আফটার টু ইয়ার্স মার্বেল ইজ ব্যাক সেই সাথে ফেস কর এর প্রথম সিনেমা ব্ল্যাক উইডো মুক্তি পেয়ে গেছে। চিনামাটির একটি স্পয়লার ফ্রী রিভিউ নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন।

যে কোন সিনেমার থেকে এমসিইউ সিনেমার প্রতি আমার আপনার এক্সপেক্টেশন দশগুণ বেশি থাকে। কারণ বিগত 12 13 বছরে মার্বেল দর্শকদের মাঝে বিশেষ করে আমার মাঝে একটা ভরসার স্থান তৈরি করেছে।
জে এম সি ইউ এর ডিজাপয়েন্ট হওয়ার চান্স খুব কম থাকে। কিন্তু আমি একজন মার্বেল ফ্যান হয়েও কিছুটা আশাহত আই মিন
আই এক্সপেক্টেড এটলিস্ট সামথিং beter from it

তাই বলে যে সিনেমাটা আমার একদমই খারাপ লেগেছে এমনটা কিন্তু একদমই নয়।
সিনেমাতে দুর্দান্ত সব একশন ছিল একশন কোরিওগ্রাফি দেখার মত ছিল। বিশেষ করে হ্যান্ড কমেন্টগুলো এছাড়াও সিনেমার পিকচারিজেশন অনেক ভালোই ছিল।

আর জে একশন গুলো বিগ স্কিল এ করা হয়েছে সেখানকার ভিউ এঞ্জেল গুলো দারুন ছিল একটা পার্সোনাল মতামত দেই। সিনেমার কাটপিস সিন দেখে আমার সিক্স আন্ডারগ্রাউন্ড সিনেমার কাটছিসিং-এর একটা ফিল এসেছিল।
ছিনেমাটি সিবিলর এরপর টেক প্লেস করছে।

মুভির মেইন প্লট নিয়ে কিছু না বলাই ভালো! সিনেমায় নতুন কিছু ক্যারেক্টার যুক্ত করা হয়েছে।
যেমন রেড গার্ডিয়ান নিউ উইডো ব্ল্যাক উইডো ইত্যাদি ইত্যাদি।

সিনেমাটি বানানোর অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল নিউ ব্ল্যাক উইডো এই ক্যারেক্টার কে ভালোভাবে ইন্ট্রোডিউস করিয়ে ভবিষ্যতের জন্য সেটাপ করা।
তার ক্যারেক্টার এর ওপর সিনেমায় বেশ ভালোভাবেই ফোকাস ছিল।

এটা মোটামুটি কনফার্ম যে আপকামিং সিরিজ এ তাকে দেখা যাবে।

যাইহোক এরপর আসে রেট গার্ডিয়ানের কথা তার ক্যারেক্টার টাও বেশ ভালো ছিল। সিনেমার মাঝে তার কিছু কমিক্যাল প্রেজেন্ট মজার ছিল।
তার ক্যারেক্টার প্রেজেন্টেশনকে মোটামুটি ভালই বলা যায়।

এবার আসি সেই কারেক্টর যেটা থেকে আমি ডিজাভ পয়েন্ট হয়েছি!
তিনি আর কেউ নন তিনি হলেন টাক্স মাস্টার তার স্ক্রীন প্রেজেন্ট বেশ কম ছিল।
এবং এছাড়াও তার ক্যারেক্টার কে ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়নি বলে আমার অন্তত মনে হয়েছে।

সিনেমায় মার্বেলের ফরমেটে কিছু টুইস্ট ছিল। চিনামাটি আমাদের রিয়েল ব্ল্যাক উইডোর লাস্ট সিনেমা ছিল সেই অনুযায়ী।
সিনেমাটি তার জন্য একপ্রকার ট্রিবিউট সিনেমা হিসাবে ধরা যায়।
বাট এ জে মার্বেল ফ্যান আমার মনে হয়েছে পুরো সিনেমা জুড়ে তাকে যতটা না ট্রিবিউট দেওয়া হয়েছে। তার থেকে অনেক গুন বেশী ইনফেক্টেড ট্রিবিউট ছিল পোস্ট এডিট এ।

আর এই পোস্ট ক্রেডিট সিনটা সিনেমার বেস্ট পর্ট গুলোর মধ্যে একটা!
সিনেমার বিশাল অংশ জুড়ে একটি ফ্যামিলি অ্যাঙ্গেল ছিল যা আমার অন্তত এভারেজ লেগেছে। তবে কারো কারো কাছে কিছুটা বোরিং ও লাগতে পারে।

তবে ক্যারেক্টার দের মাঝে বন্ডিংটা ভালোই লেগেছে আমার। সিনেমায় শুরু থেকেই স্লো আর ফাস্ট এর একটি কম্বিনেশন ছিল।
আর পুরো সিনেমা জুড়েই এটা বিদ্যমান ছিল।

অভারঅল বলতে গেলে সিনেমাটা ঠিকঠাক একেবারে সেরা কিছু নাই। তবে সিনেমাটি দেখার আগে আপনাদের কাছে একটি সাজেশন থাকবে। যদিও এটা কোন ডিসির সিনেমা নয় যে এখান থেকে কোন আশা না রাখাই উচিত।
কিন্তু আমি বলব এক্সপেক্টেশন টা কিছুটা কমিয়ে সিনেমাটি দেখার জন্য।

তো সবশেষে একটা কথাই বলা যায় হ্যাপি ওয়াচিং! তো এই ছিল ব্ল্যাক উইডো নিয়ে আমার মতামত। আপনাদের কাছে সিনেমাটি কেমন লেগেছে তা অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন।


এই ফেসবুক পেজ দিয়ে তোমরা যে কোন গেম এর কারেন্সি টপ আপ করতে পারবে খুবই রিজেনেবল প্রাইস এ। পেজ লিংকঃ:
https://bit.lyআ/35I4bZr
পেজটি খুবই ট্রাস্টেড বলেই বলেই শেয়ার করলাম। ✅

ফিরে আসছি পরবর্তী পোস্ট এ ততক্ষণ পর্যন্ত ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।❤️❤️❤️

5 thoughts on "Black Widow | Bangla Movie Review | কেমন ছিল?"

  1. Md Al-Amin Islam Md Al-Amin Islam Contributor says:
    Just Awesome


  2. Mr.Rynk Contributor says:
    যেই পেইজটি শেয়ার করেছেন, ১০০% নিরাপদ.?.
    নির্ভয়ে লেনদেন করতে পারবো.?.
  3. Mr.Rynk Contributor says:
    আপনার ফেসবুক লিংক দেন

Leave a Reply