“বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম”

আসসালামু আলাইকুম

আশা করি আল্লাহর রহমতে সকলেই ভাল আছেন।।

আজ আমি আপনাদের মাঝে একটা ইসলামিক পোষ্ট নিয়ে হাজির হলাম।।

যে বুকে হাত বেধে সালাত আদায় করে,
সেও আমার মুসলিম ভাই,
যে নাভীর নিচে হাত বেধে সালাত আদায় করে,
সেও আমার মুসলিম ভাই ।
.
যে ইমামের পিছনে সূরা ফাতিহা পড়ে,
সেও আমার মুসলিম ভাই,
যে ইমামের পিছনে সূরা ফাতিহা পড়ে না,
সেও আমার মুসলিম ভাই ।
.
যে জোরে আমীন বলে,
সেও আমার মুসলিম ভাই,
যে আস্তে আমীন বলে,
সেও আমার মুসলিম ভাই ।
.
যে নামাজে রাফউল ইয়াদাইন করে,
সেও আমার মুসলিম ভাই,
যে রাফউল ইয়াদাইন করে না,
সেও আমার মুসলিম ভাই ।

.
যে তাশাহুদ পড়ার সময় আঙ্গুল নাড়ায়,
সেও আমার মুসলিম ভাই,
যে তাশাহুদ পড়ার সময় আঙ্গুল নাড়ায় না,
সেও আমার মুসলিম ভাই ।
.
যে আট রাকআত তারাবিহ পড়ে
সেও আমার মুসলিম ভাই,
যে বিশ রাকআত তারাবিহ পড়ে
সেও আমার মুসলিম ভাই,
ইত্যাদি ইত্যাদি….
মহান আল্লাহ বলেন;
ﻗُﻞْ ﻣَﻦْ ﺭَﺏُّ ﺍﻟﺴَّﻤَﺎﻭَﺍﺕِ ﻭَﺍﻟْﺄَﺭْﺽِ
তুমি প্রশ্ন কর, ‘আসমানসমূহের ও জমিনের রব কে’? (আর-রাদ, ১৩/১৬)
তখন সকল মুসলিমই উত্তর দিবে, “আল্লাহ”।
তিনি আরও বলেন;
ﻭَﻟَﺌِﻦْ ﺳَﺄَﻟْﺘَﻬُﻢْ ﻣَﻦْ ﺧَﻠَﻘَﻬُﻢْ ﻟَﻴَﻘُﻮﻟُﻦَّ ﺍﻟﻠَّﻪُ ۖ ﻓَﺄَﻧَّﻰٰ ﻳُﺆْﻓَﻜُﻮﻥَ
আর যদি তুমি তাদেরকে প্রশ্ন কর, কে তাদেরকে সৃষ্টি করেছে? তারা অবশ্যই বলবে, ‘আল্লাহ।’ তবুও তারা কোথায় ফিরে যাচ্ছে? (আয-যুখরুফ, ৪৩/৮৭)
.
যদি প্রশ্ন করি সর্বশেষ এবং সর্বশ্রেষ্ঠ নবী কে?
তথন সকল মুসলিমই উত্তর দিবে, “মুহাম্মদ (ﷺ )”।
আর এই নবীই বলেছেন; ﺍﻟْﻤُﺴْﻠِﻢُ ﺃَﺧُﻮ ﺍﻟْﻤُﺴْﻠِﻢِ
এক মুসলিম অন্য মুসলিমের ভাই। (সহীহুল বুখারী: ২৪৪২, ৬৯৫১)
.
তাহলে ফিকহী মতভেদের এর কারণে আমরা মুসলিমরা পরস্পর বিচ্ছিন্ন কেন?
আল্লাহর বাণী;
ﻭَﺃَﻃِﻴﻌُﻮﺍ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﻭَﺭَﺳُﻮﻟَﻪُ ﻭَﻻ ﺗَﻨَﺎﺯَﻋُﻮﺍ ﻓَﺘَﻔْﺸَﻠُﻮﺍ ﻭَﺗَﺬْﻫَﺐَ ﺭِﻳﺤُﻜُﻢْ ﻭَﺍﺻْﺒِﺮُﻭﺍ ﺇِﻥَّ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﻣَﻊَ ﺍﻟﺼَّﺎﺑِﺮِﻳﻦَ
আর আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের আনুগত্য কর এবং তোমরা পরস্পর ঝগড়া কর না তাহলে তোমরা সাহস হারিয়ে ফেলবে এবং তোমাদের প্রতিপত্তি শেষ হয়ে যাবে আর তোমরা ধৈর্যধারণ কর; নিশ্চয় আল্লাহ ধৈর্যশীলদের সাথে আছেন। আল-আনফাল, ৮/৪৬
কেন আমরা নিজেরা নিজেরা ঝগড়া করেছি আর আমরা নিজেদের শেষ করছি।
যা হওয়া মোটেই উচিত নয়। বরং আল্লাহ তা’আলা মুসলিমদের পরস্পর বিচ্ছিন্ন হতে নিষেধ করেছেন ।
ﻭَﭐﻋْﺘَﺼِﻤُﻮﺍ۟ ﺑِﺤَﺒْﻞِ ﭐﻟﻠَّﻪِ ﺟَﻤِﻴﻌًﺎ ﻭَﻟَﺎ ﺗَﻔَﺮَّﻗُﻮﺍ۟ۚ ﻭَﭐﺫْﻛُﺮُﻭﺍ۟ ﻧِﻌْﻤَﺖَ ﭐﻟﻠَّﻪِ ﻋَﻠَﻴْﻜُﻢْ ﺇِﺫْ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﺃَﻋْﺪَﺍٓﺀً ﻓَﺄَﻟَّﻒَ ﺑَﻴْﻦَ ﻗُﻠُﻮﺑِﻜُﻢْ ﻓَﺄَﺻْﺒَﺤْﺘُﻢ ﺑِﻨِﻌْﻤَﺘِﻪِۦٓ ﺇِﺧْﻮَٰﻧًﺎ ﻭَﻛُﻨﺘُﻢْ ﻋَﻠَﻰٰ ﺷَﻔَﺎ ﺣُﻔْﺮَﺓٍ ﻣِّﻦَ ﭐﻟﻨَّﺎﺭِ ﻓَﺄَﻧﻘَﺬَﻛُﻢ ﻣِّﻨْﻬَﺎۗ ﻛَﺬَٰﻟِﻚَ ﻳُﺒَﻴِّﻦُ ﭐﻟﻠَّﻪُ ﻟَﻜُﻢْ ﺀَﺍﻳَٰﺘِﻪِۦ ﻟَﻌَﻠَّﻜُﻢْ ﺗَﻬْﺘَﺪُﻭﻥَ
তোমরা সকলে আল্লাহর রজ্জুকে সুদৃঢ়ভাবে ধারণ কর এবং বিভক্ত হয়ো না। আর তোমরা তোমাদের উপর আল্লাহর নিয়ামতকে স্মরণ কর, যখন তোমরা পরস্পরে শত্রু ছিলে। তারপর আল্লাহ তোমাদের অন্তরে ভালবাসার সঞ্চার করেছেন। অতঃপর তাঁর অনুগ্রহে তোমরা ভাই-ভাই হয়ে গেল। আর তোমরা ছিলে আগুনের গর্তের কিনারায়, অতঃপর তিনি তোমাদেরকে তা থেকে রক্ষা করেছেন। এভাবেই আল্লাহ তোমাদের জন্য তাঁর আয়াতসমূহ বয়ান করেন, যাতে তোমরা হিদায়াতপ্রাপ্ত হও। ( সূরা আল-ইমরান, আয়াত ১০৩ )
.
এসো মুসলিম…
কিছু মতভেদ ভুলে গিয়ে আমরা এক হয়ে যাই।
সব মুসলিম ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইসলাম-এর শত্রুদের হাত থেকে পরস্পর বেঁচে থাকি।
হে আল্লাহ! সকল মুসলিমকে হেদায়াত দান করুন,
সবাইকে সঠিক বুঝ দান করুন ।
.
আপনি যদি কুরআন ও সুন্নাহকে আকড়ে ধরেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলে গেছেন-
ﺗَﺮَﻛْﺖُ ﻓِﻴﻜُﻢْ ﺃَﻣْﺮَﻳْﻦِ ﻟَﻦْ ﺗَﻀِﻠُّﻮﺍ ﻣَﺎ ﺗَﻤَﺴَّﻜْﺘُﻢْ ﺑِﻬِﻤَﺎ ﻛِﺘَﺎﺏَ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﻭَﺳُﻨَّﺘِﻲْ
আমি তোমাদের মাঝে দুটি বস্তু ছেড়ে যাচ্ছি যতক্ষণ পর্যন্ত তোমরা এই দুটিকে দৃঢ়ভাবে ধারণ করবে কক্ষনো পথভ্রষ্ট হবে না। বস্তু দুটি হলঃ আল্লাহর কিতাব (তথা আল-কুরআন) এবং আমার সুন্নাত (তথা হাদীছ)। [হাকেম: ১/১৭২, ৩১৯, বায়হাক্বী: ১০/১১৪, ২০৮৩, মালেক: ১৫৯৪, হাদীছ বিশুদ্ধ। আলবানীর ছহীহুল জামে‘য়া ২৯৩৭, ৩২৩২]
আপনি কখনও পথভ্রষ্ট হবেন না।
আল্লাহ! কবুল করুন।

সবাই ভালো থাকবেন।

আল্লাহ হাফেজ

15 thoughts on "এক মুসলিম আরেক মুসলিমের ভাই"

  1. Abir Ahsan Author says:
    ধন্যবাদ
    1. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
      স্বাগতম বন্ধু। সর্ব প্রথম আমার পোষ্টে মতামত প্রদান করার জন্য।
    1. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভাই
  2. Fahim Uddin Fahim Uddin Contributor says:
    মাশাআল্লাহ
    1. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভাই
    1. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভাই
  3. Md Abdullah Md Abdullah Contributor says:
    ধন্যবাদ.. খুব সুন্দর লিখছেন.. তবে শেষে একটু ভুল করছেন, তা হলো সুন্নাত জিনিসটাকে হাদিস বলে সম্মোধন করছেন.. সব হাদিস সুন্নাত নয়, কিন্তু সব সুন্নাতই হাদিস.. রাসূল সাঃ তাঁর সুন্নাতকে আকড়ে ধরতে বলেছেন, হাদিসকে নয়
    1. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভুলটি ধরিয়ে দেয়ার জন্য
  4. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
    ধন্যবাদ ভাই
  5. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
    অসংখ্য ধন্যবাদ ট্রিকবিডিকে আমার পোষ্টি প্রকাশ করার জন্য।
    ট্রিকবিডির মত সাইটে পোষ্ট করতে পারায় আমি খুব আনন্দিত
  6. রিয়াদ রিয়াদ Author says:
    প্রথম পোস্ট খুবি ভাল লাগল। আশাকরি সামনে আরো ভাল কিছু পাব।
    1. Prem✅ Prem Chowdhury✅ Contributor Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভাইয়া উৎসাহ দেয়ার জন্য।

Leave a Reply