আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে TrickBD তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে TrickBD তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই TrickBD এর সাথেই থাকুন ।

এই আর্টিকেলটি পড়ে বুঝতে পারবেন আপনি সৎ সঙ্গের সাথে আছেন নাকি অসৎ সঙ্গের সাথে আছেন


আমি দূরে গেছি কোন একটা বন্ধুদের সাথে হয়তবা টূরে গেছি। আমি শুধুমাত্র একমাত্র নামাজ পড়ি আর বন্ধুরা নামাজ পড়ে না। নামাজের সময় হয়ে গেছে তারা তাদের মত আড্ডা দিচ্ছে। তাদের সাথে থাকতে আমাকেও তারা
বেনামাজি বানিয়ে দিতেন কোন দ্বিধা করবে না অথবা শয়তান চাই সেই অজুহাতে আমাকে বিভিন্নভাবে নামাজ থেকে দূরে সরিয়ে নিয়ে যাবে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আজ থেকে চৌদ্দশ
বছর আগে আমাদেরকে এমন সব কিছু গাইলেন দিয়ে গিয়েছিলেন যে সকল গাইড লাইন গুলো আমাদের এই সমাজে এই যুগে এতবেশি জরুরী এত বেশি হেল্পফুল তা বলা বাহুল্য রাখেনা।

তার মধ্যে একটা বিষয়ে আপনাদের সামনে উল্লেখ করছি আমি বুখারী শরীফের ২১০১ নাম্বার হাদিস যেখানে আবু মুসা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন →যে সৎসঙ্গ হচ্ছে আতর বিক্রেতার মত এবং অসৎ সঙ্গ হচ্ছে কামারের হাপরের মতো বিষয়টি খুবই ইন্টারেস্টিং। আমি যখন প্রথম হাদিসটা শুনলাম। তখন আমার কাছে খুব অবাক হয়ে লেগেছিল সুবহানাল্লাহ। যে আমি আগে তো কখনো কল্পনাও করি নাই।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিসসালাম এভাবে বলছেন→ সৎসঙ্গ হচ্ছে আতর বিক্রেতার মতো যে আতর কিনতে গেলে তুমি কখনো খালি হাতে ফিরে আসবে না হয় তুমি আতর কিনবে নয়ত ওই দোকানে গিয়ে আতরের সুগন্ধি পাবে। তারপরে রাসূলুল্লাহ সাল্লাম বললেন →এবং অসৎ সঙ্গ হচ্ছে কামারের হাপরের মত। যদি তুমি সেখানে যাও হয় কোন ভাবে তোমার আগুন হয়তোবা আগুন এসে তোমার কাপড় পরিয়ে দিবে অথবা ঘর পুড়িয়ে দেবে অথবা তোমার নাকের দুর্গন্ধ লাগবে। সুবহানাল্লাহ। বিষয়টা একবার ভাবার চেষ্টা করুন।

যে সৎসঙ্গ হচ্ছে আতর বিক্রেতার মত অর্থাৎ আমরা যদি সবসময় চেষ্টা করি ভালো সংঘের সাথে থাকার জন্য নেককার সালেহীনদেরর সাথে থাকার জন্য তাহলে তাদের কাছ থেকে কোনো-না-কোনোভাবে আমরা কিছু না কিছু হলেও উপকৃত হব এটলিস্ট সেই সুগন্ধ আমার নাকে আসবে। আর আমাদের সঙ্গে গুলো যদি খারাপ হয় আমরা যদি খারাপ সঙ্গের সাথে থাকি তাহলে সেটা কামাড়ের সেই হাপরের মতো বা কামাড়ের দোকানের মত ওই জায়গায় যাওয়ার পরে কি আপনার ভালো লাগে সাধারণত।

সাধারণত দেখা যায় যে হয়তোবা আগুন আগুনের শিখা আগুনের ফুলকি উড়ে এসে আমার গায়ে পড়তে পারে বা পুড়ে যেতে পারে ওর আশেপাশে যাওয়া খুব রিস্কি। আমরা যখন ছোট ছিলাম আমাদের বাবা-মা যখন কুরবানীর জন্য দাঁ, বটি, ছুড়ি ধার দিতে নিয়ে যেত কামারের কাছে তখন কেন আমাদেরকে ভিতরে যেতে দিত না।

তখন খুব তাপ থাকত সে সময় হাপর দিয়ে যখন বাতাস করত তখন অনেক তাপ থাকতো যে আমাদের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে কাপড়ে আগুন
লাগতে পারে গায়ে আগুন লাগতে পারে গা পুড়ে যেতে পারে ঠিক আছে আর আমরা পাশে গিলেও কিন্তু নাকে একটা দুর্গন্ধ চলে আসে। অসৎ সঙ্গ কিন্তু এরকমই। আমরা নিজে ভালো কিন্তু আমার ফ্রেন্ড সার্কেল যেটা আছে তারা অসৎ নামাজ পড়ে না। তারা খারাপ কাজ ভিতরে থাকে।

তারা বিভিন্নভাবে গুনাহে লিপ্ত আছে। কিন্তু আমি তাদের আশেপাশে যাচ্ছি বা কোনোভাবে আছি দেখা যাচ্ছে এমন হচ্ছে যে তারা কোন একটা মুভি দেখছে। আমি জানি আমি মুভিটা আমি দেখবো না তারপর আমার চোখ গেল সেই মুভিতে। এই যে এটাও একটা গুনাহ। তারা কোন একটা গান শুনতেছে আমি
গান শুনি না আমি গান শুনবো না কখনো কিন্তু তাদের সাথে থাকার ফলে আমার কানে একটা গানের আওয়াজ চলে আসলো।

আমার কানে বাঁশির আওয়াজ চলে আসলো তারা কোন একটা মুভির পোস্ট বা কোন সিরিজের পোস্ট ফেসবুকে পোস্ট করতেছে। আমি কখনো মুভি দেখবো বা কোন সিরিজও দেখবো না সে আমার ফ্রেন্ড লিস্টে থাকার কারণে তার সে বিষয়টা আমি জানতে পারলাম। সে খুব গর্বকরে বলতেছে যে এই দুইটা সিরিজ হচ্ছে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ভালো সিরিজ।

এটা দেখার পরে আমি জানতাম না যে বিষয়টা আমার মনের ভিতর একটা প্রলুব্ধ চলে আসবে। এক ধরনের ওয়াসওয়াসা দিবে। সুতরাং বন্ধুত্ব সিলেক্ট করার আগে আপনাকে অবশ্যই ভাবতে হবে। আমি কাদের সাথে চলাফেরা করব। হে আমি টূরে গেছি কোন একটা বন্ধুদের
সাথে হয়তবা টূরে গেছি আমি শুধুমাত্র একমাত্র নামাজ পড়ি আর বন্ধুর নামাজ পড়ে না। নামাজের সময় হয়ে গেছে তারা তাদের মত আড্ডা দিচ্ছে। তাদের সাথে থাকতে থাকতে আমাকেও তারা বেনামাজি বানিয়ে দিতে কোন দ্বিধা করবে না অথবা শয়তান চাই সেই অজুহাতে আমাকে বিভিন্নভাবে নামাজ থেকে দূরে সরিয়ে নিয়ে যাবে।

এটাই বলা হচ্ছে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এই বিষয়টা বোঝাচ্ছেন যে তুমি আর কিছু পাওনা পাও তোমার ক্ষতি হোক না হোক কিন্তু তোমার নাকে কিন্তু দুর্গন্ধ যাবে। যদি তুমি অসৎ সংঘের সাথে থাকো। সুতরাং ভাইয়েরা এবং বোনেরা আমরা সবসময় চেষ্টা করব সৎ সঙ্গে থাকার জন্য নেককার সালেহীনদের
সাথে থাকার জন্য।

আল্লাহ সুবহানাতায়ালা সূরা তাওবার ১১৯ নাম্বার আয়াতে বলেছেন→ হে ঈমানদারগণ হে মুমিনগণ তোমরা আল্লাহকে ভয় করো তাকওয়া অবলম্বন করো এবং সত্যবাদীদের সাথে থাকো সুবহানাল্লাহ। আল্লাহ তায়ালা বলছে তোমরা নেককারদের তাদের সাথে থাকলে কোন না কোনভাবে তুমি উপকৃত হবে। তাদের সাথে থাকলে তুমি কোন না কোন ভাবে উপকৃত হবে হোক সেটা সুগন্ধ পাওয়া মাধ্যমে হোক সেটা কোন সুন্নাহকে জানার মাধ্যমে হোক সেটা কোন ভালো কাজে উৎসাহিত হওয়ার মাধ্যমে হোক সেটা নামাজে
আরো আগ্রহ জাগার মাধ্যমে হোক সেটা নামাজে মনোযোগ বাড়ানোর একটা উপায় হতে পারে সুবহানাল্লাহ। আল্লাহ আমাদের সবাইকে নেককারদের সাথে চলার তৌফিক দান করুন আমীন । আজকে এ পর্যন্তই সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবে আল্লাহ হাফেজ।

আপনার ওয়েবসাইটের জন্য আর্টিকেল প্রয়োজন হলে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন ফেসবুকে আমি

11 thoughts on "এই আর্টিকেলটি পড়ে বুঝতে পারবেন আপনি সৎ সঙ্গের সাথে আছেন নাকি অসৎ সঙ্গের সাথে আছেন"

  1. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
    লিখার জন্য ধন্যবাদ
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ওয়েলকাম।
  2. Levi Author says:
    সৎ সঙ্গে স্বর্গবাস, অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ।পোস্ট অনেক সুন্দর হয়েছে।
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ।
    2. Levi Author says:
      স্বাগত।
  3. পোষ্ট টি করার জন্য ধন্যবাদ।
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ওয়েলকাম ।
    2. আপনাকেউ ওয়েলকাম।
  4. Ashraful Author says:
    আপনার ইসলাম সম্পর্কে ভালো জ্ঞান আছে দেখছি। দেখে খুশি হলাম।
    1. MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      আলহামদুলিল্লাহ আল্লাহ তায়ালা যথেষ্ট জ্ঞান দিছে।

Leave a Reply