সালাম ও শুভেচ্ছা দিয়ে শুরু করলাম,
আশা করি সবাই ভাল আছেন ৷ বর্তমান
ডিজিটাল জগতে শতকরা আশি ভাগ মানুষই
আমরা সামাজিক যোগাযোগের সাইট
ফেসবুকের সাথে জড়িত ৷ আমাদের
প্রতিদিনের সুখ-দুঃখ-আনন্দ-বেদনা সহ
সকল প্রকার ব্যক্তিগত -পারিবারিক তথ্য
আমরা ফেসবুকে শেয়ার করি ৷ সেই
ব্যক্তিগত তথ্যবহুল শখের ফেসবুক
অ্যাকাউন্টটি যদি হ্যাক
বা অনাকাঙ্খিত অন্য কারও
দখলে চলে যায় ৷ তাহলে তা যে কত
অসস্তিকর তা একমাত্র সেই
জানে যে সেই পরিস্থিতির সম্মুখীন
হয়েছে ৷ তাই আজ আপনাদের সাথে কিছু
টিপস শেয়ার করবো যাতে করে কখনও
সেই ভয়াবহ পরিস্থিতির স্বীকার
না হতে হয় ৷
®# ফেসবুক
আইডিতে ব্যবহার করা ইমেইলের
এবং ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড ভিন্ন
রাখতে হবে।
হ্যাকাররা হ্যাকের পরই প্রথম লক্ষ
থাকে ই-মেইল এড্রেসটা বদলে ফেলার ।
আর কোনোক্রমে ই-মেইল
এড্রেসটি বদলে ফেলতে পারলে হ্যাকিং হওয়া ফেসবুক
অ্যাকাউন্টটি পুনরুদ্ধার করা খুবই কঠিন
হয়ে যায়। কারণ হ্যাকিং হওয়ার পর
অ্যাকাউন্টটি পুনরুদ্ধার করার একমাত্র
উপায় হলো ই-মেইল এড্রেস ।
®# ফেসবুকের কোথাও পাসওয়ার্ড
দেয়ার প্রয়োজন হলে প্রথমেই লক্ষ
রাখতে হবে ওয়েব এড্রেসটি মূল
ফেসবুকের এড্রেস কী না । অনেক সময়
কাছাকছি এড্রেসের এবং দেখতে সম্পূর্ণ

ফেসবুকের ওয়েব সাইটের
মতো সাইটগুলোতে পাসওয়ার্ড দিলেই
সাইটটি হ্যাক হয়ে যায়।
facebook .com- এর
পরিবর্তে যদি facebookie .com,
facabook .com ইত্যাদি রকম
দেখা যায় তবে কখনোই ইউজার নেম
এবং পাসওয়ার্ড না দেয়া।
®# পাবলিক কম্পিউটারে বসলে কাজের
শেষে অবশ্যই লগআউট
করতে হবে এবং পাবলিক
কম্পিউটারে কখনোই পাসওয়ার্ড
রিমেম্বার দেয়া যাবে না।
®# কখনও কোথাও
থেকে আসা Facebook Password
Reset Confirmation এ রকম ই-
মেইলে পাসওয়ার্ড রিসেটে ক্লিক
করা যাবে না।
®# পাবলিক কম্পিউটারে বসলে কাজ
শেষে অবশ্যই cache এবং cookies
ডিলেট করতে হবে।
®# মেইলে আসা সফটওয়্যার
না বুঝে সেট আপ দেয়া ঠিক না। অনেক
সময় দেখা যায়,ফাইলটি দেখতে ভিডিও
বা অডিও ফাইল মনে হচ্ছে কিন্তু
আসলে এটি একটি সেট আপ ফাইল,
যেটি সেটআপ দিলেই কম্পিউটারের সকল
পাসওয়ার্ড চলে যাবে দূর্বৃত্তদের কাছে।
®# হ্যাকার যদি ফিশিং বা অন্য
কোনো উপায়ে আপনার পাসওয়ার্ড জেনেও
যায় তাহলেও সে আপনার আইডির
কোনো ক্ষতিই করতে পারবে না। এর জন্য
প্রথমেই যা করতে হবে তা হল
যদি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আপনার
মোবাইল নাম্বার
দেওয়া না থাকে তবে তা দিন। এবার
আপনার account settings এ যান।
সেখানে Account Security এর
পাশে লিখা change অপশনে ক্লিক
করুন। এবার Login Notifications এর
নিচে লিখা Send me a text
message সিলেক্ট করুন।
এতে করে যদি আপনার সব সময় ব্যবহার
করা ডিভাইস (যেমন
আপনার নিজের কম্পিউটার, মোবাইল)
ছাড়া অন্য কোনো ডিভাইস থেকে লগইন
করা হয় তবে সাথে সাথে আপনার
মোবাইলে বার্তা যাবে। এরপর Login
Approvals এর নিচে লিখা Require
me to enter a security code
sent to my phone সিলেক্ট করুন।
এতে করে যদি আপনার সবসময় ব্যবহার
করা নিজের ডিভাইস ছাড়া অন্য
কোনো ডিভাইস থেকে লগইন করার
চেষ্টা করা হয় তবে ফেসবুক একটি কোড
চাইবে যা আপনার মোবাইলে মেসেজ
করে পাঠানো হবে।
কোডটি ছাড়া কোনভাবেই লগইন
করা সম্ভব হবে না।
আপনার সাথে সবসময় মোবাইল নাও
থাকতে পারে, এজন্য কিছু কোড অগ্রিমও
নিয়ে রাখতে পারবেন ৷
আশাকরি এই
পদক্ষেপ গুলো অনুসরণ
করলে আপনি আপনার ফেসবুক
আইডি নিরাপদে ব্যবহার করতে পারবেন ।

ভাল ভাল টিপস পেতে আমার সাইটে ঘুরে আসবেন 3GTune.Com

ফেসবুকে আমি

2 thoughts on "ফেসবুক আইডি– হ্যাক হওয়া থেকে বাচার উপায় ।"

  1. md bishal md mamuon Author says:
    nice


Leave a Reply