আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে TrickBD তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে TrickBD তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই TrickBD এর সাথেই থাকুন ।

আপনি যদি এই ২ টা নিয়ম মানতে পারেন তাহলে আপনি চাকরি করে ধনী হতে পারবেন খুব সহজেই।


আপনি যদি চাকরি করে থাকেন তাহলে অবশ্যই চাকরি করে ধনী হতে চান। অবশ্যই আপনি চাকরি করার মাধ্যমে ধনী হতে পারবেন। চাকরি করে ধনী হতে চাইলে আপনাকে দুইটা নিয়ম মেনে চলতে হবে। প্রথম হচ্ছে Hack Liabilities And Assets দ্বিতীয়টা হচ্ছে Create A Passive Income

এই দুইটা নিয়ম সম্পর্কে আমি আর্টিকেলে আলোচনা করব। আপনি যদি কম টাকারও চাকরি করে থাকেন তবুও আপনি এই দুইটা নিয়ম ফলো করলে ধনী হতে পারবেন। এমন অনেক ব্যক্তি আছে যারা ১ লক্ষ্য টাকার বেতনের চাকরি করেও ধনী হতে পারে না। তারা আবার অনেক ঋণের মধ্যে থাকে।

আবার এমন অনেক ব্যক্তি আছে যারা ২৫০০০ হাজার টাকার চাকরি করেও ধনী হয়েছে। একটা উদাহরণের মাধ্যমে দেখে নেই যে কিভাবে Liabilities এবং Assets কে এক করে ২ থেকে ৩ টা Passive Income Create করার মাধ্যমে ধনী হওয়া যায়। যাই হোক আমি একসাথে দুইটা বিষয় বুঝিয়ে দিচ্ছি যে কিভাবে Liabilities এবং Assets কে এক করবেন এবং Passive Income তৈরি করবেন।

রফিক আর সজিব দুই বন্ধু। রফিক ২০,০০০ টাকা বেতনের চাকরি করে আর সজিব ৫০,০০০ টাকা বেতনের চাকরি করে। সজিব অনেক ভালো একটা Flat থাকে। সজিব প্রতি মাসে Flat ভাড়া দেয় ৫০০০ টাকা, হাত খরচ ৫০০০ টাকা, খাবার বিল দেয় ৫০০০ টাকা আলাদা করে রাখতে হয়। সে ফ্যাসনএবল হওয়ার জন্য পোশাকের পিছনে ৫০০০ টাকা ব্যয় করতে হয় । এছাড়া সে আবার কিস্তিতে একটা মোটরবাইক কিনেছে যার দাম ৫,০০,০০০ টাকা। সে প্রতি মাসে কিস্তি দেয় ২০,০০০ টাকা মোটরবাইকের জন্য।

আর বাকি রইল ১০,০০০ টাকা তারমধ্য থেকে ৫০০০ টাকা বন্ধু বান্ধবদের সাথে রেস্তোরাঁয় খাওয়া দাওয়া আর বাইকের তেল খরচ হিসেবে। আর বাকি ৫০০০ টাকা জমাচ্ছে একটা ওয়াশিং মেশিন, একটা এসি ও একটা আইফোন কেনার জন্য। কারণ সে মনে করে তার স্টাটাসের সাথে এগুলো থাকা খুবই জুরুরি।

তো সে তিন বছর পর্যন্ত ৫০০০ টাকা জমানোর পরে ১ লক্ষ্য ৮০ হাজার টাকা হয়। ১ লক্ষ্য ৮০ হাজার টাকা থেকে সে ১ লক্ষ্য টাকা দিয়ে একটা আইফোন, ৩০ হাজার টাকা দিয়ে একটা ওয়াশিং মেশিন এবং ৫০ হাজার টাকা দিয়ে একটা এসি কিনেছে। কিন্তু তিন বছর পরে দেখা যায় সে যে ৫ হাজার টাকা করে প্রতি মাসে জমাত সেটা আর পারছেনা।

কারণ ওয়াশিং মেশিন, আইফোন, এসি এবং মোটরসাইকেলের খরচ আর তার স্টাটাস মেইনটেইন করতে করতেই আগে যে ৫ হাজার টাকা জমাত সেটাও শেষ হয়ে যায়। তাই মাঝে মাঝে সজিবকে বন্ধু বান্ধবের কাছে থেকে টাকা ঋণ নিতে হচ্ছে। তিন বছর পরে এভাবেই সে টানাটানি করে চলতে থাকে।

অন্যদিকে রফিক ২০ হাজার টাকা বেতন থেকে ২ হাজার টাকা তার একটা মেসের ভাড়া দেয়, ৫ হাজার টাকা যায় খাবার কিনতে, ১ হাজার টাকা হাত খরচ রেখে সে ১২ হাজার টাকা সে জমিয়ে রাখে। বছর শেষে দেখা যায় সে ১ লক্ষ্য ৪৪ হাজার টাকা জমিয়েছে। সেই টাকা দিয়ে তার এক চাচাকে আটো রিকশা কিনে দেয় তার বিনিময়ে তার চাচা তাকে দিনে ৩০০ টাকা আর মাসে ৯ হাজার টাকা দিতে রাজি হয় আটো ভাড়াবাবদ।

আরো এক বছর পরে দেখা যায় সে প্রতি মাসে যে ১২ হাজার টাকা জমাত সেই টাকা আর সে প্রতি মাসে ৯ হাজার টাকা আটো ভাড়া পেত তা মিলিয়ে ২ লক্ষ্য ৫২ হাজার টাকা দিয়ে একটা দোকান ভাড়া নেয় এবং সেখানে ভালো একজন কর্মচারী নিয়োগ দেয় আর রাতে সব হিসাব নিকাশের জন্য ২ ঘন্টা দিয়ে সেই দোকানে বসে। প্রতিমাসে তার দোকান থেকে মূনাফা পায় ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা।

দোকান ভাড়া, কর্মচারী বিল ও অন্যান্য খরচ দিয়ে তার হাতে থাকে ৫০ হাজার টাকা। তো আরো এক বছর পরে তার হাতে আরো টাকা আসে। জমানো টাকা ১,৪৪,০০০ টাকা, অটো ভাড়া ১০৮,০০০ টাকা, আর দোকান থেকে পায় ৬,০০,০০০ টাকা। মোট ৮,৫২,০০০ টাকা। তিনি বছর শেষ সে বছরে ৮,৫২,০০০ টাকা সে আয় করছে।

তো এভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে রফিকের ধনী হতে আর কত দিন লাগবে। আমার চিন্তা থেকে রফিকের আর বেশি দিন লাগবে না ধনী হতে। ৫ বছর পরে যদি আমরা দেখি তিন বছরের শেষ থেকে মানে

১ বছর → ৮,৫২,০০০ টাকা
২ বছর → ৮,৫২,০০০ টাকা
৩ বছর → ৮,৫২,০০০ টাকা
৪ বছর → ৮,৫২,০০০ টাকা
৫ বছর → ৮,৫২,০০০ টাকা

যোগ করলে ধারায় ৪২,৬০,০০০ টাকা। অন্য দিকে সজিব ৫০ হাজার টাকা বেতন পেয়েও ঋণের মধ্যে আছে। এখন এখন পার্থক্য গুলো হচ্ছে Liabilities আর Assets এর। সজিব তার তিন বছরে Liabilities কিনেছে যেগুলো তার পকেট থেকে টাকা বের করেছে টাকা দিতে পারেনি। আবার অন্য দিকে রফিক তার তিন বছরে Liabilities এবং Assets কে হ্যাক করে সে শুধু Liabilities কে বাদ দিয়ে Assets কে কিনে রেখেছে। যে Assets গুলো তাকে টাকা এনে দিয়েছে বছর শেষ।

এছাড়াও সে Assets কিনার পাশাপাশি একটা Passive Income Create করে রেখেছে। যেখানে থেকে মাস গেলে একটা টাকা আসবে সেটা হলো দোকান আর আটো। তো আমি শুরুতেই বলেছিলাম Liabilities এবং Assets কে হ্যাক করার মাধ্যমে এবং একটা Passive income Create করার মাধ্যমে আমরা ধনী হতে পারব। রফিক তার জীবনে এটা সঠিকভাবে ফলো করেছে। তাই সে আগামী ৫ থেকে ১০ বছরের মধ্যে চাকরি করে ধনী হয়ে যাবে।

যেকোনো চাকরিজীবী এই নিয়ম দুইটা ফলো করলে সহজেই সে ধনী হতে পারবে রফিকের মত করে। বেশি দিন নয় রফিকের মত করে ৫ বছর এই নিয়ম মেনে চললে আপনার লাইফটা পরিবর্তন হয়ে যাবে। আজকে এ পর্যন্তই সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবে আল্লাহ হাফেজ।

আপনার ওয়েবসাইটের জন্য আর্টিকেল প্রয়োজন হলে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন ফেসবুকে আমি

17 thoughts on "আপনি যদি এই ২ টা নিয়ম মানতে পারেন তাহলে আপনি চাকরি করে ধনী হতে পারবেন খুব সহজেই।"

  1. Xein Ahmed Author says:
    bebshay shikkha chatro mone hocche😑
    1. fardin4200 Contributor says:
      Vai trickbd te 1 ta post a koto taka dai?
    2. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      No Bro Science
    1. fardin4200 Contributor says:
      Vai trickbd te 1 ta post a koto taka dai?
    2. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ।
    3. Xein Ahmed Author says:
      gore 10 tk. qualitiful hole 20!! ar supernatural kichu likhte prle 100 obodhi pete paren
  2. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
    ভালো আইডিয়া দিয়েছেন
    1. fardin4200 Contributor says:
      Vai trickbd te 1 ta post a koto taka dai?
    2. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      হুম।
  3. fardin4200 Contributor says:
    Vai trickbd te 1 ta post a koto taka dai?
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      এটা সঠিকভাবে বলা যায় না। এটা লেখার মান এবং সাইটের ইনকামের উপর নির্ভর করে।
  4. অনেক ভালো ।এগিয়ে যান।
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      হুম
  5. Levi Author says:
    Thanks for the advise.
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ওয়েলকাম

Leave a Reply