নিচে এই পেজ গুলো সম্পর্কে বলা হলো:

১. Privacy policy:
অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভালের জন্য প্রাইভেসি পলিসি অবশ্যই লাগবে। এই পেজে আপনি লিখবেন কিভাবে আপনি ভিজিটরের তথ্য সংরক্ষণ করবেন। আপনি অন্য কোথাও ভিজিটরদের গোপন তথ্য প্রকাশ করবেন না এই মর্মে লিখবেন।

২.About us:
এই জায়গায় আপনি আপনাদের ওয়েবসাইট সম্পর্কে বিস্তারিত লিখবেন। অর্থাৎ আপনাদের ওয়েবসাইটে কি কি পাওয়া যাবে বা কি জন্য ওয়েবসাইটটি চালু করেছেন সে সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য থাকবে। আপনি চাইলে এখানে আপনাদের ঠিকানা উল্লেখ করতে পারেন।

৩. Disclaimer:
এটি অর্থাৎ Disclaimer আপনার সাইটের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ।এখানে আপনার সাইটের দাবি,অস্বীকৃতি বিষয় থাকে।এগুলো তৈরি করে নিবেন।

৪.Contact us:
একজন ভিজিটর আপনাদের সাথে কিভাবে যোগাযোগ করতে পারে সে সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে এই পেজে। যেমন: আপনার সাথে ইমেইল বা চিঠির মাধ্যমে কিভাবে যোগাযোগ করতে পারবে সে সংক্রান্ত তথ্য উল্লেখ করতে হবে।

5.দীর্ঘ ও কপি-পেস্ট মুক্ত আর্টিকেল :


আপনার সময় লাগলেও, ব্লগে লিখা প্রত্যেকটি আর্টিকেল যাতে মিনিমাম ৬০০ থেকে ১০০০ শব্দের ভেতরে হয় সেটা খেয়াল রাখতে হবে।নিজের লিখা অরিজিনাল (original) আর্টিকেল কমেও ৬০০ শব্দের ভেতরে থাকলে, এডসেন্স অনেক সহজেই আপনার ব্লগকে একটি high quality ব্লগ ভাববে। আর কোনোমতেই কপি-পেস্ট যুক্ত পোস্ট লিখবেন না। এতে, সহজেই এপ্রুভাল পেয়ে যাওয়ার সুযোগ অনেক বেশি।

6.কপিরাইট মুক্ত ইমেজ ব্যবহার করা:

মনে রাখবেন, নিজের ব্লগের আর্টিকেলে কোনো সময় গুগল থেকে যেকোনো ছবি (image) ডাউনলোড করে ব্যবহার করবেননা। Copyright images বা অন্যদের দেয়া ছবি ব্যবহার করলে সেগুলি আপনার নিজের কনটেন্ট বোঝায়না। তাই, এরকম ছবি ব্যবহার করলে এডসেন্সের থেকে অনুমোদন পাওয়াটা অনেক কঠিন।Pixabey এবং Pexels ব্যবহার করে আপনারা নিজের ব্লগের জন্য ভালো ভালো হাজার হাজার copyright free ছবি পেয়ে যাবেন।

7.কমপক্ষে ৫০ টি আর্টিকেল থাকা:


আপনি একটি খালি বা কিছুই কনটেন্ট না থাকা ব্লগ এডসেন্সের জন্য দিতে পারবেন না।আর, যদি দিয়েও থাকেন তাহলে এডসেন্স সেই ব্লগ কোনোদিন এপ্রুভ করবেনা।তাই, নিজের ব্লগে,এডসেন্সের জন্য এপলাই করার আগেই কমেও ৫০ টি ভালো ভালো আর্টিকেল লিখবেন। তাছাড়া, ব্লগে থাকা প্রত্যেক ক্যাটেগরিতে ৩-৫ টি করে আর্টিকেল থাকতে হবে। মনে রাখবেন, কোনো রকমের কপি করা কনটেন্ট ব্লগে থাকলে, adsense কিন্তু আপনার ব্লগ approve করবেনা। তাই, অরিজিনাল (original) এবং ভালো কোয়ালিটির কনটেন্ট লিখবেন। তাহলে, বন্ধুরা ওপরে আমি বলা নিশ্চয় গুলি ধ্যান দিয়ে এডসেন্সের জন্য এপলাই করলে, অনেক কম সময়ের ভেতরেই adsense আপনার ব্লগকে এপ্রুভ করে দিবে।

আশা করছি সবাই লেখাগুলো বুঝতে পেরেছেন।যেহেতু এটা আমার ১ম আর্টিকেল সেহেতু যদি আমার কোনো ভুল-ভ্রান্তি হয় তাহলে ক্ষমা করে দিবেন।আর যদি কোনো বিষয় বুঝতে না পারেন তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন।আমি খুব শীঘ্রই উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো।

তো বন্ধুরা, আজকে এ পর্যন্তই,সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন।আবারও কোনো এক সময় হাজির হয়ে যাব আপনাদের কাছে অন্যকিছু ট্রিকস-টিপস নিয়ে।

প্রিয় বন্ধুরা,যদি একটু সময় পান তাহলে আমার সাইটটা ভিজিট করে আসবেন।সেখানেও আপনারা নিত্য-নতুন টিপস ও ট্রিকস পাবেন।

AllTrickBD.XyZ – Share And Upgrade Your Knowledge

Contact me on Facebook

7 thoughts on "গুগল এডসেন্স পাওয়ার গাইডলাইন – কিছু অনুসরণীয় পদক্ষেপ"

  1. Md Saif Hasan Md Saif Hasan Author Post Creator says:
    Ki prbm apnar?
  2. Techoffer Techoffer Contributor says:
    Apnake message kora ji na fb te
    1. Md Saif Hasan Md Saif Hasan Author Post Creator says:
      Friend request dan.
    2. Techoffer Techoffer Contributor says:
      Dese check koren
      md zahid hasan name
  3. Md. Redowan Islam✓ Md. Redowan Islam✓ Contributor says:
    Gd. আমার প্রশ্নোত্তর সাইট: http://ganbn.com

Leave a Reply