শিক্ষাবৃত্তি একজন শিক্ষার্থীকে পড়ালেখা করতে আর্থিকভাবে অনেক বড় একটি সহযোগিতা করে থাকে। বিশেষ করে আমাদের মধ্যে যারা গরিব পরিবারের সন্তান তাদের জন্য এটির গুরুত্ব অপরিসীম। কারণ আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন মেধাবী পড়ালেখা করতে আগ্রহী কিন্তু অর্থের অভাবে আর বেশি দূর এগোতে পারি না। যার ফলে মেধাবী এবং পড়ার ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও আমরা আর পড়ালেখা করতে পারি না। আর এই জন্যই মূলত শিক্ষা বৃত্তিটা আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষা বৃত্তি যে শুধু আর্থিকভাবে আমাদের সহযোগিতা করে তা কিন্তু না। একজন শিক্ষার্থী যখন একটি শিক্ষা বৃত্তি পায় তখন তার পড়ালেখার ইচ্ছে আরো বেড়ে যায়। যার মানে দাঁড়ায় পড়ার উৎসাহ পায়। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠান শিক্ষা খাতকে এগিয়ে নিতে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করে থাকে। যার মধ্যে একটি হচ্ছে বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও সুনামধন্য ব্যাংক প্রতিষ্ঠান শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক। তারা প্রতিবছর শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করে আসতেছে। আর এই বিষয় নিয়েই মূলত আমার আজকের এই টপিক।

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংকের শিক্ষাবৃত্তির বিজ্ঞপ্তিঃ

গত ০২/০৮/২০২২ইং তারিখে দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় “শিক্ষা বৃত্তি কর্মসূচি ২০২১” নামক শিরোনামে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। যাতে উল্লেখ করা হয় যে, শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক ফাউন্ডেশন এর অধীনে অসহায়, দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করা হবে এর জন্য আগে আবেদন করতে বলা হয়েছে। তাই আপনি এই শিক্ষা বৃত্তি পেতে কিভাবে কী আবেদন করবেন তা বিস্তারিত আমি নিচে তুলে ধরলাম।

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক শিক্ষা বৃত্তি প্রাপ্তির জন্য আবেদনের যোগ্যতাঃ
শাহজালাল ইসলামি ব্যাংকের অধীনস্থ শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক ফাউন্ডেশন এর নিয়মিত এই শিক্ষা বৃত্তি পেতে হলে কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে বা যোগ্যতা প্রমাণ করতে হবে। শর্তগুলি হচ্ছে,
☞ আপনাকে একজন শিক্ষার্থী হতে হবে।
☞ ২০২১ইং সনের এস.এস.সি বা এইচ.এস.সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
☞ বিভাগীয় শহরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৫.০০ পেতে হবে। আর অন্যান্য বিভাগ থেকে জিপিএ ৪.৮০ পেতে হবে।
☞ বিভাগীয় শহরের বাহিরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ ৪.৮০ পেতে হবে। আর অন্যান্য বিভাগ থেকে জিপিএ ৪.৫০ পেতে হবে।

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক শিক্ষা বৃত্তি আবেদনের প্রক্রিয়াঃ
শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর শিক্ষা বৃত্তি পেতে চাইলে আপনাকে তাদের একটি নির্দিষ্ট আবদেন ফরম পূরণ করতে হবে। তাই আপনাকে উক্ত আবেদন ফরমটি শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর যেকোনো শাখা থেকে সংগ্রহ করে নিতে হবে। ফরমটি হাতে পাওয়ার পর কিভাবে কী পূরণ করবেন তা নিয়ে আমি নিচে স্ক্রিনশট আকারে লিখিতভাবে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব। তাই পুরো বিষয়টি ভালো করে বুঝতে মনোযোগ সহকারে দেখুন।

আবদেন ফরমটি তিন পাতার। প্রথম পাতায় আপনাকে যা পূরণ করতে হবে, সর্বপ্রথম আপনার সদ্য তোলা এক কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি আঠা দিয়ে উল্লেখিত স্থানে সংযুক্ত করতে হবে। ২০২১ইং সনে এস.এস.সি নাকি এইচ.এস.সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন সেটির পাশের ঘরে টিক (√) চিহ্ন দিন। ক্রমিক নং ১ এর ঘরে আপনার সার্টিফিকেট অনুযায়ী বাংলায় আপনার নাম লিখুন এর নিচে বড় হাতের ইংরেজিতে লিখুন। ২ এর ঘরে আপনার পিতার নাম লিখুন বাংলায় সার্টিফিকেট অনুযায়ী। ৩ এর ঘরে পিতার শিক্ষাগত যোগ্যতা লিখুন। কোনো যোগ্যতা না থাকলে নীরিক্ষর লিখুন। ৪ এর ঘরে আপনার মাতার নাম বাংলায় লিখুন সার্টিফিকেট অনুযায়ী। ৫ এর ঘরে আপনার জন্ম তারিখ লিখুন সার্টিফিকেট অনুযায়ী। ৬ এর জায়গায় আপনার জাতীয়তা লিখুন অর্থাৎ বাংলাদেশী লিখুন। ৭ এর ঘরে আপনার ধর্মের নাম লিখুন। ৮ এর ঘরে আপনার বর্তমান ঠিকানা লিখুন যেখানে আপনি এখন বসবাস করতেছেন। ৯ এর ঘরে আপনার স্থায়ী ঠিকানা লিখুন অর্থাৎ যেখানে আপনার পৈত্রিক বাড়ি। ১০ এর ঘরে আগে সাথে যোগাযোগ করার জন্য আপনার মোবাইল নাম্বার ও ইমেইল অ্যাড্রেস লিখুন যা বড় হাতের লিখতে হবে এবং আপনার অভিভাবকের মোবাইল নাম্বার লিখুন। ১১ এর ঘরে আপনি কোন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন সেটির পাশের সন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম, শিক্ষা বোর্ড, উক্ত পরীক্ষার রোল নং, বিভাগ ও প্রাপ্ত জিপিএ বা পয়েন্ট লিখুন। ১২ এর জায়গায় আপনি বর্তমানে কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যায়ণ করতেছেন তার নাম শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম এর ঘরে লিখুন, প্রথম বর্ষে নাকি দ্বিতীয় বর্ষে এখন তা সেশন এর ঘরে লিখুন, কোন বিভাগে পড়তেছেন তার নাম লিখুন বিভাগ/বিষয়ের ঘরে এবং ক্রমিক নং এর ঘরে আপনার বর্তমান রোল নং কত তা লিখুন। ১৩ এর ঘরে আপনার পরিবারের কে কে উপার্জন করেন তা লিখুন এবং বছর হিসেব করে কত এক বছরে কত টাকা উপার্জন করেন তা লিখুন। ১৪ এর ঘরে আপনার পরিবারের বাৎসরিক মোট আয় কত তা লিখুন।

আবেদন ফরমের দ্বিতীয় পাতায় বাম পাশে আপনার অভিভাবকের সদ্য তোলা এক কপি রঙ্গিন ছবি যার পিছনে আপনার স্বাক্ষর (সত্যায়িত) লাগবে উল্লেখিত স্থানে স্ট্যাপল বা পিন মেরে সংযুক্ত করতে হবে। ডান পাশে আপনার সদ্য তোলা দুই কপি রঙ্গিন ছবি স্ট্যাপল বা পিন মেরে লাগাতে হবে। ১৫ এর ঘরে আপনার বাড়ির কাঠামো কেমন তার উপর নির্ভর করে এর পাশের ঘরে টিক (√) চিহ্ন দিন, আপনার বাড়ির অবস্থান কি শহরে নাকি গ্রামে তার পাশের ঘরে টিক (√) চিহ্ন দিন এবং আপনার বসত বাড়ির সম্পত্তির পরিমাণ কতটুকু তা বসত বাড়ির জমির পরিমাণ এর ঘরে উল্লেখ করুন। ১৬ এর ঘরে পরিবারের সদস্য সংখ্যা এর ঘরে আপনার পরিবারের সদস্য সংখ্যা লিখুন, পরিবারের উপার্জন সদস্যের সংখ্যা এর ঘরে আপনার পরিবারের কতজন উপার্জন করে তা উল্লেখ করুন। ১৭ এর ঘরে আপনার কোনো ভাইবোন পড়ালেখা করে কিনা তা উল্লেখ করুন। ১৮ এর ঘরে আপনার কোনো ভাইবোন এর আগে শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক থেকে কোন বৃত্তি গ্রহণ করেছে কিনা বা পাচ্ছে কিনা তা উল্লেখ করুন। বাম পাশের আবেদনকারীর স্বাক্ষর এর ঘরে আপনার স্বাক্ষর এবং যে তারিখে আবেদন করবেন সেই দিনের তারিখ লিখুন। ডান পাশের অভিভাবকের স্বাক্ষর এর ঘরে আপনার পিতা অথবা মাতা অথবা অন্যকোনো অভিভাবকের স্বাক্ষর নিন এবং তারিখ লিখুন। ১৯ এর জায়গায় আপনি বর্তমানে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করতেছেন সে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানের লিখিত সুপারিশ নিন বর্তমান শিক্ষা প্রতিষ্ঠান-এর প্রধানের সুপারিশ ঘরে। আর তার পাশের ঘরে প্রধানের নাম, স্বাক্ষর, তারিখ ও সীল নিন।

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর শিক্ষা বৃত্তির আবেদনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্রঃ
☞ আপনার এবং আপনার অভিভাবকের ছবি লাগবে যা ফরমের সাথে সংযুক্ত করতে হবে এই নিয়ে উপরে ইতিমধ্যে বলেছি।
☞ এসএসসি বা এইচএসসি পরীক্ষার ট্রান্সক্রিপ্ট বা মার্কসিট এর সত্যায়িত ফটোকপি।
☞ এসএসসি বা এইচএসসি পাশের টেস্টমোনিয়াল এর সত্যায়িত ফটোকপি।
☞ এসএসসি বা এইচএসসি পরীক্ষার রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
☞ বর্তমানে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করতেছেন সে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত স্টুডেন্ট আইডি কার্ড অথবা ঐ প্রতিষ্ঠান থেকে একটি প্রত্যয়নপত্র এবং ভর্তির রশিদ এর সত্যায়িত ফটোকপি।
☞ আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন এর ফটোকপি।
☞ আপনার পিতা বা মাতা বা অভিভাবক যদি কোনো প্রতিষ্ঠানে চাকুরি করেন তাহলে সে প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার কাছ থেকে অথবা ১ম শ্রেণির কর্মকর্তার কাছ থেকে অথবা ওয়ার্ড মেম্বার অথবা চেয়ারম্যানের এর থেকে আয়ের বিবরণের সনদের মূলকপি দিতে হবে।

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর শিক্ষা বৃত্তির পরিমাণঃ

শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর শিক্ষা বৃত্তির আবেদন করার পর যদি আপনি মনোনীত হোন তাহলে যে পরিমাণ বৃত্তি পাবেন তা উপরের স্ক্রিনশটে লক্ষণ করলে জানতে পারবেন। তাই স্ক্রিনশটের পুরো বিষয়টি ভালো করে লক্ষ্য করুন।

সতর্কতাঃ
☞ আবেদন ফরমে পূরণকৃত কোনো তথ্য ভুল দেওয়া যাবে না। যদি তা পরবর্তীতে প্রমাণীত হয় তাহলে কিন্তু আপনার বৃত্তিটি বাতিল হতে পারে।
☞ এর আগে অন্যকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে বৃত্তি পেয়ে থাকলে এখানে আবেদন করার দরকার নেই।
☞ আপনার পরিবার বা অভিভাবকের বাৎসরিক আয় যদি ১,৫০,০০০/- টাকার এর উপরে হয় তাহলে কিন্তু আবেদন গৃহীত হবে না।
☞ বৃত্তির জন্য মনোনীত হওয়ার পর প্রতি বছর আপনি বর্তমানে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করতেছেন সেখানে এখনও পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছেন এই মর্মে প্রতিষ্ঠান প্রধান থেকে একটি প্রত্যয়নপত্র জমা দিতে হবে।
☞ বৃত্তির জন্য আবেদন করার পর যদি মনোনীত হোন তখন আপনার ঠিকানায় বা ইমেইলে একটি পত্র পাঠানো হবে যা আপনাকে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানের দিন সাথে করে নিয়ে যেতে হবে।

আবেদন করার শেষ তারিখঃ
শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর বৃত্তির জন্য আবেদন করার সর্বশেষ তারিখ হচ্ছে আগামী ১৭ই আগস্ট ২০২২ইং তারিখ পর্যন্ত। তাই যত দ্রুত সম্ভব আবেদন করে ফেলুন।

আবেদন জমা দেওয়ার পদ্ধতিঃ

আপনি যদি আবেদন ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করে ফেলেন এবং সাথে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করে ফেলতে পারেন। তাহলে সবগুলি একসাথে সুন্দর করে ঘুচিয়ে স্ট্যাপল বা পিন মেরে স্ক্রিনশটে উল্লেখিত শাহজালাল ইসলামি ব্যাংক এর হেড অফিস বা প্রধান দপ্তরের ঠিকানায় ডাকযোগ অথবা কুরিয়ারযোগে পাঠিয়ে দিন। এছাড়াও আপনি চাইলে উক্ত ঠিকানায় নিজে সরাসরি গিয়ে জমা দিয়ে আসতে পারেন।

তো এই ছিলো আমার আজকের এই টপিক। আশা করি আপনাদের বুঝাতে সক্ষম হয়েছি। তারপরও যদি কোনো জায়গায় বুঝতে অসুবিধা হয়ে থাকে তাহলে কোনো দ্বিধা না করে মন্তব্য করে ফেলবেন আমি আমার সাধ্যমতো আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব। আর আপনার জন্য শুভকামনা রইলো যাতে করে আপনি বৃত্তির জন্য মনোনীত হন এবং আপনার সুন্দর শিক্ষাজীবন গড়ে তুলতে পারেন নিজের এবং দেশের উপকারে আসতে পারেন।

বিজ্ঞপ্তির ছবি সূত্রঃ প্রথম আলো।

আপনাদের সুবিধার্থে আমি আমার টিপস এন্ড ট্রিকসগুলি ভিডিও আকারে শেয়ার করার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেছি। আশা করি চ্যানেলটি Subscribe করবেন।

সৌজন্যে : বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং বর্তমান সময়ের বাংলা ভাষায় সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ক টিউটোরিয়াল সাইট – www.TutorialBD71.blogspot.com নিত্যনতুন বিভিন্ন বিষয়ে টিউটোরিয়াল পেতে সাইটটিতে সবসময় ভিজিট করুন।

11 thoughts on "শিক্ষার্থীরা শিক্ষা বৃত্তির জন্য আবেদন করুন শাহজালাল ইসলামি ব্যাংকে।"

  1. Aubdulla Al Muhit Author says:
    অসাধারণ ভাই । খুবই প্রয়োজনীয় । এই বৃত্তি তারা কত বছর ধরে দিয়ে আসছে?
    ভবিষ্যতে দেবে কী?
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      প্রতি বছরই দিয়ে থাকে।
  2. Md Mahabub Khan Author says:
    Vai apnar fb id link plz
  3. ᏝᎥᏦᏂᎧᏁ Author says:
    Thank you for the post 😊
    1. Shakib Author says:
      💗🔥
  4. MiSiR ALi ✪ Contributor says:
    Source Link chai.
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      চোখে কী সমস্যা নাকি। অবশ্যক ছবিতে কালো চশমা লাগিয়ে রাখছেন। পোস্টের নিচ দিয়ে তো উল্লেখ করে দিয়েছি।
    2. MiSiR ALi ✪ Contributor says:
      সর্ব প্রথম বলতে চাই, আপনার পারিবারিক শিক্ষার অভাব আছে যা আপনার বাবা মা আপনাকে শেখাতে ব্যার্থ । আমি প্রথম আলোর ডাইরেক্ট সোর্স চেয়েছি । পোষ্টের নিচে প্রথম আলোর অথেন্টিক কোনো সোর্স লিংক নাই, শুধু “সোর্সঃ প্রথম আলো” লিখলেই সঠিক হয়ে যায় না । আর ভিডিও তে যে ওয়েবসাইট দেখানো হয়েছে, এমন শত শত ওয়েবসাইট ১ দিনেই বানানো যায়।
  5. Md Zafor Contributor says:
    ভাই ডাকযোগে পাঠালে কত দিন পর চিঠিটা তাদের অফিসে পৌছাতে পারে?আর কুরিয়ারে পাঠালে তারা কি চিঠিটা ঠিকানাই পাঠাই দেই?আর পাঠাই দিলে কেমনে সিউর হব যে তারা চিঠি টা অই অফিসে পাঠাই দিসে?কুরিয়ার বা ডাকযোগ কোনটা সুবিধা হবে?

Leave a Reply