পৃথিবীতে আগত সন্তানের মা-বাবাদের জন্য সুখবর। এখন থেকে আপনাদের সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করতে আর আপনাদের নিজেদের জন্ম সনদের প্রয়োজন নেই। কারণ আগের বাধ্য বাধকতার আইনটি ইতিমধ্যে সংশোধন করা হয়েছে। এতোদিন পৃথিবীতে আগত একজন নতুন অতিথি মানে শিশুর পৃথিবীর মধ্যে ছোট্ট এই বাংলাদেশে নিজের পরিচয় এবং নিজের প্রাপ্ত নাগরিক পরিচয়পত্রটি পেতে বেশ ঝামেলায় পড়তে হতো যদি না তাদের মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন থাকতো। আসলে এটি এক বিশাল বড় সমস্যা ছিল। এখন আর এই ঝামেলায় পড়তে হবে না।

গত ২০২১ইং সালের ০১লা জানুয়ারি থেকে মূলত একজন শিশুর বা একজন ব্যাক্তির জন্ম নিবন্ধন করতে হলে তার মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করা হয়েছিলো। যার ফলে এতোদিন কোনো শিশুর বা কোনো ব্যাক্তির জন্ম নিবন্ধন করতে হলে তার মা-বাবার জন্ম নিবন্ধনের প্রয়োজন পড়তো।

মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক হওয়ায় যেসব সমস্যার সম্মুখীন হতে হতো,

একজন শিশুর বা একজন ব্যাক্তির জন্ম নিবন্ধন করার সময় মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করার পর অনেকেই বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতেন। যেমন যেসকল শিশু বা ব্যাক্তির মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন না থাকতো তাদের আর জন্ম নিবন্ধন করা যেতোনা। আবার যেসকল শিশুর বা ব্যাক্তির মা-বাবার মধ্যে বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যেতো তাদেরও জন্ম নিবন্ধন করতে ঝামেলা পড়তে হতো। আবার যারা পথশিশু রয়েছেন তাদেরও জন্ম নিবন্ধন করতে ঝামেলা হতো। এছাড়াও আরো অনেক ধরনের সমস্যা থাকতে পারে।

মা-বাবার জন্ম নিবন্ধনের বাধ্য বাধ্যকতা তুলে নেওয়ার বিষয়ঃ


গত ২৭ জুলাই ২০২২ইং থেকে জন্ম নিবন্ধন এর ওয়েবসাইট বা সার্ভার থেকে মা-বাবার জন্ম নিবন্ধনের বাধ্যতামূলক বিষয়টি বাতিল করে দেওয়া হয়েছে যা এখন ঐচ্ছিক হিসেবে রাখা হয়েছে।

আপনার করণীয়ঃ

আপনি যদি আপনার সন্তানের জন্য জন্ম নিবন্ধন করতে চান অথবা নিজের জন্য করতে চান তাহলে অবশ্যই চেষ্টা করবেন মা-বাবার জন্ম সনদগুলি দেওয়ার জন্য। এতে করে আপনার জন্য আপনার শিশুর জন্য ভালো হবে নির্ভুল নিবন্ধনের জন্য। আর যদি সেগুলো কোনো কারণে না থেকে থাকে তাহলে আপনি চাইলে এমনিতে আপনার সন্তানের বা আপনার নিবন্ধনটি করে নিতে পারবেন।

সতর্কীকরণঃ

এই পোস্টটি করার কারণ হচ্ছে উক্ত বিষয়ে আপনাকে অবগত করার জন্য। কারণ আমরা সকলেই জানি ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশনে কোনো নাগরিক সেবা নিতে গেলে বিভিন্ন ধরনের হয়রানির শিকার হতে হয়। না জানার কারণে সেখানে কর্মরত কর্মকর্তারা আমাদের বিভিন্নভাবে হয়রানি করে থাকে। এখন যদি আপনি নতুন করে কোনো জন্ম নিবন্ধন করতে যান এবং এতে যদি মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন না থাকে তাহলে তারা যদি আপনাকে বলে যে মা-বাবার জন্ম নিবন্ধন লাগবে তখন আপনি উক্ত বিষয়ে তাদের সাথে বোঝাপড়া করতে পারবেন। এখন থেকে আপনি শুধু জন্মের পর হাসপাতালের ছাড়পত্র অথবা টিকা কার্ড দেখিয়ে একজন শিশুর জন্ম নিবন্ধন করতে পারবেন।

তথ্যসূত্রঃ প্রথম আলো।

আপনাদের সুবিধার্থে আমি আমার টিপস এন্ড ট্রিকসগুলি ভিডিও আকারে শেয়ার করার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেছি। আশা করি চ্যানেলটি Subscribe করবেন।

সৌজন্যে : বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং বর্তমান সময়ের বাংলা ভাষায় সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ক টিউটোরিয়াল সাইট – www.TutorialBD71.blogspot.com নিত্যনতুন বিভিন্ন বিষয়ে টিউটোরিয়াল পেতে সাইটটিতে সবসময় ভিজিট করুন।

17 thoughts on "সন্তানের জন্ম নিবন্ধন করতে মা-বাবার জন্ম সনদের বাধ্য বাধকতা তুলে দেওয়া হয়েছে।"

    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      💓
  1. ᏝᎥᏦᏂᎧᏁ Author says:
    পৌরসভায় যাওয়া ছাড়া কি জন্মনিবন্ধন বাংলা ইংলিশ মানে ডিজিটাল করা যায় ভাই?
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      আসলে এইরকম কোনো সুযোগ নেই। তবে আপনি চাইলে অনলাইনে নিজে নিজে আবেদন করতে পারবেন। তবে সেটি আবেদন করার পর আপনাকে পৌরসভা বা ইউনিয়ন বা সিটি কর্পোরেশনে যেতে হবে এবং সেখানে আবেদন কপি জমা দিতে হবে। তারপর তাদের দেওয়া তারিখ অনুযায়ী আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে। তারপর সেটি সংগ্রহ করে নিতে হবে। আপনি আবেদন করে যে কাজ করবেন তারাও ঠিক একই কাজ করবেন। তবে এখানে আপনি আবেদন করলে যে সুবিধাটি পাবেন সেটি হচ্ছে নির্ভুল আবেদন করতে পারবেন। কারণ ওরা বানানে অনেক ভুল করে।
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      thanks
  2. Sk Shipon Author says:
    অসাধারণ।
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ
  3. Shakib Author says:
    online ei akhn agula abedon + edit kor jay, aita niye bistarito likhiyen
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      ceshta korbo, dhonnobad
  4. Uzzal Mahamud Author says:
    অনেক বড় একটা ঝামেলা থেকে মানুষ এখন মুক্ত.!
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      Hmm
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      Thanks
    1. Mahbub Pathan Author Post Creator says:
      Thanks

Leave a Reply