আসসালামু আলাইকুম রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। Tense টেন্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ পড়ালেখার জন্য। টেন্স সাধারণত ক্লাস সিক্স থেকে শুরু করে, পরবর্তী ক্লাসে খুবই দরকারি হয়ে থাকে। টেন্স ছাড়া কোন গ্রামার প্রায় অসম্ভব। বাংলাতে আমরা টেন্স আছে জানি যেটা অবশ্যই প্রয়োজনীয়। তবে ইংরেজি নিয়েই যত সব আমরা দুর্বল হয়ে থাকি অনেকে। তাই আজকে আমরা ইংলিশ গ্রামারের টেন্স নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। গ্রামারের Tense গুরুত্বপূর্ণ অন্যান্য গ্রামার জানার জন্য। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমরা টেন্স সম্পর্কে বেশিরভাগ লোকই জানি, তবে যারা এই বিষয়ে দুর্বল তাদের জন্য আজকে আমরা খুবই সংক্ষিপ্ত এবং ভালোভাবে বোঝানোর চেষ্টা করব। টেন্স কি? টেন্স কিভাবে করতে হয়? (বিস্তারিত) যদিও টেন্স সম্পর্কে বিস্তারিত বলা অনেক শ্রম এর ব্যাপার এমনকি আর্টিকেলটি অনেক বড় হতে পারে।

(Tense) টেন্স কিঃ টেন্স শব্দের অর্থ ভার্ব বা ক্রিয়া। ইংরেজিতে যেমন টেন্স রয়েছে তেমনি ভাবে বাংলাতেও টেন্স রয়েছে। তবে বাংলা এবং ইংরেজি টেন্স এক রকম নয়। কিছুটা ক্ষেত্রে হলেও আমরা ভিন্নতা পেয়ে থাকি। টেন্স এর প্রকারভেদ বাংলাতে অন্যরকম এবং ইংরেজিতে আলাদা।

(Tense) টেন্স কাকে বলে?

টেন্স শব্দের অর্থ ক্রিয়া বা কাজ। ক্রিয়া এর কোন কাজ সম্পন্ন হওয়ার সময়কে সাধারণত টেন্স বলা হয়। টেন্স কে আবার তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। আমরা কিন্তু ইংলিশ টেন্স নিয়ে আলোচনা করছি যেটা অবশ্যই মনে রাখা দরকার।

Tense তিন প্রকার তা নিচে দেওয়া হলঃ

1. Present Tense.

2. Past Tense.

3. Future Tense.

গ্রামারে আমরা যখন টেন্স সম্পর্কে নলেজ অর্জন করতে যাব তখন, আমাদের অবশ্যই এই তিনটি টেন্স সম্পর্কে নলেজ থাকা জরুরি। প্রেজেন্ট টেন্স পাস্ট টেন্স এবং ফিউচার টেন্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই চলুন এখন আমরা এই তিনটি টেন্স সম্পর্কে অর্থাৎ এই তিনটি টেন্স কাকে বলে এই বিষয়ে একটু ধারনা নিয়ে আসি।

1.
Present tense কাকে বলেঃ প্রেজেন্ট টেন্স সাধারণত বর্তমানকাল কে বোঝানো হয়। অর্থাৎ প্রেজেন্ট টেন্স অর্থ হলো বর্তমান কাল। ক্রিয়ার কাজ যখন বর্তমান সময়কে সাধারণত নির্দেশ করে তখন তাকে present tense বলা হয়ে থাকে।

2.
Past tense কাকে বলেঃ পাস্ট টেন্স সাধারণত অতীতকাল কে বোজানো হয়। অর্থাৎ পাস্ট টেন্স অর্থ হলো অতীত কাল। ক্রিয়ার কাল যখন অতীত সময় কে নির্দেশ করে তাকে পাস্ট টেন্স বলা হয়ে থাকে।

3.
Future tense কাকে বলেঃ ফিউচার টেন্স সাধারণত ভবিষ্যৎ কাল কে বোঝানো হয়। অর্থাৎ ফিউচার টেন্স অর্থ হল ভবিষ্যৎ কাল। ক্রিয়ার কাল যখন ভবিষ্যৎ সময়কে নির্দেশ করে তখন তাকে ফিউচার টেন্স বলা হয়ে থাকে।

বন্ধুরা, Tense এই তিন প্রকার সাধারণত চার ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। অর্থাৎ এই ফিউচার টেন্স আবার চার প্রকার। আবার পাস্ট টেন্স চার প্রকার। অন্যদিকে প্রেজেন্ট টেন্সও চার প্রকার। এখন আমরা যদি এই চার প্রকার সহ উপরোক্ত বিষয় নিয়ে বিস্তারিত নলেজ অর্জন করতে পারি। তাহলে আমরা টেন্স এর এ টু জেড নিঃসন্দেহে বলতে পারব। তো এখন চলুন আমরা, এই তিনটি টেন্স চারটি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে কি কি? এই বিষয় নিয়ে একটু আলোচনা করি ও বিস্তারিত জানি।

Present tense সাধারণত চার ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। যেমনঃ

1. simple present/ present indefinite tense.

2. Present Continuous tense.

3. Present Perfect tense.

4. Present Perfect continuous tense.

Future tense সাধারণত চার ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। যেমনঃ

1. Simple past/ past indefinite tense.

2. Past Continuous tense.

3. Past perfect tense.

4. Past perfect continuous tense.

Past tense সাধারণত চার ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। যেমনঃ

1. Simple future/ future indefinite tense.

2. Future continuous tense.

3. Future perfect tense.

4. Future perfect continuous tense.

তো বন্ধুরা, আপনারা উপরোক্ত Tense এর তিন প্রকারের চারটি বিভক্ত গুলো ভালোভাবে বুঝে শুনে বোঝা ও জানার চেষ্টা করুন। প্রয়োজনে আর্টিকেলটি আপনারা স্ক্রিনশট দিয়ে রেখে দিতে পারেন। সুন্দরভাবে আপনারা আজকে tense-এর এই প্রকারভেদ গুলো ও বিভক্ত গুলো ভালোভাবে পড়ার চেষ্টা করুন। টেন্স শেষ করার জন্য আরেকটু মাত্র বাকি রয়েছে, তবে আমি চাচ্ছি একদিনে সকল বিষয়ে না দেওয়ার জন্য। যারা একেবারে নতুন তাদের জন্য আজকে এতোটুকুই পড়ার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে বা শেখার জন্য অনুরোধ করা হলো।

আপনারা প্যাকটিকালে এগুলো নিজের মত করে খাতায় লিখে মুখস্ত করতে পারেন। আরেকটু যেটুকু সম্পর্কে আমি পরবর্তীতে আপনাদের জন্য পোস্ট তৈরী করবো আরেকটি। সেখানে একটু কঠিন রয়েছে বুঝতে অসুবিধা হতে পারে বিধায় সেটুকু দিচ্ছে না। আজকে শুধু এটুকু মুখস্ত করুন যেন, সম্পূর্ণ টেন্স গুলো দেখে আপনার পড়ার ইচ্ছা না থাকে বা আপনি পড়তে চাইবেন না। কিংবা আপনার কঠিন মনে হওয়ার কারণে বাকিটুকু আমরা পরবর্তী আর্টিকেলে ধরার চেষ্টা করব।

মাত্র কিছু অংশ বাকি রয়েছে টেন্স টি শেষ করার জন্য। বাকি অংশটুকু এবং আজকের এই অংশটুকু আপনারা ভালোভাবে মুখস্ত করে রাখতে পারলেই, যেকোনো ধরনের টেন্স আপনি সহজে বলতে পারবেন। বাকি অংশটুকু আমরা আগামীতে ট্রিকবিডিতে পাবলিশ করার চেষ্টা করব। আশা করি যারা ইংলিশে দুর্বল তারা নিঃসন্দেহে আমাদের কাছে, যেকোনো ধরনের হেল্প সম্পর্কে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন। আমরা অবশ্যই আপনাদেরকে ইংলিশ দুর্বল থেকে সঠিক বানানোর চেষ্টায় আগ্রহী। আর্টিকেলটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ।

5 thoughts on "English Tense নিয়ে যারা দুর্বল !"

  1. Ridoy ahmed shahin Contributor says:
    ধন্যবাদ প্রিয় ভাই
    শিক্ষামূলক পোস্ট করার জন্য
    1. Md Mahamudul Hasan Author Post Creator says:
      Okay
    1. Md Mahamudul Hasan Author Post Creator says:
      Welcome
  2. Tense মানে ক্রিয়া? তাহলে verb মানে কি ভাই??

Leave a Reply