Be a Trainer! Share your knowledge.

Home » Facebook tricks » ‘ফেসবুক আইডি নিরাপত্তা ও টোম্পোরারি লক সংক্রান্ত আলোচনা’

‘ফেসবুক আইডি নিরাপত্তা ও টোম্পোরারি লক সংক্রান্ত আলোচনা’

Open In AndroidApp

ফেসবুকের এক গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা হচ্ছে- ‘একশন ব্লক।’ যেটাকে অনেকেই বিরক্ত মনে করে। কিন্তু এটা কি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আমাদের উপর জোরপূর্বক চেপে দেয়? না, কখনই না। ফেসবুকের নীতিমালা ভঙ্গ করে ফেসবুক ইউজ করলেই কেবল এসব সমস্যায় মুখাপেক্ষী হতে হয়।
.
যেসব কারণে আপনি টেম্পরারি বা একশন ব্লক খেতে পারেন অথবা আপনার আইডি ডিজেবলও হতে পারে :
১। ফেসবুকের অতিরিক্ত কোনো ফাংশন ব্যবহার করলে কিংবা লাইক বাটন অতিরিক্ত চাপলেই তারা আপনাকে একশন ব্লক তথা লাইক ব্লক করে দিবে।
২। রোবট তথা বুট সাইট বা সফ্টয়্যর ব্যবহার করলে লাইক ব্লক খাবেন।
৩। কারো ইনবক্সে বা কমেন্টবক্সে নিষিদ্ধ, অশ্লীল, পর্ণ ও বুট লিংক (ফেসবুকের কমিউনিটির অনুমোদিত লিংক নয়) এমন লিংক সেন্ট করলে আপনাকে তারা অস্থায়ী ব্লক করে দিবে।
৪। একই কমেন্ট অনেক স্যাটাসে দিলে।
৫। অতিরিক্ত ইমুজি ব্যবহার করলে।
৬। দিন-রাত চব্বিশ ঘণ্টা বিরামহীন চ্যাটিং করলেও এই অস্থায়ী ব্লক খায়।
৭। নিজের টাইমলাইন, ইনবক্স ও কমেন্টবক্সে অতিরিক্ত লিংক শেয়ার করলেও এই একশন ব্লক খেতে পারেন।
৮। প্রতিদিন অতিরিক্ত ফেন পেজে লাইক করলে।
৯। প্রতিদিন নিজের টাইমলাইনে ঘনঘন পোস্ট করলে। একই পোস্ট বারবার করলে কৃর্তপক্ষ স্প্যাম মনে করে আপনাকে অস্থায়ীভাবে ব্লক দিবে।
১০। বিভিন্ন ফেসবুক এপস বা সাইটে আইডি এক্সেস তথা লগিন করলে।

১১। সাধারনত ইংরেজী কিছু শব্দ! যেগুলো প্রতিনিয়ত ব্যবহার হয়। যেমন- (Hi, Hello, Good Night, Nice, Wow, Very Good, Amin) এগুলো কমেন্ট বা ইনবক্সে অতিরিক্ত ব্যবহার করলে।
১২। কমেন্টে অতিরিক্ত ছবি বা স্টিকার দিলে।
১৩। মানুষদেরকে অতিরিক্ত ট্যাগ করলে ফেসবুকে তা স্প্যামিং মনে করে অস্থায়ী ব্লকে রেখে দেয়।
১৪। দিনে অতিরিক্ত ফেন্ড রিকুয়েস্ট পাঠালে এবং তারা যদি ঝুলিয়ে রাখে। তাহলেও আপনি ব্লক খেতে পারেন।
১৫। সাধারণত মেয়েরা বেশি ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পায়। আর এতেই তারা মহাখুশি হয়ে ৭জি স্প্রিডে এ্যাকচেপ্ট করতে থাকে। ব্যস, লও ঠেলা! ফেসবুক এটাকে রোবোটিক সিস্টেম মনে করে- হয় ‘ফেস লক’ অথবা ‘ফটো ভেরিফিকেশন’ লকে ফেলে দিবে। আর না হয় আইডি ‘ডিজেবল’ করে দিবে।
১৬। এরকম সবগুলো পয়েন্টেই যখন আপনি অপরাধী হয়ে যান, তখনই আপনার আইডি ডিজেবল হয়ে যায়।
.
উপরোক্ত লেখাগুলোকে আপনারা ফান মনে করলেও করা কিছু নাই। কারণ এসব বাস্তব অভিজ্ঞতা, ফেসবুক কমিউনিটির নিতীমালা ও শর্তাবলী ঘেটেই লিখলাম। ফেসবুক আইডি অস্থায়ী লক, একশন লক, ফেইস লক, ফটো ভেরিফিকেশন লক ও ডিজেবল হওয়া কেবলমাত্র আমাদের নিজেদের দোষেই হয়।
.
এসব থেকে মুক্তি পাবার উপায় :
১। এখন আমাকে প্রশ্ন করতে পারেন- ‘এসব থেকে মুক্ত পাওয়ার উপায় কী?’ আমি আপনাকে দুই বাক্যে উত্তর দিব- ‘ফেসবুক কমিউনিটির নীতিমালা পরিপন্থি কাজগুলো থেকে বিরত থাকুন। তাহলে আপনার আইডি আজীবন তারা কিছু করবে না।’
২। সুষ্ঠু ও সুন্দর মন মানসিকতা নিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করুন।
৩। তাদের নীতিমালার বহির্ভুত কোনো কাজ করবেন না।
৪। আপনার সঠিক নাম দিয়ে অ্যাকাউন্ড খুলুন। জন্ম সনদ পত্র, সার্টিফিকেট কিংবা ভোটার আইডি কার্ডানুযায়ী নাম ও জন্ম তারিখ দিন। প্রয়োজনে ইংলিশ ভাষার নাম ব্যবহার করুন। (‘খোলা আকাশের নিচে, ফুটন্ত গোলাপ, কবিতার শেষ প্রান্তে।’ এরকম ইত্যাদি স্টাইলিস নামের আইডিগুলোর ফেসবুকে কোনো নিশ্চয়তা নেই। যখন তখন ডিজেবল হতে পারে।)
৫। ফেসবুক অ্যাকাউন্ডে বায়ো-ডাটা সঠিক তথ্য দিয়ে কমপ্লিট করুন।
৬। আজ্ঞে হ্যাঁ, ইদানিং ফেসবুকের আপডেটজনিত সমস্যার কারণে ‘লাইক ব্লক, একশন ব্লক, টেম্পোরারি ব্লক’ হচ্ছে। নো টেনশন। নিচের নিয়মে আবেদন করুন…
লাইক বাটনে চাপলে এরকম দেখালে, “If you think you’re seeing this by mistake, please let us know.” তাহলে ‘let us know’ এ ক্লিক করুন। নিচের ফাঁকা বক্সে এই টেক্সটা লিখে সাবমিট করুন। প্রয়োজনে বারবার সাবমিট করুন। এক্কেবারে ত্রিশবার সাবমিট করুন। তাহলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনাকে লাইক ব্লক থেকে আনব্লক করতে বাধ্য।
ফাঁকা বক্সটিতে লিখবেন, “Dear Facebook Team, My Facebook account has been blocked in an action block or temporarily blocked. I haven’t done any work against Facebook policy. Maybe you’ve accidentally made a temporary block on my account. Please, unblock me very soon. Thanks to the Facebook family.”
৭। পরিশেষে বলতে চাই- ফেসবুকে কারো সাথে শত্রুতা করবেন না। কাউকে গালি দিবেন না। অলওয়েজ সবার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণ করুন। তাহলে কেউ আপনাকে রিপোর্ট মারবে না। ফলে আইডি নষ্ট হওয়ার ভয়ও থাকবে না।
৮। এর পরও যদি কেউ আপনাকে অনর্বত রিপোর্ট মারে। তাহলে কয়েক দিনের জন্য ‘Deactivate Account’-এ যেয়ে এই অপশনে টিক চিহ্ন দিয়ে ‘I don’t feel safe on Facebook’ সাবমিট করে আইডি ডিএক্টিভ করে রাখুন। তিন-চারদিন পর কিংবা আপনার সুবিধামতো আবার রিএক্টিভ করতে পারেন।
.
– ‘কাওছার আজাদ’ (কচু)

2 weeks ago (Oct 09, 2018)

About Author (2)

Kawsar Azad Kawsar Azad
contributor

Don't be afraid to tell the truth. Because the victory of truth is inevitable. – ‘Kawsar Azad’

45 responses to “‘ফেসবুক আইডি নিরাপত্তা ও টোম্পোরারি লক সংক্রান্ত আলোচনা’”

  1. Shadin Shadin Author says:

    কচু ভাই, নির্দেশনাগুলো অস্থির হয়েছে।
    আর ১৫ নাম্বারটা (সেই) তে সহতম😆

    • Kawsar Azad Kawsar Azad Contributor Post Creator says:

      স্বাধীন ভাই, আম্রে কেউ ‘কচু’ কইলে দারুণ ভালো লাগে মাইরী! 😀
      আর হ্যাঁ, ১৫ নাম্বার পয়েন্টে উল্লেখিত মেয়েলুকগুলা কিন্তু এরকমই!

    • Tuner Tuner Author says:

      নাহ, ১৫ নং টা মানতে পারলাম না।

      মেয়েরা Request দেখেই না ভালো করে।

      একসাথে Accept করা তো দূরের কথা।

      • Shadin Shadin Author says:

        ঠিক নিচে Nusrat Amin এর কমেন্টটা দেখেন।

        • Tuner Tuner Author says:

          একজনের Comment পড়ে সব মেয়ের Character জানা যায় না…. 😂 (হাসাইলেন রে, ভাই!)

        • Tuner Tuner Author says:

          আবার আপনি নিজেই তাকে মেয়ে হিসেবে গণ্য করতে সন্দেহ পোষণ করেন….. 😅 (আরও হাসাইলেন রে, ভাই!!!)

          • Kawsar Azad Kawsar Azad Contributor Post Creator says:

            মেয়েরা বলতে যারা প্রকৃত মেয়ে তারা ফ্রেন্ড বাড়ানোর জন্য উন্মাদ হয় না। যারা ফেইক তারাই বিদ্যুত গতিতে অ্যাকচেপ্ট করতে থাকে। সুতরাং মেয়েরা বলতে এখানে ফেসবুকের ফেক ম্যেলুকদেরকে বোঝানো হয়েছে। 😛

  2. MD_Tuofiq Contributor says:

    ডিজেবল হয়েছিল আমার আইডি ফিরে পেয়েছি ……এটা কি আবার নষ্ট হবে ??

    • Kawsar Azad Kawsar Azad Contributor Post Creator says:

      ডিজেবল আইডি ফিরিয়ে পেলে সেই আইডিটি সাধারণত স্ট্রং হয়। তবুও আপনি ফেসবুক কমিউনিটির নীতিমালা মেনে ফেসবুক চালান তাহলে প্রোবলেম হবে না।

  3. Nur Md Nirob Nur Md Nirob Author says:

    এক কথায় অসাধারণ লিখেছেন ১৫ নাম্বার টি এবং নিচের ৬ নাম্বার টি দরুন লিখেছেন ৷ ১০ এ ১০ দিলাম ?

  4. Sarkar Sarkar Contributor says:

    ভাই আমাকে সাহায্য করুন প্লিজ আমার ফেসবুকে মেসেন্জার ফ্রি চালাতে পারছিনা……..plzz help

  5. A M A M Contributor says:

    মুই আর কি কইতাম – ভাল্লাগছে ‘কাওসার আজাদ (কচু) ভাই 😍😍😍

  6. MFS- Mishu Contributor says:

    6 no ta joss liksen😂😂😂😆😆

  7. Ashikur Rahman Ashikur Rahman Contributor says:

    কচু ভাই অসাধারণ লিখছেন…

  8. Kawsar Azad Kawsar Azad Contributor Post Creator says:

    হাহাহা, 😀

  9. Forhad Rahman Contributor says:

    Nice,
    Informative post

  10. Junayed.hasan Junayed.hasan Contributor says:

    খোলা আকাশের নিচে, ফুটন্ত গোলাপ, কবিতার শেষ প্রান্তে।’ আমি ৫ মিনিট শুধু হাসলাম ই।
    আপনার কথাতে বেশ যুক্তিযুক্ত ব্যাখ্যা পেলাম। আনন্দও পাইলাম।

  11. Nusrat Amin Nusrat Amin Contributor says:

    Exactly Otirikto request accept korte gie id disabled hoechilo amr 😹

  12. পুরা অস্থির করা পোস্ট

  13. পুরা অস্থির করা পোস্ট

  14. Mohabbat Mohabbat Contributor says:

    shadin vaiya amake aktu sahajjo koren ps

  15. Mohabbat Mohabbat Contributor says:

    shadin vaiya amake aktu sahajjo korte parben

  16. Tasrif24 Contributor says:

    Fb group close theke public korar trick den

  17. Tasrif24 Contributor says:

    https://www.facebook.com/groups/1905081456407355/ এই গ্রুপ পাবলিক করে দেন,পারলে

  18. Kawsar Azad Kawsar Azad Contributor Post Creator says:

    https://m.facebook.com/group/edit/?gid=19050814564073
    .
    ভাই, আমি তো গ্রুপের এডমিন নই। এডমিন ছাড়া সাধারণ পাবলিকরা কখনো ক্লুজ থেকে পাবলিক করতে পারবে না। এটার পাওয়ার এডমিনের কাছে। সো, উপরে আপনার গ্রুপের কোড দিয়েছি, লিংকটাতে ক্লিক করে পরবর্তী নির্দেশনা ফলো করুন।

Leave a Reply

Switch To Desktop Version