অপরিচিত কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর নামঃ

বর্তমান সময়ে আমরা প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ বলতে যেগুলোকে বুঝি, সেগুলোর বাহিরেও আরও অনেক ল্যাংগুয়েজ রয়েছে যেগুলোর নাম হয়তো আপনারা কখনোই শোনেন নি আর কেনোইবা সেগুলো অন্যান্য জনপ্রিয় ল্যাংগুয়েজ গুলোর মতো পপুলার নয়, তাও জানেন না। বর্তমানে মডার্ন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ বলতে আপনারা সাধারণত পাইথন, জাভাস্ক্রিপ্ট, সি++, সি শার্প, জাভা, কটলিন, ডার্ট এসবকেই বুঝে থাকেন। তবে এগুলোর বাহিরেও আরও অনেক প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ আছে, যেগুলো বর্তমান সময়ে আর তেমন একটা ব্যবহার করা হয়না অথবা খুব কম প্রোজেক্টে ব্যাবহার করা হয়, তাই এগুলোর নাম আমরা অনেকেই এখনো জানিনা। আজকের আর্টিকেলে এমন কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি, যেগুলোর নাম হয়তো আপনি কখনোই শোনেননি। যাইহোক, আর কথা না বাড়িয়ে এভার সরাসরি মেইন পোস্টে ঢুকা যাক।

 

আগেই বলে রাখি, আজকের আর্টিকেলে প্রোগ্রামিং রিলেটেড বেশ কিছু টার্ম আছে যেগুলোর কয়েকটার ব্যাপারে আমি নিজেও তেমন ভালো জানি না।

 

Gravity

গ্র‍্যাভিটি হলো একটি MIT লাইসেন্সড ওপেন-সোর্স প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ যা মূলত তৈরি করা হয়েছিলো অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ডেভেলপমেন্ট এর উদ্দেশ্যে। অন্য সকল মডার্ন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর মতোন এটিতেও অ্যাডভান্সড প্রোগ্রামিং, যেমন অবজেক্ট অরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং এবং ফাংশনাল প্রোগ্রামিং এর সাপোর্ট আছে।

 

এর নেমিং কনভেনশন এবং সিনট্যাক্স সমূহ কিছুটা Swift ল্যাংগুয়েজ এর মতো, যা আইওএস ডেভেলপমেন্টের জন্য অ্যাপল এর তৈরি ন্যাটিভ ল্যাংগুয়েজ। আর এই ল্যাংগুয়েজ পাইথন এর মতই প্রত্যেকটি ভ্যারিয়েবল একেকটি অবজেক্ট। খুব সম্ববত এই ল্যাংগুয়েজটির জনপ্রিয়তা না পাওয়ার কারণ হচ্ছে Swift। কারণ Swift না থাকলে, Gravity নামের এই ল্যাংগুয়েজটি হয়তো অনেক বেশি পপুলারিটি লাভ করতো।

 

IMBA

গ্র‍্যাভিটির মতই ইম্বা নামের এই ল্যাংগুয়েজটি। এটিও একটি ওপেন-সোর্স প্রোজেক্ট। তবে ইম্বা ভাষাটি তৈরি করা হয়েছিলো ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট এর উদ্দেশ্যে নিয়ে। আপনি জানলে হয়তো অবাক হবেন, অধিকাংশ জাভাস্ক্রিপ্ট ফ্রেমওয়ার্কগুলো, যেমন- রিয়্যাক্ট এবং ভিউজেএস এর মতো ইম্বা ল্যাংগুয়েজটিও নিজেদের ভার্চুয়াল ডম আছে এবং ক্লেইম করা হয় যে, ইম্বা ল্যাংগুয়েজএ র ভার্চুয়াল ডম রিয়্যাক্ট এবং ভিউজেএস এর থেকে প্রায় ২০ গুন বেশি ফাস্ট।

 

তবে রুবি এবং পাইথন এর মতই Imba দিয়ে তৈরি ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন বিল্ড টাইমে জাভাস্ক্রিপ্ট এর মধ্যে কম্পাইল হয়ে যায়। তবে এটি কফিস্ক্রিপ্ট এর মতো জাস্ট জাভাস্ক্রিপ্ট এর আরেকটি সাবসেট কিংবা সুপারসেট নয়। এটির সিনট্যাক্স এবং নেমিং কনভেনশন সবকিছু অনেকটাই পাইথন এর মতো। আর এই ল্যাংগুয়েজটি অনেকটা বিগেনার ফ্রেন্ডলি। যদিও ওয়েব ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রে ইম্বা ল্যাংগুয়েজটি এখন একদমই ব্যাবহার করা হয়না, তবে আপনি চাইলে আপনার পার্সোনাল প্রোজেক্টে এটি ব্যবহার করতে পারেন। এমন না যে এই ল্যাংগুয়েজটির প্রোডাকশন রেডি নয়। আপনি চাইলে অনলাইন লার্নিং প্লাটফর্ম Scrimba থেকে ভিডিও টিউটোরিয়াল এর হেল্প নিয়ে এই ল্যাংগুয়েজটি লার্ণ করতে পারবেন।

 

Vyper

প্রথমে নাম শুনে এটিকে বিষাক্ত কোনও সাপ মনে হতে পারে তবে এটিও আসলে আরেকটি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ। এ ব্যাপারে বলতে গেলে অবশ্য পাইথনের নাম শুনেও এটিকে বিষাক্ত সাপ মনে হওয়ার কথা। যাহোক, ভাইপার নাম এর এই ল্যাংগুয়েজটির টার্গেট হচ্ছে EVM (Ethereum Virtual Machine)। যেমনটা আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন যে, ইথিরিয়াম হচ্ছে বিটকয়েনের মতোই একটি পপুলার ক্রিপটোকারেন্সি। ইথিরিয়ামে মূলত যেই প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ ব্যবহার করা হয়েছে, তার নেম হলো Solidity।

 

✔ এটির কিছু সিকিউরিটি ইস্যু আর ব্যাড সিকিউরিটি প্র্যাকটিস fix করার উদ্দেশ্যেই ভাইপার নামের নতুন এই ল্যাংগুয়েজটিকে ক্রিয়েট করা হয়েছে। এই ল্যাংগুয়েজটি মূলত পাইথনের ওপরে বেইজ করা তৈরি করা হয়েছে, যেমন পাইথন ল্যাংগুয়েজটি প্রোগ্রাম করা হয়েছে C ব্যাবহার করে। আর সত্যি কথা বলতে, ক্রিপটোকারেন্সি এবং ব্লকচেইন এর বাইরে রিয়াল ওয়ার্ল্ড প্রোগ্রাম বা অ্যাপলিকেশন তৈরি করতে এই ল্যাংগুয়েজটির কোন কাজই নেই। তবে আপনি যদি ক্রিপটোকারেন্সি এবং ব্লকচেইন ইনফ্রাসট্রাকচার শিখতে চান, তাহলে হয়তোবা আপনার এই ভাইপার ভাষা শেখার দরকার হতে পারে।

 

Morfa

প্রধানত D নামের ওপেন-সোর্স ল্যাঙ্গুয়েজ এর ওপরে বেইজ করা তৈরি করা একটি পাওয়ারফুল প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর নাম হচ্ছে Morfa। এটিও পাইথন এবং জাভাস্ক্রিপ্টের মত হাই লেভেল কোনো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নয়। বরং এটিকে জাভা, সি, সি++ এবং সি শার্পের মতো ল্যাংগুয়েজগুলোর অলটার্নেটিভ হিসেবে ইউজ করা যাবে। এটিতেও মডার্ন সকল প্রোগ্রামিং ফিচার্স, যেমন- অবজেক্ট অরিয়েন্টেড এবং ফাংশনাল প্রোগ্রামিং এর সুবিধা রয়েছে। শুধু তাই-ই নয়, এটির একটি নিজস্ব REPL আছে, যার মাধ্যমে এই ল্যাংগুয়েজটি এবং এর সকল ডিপেন্ডেন্সি ইন্সটল না করেও আপনি চাইলে এই ল্যাংগুয়েজটি টেস্ট করতে পারবেন।

 

Morfa এর মধ্যে কিছু বিশেষ ল্যাংগুয়েজ ফিচার্স আছে, যার মাধ্যমে আপনি DSL (Domain Specific Language) তৈরি করতে পারবেন। অপারেটর ওভারলোডিং, ইউজার-ডিফাইনড অপারেটর, হায়ার অর্ডার ফাংশনস এই ধরনের অ্যাডভান্সড প্রোগ্রামিং কনসেপ্ট এবং ফিচার্সও আছে এই ল্যাঙ্গুয়েজটিতে। এই ল্যাঙ্গুয়েজে আপনি অনেকটা ম্যাট্রিক্স এর মতো সিনট্যাক্সে কোড রাইট করতে পারবেন। আর, বেঞ্চমার্ক রেজাল্ট অনুযায়ী Morfa কোডের পার্ফোমেন্স সি++ এবং সি এর সাথে পাল্লা দেয়ার মতো।

 

COBOL

আপনি জানলে হয়তো অবাক হবেন এই ভেবে যে, এটিও বর্তমানে পাইথন এবং জাভাস্ক্রিপ্ট এর মতই অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। কিভাবে? আমরা তো কখনোই এটার নাম শুনি না,তাইনা? এই হিউজ পাওয়ারফুল প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজটির নাম না শোনার রিজন হচ্ছে, এটি আমরা সচরাচর সাধারণ যেসব প্রোজেক্ট নিয়ে কাজ করি, সেগুলোর জন্য নয়। এটি কোন অ্যান্ড্রয়েড বা আইওএস কিংবা উইন্ডোজ অ্যাপ বা ওয়েব অ্যাপ ডেভেলপ করার ল্যাঙ্গুয়েজও নয়। এটি আসলে একটি বিজনেস অরিয়েন্টেড ল্যাঙ্গুয়েজ। সাধারনত সুপার কম্পিউটার এবং প্রতি সেকেন্ডে অনেক লার্জ স্কেল ডাটা নিয়ে যেসব কাজ করা হয় যেসব সিস্টেম গুলোতে এটির ব্যবহার হয়।

 

যেমন ধরুন, IBM এর সুপার কম্পিউটার গুলোতে যেসব সেন্সিটিভ ডাটা ক্যালকুলেশন করা হয়, কিংবা প্রতি সেকেন্ড এ একেবারে নিখুঁতভাবে যেসব ক্যালকুলেশন করার দরকার পড়ে (যেমন- ব্যাংকিং বা ক্রেডিট কার্ড ট্রাঞ্জেকশন কিংবা টিকেটিং সিস্টেম) সেগুলোতে ইউজ করা হয় COBOL। আপনি জানলে অবাক হবেন যে, চোবোল নামের এই ল্যাঙ্গুয়েজটি আজ থেকে প্রায় ১০০ বছর আগে ডেভেলপ করা হয়েছিলো এবং এটি এখনও পর্যন্ত অধিকাংশ সুপার কম্পিউটার এবং ব্যাংকিং সেক্টরে COBOL প্রধান ভাবে ইউজ করা হচ্ছে এবং প্রতিদিনই নতুন নতুন COBOL ডেভেলপার হায়ার করা হচ্ছে।

 

এতকিছু শোনার পরে আপনি হয়তো ভাবছেন যে COBOL হয়তো সি++এর মতো খুবই হার্ড-টু-লার্ন একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ? কিন্তু না মোটেই ব্যাপারটি এমন নয়হ। যদি অন্যান্য মডার্ন ল্যাংগুয়েজ এর সাথে তুলনা করেন, তাহলে COBOL খুবই ইজি-টু-লার্ন একটি ভাষা। এটির সিনট্যাক্স প্রায় পাইথন এর মতো ক্লোজ টু ইংলিশ। ল্যাংগুয়েজটা অনেকটাই ইম্পারেটিভ, অর্থাৎ সাধারণ ভাবে কমান্ড দিয়ে দিয়ে কাজ করার মতো। যদি আপনার সিকিউরিটি, ব্যাক-এন্ড এবং মেইনলি সিস্টেমলেভেলের প্রোগ্রামিং নিয়ে ইন্টারেস্ট থাকে, তাহলে অবশ্য COBOL শিখার ট্রাই করতে পারেন।

 

★আজকের পোস্টে যে সকল প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর নাম বললাম কিংবা যারা বিগেনার তাদের হয়তো টেস্টিং পারপাজে প্রায়ই দরকার পরে ভিভিন্ন সাইট হোস্ট করার। এসকল ক্ষেত্রে টাকা দিয়ে অনেকেই হোস্টিং কিনতে পারেন না কিংবা ফ্রি হোস্টিং এ অনেক ঝামেলার সম্মুখীন হয়ে থাকেন?

তাদের জন্যে আমি খোঁজ নিয়ে এসেছি HostingNei এর। আপনি এই সাইট থেকে খুবই কম মূল্যে হোস্টিং পাবেন।

আপনি টেস্টিং পারপাজে নিবেন আর এরপর প্যাকেজ আপগ্রেড করে নিবেন আর এভাবে হোস্টিংনেই সাইট থেকে আপনারা কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন।

 

|| কে কোন ভাষা শিখছেন আর হোস্টিং সার্ভিস কেমন তা জানাতে ভুলবেন না😊

সকলকে ধন্যবাদ।

4 thoughts on "অপরিচিত কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর নাম [ ফ্রি ডিস্ক স্পেস/হোস্টিং]"

  1. Shahriar Ahmed Shovon Shahriar Ahmed Shovon Author says:
    অসাধারণ লিখেছেন নাজমুল ভাই। এক গাদা অস্বাস্থ্যকর আর্টিকেল এর ভিড়ে এরকম কন্টেন্ট দেখলে মন ভালো হয়ে যায়। আশা করি এভাবেই লিখে যাবেন।


    1. Najmul Najmul Author Post Creator says:
      dhonnobad vai
  2. Cyber mad Cyber mad Contributor says:
    আপনার কাছে বাংলা typography ফ্রন্ট পাওয়া যাবে ।
    দিলে উপকার হয় ।🥰🥰
    1. Najmul Najmul Author Post Creator says:
      nei vai..ekhon

Leave a Reply