আজকে আমি আপনাদের সাথে আলু দিয়ে ত্বক ও গায়ের রঙ ফর্সা করার বেশ কয়েকটি উপায় শেয়ার করবো। তাহলে চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করে দেই আজকের পোস্ট।

 

১. ফেস প্যাক তৈরি।

প্রথমেই আলু দিয়ে ত্বক ফরসা করার অসাধারণ একটি উপায় শেয়ার করছি। আমি এখানে একটি ফেইস প্যাক তৈরী ও ব্যাবহার করা শিখাবো যেটার মাধ্যমে আপনি খুবই কম সময়ে আপনার ত্বক কে ফর্সা করতে এবং ত্বক এর খসখসে ভাব দূর করতে, চোখের নিচের কালো দাগ, ত্বকের যেকোনো কালোদাগ, ব্রণের ফলে হওয়া কালোদাগ ও গর্ত দুর করতে পারবেন। তাছারা এই টিপস এর মাধ্যমে আপনি পাতলা ও ঝুলে যাওয়া স্কিন পাতলা ও টানটান করতে পারবেন। আর এই টিপস টির মজার ব্যাপার হচ্ছে আপনি মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই আপনার ত্বকের কাঙ্খিত ফলাফল পেয়ে যাবেন।

 

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

১. একটি আলু।

২. একটি ডিম।

৩. একটি ফেসিয়াল টিস্যু অথবা ট্যাবলেট টিস্যু মাস্ক।

৪. দুইটি ছোটো বাটি বা পাত্র।

৫. একটি ব্লেন্ডার মেশিন।

৬. একটি ছাকনি।

৭. ছুরি।

 

কার্যপ্রণালী:

১. আলু থেকে কয়েক টুকরো আলুর অংশ কেটে নিবেন। (আলুর উপরের ছক্লা টুকু কেটে ফেলে দিবেন।)

২. আলুর টুকরো গুলো ব্লেন্ডার মেশিন এর মাধ্যমে পেস্ট বানিয়ে নিবেন।

৩. ব্লেন্ড করার পর আলুর পেস্ট টিকে ছাকনি দিয়ে ভালোমত ছেকে একটি পাত্রে রস বের করে ঢালতে হবে।

৪. রস বের করে নেওয়া হয়ে গেলে এই রস কে দশ মিনিটের জন্যে কোনো প্রকার নাড়াচাড়া না করে রেখে দিতে হবে।

৫. অপর যেই পাত্র টি রয়েছে ডিম টি ভেঙে ডিমের শুধুমাত্র সাদা অংশ টুকু সেই পাত্রে রাখুন।

৬. এবার ১০ মিনিট হয়ে গেলে সেই পাত্র থেকে আলুর রস ফেলে দিন নীচে একটি সাদা অংশ পাবেন সেটি সংরক্ষণ করুণ।

৭. এবার ডিমের সাদা অংশ ও আলুর সাদা অংশ একসাথে মিক্স করুন। এরপর ভালোমত নাড়াচাড়া করুন।

৮. এখন আমাদের ফেস প্যাক তৈরি হয়ে গেছে। এই ফেস প্যাক টি কে পুরো চেহারার পুরো অংশে লাগিয়ে নিন।

৯. এরপর ফেসিয়াল টিসু দিয়ে পুরো মুখ টি ভালোমতো লেপটে লেপটে ঢেকে নিন।

১০. এতে টিসু টি ভিজে যাবে। এরপর মুখ থেকে উঠিয়ে ফেলুন।

১১. উঠিয়ে ফেলার পর দেখতে পাবেন আপনার ত্বক আগের থেকে অনেকটাই টানটান ও ফর্সা হয়ে যাবে। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

১২. তাছারা আপনার কাছে ট্যাবলেট টিস্যু মাস্ক থেকে থাকলে ট্যাবলেট টিস্যু মাস্ক দিয়ে ডিম ও আলুর সাদা অংশের মিশ্রণ টি ভালোমতো ভিজিয়ে নিবেন।

১৩. এরপর টিস্যু মাস্ক টি আপনার মুখের উপর বসিয়ে দিবেন।

১৪. বিশ মিনিট পর টিস্যু মাস্ক টি খুলে নিবেন।

১৫. এরপর মুখ ধুয়ে নিবেন।

 

বন্ধুরা। যেই টিস্যু মাস্ক টির কথা বলেছি সেটি একবার হলেও দেখবেন। তারপর বুঝবেন এটা কতটা কার্যকর।

 

২. ফেস প্যাক তৈরি ২।

এই টিপস টি আগের থেকেও সহজ এবং আগের টার থেকেও বেশি কার্যকর। ইহা ও মাত্র ১৫ অথবা ২০ মিনিটের ব্যাপার। এছাড়াও গত ফেস প্যাক টি শুধুমাত্র মুখণ্ডলের জন্যে কার্যকর। কিন্ত এই ফেস প্যাক টি আপনি শরীরের যেকোনো অংশেই ব্যাবহার করতে পারেন।

 

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

১. একটি আলু।

২. এক চামচ মধু।

৩. একটি চামচ।

৪. ২ চামচ গোলাপ জল।

৫. ছুরি

৬. ব্লেন্ডার মেশিন।

৭. একটি পাত্র।

 

কার্যপ্রণালী:

১. প্রথমে ছুরি দিয়ে ভালোমত আলুর ছোলকা ফেলে দিন।

২. এরপর আলুকে টুকরো টুকরো করে কেটে নিন।

৩. এরপর আলুকে ব্লেন্ডার করে পেস্ট বানিয়ে নিন।

৪. এরপর এক চামচ মধু নিন।

৫. মধুকে আলুর পেস্ট এর সাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।

৫. দুই চামচ গোলাপ জল নিন।

৬. গোলাপ জল কে আলুর পেস্ট ও মধুর মিশ্রিত অংশের সাথে ভালমত মিশিয়ে নিন।

৭. সবকিছু মিশানো হয়ে গেলে এবার ফেস প্যাক আপনার শরীরের বা ত্বকের কালো অংশ গুলোতে লাগিয়ে নিন।

৮. লাগিয়ে নিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে দিন।

৯. ২০ মিনিট পর আপনি নিজেই পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

 

আর এই টিপস টির একটি সুবিধা হচ্ছে ইহা আপনি প্রতি সপ্তাহে একবার করে লাগালে আপনার স্কিন কোনোদিন কালোই হবেনা।

 

তো আমাদের দুটো টিপস অলরেডী হয়েই গেছে। পরবর্তি টিপস এর আগে আসুন জেনে নেই কেনো আলু আমাদের ত্বক ফর্সা করার জন্য এতটা উপকারী।

 

আলু কেনো উপকারী?

আলুর মধ্য রয়েছে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন সি, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম জিঙ্ক ও ফসফরাস। আলুতে থাকা প্রতিটি উপাদান হচ্চে প্রাকৃতিক ব্লিচিং এজেন্ট অর্থাৎ ত্বকের রং পরিবর্তন করতে সাহায্য করে। ত্বক কে খুব কম সময়ের মধ্যেই ফর্সা ও সুন্দর করতে সাহায্য করে।

 

এবারে পরবর্তী টিপস টির ব্যাপারে জেনেনিন।

 

৩. গোল করে কেটে মুখে রাখা।

জি, এই টিপস এ আলুকে কিছুটা গোল করে দলকে নিতে হবে। এই টিপস টি মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যেই ফলাফল দিয়ে দেয়।

 

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

১. একটি মাঝারি আলু।

২. একটি ছুরি।

 

কার্যপ্রণালী:

১. প্রথমে আলু টিকে ছোটো ছোটো পিস পিস করে গোল গোল করে কেটে নিন।

২. এরপর আলুর পিস গুলোকে আপনার মুখের উপর রেখে দিন।

৩. ১০ মিনিট পর উঠিয়ে ফেললে আপনার ত্বক আগের চেয়ে ফর্সা হয়ে যাবে।

 

এই টিপস টি আপনি টিপস টি আপনি আলুর রস দিয়েও ব্যাবহার করতে পারবেন। এটা আপনি সপ্তাহে তিন দিন ব্যাবহার করতে পারেন।

 

আমার আজকের পোস্ট টি এই পর্যন্তই রাখছি। আর আমার পোস্ট টি যদি আপনার একটুও ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই অবশ্যই আমার আমার ওয়েবসাইট টি ভিজিট করতে ভুলবেন না।

ওয়েবসাইট: https://10itbd.blogspot.com/?m=1

 

টুইটারেও চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন আমি ফেসবুক এর চেয়ে বেশি এক্টিভ থাকি টুইটারে।

টুইটার: 1215maruf

 

 

One thought on "জেনেনিন আলু দিয়ে ত্বক ফর্সা করার কয়েকটি উপায়।"

Leave a Reply