আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে TrickBD তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে TrickBD তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই TrickBD এর সাথেই থাকুন ।

Placebo Effect

যদি আমি আপনাকে বলি যে আপনি কেবলমাত্র আপনার চিন্তা শক্তি দ্বারাই শরীরের বড় কোন রোগকে ঠিক করতে পারবেন। আপনি আপনার মাইন্ড পাওয়ারকে ইউজ করে শরীরের বড় কোনো অসুখে ঠিক করতে পারবেন। তো আপনি কি আমার এই কথাটিকে বিশ্বাস করবেন। জানি বিশ্বাস করবেন না। কিন্তু এটি ওয়ান হান্ড্রেড পার্সেন্ট সত্য যে আপনি আপনার মাইন্ড পাওয়ারকে ইউজ করে আপনার শরীরের কোন রোগ-ব্যাধিকে ঠিক করতে পারবেন। আপনাকে শুধু এর মাধ্যমে জানতে হবে এবং কিভাবে টেকনিকে ইউজ করতে হয় তা জানতে হবে। আর আজকের এই আর্টকেলটির মাধ্যমে আমরা এটাই জানতে চলেছি।

Placebo Effect যার সাহায্যে আপনি কেবল মাত্র আপনার চিন্তা শক্তির সাহায্যে কোন রোগ-ব্যাধি ঠিক করতে পারবেন। Placebo Effect এই নামটিকে হয়তো আপনাদের মধ্যে থেকে অনেকেই আগেও শুনেছেন। হশতো অনেকে প্রথমবার শুনছেন এই টপিকটি উপরে একটি বইয়ে লেখা রয়েছে। বইটির নাম হলো You are the placebo

বইটির অথার হলেন ডক্টর জো ডিসপঞ্জা। জো ডিসপঞ্জা বয়স যখন ২১ বছর ছিল তখন তার সাথে একটি বড় অ্যাক্সিডেন্ট ঘটে যায়। সেই অ্যাক্সিডেন্টে তার পা এবং বেগবোনের প্রায় সমস্ত হাড় ভেঙে গিয়েছিল। বড় বড় ডাক্তারের কাছে দেখিয়ে কোন লাভ হল না। ডক্টর তাকে বললেন যে তাকে এবার তার সমস্ত জীবন হুইলচেয়ারে কাটাতে হবে কিন্তু যো হার মানেনি তিনি নিজের উপর একটি এক্সপেরিমেন্ট করলেন।

তিনি মনে মনে এটা ভেবে নিয়েছিলেন যে তিনি একজন নর্মাল ব্যক্তি তার শরীরে কিছুই হয়নি বেশ কয়েক বছর তাকে হুইলচেয়ারে থাকতে হবে। তারপর সে আবার তার নাম আমার লাইফে উপভোগ করতে পারবে। কয়েক মাস কেটে যাওয়ার পর তিনি ফিল করলেন তিনি ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছেন এবং কয়েক বছর পর তিনি একেবারেই সুস্থ হয়ে গেলেন। তিনি তাঁর হুইল চেয়ার থেকে উঠে নিজের নর্মাল লাইফটা উপভোগ করতে শুরু করলেন।

আর এই ঘটনাটি মেডিকেল সাইন্স এর কাছে একটি বড় মিস্টি হয়ে গেল আর ঠিক এই রকম একটি ঘটনা স্টিফেন হকিং এর সাথে ঘটেছিল। এই এক্সাম্পল দুটির দ্বারা এটা একেবারেই ক্লিয়ার হয়ে যায়। যে আমাদের শরীর সেটাই করে যেটা আমরা ভাবি আর এই কথাটিকে সাইন্স ও প্রুফ করেছে। যে ফ্রিকুয়েন্সি আমরা আমাদের ব্রেনের রাখি সেই একই ফ্রিকোয়েন্সিতে আমাদের বডিও রিরেক্ট করে।

Placebo Effect কে প্রুফ করার জন্য বিজ্ঞানীরা কিছু এক্সপেরিমেন্ট করেন তারা কিছু পেশেন্টদেরকে ডাকলেন এবং তাদেরকে বললেন যে আমরা এমন মেডিসিনকে ডেভলপ করে নিয়েছি যার সাহায্যে আপনাদের শরীরের ব্যথা একেবারে শেষ হয়ে যাবে। বিজ্ঞানীরা পেশেন্টদের পেইন কিলারের পরিবর্তে নর্মাল সুগার মেডিসিন দিয়ে দিলেন। আশ্চর্য জনকভাবে সেই Sugar Medicine মেডিসিন খেয়ে খেয়ে লোকেদের ব্যথা শেষ হয়ে যায়।

কারণ লোকেরা সেটিকে মেডিসিনের রূপে একসেপ্ট করেছিলেন। মেডিকেল ফিল্ডে স্পেশালি হোমিওপ্যাথি ট্রিটমেন্ট ডক্টরা Placebo Effect কে প্রচুর মাত্রায় ব্যবহার করে। আর ঠিক এই ভাবেই আপনি হয়তো বহু লোকেদেরকে তাবিজ আংটি বা গলায় মালা পড়তে দেখেছেন। এই সকল জিনিস গুলিও মানে তাবিজ, আংটি, মালা Placebo Effect এক্সাম্পল। এই সকল জিনিস গুলি আপনার লাইফে ঠিক তেমনি প্রভাব ফেলবে যেমনভাবে আপনি এগুলিকে এক্সেপ্ট করবেন।

একচুয়ালি এই Placebo Effect বিলিভ সিস্টেমের উপর কাজ করে। Placebo Effect আপনার আস্থা এবং বিশ্বাস এর ভিত্তিতে কাজ করে। ফর এক্সাম্প্লে মাঝেমধ্যেই আপনি হয়তো এক্সামের আগে খুবি নারভাস হয়ে পরে এবং ভাবতে শুরু করেন যে বোধহয় আমার এক্সাম খুবই খারাপ হবে আর নরমালি তা ঘটে যায়। এই সিচুয়েশনে আপনি যে কোশ্চেনগুলো আনসারকে জানতেন সেগুলি কেউ ভুলে যান জানা প্রশ্নের উত্তর গুলো কেউ আপনি এক্সাম হলে নার্ভাসনেসের কারণে ভুলে যান।

মানুষের বিলিফ সিস্টেমটাকে সফল করতে পারে আবার অসফল করতে পারে। কারণ যেখানে বিশ্বাস এবং আস্থা আছে সেখানে নতুন রাস্তা আছে। আস্থার ফলে ভাবনা জন্ম হয় ভাবনার দ্বারা অনুভূতি তৈরি হয় অনুভূতির প্রভাব কাজের মধ্যে দেখা যায় আর ভালো কাজে ভালো ফল আসে। তো যদি আপনি ফলাফল চান তাহলে আপনাকে পজেটিভ ভাবনা রাখতে হবে।

তো চলুন এবার আমরা জেনে নেই যে আপনি প্লেসিবো ইফেক্টকে কিভাবে কাজে লাগাবেন। অনেক সময় কি হয় লোকের আপনাকে বলে যে তুই এই কাজটি করতে পারবি না। তুমি এ কাজটি করতে পারবে না। আপনি ঐ কাজটি করতে পারবেন না। এক কথায় লোকেরা আপনার উইলপাওয়ার কে নেগেটিভিটিতে পরিপূর্ণ করে দেয়। আপনাকে নেগেটিভ কথাগুলিকে অ্যাভয়েড করতে হবে।

আপনি কেবলমাত্র সেটাই করুন সেটা কি ফলো করুন যেটা আপনার জন্য ইউজফুল। নেগেটিভ থিংকিং আমাদের মাইন্ডে নেগেটিভ প্যাটার্নকে ডেভলপ করে। যার ফলে আপনার মধ্যে ভালো কিছু করার বড় কিছু করার ক্ষমতা থাকা সত্যেও আপনি সেই কাজগুলোকে করতে পারেন না। আপনি যেমন ভাবেন তেমনি ধরনের ব্যক্তি তৈরি হবে জীবনে আপনার প্যারেন্টস ফ্রেন্ডস relative’s আপনাকে বিভিন্ন এডভাইস দেয়।

কি করা উচিত কি করা উচিত নয় সেগুলিকে জানায় আপনাকে কি করতে হবে আপনাকে সেই সকল এডভাইস গুলিকেই ফলো করতে হবে যেগুলো কিনা সত্যিই আপনার জীবনকে বেটার বানাবে। আর যে এডভাইস গুলি আপনার কোন কাজের নয় সেগুলিকে রিজেক্ট করতে হবে। পজিটিভ থিংকিং এবং বিলিফের সাহায্যে আপনি পৃথিবীর যে কোন জিনিসকে এচিভ করতে পারবেন। আপনি নিজে একবার ভেবে দেখুন যে যদি আপনি কোন ব্যক্তির সাথে দুর্ব্যবহার করেন ।

তাহলে নেক্সট প্রাইম সেই ব্যক্তি আপনার সাথে কথা বলা তো দূরের কথা আপনার কাছেই আসবে না। আর যদি আপনি কোন ব্যক্তির সাথে ভালো ব্যবহার করেন তাহলে নেক্সট টাইম সেই ব্যক্তি ও আপনার সাথে ভালো ব্যবহার করবে। একটা কথা আছে → What You Think You Become আপনি যেমন ভাবনা রাখবেন তেমনি ধরনের ব্যক্তি তৈরি হবেন। তো আশা করছি এই প্লেসিবো ইফেক্টকে কিভাবে কাজ করে তা আপনি বুঝতে পেরেছেন এবং আশা রাখছি যে আপনি এই প্লেসবো এফেক্টকে নিজের লাইফে এপ্লাই করবেন।

আশা করি সবাই সবকিছু বুঝতে পেরেছেন। কোথাও সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাবেন অথবা ফেসবুকে জানাতে পারেন ফেসবুকে আমি

6 thoughts on "Placebo Effect মনের শক্তি দিয়ে আপনার শরীরে যেকোন রোগ ভালো করুন"

  1. (Mr. Merciless) Dark_Superman (Mr. Merciless) Contributor says:
    বানান অনেক ভুল করেছেন, সংশোধন করে নিন।


    1. MD Shakib Hasan MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ
  2. Mahbub Pathan Mahbub Pathan Author says:
    পোস্টটি এক কথায় অনেক ভালো হয়েছে। কিন্তু বাক্য গঠন ও বানানে বেশ গড়মিল লক্ষ করা যায়। মনে হয় যেন কোন অনুবাধক যন্ত্রের সাহায্য নেওয়া হয়েছে।
    1. MD Shakib Hasan MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ
  3. KingRishad Contributor says:
    হোমিও ঔষধও এইভাবে কাজ করে। Placebo effect এর বিপরীত effect হল Nocebo effect. এই ইফেক্ট হল যে আপনি যদি কোনো খারাপ লাগা থকে মনে করেন যে আপনার বড় কোন রোগ হয়েছে তবে আপনার সেই রোগ হওয়ার চান্স থাকে। আনারস আর দুধ একসাথে খেলে পেট ব্যাথা হতেই পারে কিন্তু নরমালি বড় কিছু হয় না। কিন্তু এই Nocebo Effect এর জন্য অনেক বড় কিছু হয়ে যাওয়ার চান্স অনেক বেড়ে যায়।
    1. MD Shakib Hasan MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      🤔

Leave a Reply