Image
নিজের বানানো ফেসবুকের পেজটি
পপুলার হবে, অনেক লাইক পড়বে, অনেক
অনেক কমেন্ট আর শেয়ারও থাকবে
এইটা কে না চায়? যারা চান না
তারা চলে যান। আর যারা চান
তাদের স্বপ্নপূরণ করার জন্যই আমার এই
আয়োজন।
১ম ধাপ – বেসিক লেভেলঃ
ফেসবুক কি সেটা আগে জেনে নিন।
ফেসবুককে স্কুলের কোন বুক ভেবে
পালিয়ে যাবার কোন প্রয়োজন নেই।
এই বুক সেই বুক নয়, তাই বলে আবার অন্য
কোন(!) বুক ভেবে নিয়েননা। যদিও
আপনার প্রাতিষ্ঠানিক অথবা মানসিক
কোন শিক্ষারই প্রয়োজন হবেনা
এখানে। প্রথমে ফেসবুক কি এবং কেন
তা জেনে নিন। এটা নিজে করতে না
পারলে কোন সাইবার ক্যাফেতে
যোগাযোগ করুন।
পেজের এডমিন হতে গেলে আপনার
একটি ফেসবুক প্রোফাইল থাকতে হবে
(ফেইক হলেও চলবে)। যদি তা না
থাকে তবে বানিয়ে নিন এখান
থেকে । চেষ্টা করুন প্রচুর ফ্রেন্ড
রিকুয়েষ্ট পাঠিয়ে বন্ধুর সংখ্যা
বাড়িয়ে নেওয়ার। নিজে না পারলে
বন্ধুর সাহায্য নিন। বন্ধু না থাকলে
দলীয় লোকের সাহায্য নিতে পারেন।
কোনটাই না পারলে গুগুল করুন। গুগুল
কিভাবে করতে হয় জানার জন্য এই
লিঙ্কে যান। এইখানে যেতে না
পারলে দূর হয়ে যান।
২য় ধাপ – এ্যামেচার লেভেলঃ
পেজ ক্রিয়েট করুন। অবশ্যই
এন্টারটেইনমেন্ট পেজ সিলেক্ট করুন।
নামের ক্ষেত্রে সার্বজনীনতা মেনে
চলুন। সকল মতের অনুসারীদের জন্য যেন এই
নাম প্রযোজ্য হয়। যেমনঃ ‘আই লাভ
বাংলাদেশ’, ‘বাংলাদেশের হৃদয়
হতে’ অথবা ‘নীতির প্রশ্নে আপোষহীন’
বা ‘ভাঙ্গবো আমরা গড়ব দেশ’ এইরকম
কিছু। নামের মাধ্যমে যেন নিরপেক্ষ
দৃষ্টিভঙ্গি ফুটে উঠে এ ব্যাপারে
সচেতন হউন (পরে অনেক লাইক এসে
গেলে নাম চেঞ্জ করা সম্ভব, তবে
নিরপেক্ষ ভান ধরে থেকে মতবাদ
প্রচার করার পেজ ব্যাবসাটাই আধুনিক
সিষ্টেম) ।
লক্ষ্য করুনঃ উপরের দুইটি ধাপ সম্পন্ন না
করে পরের ধাপে যাওয়ার কোন
প্রয়োজন নেই। বুঝতে না পেরে
থাকলে কয়েকবার পড়ুন। তারপরও না
বুঝতে পারলে আমাকে গুলি করুন,
চাপাতি চার্জও করতে পারেন।
৩য় ধাপ – এ্যাডভান্সড লেভেলঃ
এই ধাপে যেহেতু এসে পড়েছেন, তাই
এখন সময় হয়েছে কিছু কথা সরাসরি
বলার। আপনি আওয়ামী,
জাতীয়তাবাদী, জামাতী, ছাগু, হাগু,
হিজু, ভাদা, পাদা, আদা, আস্তিক,
নাস্তিক, জেহাদী ইত্যাদি ইত্যাদি
যাই হোন না কেনো, পেজ চালানোর
সময় সেটা সাইডে রাখেন, যদি তা না
পারেন তাহলে সরেন, এই কাজ আপনার
জন্য না। এর মানে এই না যে আপনি
যুদ্ধাপরাধী আপনাকে মুক্তিযোদ্ধা
হতে হবে(ছিঃ ছিঃ), এর মানে হল
পেজ চালানোর জন্য আপনাকে বহুরূপী
হতে হবে, ছিনাথ বহুরূপীর গল্প শুনেছেন
তো? না শুনে থাকলে আমাকে
জানান, পরে শোনাব একদিন। এই বহুরূপী
মুখোশই আপনাকে সকল সিডর থেকে
রক্ষা করবে। একটা কথা মনে রাখবেন,
আপনি যদি বিভিন্ন ধরনের মানুষ
যোগাড় করে একটা পিটাপিটি না
বাঁধাতে পারেন তাহলে আপনি
এডমিন হিসেবে সফল নন, পেজের
অবস্থাও তথৈবচ।
পেজ চালানোর জন্য দুইটি নিয়ম মাথায়
রাখা জরুরীঃ
নিয়ম ১ – পোষ্ট দিন
নিয়ম ২ – ‘নিয়ম ১’ পালন করুন।
এই ধাপটি যদি আপনি মেনে
স্বজ্ঞানে মেনে নিয়ে থাকেন
তাহলে পরের ধাপে যেতে পারেন।
না মেনে পরের ধাপে গিয়ে যদি
কোন সমস্যায় পড়েন তাহলে আই টেক
নো রেসপন্সিবিলিটি, ইউ আর অন ইউর
ওউন।
৪র্থ ধাপ – প্রফেশনাল লেভেলঃ
এই লেভেলে আমরা এ্যাকশনে যাব।
নিয়ম মনে আছে তো? চলুন পোষ্ট দেই।
ছবি পোষ্ট করবেন এবং তার সাথে
লেখা দেবেন। এইখানে একটা বড়
ব্যাপার আছে, যে ছবিগুলা পোষ্ট
করবেন সেইগুলা ফটোশপে এডিট করে
অবশ্যই তার উপরে আপনার পেজের
হাইপারলিঙ্ক যুক্ত করে দেবেন, যেন
সেইগুলা অন্য কেউ বা কোন পেজ পোষ্ট
করলে যেন আপনার পেজের
এ্যাডভার্টাইজমেন্টটা হয়ে যায়।
নিজে করতে না পারলে অভিজ্ঞ
কারও সাহায্য নিন।
কেমন পোষ্ট দেবেন আর কি লিখবেন
সেইটা ডিটেইল দেখুনঃ
মুক্তিযুদ্ধ পোষ্টঃ আপনি নিশ্চই বুঝেন
যে কিছু পিচ্চি পোলাপাইনদের
কারণে মুক্তিযুদ্ধকে অস্বীকার করে
বাংলাদেশে টিকে থাকা একটু
কষ্টকর। তাই মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ছবি পোষ্ট
করুন। পোষ্টে আবেগী কিছু কথা লিখুন,
সত্য কি মিথ্যা সেইটা জানার দরকার
নাই। পোষ্ট করার কিছু না পেলে
ফেসবুকে বা ব্লগ ঘোরাঘুরি করুন।
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক পোষ্ট দেবার সময়
নিরপেক্ষ ভাব নিন। মাঝে মাঝে সময়
বুঝে যুদ্ধাপরাধীদের আলতো কিছু
গালিও দিতে পারেন, যেমন বিচার শুরু
হয়েছে – হালকা হেয় করুন, ব্যাস!
খেলা পোষ্টঃ বিভিন্ন খেলা নিয়ে
পোষ্ট দিন। যেমনঃ বাংলাদেশ
পাকিস্থান ক্রিকেট। এটা নিয়ে
একটা পোল টাইপ করুন। একপাশে
বাংলাদেশ আর একপাশে
পাকিস্তানের পতাকা দিয়ে একটা
ছবি বানান। তারপরে লিখুন – আজকের
খেলায় কে জিতবে?
বাংলাদেশ=লাইক,
পাকিস্তান=কমেন্ট। আপনার পেজকে
আর ঠেকায় কে!
খাবার পোষ্টঃ মাঝে মাঝেই
পরীক্ষা পাশ, ঈদ, জন্মদিন ইত্যাদি
উপলক্ষ্যে মিষ্টি, পায়েশ, বিরিয়ানী
ইত্যাদি খাবারের ছবি পোষ্ট করুন।
যারা যারা খেতে চান লাইন দিয়ে
জানান – এমন কিছু কথা লিখুন। লিচু,
আম, কাঁঠাল এইসবের ছবি দিয়েও লাইক
চাইতে পারেন।
সেলিব্রেটি পোষ্টঃ বিভিন্ন
সেলিব্রেটির পেছনে লাগুন। কার
সংসার ভাঙ্গল, কার পরকীয়া আছে
এইসব খোঁজ করুন। তারপর ঝোপ বুঝে কোপ
মারুন। সত্য-মিথ্যা মিশিয়ে কিছু
লিখে দিন, তিলকে তাল করুন। সুবেহ
সাদেক মন দিয়ে পড়ুন, তারা এইসব খবর
যত্নসহকারে কাভার করে।
সেলিব্রেটির তালিকায় এখন শীর্ষে
সাকিব, কারণ তার সাথে দেশের
একটা স্বার্থ আছে, তাই বেশী মানুষ
বিভ্রান্ত হয়। লিখুন – আমাদের গর্ব
সাকিবের জন্য কয়টি লাইক? অথবা
সাকিব আর আফ্রিদির ছবি জুড়ে দিয়ে
আগের মত পোল করুন। কোন নতুন মডেল
আসল নজর রাখুন, তার জন্য কয়টি লাইক
আশা করা যায় এই টাইপ পোষ্ট করুন। সুন্দর
কাপলের জন্য কয়টি লাইক অথবা অমুক
এবং তার ছেলে-মেয়ের জন্য কয়টি
লাইক টাইপেরও পোষ্ট দিন।
লুল পোষ্টঃ লুল চিনেন তো? না
চিনলে চিনে নিন। তারপর লুল পোষ্ট
দিন। নিজেও লুল ফেলুন, অন্যকেও
ফেলতে সাহায্য করুন। কোন মেয়ের
ছবি পেলে সেটা নিয়ে একটা অশ্লীল
গল্প বানান এবং পোষ্ট করুন। ভাল গল্প
না বানাতে পারলে চটির সাহায্য
নিন। ডিরেক্ট কপি করবেন না, কারণ
আপনার এই পোষ্টের পাঠকসমাজের
এইগুলা আগেই পড়ে হয়ে গেছে। তাই
নতুন কিছু সৃষ্টি করুন। মনে রাখবেন, পোষ্ট
যত বেশী লুলযুক্ত হবে, তত বেশী লাইক-
কমেন্ট পাবেন। একান্ত যদি না পারেন
তাহলে অন্য কোন ওড়না পেজ থেকে
কপি করুন, অবশ্যই সূত্র উল্লেখ না করে।

বিঃদ্রঃ এই ধরণের পোষ্ট দেওয়ার সময়
নিজের মা-বোন যে আছে এইটা ভুলে
যান। না থাকলে আরও ভাল, ভোলার
দরকার হবে না। একটি বেসিক উদাহরণ
খেয়াল করুনঃ যেকোন নায়িকার ছবি
দিন, লিখুন ‘১টি লাইক = ১টি কিস’। বিল
গেইটসের মেয়েকে বিয়ে করতে
চাইলে লাইক দিন – এমন পোষ্টও দিতে
পারেন, বিল গেইটসের মেয়ে বলে অন্য
কোন নায়িকার ছবি চালিয়ে দিন,
আপনার অডিয়েন্স ধরতে পারবে না
নিশ্চিত থাকুন।
ধর্ম পোষ্টঃ ধর্ম প্রমোট করার পোষ্ট
দিন। প্রতি শুক্রবার এই পোষ্ট দেওয়া
বাধ্যতামূলক। অন্য সময়ে যা ইচ্ছে করুন
কিন্তু দুপুরের আগে আগে ‘চলুন সবাই
নামাজ পড়ে আসি’ টাইপ পোষ্ট দিন। এই
পোষ্টে লাইকের কথাটা না বলাই
মঙ্গল, ইচ্ছা হলে লিখতে পারেন,
ফলাফল আমার জানা নেই। অন্যদিন
কাবা ঘর, রুটিতে আল্লাহ, সিজদাহ
দেওয়া গাছ, মেঘে লেখা আল্লাহ এই
ধরণের পোষ্ট দিন। এই পোষ্টে অবশ্যই
লাইক ভিক্ষা করুন, যেমন – ‘অমুক সালের
কাবা ঘরের ছবি। কাবা ঘরের জন্য
কয়টি লাইক?’। মাঝে মাঝে কিছু
হাদিস শেয়ার করতে পারেন। হুজুরের
বয়ানের ইউটিউব লিঙ্কও শেয়ার করতে
পারেন। কোন সেলিব্রেটির ইসলাম
ধর্মে ধর্মান্তরিত হওয়ার খবর পোষ্ট করুন
এবং প্রশংসায় শতমুখ হোন, অন্য ধর্মে
চলে গেলে তার বাপ-মা তুলে গালি
দিন এবং তাকে কাফের বলে প্রচার
করুন। কোন কোন জায়গার নাম ইসলামিক
তার লিষ্টও শেয়ার করতে পারেন,
এসবের জন্য সোনা ব্লগ রয়েছে আপনার
পাশে। কিছু লেখার না পেলে এরকমও
লিখতে পারেন ‘তুমি যদি মুসলিম হও
শেয়ার কর’। অন্য সব ধর্মের ব্যাপারেও
পোষ্ট দিতে পারেন, তবে সেইটা করা
মানে ফাও সময় নষ্ট, এইসব সংখ্যালঘুরা
আপনাকে বেশী লাইক-শেয়ার এনে
দিতে পারবে না।
নারীবাদী পোষ্টঃ নারী অধিকার
বিষয়ক পোষ্ট দিন। এই পোষ্ট দেওয়ার সময়
নারীবাদী হোন। ইভটিজিং এর
বিরুদ্ধে উচ্চকন্ঠ হয়ে পোষ্ট দিন। সম্ভব
হলে শাহবাগের মোড়ে একটা
মানববন্ধনও আয়োজন করে ফেলতে
পারেন, জনাদশেক হলেই এটা করা
সম্ভব। সেইখানে যেসব নারীরা
আসবেন তাদের হিজাব করতে বলুন,
নাহলে পরে সেইমসাইড হয়ে যেতে
পারে। মিডিয়া কাভারেজ এবং
স্পন্সরের চেষ্টা করতে পারেন, সেটা
করতে পারলে তারাই আপনার পেজকে
ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রমোট করে দেবে।
এই ধরণের পোষ্টের একটি উদাহরণ
খেয়াল করুনঃ ইভটিজিং এর অপরাধে
গ্রেফতার হওয়া একটি ছেলের ছবি দিন
পুলিশের সাথে, পোষ্টে লিখুন ‘এই
ছেলেটি ইভটিজার, লাইক=থাপ্পর,
কমেন্ট=কিল, শেয়ার=লাত্থি। কে
কোনটা মারবেন মারুন’।
সামাজিক সচেতনতামূলক পোষ্টঃ
সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করার
উদ্দেশ্যে পোষ্ট দিন। হিজাব যে
নারীর জন্য একটি বর্মস্বরূপ এইটা বারবার
বলুন। এইখানে সানিয়া মির্জার
হিজাব পরা ছবি দিতে পারেন।
ইসলামিক আইন জারি হলে যে দেশে
শান্তি ফিরে আসবে আপনার পোষ্টের
মাধ্যমে তা প্রমাণ করুন। আমাদের
জ্বীনসদৃশ জামাতি যুদ্ধাপরাধী
নেতাদের মুক্তির দাবি করে পোষ্ট
দিন, এবং এই ব্যাপার উচ্চকন্ঠ থাকুন।
বিভিন্ন মিছিলের সময় আওয়ামী
পুলিশী বর্বরতা তুলে ধরুন। ঠিক কোন
কোন পরিস্থিতিতে আমাদের দেশের
ছেলেরা ইভটিজিং করতে বাধ্য হয়
সেইগুলা দক্ষিণ ভারতীয় ছবির মাধ্যমে
প্রকাশ করুন এবং ‘ওই ছেড়ি, ওড়না গলায়
না দিয়া বুকে দে’ এই টাইপের
সমাজসচেতনমূলক বক্তব্য রাখুন। আগের মত
পোলও করতে পারেন। যেমনঃ আপনার
বউকে কোনটা পরাবেন?
লাইক=বোরখা, কমেন্ট=বিকিনি, এর
সাথের ছবিতে একপাশে বোরখা ও
অন্যপাশে বিকিনি পরিহিত নারীর
ছবি দেওয়া বাঞ্ছনীয়।
রাজনৈতিক পোষ্টঃ আপনার পেজের
মাধ্যমে রাজনীতিতে সক্রিয়
অংশগ্রহন করুন। সরকারের বিভিন্ন
কাজের ব্যাপারে সমালোচনায় মুখর
হউন। কাউকে ভাল বলার দরকার নেই,
সবাইকে বাঁশ ভরে দিন।
সরকারবিরোধী আন্দোলনকে উৎসাহ
দিতে পারেন, সেইখানে অবশ্যই
ধর্মভিত্তিক দলগুলোর অংশগ্রহণকে
হাইলাইট করুন। দেশের অবস্থা যে
মোটেই ভাল না সেইটা বারবার করে
বলুন এবং সমাধান হিসেবে
‘সামাজিক সচেতনতামূলক পোষ্ট’ এর
পয়েন্টগুলোকে সামনে আনুন। ধর্মের
বিপরীতে সরকারকে দাঁড় করান, এই
সরকার থাকলে ধর্ম থাকবে না এমন
মতবাদ প্রচার করুন। যুদ্ধাপরাধীদের
বিচার একটি রাজনৈতিক ইস্যু বলে
দাবী করুন, এদের আগেই ক্ষমা করে
দেওয়া হয়েছে এইটা প্রমান করুন।
বিভিন্ন বিক্রি হয়ে যাওয়া
বুদ্ধিজীবিদের সাক্ষাৎকার এবং
লেখার মাধ্যমে তা জায়েজ করুন। এ
ব্যাপারে আপনাকে সাহায্য করার জন্য
আছে সুবেহ সাদেকের সম্পাদকীয়
পাতা। বিভিন্ন রাজনৈতিক কার্টুনও
পোষ্ট করতে পারেন।
বিশেষ দিনের পোষ্টঃ বিশেষ
বিশেষ দিনে ভেবেচিন্তে পোষ্ট
দিন। দুইটি উদাহরণ দেইঃ
১। ভ্যালেন্টাইনস ডেঃ
সকালেঃ ‘কারা কারা ডেটিং এ
যাচ্ছেন লাইক দিয়ে জানান’ – এই
টাইপের পোষ্ট।
রাতেঃ একটা ছেলে-মেয়ে
পাশাপাশি বসে আছে এমন ছবি দিন,
আমাদের দেশের মেয়েরা যে
বেহায়া হয়ে যাচ্ছে এইটা প্রমান করুন।
জাকির নায়েকের ভিডিও দিয়ে
ছেলে-মেয়ের মেলামেশার
ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করুন।
হিজাবের ব্যাপারটাও উল্লেখ করতে
পারেন। দিগন্ত টিভির সংবাদের
রিপোর্টের উপর লক্ষ্য রাখুন। সম্ভব হলে
ভিডিওর লিঙ্ক শেয়ার করুন।
২। পহেলা বৈশাখঃ
সকালেঃ ‘কারা কারা চারুকলায়
যাবেন অথবা যারা পান্তা খাবেন
লাইক করুন’ – এই টাইপের পোষ্ট।
পান্তার ছবি অথবা
মঙ্গলশোভাযাত্রার ছবি দিতে
পারেন।
রাতেঃ পহেলা বৈশাখ পালন যে
ধর্মের পরিপন্থী সেইটা সবাইকে
জানান। এইটা বন্ধ করতে সবাইকে এক
হতে পরামর্শ দিন। হুজুরের ভিডিও
শেয়ার করা যেতে পারে। পান্তা
খাওয়া মানে যে গরীবের প্রতি
বিদ্রুপ করা এইটা প্রমাণ করুন।
১৮+ জোকস্ পোষ্টঃ বিভিন্ন ১৮+
অশ্লীল জোকসের পেজ থেকে জোকস
কপি করে আনুন। তারপর একটা স্বল্পবসনা
রমণীর ছবির সাথে জোকসটি পোষ্ট
করুন। আবার বলছি, সূত্র উল্লেখ করবেন
না। এইটা দেখে অনেকে কমেন্টে
গালি দিতে পারে, কমেন্টগুলো
ডিলেট করে দিন। অনেকে খারাপ
বললেও দেখবেন লাইক পড়ছে অনেক
বেশী। ভদ্র জোকস শেয়ার না করাই
ভাল। ভদ্রতার ভাত নাই।
সাহিত্য পোষ্টঃ ফেসবুক ও ব্লগ ঘুরে
বিভিন্ন লেখকের গল্প ও কবিতা সংগ্রহ
(চুরি) করুন। এইগুলা প্রেমের হইতে
পারে, বিরহ, ছ্যাঁকা, ভূত, পেত্নীর গল্প
ইত্যাদিও হতে পারে। এইগুলা কপি করে
নিয়ে নিজের পেজে পোষ্ট করুন।
সাথে প্রেমিক-প্রেমিকা, ভূত, হরর,
কান্না ইত্যাদি সামঞ্জস্যপূর্ণ ছবি দিন।
ভুলেও সূত্র উল্লেখ করবেন না, কেউ
জানতে চাইলে বলবেন সংগ্রহ।
সিনেমা পোষ্টঃ সিনেমা বিষয়ক
পোষ্ট দিন, রিভিউ লিখুন। বিদেশী
ফিল্ম বা আর্ট ফিল্ম টাইপের কোন মুভি
নিয়ে লেখার দরকার নেই।
নিম্নশ্রেনীর ও রুচির ব্যাবসাদার
বাংলা মুভি নিয়ে লিখুন। কেউ যদি
এর বিরুদ্ধে কিছু বলে তাদেরকে বলুন
যে কেউ ভাল কিছু করতে চাইলে
তাদের পেছনে টেনে ধরাটা
বাঙ্গালীর স্বপ্নদোষ। ভুলেও সত্যজিৎ
রায়, তারেক মাসুদ, তানভীর
মোকাম্মেল এদের নাম উচ্চারণ করবেন
না। তাদের কোন মুভির ব্যাপারে
লেখার কোন প্রয়োজন নেই। একটা
সিনেমা নিয়েই উপর্যুপরি ল্যাদান,
কোন সমস্যা নেই। এইসব মুভির গানের
ইউটিউব লিঙ্কও শেয়ার করুন।
আন্তর্জাতিক সম্পর্ক পোষ্টঃ
বাংলাদেশের সাথে ভারত,
আমেরিকার সম্পর্ক নিয়ে পোষ্ট দিন।
ভারত ও আমেরিকা বাংলাদেশকে
কিনে নিয়ে যাচ্ছে এমন কথা বলুন এবং
সরকারে গুষ্টি উদ্ধার করুন। এইসব দেশের
কোন মন্ত্রী বা কোন প্রতিনিধি
বাংলাদেশে আসলে তাকে স্বাগত
জানিয়েও পোষ্ট দিন। এদের নিয়ে
লাইক ভিক্ষাও করতে পারেন। যেমনঃ
মার্কিন পরারাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারীর
জন্য কয়টি লাইক?
প্রাকৃতিক দৃশ্য পোষ্টঃ মাঝে মাঝে
যেকোন প্রাকৃতিক দৃশ্য পোষ্ট করতে
পারেন। বাংলাদেশ হলে লিখতে
পারেন – ‘বাংলাদেশের জন্য কয়টি
লাইক?’।
৫ম ধাপ – আল্ট্রা প্রফেশনাল
লেভেলঃ
১। সম্পূর্ণ নির্লজ্জ হোন এইবার। বিভিন্ন
পেজে গিয়ে আপনার পেজের লিঙ্ক
পোষ্ট করে আসুন। কোন মেয়ের নিক
দিয়ে বলুন – ‘এ্যাডমিন
ভাইয়াআআআআআআ, পেজটা একটু প্রমোট
করে দিবেন?’ আরও একটা কাজ করতে
পারেন। একটা অর্ধেক অশ্লীল জোকস
কপি করে পেষ্ট করুন, নিচে লিখুন –
‘পুরোটা পড়তে এই পেজে লাইক করুন’,
তারপর দিয়ে দিন আপনার পেজের
লিঙ্ক।
২। একটু খেয়াল করলেই দেখতে পাবেন
যে, বিভিন্ন পেজে এমন পোষ্ট আসে –
আপনার যদি ১০০০ এর অধিক লাইকযুক্ত
ফ্যানপেজ থাকে তাহলে এই ই-মেইলে
মেইল করুন। আপনাকে বাংলাদেশের
সবচেয়ে বড় পেজ এ্যাডমিনদের গ্রুপে
যুক্ত করা হবে। পরে প্রমোশন
এক্সচেঞ্জসহ বিভিন্ন জিনিস শেখান
হবে। ১০০০ লাইক হয়ে গেলে এইখানে
আপনি মেইল পাঠান। আপনার দরকার
প্রমোশন এক্সচেঞ্জ, বিভিন্ন জিনিস এই
টিউটোরিয়াল ভালমত পড়ে থাকলে
আপনি অলরেডী শিখে ফেলেছেন।
৩। আপনার সকল বন্ধুদের পেজের
ইনভাইটেশন সেন্ড করুন।
৪। আপনার পেজটি কিছু মেয়ের নিক
থেকে রেগুলার শেয়ার দিন, লিখুন –
‘বন্ধুরা প্লিজ প্লিজ লাইক দাও তোমরা
সবাই’ অথবা ‘অনেক ইয়াম্মি একটা পেজ,
সবাই প্লিজ লাইজ কর পেজটা’।
আপনার শিক্ষা সম্পন্ন। কোন
বিভ্রান্তি থাকলে দেখতে পারেন
টিউটোরিয়ালের ফাক সেকশন।
ধন্যবাদ।
ফাক [এফ.এ.কিউ.]
>প্রশ্নঃ আমি কিছু লেখার পাইনা, কি
করতে পারি?
উত্তরঃ অন্য পেজ থেকে কপি করতে
পারেন। আর সেটা না হলে নিচের
যেকোন একটি টেমপ্লেট ব্যাবহার
করুনঃ
১। ছবিটি বড় করে দেখুন, লাইক দিন
এবং কমেন্ট ও শেয়ার করুন।
২। এই ছবিটির জন্য কয়টি লাইক প্রযোজ্য?
৩। ভাল লাগলে লাইক দিন, না লাগলে
কমেন্ট
৪। পছন্দ হলে লাইক মাষ্ট
৫। পছন্দ হলে লাইক মাষ্ট, বেশী পছন্দ
হলে শেয়ার
৬। এমন ছবি আগে দেখিনি কখনও, তাই
ভাবলাম আপনাদের সাথেও শেয়ার
করি। আপনারা চাইলে আপনাদের
বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে
তাদেরকেও দেখার সুযোগ করে দিতে
পারেন।
>প্রশ্নঃ নেট থেকে নেওয়া ছবিতে
নিজের হাইপারলিঙ্ক যুক্ত করা কি
উচিত?
উত্তরঃ হালার পুত! নীতিবান সাজিস?
তোর নীতি তোর ঐখান দিয়ে ভইরা
দিমু। তোরে যেইডা করতে কইছি
সেইডা কর। ভাল বুদ্ধি দিছি, পছন্দ হয়
না। গাধা আমারে নীতি দেখায়।
তোর পেজরে আমি …(টুউউউউউউউউউউট)
>প্রশ্নঃ আপনার কথামত রাজনৈতিক
পোষ্ট দেওয়ার পরে একদল ফেসবুকার
আমার পেজে নগ্ন হামলা চালায়।
তাদের একজন আবার নক্ষত্রের যৌবন
নিয়ে বেঁচে থাকে। সে আমারে ছাগু
বলে গালি দেয়। আমারে বাঁচান।
উত্তরঃ হুম। কেস খারাপ। এই লোক বড়
ভয়ংকর, আপনার আর বাঁচার আশা নাই।
ব্লক কইরা দিয়া ট্রাই মারতে পারেন।
একবার যখন ছাগু ট্যাগ দিছে, তখন কি হয়
আর বলা যায় না। আপনি দলীয় ছাগুদের
সাহায্য নেন যত তাড়াতাড়ি সম্ভব।
ল্যাঞ্জা সামলে চলুন।
>প্রশ্নঃ ধর্মীয় জিনিস নিয়ে লাইক-
কমেন্ট ভিক্ষা করলে অনেকে গালি
দেয়, কি করার আছে?
উত্তরঃ সহ্য করে নিতে হবে। লাইক তো
প্রচুর পাবেন, এইসব কমেন্টগুলা ডিলেট
করে দিতে পারেন। অথবা তাদের
নাস্তিক বা কাফের বলে গালি
দিতে পারেন। বেশী রাগ হলে মা-
বাপ তুলে গালি দিন।
>প্রশ্নঃ ধর্ম এবং নারী টাইপের পোষ্ট
দিলে একজন দুষ্টু নাস্তিক ফেসবুকার
আমাকে বাক্যবাণে জর্জরিত করে, সে
খালি আমার ধর্ম আর নারী ব্যাবসার
ইয়েতে আঙ্গুল দেয়। সমাধান দিন।
উত্তরঃ নাস্তিক? হুম, বুঝেছি। আপনার
ব্যাবসার ইয়েতে ফেভিকল দিয়েও
কোন লাভ হবে না। এই পেজ চালাতে
হলে আপনাকে এইটা সহ্য করে নিতে
হবে। ব্লক করে দিতে পারেন তাতে
অনেক ফ্যানের সামনে আপনার
ল্যাঞ্জা বের হয়ে যেতে পারে।
ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন। তর্ক
করার সময় ল্যাঞ্জা বেঁধে রাখুন।
>প্রশ্নঃ ১৮+ জোকসের পরে নামাজ
পড়তে যাওয়ার কথাটা কেমন খারাপ
দেখায় না?
উত্তরঃ আপনি তো মন দিয়ে
টিউটোরিয়াল পড়েন নাই। বহুরূপী হইতে
বলছি না? বহুরূপী হলে এইটা খারাপ
দেখানোর কোন কারণ নেই। আর এইসব
চক্ষুলজ্জা ছাড়েন।
>প্রশ্নঃ অন্য পেজের হাইপারলিঙ্কযুক্ত
ছবি কিভাবে আমার পেজে পোষ্ট
করতে পারি তাদের এ্যাড না করে?
উত্তরঃ ফটোশপ দিয়ে ঐ
হাইপারলিঙ্কের উপরে একটা সাদা
বা কাল আয়তক্ষেত্র বানিয়ে নিন,
তারপর সেটার মধ্যে আপনার পেজের
হাইপারলিঙ্ক যোগ করুন। তারপর
নিশ্চিন্তে পোষ্ট করে দিন। সূত্র
উল্লেখ করবেন না খবরদার।
>প্রশ্নঃ চুরি করা লেখার লেখকেরা
এসে গালি দেয়। তাদের ক্রেডিট
চায়, চুরি করার জন্য আমাকে তিরস্কার
করে। আমার কি করা উচিত?
উত্তরঃ প্রথমে প্রমাণ করতে বলুন।
প্রমাণিত হলে পরে স্যরি বলে তার
নামটা ছোট্ট করে যুক্ত করে দিন। প্রমাণ
না করতে পারলে অবশ্যই গালি দিয়ে
ভর্তা করুন এবং লেখকের প্যান্ট খুলে
রেখে দিন।
আমাদের আয়োজনটি কেমন লাগল
জানান। আপনাদের আগ্রহ থাকলে
পরবর্তীতে আরও বহু টেকনিক বিশদ
উদাহরনসহ আলোচনার করার আশা
রাখি। এর সাথে ফাক সেকশনের
কলেবরও বৃদ্ধি করা হবে পরবর্তীতে।
সবার জন্য শুভকামনা। হ্যাপি ফেসবুক
পেজিং।। কাউকে দুংখ দিলে মাফ করে দিবেন

____________________সংগৃহীত

18 thoughts on "আপনার ফেসবুক পেজে হাজার লাইক নিন খুব সহজেই।"

  1. Jillur420 Contributor says:
    ফালতু
  2. ট্রিকবিডি পাগলা PipulBD Contributor says:
    100% faltu
  3. Ahmed Marjan Ahmed Marjan Author says:
    100% copy. Ei sagol ra kuta teke je ase.
    1. Bokul Contributor Post Creator says:
      vai kemm achen?
  4. Sabbir Hossain Sabbir Hossain Author says:
    Akrokom valoi ase vai.
    1. Bokul Contributor Post Creator says:
      জি ভাই?
      1. Sabbir Hossain Sabbir Hossain Author says:
        কমেন্টটা ভুলে করছিলাম মনে হয়, বুঝি নাই। ভাল কিছু করার চেষ্টা করেন।
  5. Gangster Gangster Author says:
    Brother apni ki asen?
    1. Bokul Contributor Post Creator says:
      জি ভাই?
  6. Gangster Gangster Author says:
    Apni to onek din dhore trickbd Tay asen. But akhon taikha contributer kn???
    1. Bokul Contributor Post Creator says:
      আমি খারাপ পোস্ট করেছিলাম তাই,।।
      1. Gangster Gangster Author says:
        Apni to onek din dhore trickbd Tay asen… Onek old
        1. Bokul Contributor Post Creator says:
          হা ভাই,ক্লাস ৮ থেকে এখন ত ১২ তে ৪ বছর থেকে
          1. Gangster Gangster Author says:
            Class 8… Onek choto taikha net use koren. Akhon class a poren???
          2. Bokul Contributor Post Creator says:
            ইন্টার -২য়
  7. Bokul Contributor Post Creator says:
    ইন্টার -২য় তে ভাইয়া

Leave a Reply