বর্তমানে কম্পিউটার যর্থেষ্ট সহজলভ্য ও
সুলভ হয়ে উঠেছে।কিন্তু তার পরেও
শিক্ষার্থিরা এবং স্বল্প আয়ের
মানুষদের হাতের নাগালে পৌছে
দেওয়ার জন্য বিভিন্য কোম্পানি কাজ
করে যাচ্ছে।কিন্তু তাইবলে ৭০০ টাকার
কম্পিউটার!হ্যা তাই,এই কল্পনাকে
বাস্তব রূপ দেওয়ার জন্য কাজ করে
যাচ্ছে দা নেক্সট থিং নামের একটি
মার্কিন প্রতিষ্ঠান।ক্রাউডফান্ডিং
প্রজেক্টের আওতায় চিপ নামে মাত্র ৯
মার্কিন ডলার সমমূল্যের কম্পিউটার
চলতি বছরের শেষ নাগাদ তৈরি করবে
তারা।
[img id=96396]
সময়ের সাথে সাথে একদিকে যেমন হাই-
এন্ড কম্পিউটিং ডিভাইসের সীমা
বেড়েই চলেছে, অন্যদিকে স্বল্পমূল্যেও
পূর্ণাঙ্গ কম্পিউটিং ডিভাইস সহজলভ্য
করে তোলার জন্য কাজ করে যাচ্ছে
প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান এবং স্টার্ট-
আপগুলো। কম্পিউটিং ডিভাইস হিসেবে
স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট পিসিগুলো এরই
মধ্যে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের
হাতের নাগালে চলে এসেছে।
কম্পিউটারের ক্ষেত্রে অবশ্য বিষয়টি
তেমন নয়। একেবারেই নামমাত্র মূল্যে
কম্পিউটার বাজারে নিয়ে আসার
উদ্দেশ্য থেকেই এর আগে তৈরি করা
হয়েছে রাসবেরি পাই। মাত্র ২০ ডলার
থেকেই পূর্ণাঙ্গ একটি সিপিইউয়ের
যাবতীয় সুবিধা নিয়ে হাজির হওয়া
রাসবেরি পাই এতদিন পর্যন্ত সবচেয়ে

কম মূল্যের পিসি হিসেবে স্থান দখল
করে রেখেছিল। রাসবেরি পাইকেও
যোজন যোজন পেছনে ফেলে মাত্র ৯
ডলারে পূর্ণাঙ্গ একটি কম্পিউটার
বাজারে নিয়ে আসার পরিকল্পনা নিয়ে
কাজ করছে ক্যালিফোর্নিয়ার একটি
স্টার্ট-আপ। নেক্সট থিং নামের এই
স্টার্ট-আপ ৯ ডলারে বাজারে যে
কম্পিউটারটি নিয়ে আসার ঘোষণা
দিয়েছে, তার নাম রাখা হয়েছে চিপ
(C.H.I.P.)। পূর্ণাঙ্গ কম্পিউটার হিসেবে
চিপ ব্যবহার করতে পারবে সকলেই; একে
ব্যবহার করা যাবে সব ধরনের কাজেও।
[img id=96397]
[h2]যা আছে চিপ-এ[/h2]
দামে মাত্র ৯ ডলার বা বাংলাদেশি
টাকায় সাতশ টাকার কাছাকাছি হলেও
শক্তির দিক থেকে পিছিয়ে নেই চিপ।
এতে রয়েছে ১ গিগাহার্জ গতির
অলউইনার প্রসেসর, যা সিস্টেম অন চিপ
(এসওসি) ধরনের। সাথে ৫১২ মেগাবাইট
ডিডিআরথ্রি র্যাম আর ৪ গিগাবাইট অন-
বোর্ড ফ্ল্যাশ স্টোরেজ নিয়ে এটি
পূর্ণাঙ্গ একটি সিপিইউয়ের (সেন্ট্রাল
প্রসেসিং ইউনিট) মতোই কাজ করবে। এর
ইনপুট/আউটপুট ইউনিট হিসেবে রয়েছে
একটি ইউএসবি পোর্ট এবং একটি
মাইক্রোইউএসবি পোর্ট।
মাইক্রোইউএসবি পোর্টটি আবার ওটিজি
বা অন দ্য গো প্রযুক্তি সমর্থন করে। ফলে
যেকোনো ধরনের মাইক্রোইউএসবি
ডিভাইস এর সাথে যুক্ত করা যাবে।
ভিডিও আউটপুটের জন্য একটি কম্পোজিট
ভিডিও আউটপুটও রয়েছে, যাতে
অ্যাডাপ্টারের মাধ্যমে ভিজিএ এবং
এইচডিএমআই পোর্ট ব্যবহার করা যাবে।
এ ছাড়াও রয়েছে হেডফোন আউটপুট এবং
মাইক্রোফোন ইনপুট। শুধু তাই নয়,
ওয়্যারলেস সংযোগের জন্য এটি
৮০২.১১বি/জি/এন স্ট্যান্ডার্ডের ওয়াই-
ফাই এবং ব্লুটুথের সর্বশেষ সংস্করণ
ব্লুটুথ ৪.০ সমর্থন করে। তাতে করে
ওয়্যারলেস মাউস বা কিবোর্ড কিংবা
ওয়াই-ফাইয়ের মাধ্যমে ইন্টারনেট
ব্যবহারের সুবিধাও মিলবে চিপে।
সবমিলিয়ে পূর্ণাঙ্গ একটি পিসির
মৌলিক সব উপাদানই এতে ব্যবহার করা
যাবে।
[img id=96398]

এক নজরে চি
প্রসেসর-১ গিগাহার্জ (অলউইনার)
র্যাম-৫১২ মেগাবাইট (ডিডিআরথ্রি)
স্টোরেজ-৪ গািবাইট (অন-বোর্ড ফ্ল্যাশ)
ইউএসবি-একটি ইউএসবি ও একটি একটি
মাইক্রোইউএসবি (ওটিজি) পোর্ট
ভিডিও আউটপুট-কম্পোজিট (ভিজিএ ও
এইচডিএমআই)
অডিও-হেডফোন আউটপুট ও মাইক্রোফোন
ইনপুট
ওয়্যারলেস সংযোগ-ওয়াই-ফাই
(৮০২.১১বি/জি/এন), ব্লুটুথ ৪.০
অপারেটিং সিস্টেম-লিনাক্স
(গ্রাফিক্যাল ইউজার ইন্টারফেস)

গরিবের সাইট একবার ঘুরে আসবেন

One thought on "মাত্র ৭০০ টাকার কম্পিউটার নিন বাংলাদেশে বসে"

  1. Rigan Contributor says:
    কবে থেকে পাওয়া যাবে।


Leave a Reply