সামনে পবিত্র ঈদ উল ফিতর। তাই সবাইকে আমার পক্ষ থেকে জানাই অগ্রিম ঈদ মোবারক। যেহেতু সামনে পবিত্র ঈদুল ফিতর। যা আমাদের জন্য একটি বড় আনন্দের বা খুশির দিন। আর এই দিনে আমরা সবাই সবার সাথে আনন্দ বা খুশি ভাগাভাগি করতে বড়রা ছোটদেরকে ঈদ স্যালামি বা বকশিষ দিয়ে থাকি। আর আমাদের দেশের প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী স্যালামি যদি নতুন টাকা দিয়ে দেওয়া না হয় তাহলে কি হয়। আর এটির মাধ্যমে সংঘটিত হয় একটি গুনাহের কাজ যা কিনা হলো বেশি দাম দিয়ে নতুন টাকা ক্রয় করা। যার মাধ্যমে আমরা বড় ধরনের গুনাহ করে থাকি। কারণ বেশি টাকা দিয়ে নতুন টাকা ক্রয় করা বিষয়টি সুদের কাতারে পড়ে। যা আমাদের অজান্তেই ঘটে যাচ্ছে।

সুদের বিষয়টি কুরআন ও হাদিসের আলোকে রিবা হিসেবে পরিচিত। এই রিবা বা সুদ নিয়ে কুরআন ও হাদিসে অনেক সতর্ক বার্তা রয়েছে। আর আমরা সকলেই সুদ বলতে বুঝি কারো কাছ থেকে বা ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে বাড়তি যে টাকাটা প্রদান করা হয় সেটি সুদ। এর বাহিরে যে আমরা কত কিছুতে এইরকম বাড়তি টাকা প্রদান করে থাকি সেগুলোকে আর সুদ হিসেবে চিহ্নিত করি না। ইসলামিক জ্ঞান শূণ্যতার কারণে আমাদের আজকের এই অবস্থা।

অনেকেই হয়তো উপরের লেখাগুলি পড়ে চমকে গিয়েছেন যে এটা আবার সুদের কাতারে কিভাবে পড়ে। রিবা বা সুদ কে আমরা কেবল মহাজন বা ব্যাংকের সুদের ক্ষেত্রেই সীমাবদ্ধ রাখতে পারি না ইসলামি পরিভাষা অনুযায়ী। বরং রিবা বা সুদ বিষয়টি আরো অনেক বিস্তৃত। এখন অনেকেই হয়তো বিষয়টি নিয়ে যুক্তিতর্ক করতে অগ্রগামী হবেন। তাই আগে বলে রাখি আপনাকে উক্ত গুনাহের কাজ থেকে বিরত রাখার জন্যই আমার আজকের এই পোস্ট। এইবার চলুন মূল আলোচনা শুরু করা যাক।

মূলত ঈদের পূর্বে বা অন্যান্য সময়ে নতুন টাকা ক্রয়বিক্রয় করার হাট বসে ঢাকার বাংলাদেশ ব্যাংক এর পাশে এবং গুলিস্তান সহ আরো অন্যান্য জায়গায়। তবে ঢাকা ছাড়া ঢাকার বাহিরে অর্থাৎ বাংলাদেশের অন্যান্য জায়গায় এই রকম হাট আছে কিনা আমার জানা নাই। এইসব হাটে দৈনিক হাজার হাজার নতুন টাকা ক্রয় বা বিক্রয় হয়। বিশেষ করে ঈদের সময় এই টাকার হাটটি বেশ জমজমাট হয়ে উঠে। যেখান থেকে আপনাকে নতুন ১০ টাকা নোটের ১০০০ টাকা সমমূল্যের বান্ডেল ক্রয় করতে হবে ১১০০-১২০০ টাকা দিয়ে। অর্থাৎ নতুন ১০০০ টাকাকে আপনি পুরাতন ১১-১২০০ টাকা দিয়ে ক্রয় করতেছেন। যা ক্রয় করতে আপনার বাড়তি ১০০-২০০ টাকা লাগতেছে। এই যে ১০০-২০০ টাকা আপনি বাড়তি দিয়ে ক্রয় করতেছেন এটিই ইসলামি শরিয়তের রিবা বা সুদের পরিভাষার মধ্যে পড়ে যায়। যা একটি রিবা বা সুদ হিসেবে গণ্য হবে। যার মাধ্যমে যিনি বিক্রি করতেছেন তিনিও গুনাহগার হচ্ছেন। আবার যিনি ক্রয় করতেছেন তিনিও গুনাহগার হচ্ছেন।

উক্ত বিষয়টি ইসলামি অর্থনীতি অনুযায়ী রিবা বা সুদের অন্তর্ভুক্ত। আমাদের দেশের বা মানুষের তৈরি বৈশ্বিক অর্থনীতির সুদের সংজ্ঞার সাথে এটির কোন মিল নেই। তাই হয়তো আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে এটি আবার কিভাবে সুদের কাতারে পড়ে। সুদকে কুরআন ও হাদিসে রিবা হিসেবে বলা হয়েছে। এর বিষয়বস্তু অনেক বিস্তৃত। আর আমাদের দেশের প্রচলিত অর্থনীতি অনুযায়ী সুদের পরিভাষা অতটা বিস্তৃত নয়। যার ফলে রিবা আর সুদের পরিভাষার মধ্যে মিল খুঁজে পাবেন না। অতএব, আমরা বলতে পারি পচলিত অর্থনীতিতে এই বেশি মূল্য দিয়ে নতুন টাকা ক্রয় করার বিষয়টি সুদ হিসেবে চিহ্নিত না হলেও ইসলামি অর্থনীতি অনুযায়ী এটি সুদ হিসেবেই গণ্য হবে। তাই আমি বলব মনের প্রশান্তির জন্য আর বাচ্চাদের খুশি করানোর জন্য এইরকম একটি হারাম কাজে জড়াবেন না। কেননা রিবার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আল্লাহ তায়ালা যুদ্ধের ঘোষণা দিয়েছেন।

এখন থেকে সকলেরই উচিৎ উপরোক্ত বিষয় বিবেচনা করে ঈদের সময় সহ অন্যান্য সময় আমরা এই যে নতুন টাকা বেশি টাকার বিনিময়ে ক্রয় করে থাকি এই কাজ থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করব। প্রয়োজনে যদি নতুন টাকা আমাদের একান্ত দরকারই হয় তাহলে বাংলাদেশ ব্যাংক সহ অন্যান্য ব্যাংক থেকে নেওয়ার চেষ্টা করব। সেখান থেকে আপনি যে টাকা নিবেন সে টাকার বিনিময়েই নিতে পারবেন। অর্থাৎ অতিরিক্ত কোন টাকা দেওয়া লাগবে না।

উপরোল্লিখিত বিষয়টি আমি নিজেও আজকের পূর্বে জানতাম না। আজকে হঠাৎ মুসলিম ডে অ্যাপের নোটিফিকেশন এর মাধ্যমে জানতে পারি। মুসলিম ডে কর্তৃপক্ষ তাদের অ্যাপটিতে উল্লেখ করে যে ইসলামি অর্থনীতি বিষয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান IFA Consultancy Ltd থেকে The Fiqh of Riba কোর্সের তৃতীয় লেকচার থেকে তারা বিষয়টি জানতে পারেন। এখন মুসলিম ডে কর্তৃপক্ষ এবং আমার পরামর্শ হচ্ছে উপরোক্ত বিষয়ে যদি আপনার কোন সন্দেহ থাকে তাহলে পরিচিত বা আশেপাশের ইসলামি অর্থনীতি বিষয়ে অভিজ্ঞ এমন কোন আলেমের স্বরণাপন্য হোন। আশা করি এর একটি উত্তম সমাধান পেয়ে যাবেন।

অবশেষে বলতে বলতে আমি আজকের পোস্টের একদম শেষপ্রান্তে চলে এসেছি। যদিও উপরে বিষয়টি বলেছি। তবুও আবারো একটু বলে নেই আজকের পোস্টের বিষয়বস্তুটি আমি মুসলিম ডে অ্যাপ থেকে সংগ্রহ করেছি এবং নিজের মত করে সাজিয়ে লিখেছি। আশা করি আপনারা এই পোস্টের মাধ্যমে উপকৃত হবেন।

আপনাদের সুবিধার্থে আমি আমার টিপস এন্ড ট্রিকসগুলি ভিডিও আকারে শেয়ার করার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেছি। আশা করি চ্যানেলটি Subscribe করবেন।

সৌজন্যে : বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং বর্তমান সময়ের বাংলা ভাষায় সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ক টিউটোরিয়াল সাইট – www.TutorialBD71.blogspot.com নিত্যনতুন বিভিন্ন বিষয়ে টিউটোরিয়াল পেতে সাইটটিতে সবসময় ভিজিট করুন।

2 thoughts on "ঈদের স্যালামি দেওয়ার জন্য নতুন টাকা ক্রয় করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন নাকি।"

    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      thanks

Leave a Reply