* ১. কেউ কারো সুন্নতি পোশাক [লম্বা পাঞ্জাবী, টুপি, দাড়ি) দেখেই মতামত নিতে না যাই, দেখি তিনি কুরআন ও হাদীস থেকে বলছেন কিনা। আবার এমন না হয় যে দেখলেই সন্দেহ করবেন।

কেউ কুরআন থেকে কথা বললে সে সত্য বলে।

*২. ব্রিটিশদের মাধ্যমে আমাদের দেশে ইসলাম নিয়ে অনেক ভুল প্রচারিত হয়েছে, তাই ছোটবেলায় যা শিখেছি এখন উলটা শুনলে খারাপই লাগে, কিন্তু সত্য তো জানতে হবে। যেমন – কিছু কথা আছে যা আমাদের দেশে হাদীস নামে পরিচিত, যা হাদীসের বইতে পাওয়া যায়না। তাই হাদীসের বই পড়ুন। হাদীস নাম্বারই লাগবে এমন নয়, বইয়ের নাম শুনে নিলেই সংশ্লিস্ট খন্ড বা অধ্যায় খুঁজলেই পাবেন। আর প্রকৃত মুসলিমের বুঝা উচিত যা কোনটা ইসলাম এর বাণী, আর কোনটা বানানো। কথা।-ok-

*৩. যেকোন ধর্মীয় বিষয়ে ও অতি প্রাকৃত কোন ঘটনার (ভুমিকম্প, আগ্নেয়গিরি, সমুদ্র, মহাকাশ ইত্যাদি) বিষয়ে সত্য জানার উপায় কুরআন ও হাদীস. আপনি মুর্খ না হইলে হাফেজ ও আলেম দের জিজ্ঞাসা করে জেনে নিন কোথায় আছে, তারপর নিজে পড়ে নিন। সামান্য কাজ এটা। না করে আমরা বিতর্ক করতে পছন্দ করি কেন? আল্লাহ বলেন “যদি তোমরা না জানো তবে জ্ঞানীদের কাছ থেকে জেনে নাও” —– আল কুরআন।..

*৪.কুরআন ও হাদীস আরবীই পড়ে বুঝতে হবে এমন নয়, বাংলা অর্থ অনুবাদ না পড়লে জীবনেও বুঝা যাবেনা। এই বইগুলোর দাম বেশি না। এপস ও আছে। কিছু এপ্স এ চরম ভুল আছে তাই বই কেনা ভালো। আবার সস্তা বইতেও ভুল থাকে, ইমান নস্ট হয়ে যাবে পড়লে অথচ নাম খুবই আকর্ষণীয় (আমি নাম বলে তাদের প্রমোট করতে চাইনা).

♥ ভালো বই ওয়েবসাইট/ অনলাইন লাইব্রেরী থেকেও পড়া যায়।। সেরা ২ টি সাইট আছে একটা সাজেস্ট করবো – সার্স দিন “ইসলামহাউজ” লিখে। বাংলা সিলেক্ট করুন। অথবা ক্লিক করুন
Facebook Islamic Religious Page,

——– (এটি আমার পেজ নয়/এড নয়।)

*৫. অনলাইনে যা কাজ সারা বছর চলে,কি রমজান আর কি চৈত্র তা হলো স্টাটাস ভালো না লাগলেই গালি।.

===== মুসলিম কখনও অপরকে গালি দেবোনা,এটা কুফুরী । কারণ গালি দেয়া নিষেধ। আল্লাহ নিষেধ করেছেন। আল্লাহর আদেশ অমান্য করা কুফুরী। গালি ও গিবত একসাথে হারাম একই সময়ে – দেখুন ৩০ নং পারায় সুরাহ হুমাযাহ এর ১ম আয়াত। ((ধ্বংস তাদের জন্য যারা সামনাসামনি গালি দেয় ও পেছনে নিন্দা করে))

*৬. কিন্তু দোষ দেখলেও মুসলিমের মত ভদ্র আচরণ করা উচিত। দোষ সবার থাকে। তা ভদ্রভাবে বলে দেওয়া উচিত।অনলাইন বা রিয়াল লাইফ। তা বলা উচিতও। নয়তো সে ভুল বার বার করে শেষ হয়ে যাবে।কথায় আছে {{নিশ্চুপ বা প্রশংসাকারী বন্ধুর চেয়ে সমালোচক শত্রু অনেক ভালো}}……… আর হাদীসে বলা হয়েছে ((মুমিন অপর মুমিনের আয়না))– সঠিক সমালোচনা এর চেয়ে আর ভালো উদাহরণ হতে পারেনা।।

হা ছোট খাটো ভুল বলতে গিয়ে কস্ট দেওয়া /বন্ধুত্ব সম্পর্ক পানসে করার দরকার নেই। এক্ষেত্রে এমন উচিত যান তা দেখেন ই নাই। আর ক্ষতিকর ঝুঁকিপূর্ণ টা বলা উচিত।-

#নিজস্ব সম্পদ ®কপিরাইট ++ খালিদ।

6 thoughts on "যে ৬ টি পরামর্শ আপনাকে করবে ভালো মানুষ..!!"

  1. Silent Lover Silent Lover Contributor says:
    Good post.


    1. Md Khalid Khalid Author Post Creator says:
      Good reader!!”
  2. nhmizan nhmizan Contributor says:
    ব্রিটিশদের মাধ্যমে আহলে খবিসদের জন্ম হয়েছে এটাও জানা দরকার। মাজহাব ব্রিটিসদের তৈরি নয়। এটা তাবেইদের যুগের। তাই আমরা ১৪০০ বছর আগের মাজহাব অনুসরন করি আর ব্রিটিসদের তৈরি খবিসিকে লাথি মারি
    1. Md Khalid Khalid Author Post Creator says:
      কিন্তু এই ধরণের কমেন্ট ও বক্তব্য ব্রিটিশরাই করতো, তাবেঈন রা নয়। যেমন আপনি করলেন। তাহলে কি বুঝবো? আদর করে টাইগার নাম?
  3. nhmizan nhmizan Contributor says:
    কুকুরের জন্য দরকার মুগুর
    1. Md Khalid Khalid Author Post Creator says:
      নিজের ঔষধ টা ভালোই চেনে সবাই! কারণ সে নিজেই তার গ্রাহক

Leave a Reply