আমরা প্রায় সকল ওয়েবমাস্টারই কম বেশি গুগল এ্যডসেন্স একাউন্টের জন্য অনেক চেষ্টা করি। কেউ খুব সহজেই পেয়ে যাই আবার কেউ অনেক চেষ্টা করেও পাননা। গুগল এ্যডসেন্স এখন ডিম পাড়া মুরগির মত। গুগল এ্যডসেন্স একাউন্ট পাওয়া যতটা কঠিন, একাউন্টটিকে ঠিকঠাক রাখা তার চেয়েও কঠিন। কেননা গুগলের অনেক বাধ্যবাধকতা আছে। যা মেনে চলা অনেক কঠিন। অনেক ক্যাটাগরির সাইট বিশেষ করে এডাল্ট, কপি-পেস্ট, ডাউনলোডিং সাইটেতো গুগল এ্যডসেন্স ব্যবহারই করা যাবেনা। ব্যবহার করলেই একাউন্ট ব্যান হবে। তাই আজকে আমি Google Adsense এর শ্রেষ্ঠ বিকল্প বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠান সাইট সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি। সাইটটির নাম RevenueHits. নিচে সাইটটি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করছি। কিভাবে রিভিনিউহিটস ব্যবহার করবেন সেটা একদম  শেষে পাবেন। তবে তার আগে রিভিনিউহিটস সম্পর্কে জেনে নিন। ভিডিও দেখুন নিচে দেখুন

RevenueHits কি ?

RevenueHits একটি অনলাইন বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠান যা একটি ওয়েবসাইটের ট্রাফিক থেকে অর্থ উপার্যন করতে সহায়তা করে। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৮ সালে। এটি ইসিপিএম এর মধ্যে সর্বোচ্চ $30 পর্যন্ত বহন করে এবং এটি একটি সিপিএ ভিত্তিক বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক। এরা বিজ্ঞাপনদাতার চাহিদার তুলনায় প্রকাশকের আনা ট্রাফিকের ওপর নির্ভর করে অফার বা বিজ্ঞাপন প্রকাশ করে থাকে। এটি দেশ ভিত্তিক লক্ষপূর্ণ ও প্রাসঙ্গিক তথ্যপূর্ণ বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক।

RevenueHits কিভাবে অর্থ প্রদান করে ?

RevenueHits সম্পকে একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হচ্ছে এটি এড ইম্প্রেশন বা ক্লিকে অর্থপ্রদান করেন না। এটি সিপিএ ভিত্তিক বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠান যেমন- কর্ম ভিত্তিক বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠান।

বর্তমানে সিপিএ নেটওয়ার্ক গুলো বিজ্ঞাপন ইম্প্রেশন বা ক্লিকের ওপর অর্থ দেয়না বরং ব্যবহারকারীর কর্মের ওপর অর্থ দেয়। ব্যবহারকারীর কর্ম যেকোন ধরনের হতে পারে যেমন, ওয়েবসাইট ভিজিট, ইউজার ইমেইল, আইডি, মোবাইল নম্বর, অন্যান্য তথ্য, কোন সফটওয়্যার ইনিস্টল বা একাউন্ট তৈরি ইত্যাদি ইত্যাদি যা বিজ্ঞাপনদাতা চায়। সুতরাং বিভিন্ন ফোরাম সাইটে ব্লগারদের টিউন বা টিউমেন্টে আপনার দ্বিধাবোধ হতে পারে যে 10000 ভিজিটরে প্রতিদিন $50 – $60 ইনকাম হয় আবার অন্য দিন বা অন্য ব্লগারের কোন ইনকামই হয়না। তবে একটা কথা বলে রাখি রিভিনিউহিটস কিন্তু রিভিনিউ দেখায় 2 দিন পরে। প্রথম দিনই আপনার মনে হতে পারে যে এটি ফেইক। কারন আপনি যখন ড্যাসবোর্ডে ঢুকবেন তখন আপাকে রিভিনিউহিটস দেখাবে আপনার সাইটে কতগুলা ইম্প্রেশন হয়েছে, কতটা ক্লিক হয়েছে এবং কত রিভিনিউ হয়েছে। সেখানে দেখবেন ইম্পেশন এবং ক্লিক হয়েছে অনেক, কিন্তু রিভিনিউ এ কোন টাকা দেখাচ্ছেনা। এটা দেখে চিন্তার কিছু নাই। পরের দিন ঠিকই আপনার টাকা দেখাবে।

RevenueHits ব্যবহার করে অনেকেই অল্প ট্রাফিক বা ভিজিটর দিয়ে দিনে $5 – $10 ইনকাম করছে। তবে RevenueHits এর বিশেষ একটি দিক হচ্ছে এটি নির্দিষ্ট লক্ষ্যভিত্তিক বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠান। মনে করুন আপনি ইউ.কে তে আছেন আপনার কাছে কখনই ইউ.এস ভিত্তিক আমাজনের বিজ্ঞাপন প্রকাশ হবেনা। আপনার কাছে ইউ.কে ভিত্তিক কোন লক্ষ্যপূর্ণ বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হবে। ফলে ইসিপিএম রেটটাও বেশি থাকবে এবং সর্বোচ্চ উপার্যনের সুযোগ থাকবে।

RevenueHits পেমেন্ট বা টাকা উত্তোলনের পদ্ধতি ?

RevenueHits এর টাকা উত্তোলনের পদ্ধতির মধ্যে রয়েছে পেপাল, পেওনিয়ার, ব্যাংক ট্রান্সফার

সর্বনিম্ন পেমেন্ট = $20

পেমেন্ট ফ্রিকুয়েন্সি = NET.30

RevenueHits পাবলিশার রিফারেলে ১০০ USD ডলার পর্যন্ত পাবার সুযোগ আছে। কিভাবে পাবেন তা ও বলছি। আপনার রিফারেলের কোন পাবলিশার যখন $10 ইনকাম করবে তখন আপনিয় $10 পাবেন। আরও $40 পাবেন যখন সেই পাবলিশারের $50 ইনকাম হবে। শুধু এইটুকুই নয়, সেই পাবলিশারের যদি $100 ইনকাম হয় তাহলে আপনি আরও $50 বোনাস পাবেন। তাহলে মোট $100 আপনি অতিরিক্ত পাচ্ছেন। তাহলে দেখা যাচ্ছে যে শুধু যদি ভাল মানের পাবলিশার রিফার করতে পারেন তাহলেই আপনার পকেট গরম হওয়া ঠেকায় কে ? নিচের ছবিটিতে দেখুন রিফারেল বোনাস 20 ডলার পেয়েছে।

RevenueHits কি কি ধরনের বিজ্ঞাপন সাপোর্ট করে ?

  • Banner Ads
  • Pop under advertisement
  • Shadow box ads
  • Slider Ads
  • Pop/Button/Side banner Ads
  • Button Ads
  • Mobile Ads

RevenueHits এ্যকাউন্ট করা সহজ নাকি কঠিন ?

শুরুতেই বলেছিলাম গুগল অ্যাডসেন্স একাউন্ট পাওয়া অনেক কঠিন কাজ। তাছাড়া বিভিন্ন সনামধণ্য বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের জন্য অনেক বাধ্যবাধকতা থাকে যা অনেক ওয়েবমাস্টারের পক্ষ্যে সম্ভব হয়না। ফলে তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। RevenueHits এর ক্ষ্যেত্রে তেমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই। মাত্র ৫ মিনিটেই আপনার একাউন্ট রেডি। আপনি যদি নতুন ব্লগার হয়েথাকেন তাহলে আমি সাজেশন দিবো আপনি নির্দিধায় RevenueHits ব্যবহার করুন।

RevenueHits VS Google Adsense বা অন্যন্য বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠান কোনটা বেশি ভাল ?

আমি এখানে শুধু এ্যডসেন্স এর সঙ্গে রিভিনিউহিটসের তুলনা করবো। কেননা আমরা সবাই জানি যে গুগল এ্যডসেন্স ই সেরা। তাই বাকি বিজ্ঞাপন প্রতিষ্ঠানের (ClickSor, InfoLinks,Chitika, Bidvertiser) সঙ্গে তুলনা করে শুধু শুধু সময় নষ্ট করছি না। তাহলে আসুন দেখি দুইটার মিল ও পার্থক্য।

RevenueHits ও Google Adsense এর মধ্যে মিল-

  1. রিভিনিউহিটস ও অ্যাডসেন্স দুইটায় লক্ষ্যপূর্ণ বা কাঙ্খিত ভিজিটরদের টার্গেটেড বিজ্ঞাপন দেখায়।
  2. দুইটাই ইসিপিএম, ক্লিক, ইম্প্রেশন (মাঝেমাঝে), রিভিনিউ ইত্যাদিতে টাকা দেয়।
  3. দুইটাই বিভিন্ন সাইজের মানাসই বিজ্ঞাপন সাইজ সাপোর্ট করে।
  4. ব্যবহার খুবই সহজ।

RevenueHits ও Google Adsense এর মধ্যে পার্থক্য-

  1. অ্যাডসেন্স একাউন্ট পেতে হলে সাইটের বয়স কমপক্ষে ৬ মাস বয়স হতে হবে। রিভিনিউহিটস  একাউন্ট পেতে মাত্র ৩ মিনিট সময় লাগতে পরে।
  2. অ্যাডসেন্স ফেইক ট্রাফিক সাপোর্ট করেনা এবং ফেইক ট্রাফিকের কারনে একাউন্ট ব্যান করে দিতে পারে। রিভিনিউহিটস ফেইকট্রাফিকেউ অনেক সময় পে করে থাকে।
  3. অ্যাডসেন্স ব্যবহারে অনেক বাধ্যবাধকতা আছে কিন্তু রিভিনিউহিটসে কোন বাধ্যকতা নাই।
  4. অ্যাডসেন্স কপিরাইট সাইট সাপোর্ট করেনা। রিভিনিউহিটস কপিরাইটে প্রবলেম করেনা।
  5. অ্যাডসেন্সে পিন ও এড্রেস ভেরিফিকেসন করতে হয় কিন্তু রিভিনিউহিটসে কোন ভেরিফিকেসনের ঝামেলা নাই।
  6. এ্যডসেন্সের সাথে পপ অ্যাডস বা অন্য কোন অ্যাডস ব্যবহার করা যায়না। রিভিনিউহিটসে তেমন কোন সমস্যা নাই।
  7. অ্যাডসেন্স পেপাল বা পেওনিয়র সাপোর্ট করেনা। শুধুমাত্র ব্যাংক চেক এর মাধ্যমে পে করে থাকে। কিন্তু রিভিনিউহিটস পেপাল, পেওনিয়র, ব্যাংক সাপোর্ট করে।
  8. অ্যাডসেন্স ১০০ ডলার হলে টাকা দিয়ে থাকে কিন্তু রিভিনিউহিটস মাত্র ২০ ডলার হলে টাকা দেয়।
  9. অ্যাডসেন্সের রেফারেল বোনাস নাই। কিন্তু রিভিউহিটস এর রেফারেল বোনাস আছে।
  10. রিভিনিউহিটস কোষ্ট পার একশান হিসেবে টাকা পে করে। যদিও রিভিনিউহিটস ইম্প্রেশন বা ক্লিকে টাকা দেয়না এখানে একটা প্রশ্ন থাকতে পারে যে খুব কম ভিজিটরই কোষ্ট একশান শর্ত পূরন করেন। তাহলে আর্ন হবে কি করে ? বিষয়টা হচ্ছে এমন যে অনেক ধরনের অ্যাডস আছে যেগুলা শুধু ভিজিট বা ইম্প্রেশন রিকুয়ার্ড। তবে যেইসকল বিজ্ঞাপনদাতা দের শর্ত বেশি তাদের শর্ত পূরন হলে ইনকামও বেশি। অ্যাডসেন্স এর বিষয়টা ঠিক ভালো ভাবে যানা নাই।

কিভাবে Revenuehits এ্যকাউন্ট করবেন বা ব্যবহার করবেন ? 

প্রথমে এই লিঙ্কে যান। তারপর “Join Now” বাটনে ক্লিক করুন। একটি ফর্ম আসবে তাতে ফাস্ট নেম, লাস্ট নেম, সাইট নেম, সাইট ইউআরেল, সাইট ট্রাফিক (WEB), এবং সাইট ক্যাটাগরি সিলেক্ট করে “Next Step” বাটনে ক্লিক করুন। এবার দ্বিতীয় ধাপে ইউজার নেম, পাসওয়ার্ড, ইমেইল, মোবাইল নম্বর কান্ট্রিকোড সহ, সিকিউরিটি প্রশ্নের উত্তর এবং টার্মস এনড কন্ডিশনের বক্স টিক দিয়ে “Submit” বাটনে ক্লিক করে ইমেইল ভেরিফিকেশন করুন। আপনার অ্যাকাউন্ট রেডি। আপনার একাউন্টের ড্যাসবোর্ড এ “New Placement” এ ক্লিক করে অ্যাডস সেটআপ করুন এবং আপনার সাইটে যুক্ত করুন।

শেষ কথা:

অ্যাডসেন্স তো অ্যাডসেন্সই। এর কোন বিকল্প হবেনা। তবে আমি মনে করি যারা  অ্যাডসেন্স পাচ্ছেন না তাদের জন্য গুগল অ্যাডসেন্স এর সেরা বিকল্প রিভিনিউহিটস। নিজেই ব্যবহার করে দেখুন তাহলেই বুঝবেন। জানিনা লেখাটি  কেমন হয়েছে, কতটুকু বুঝাতে পেরেছি বা কতটুকু ভুল করেছি কিন্তু অনেক চেষ্টা করেছি সব কিছু গুছিয়ে লিখতে।

ভিডিওটি দেখুন 

 

 

Design and Interface

If you first visit Revenue Hits website, let me tell you it’s most beautifully thought after and greatly designed advertising network I’ve even seen.

revenuehits

Even the login process is as simple as walking on a piece of cake. Once logged in, you have the most beautifully designed dashboard you’ve ever seen from an ad network waiting for you.

Once inside, RenevueHits redirects you to make your first ad, put the code on your website and start to make money blogging.

How cool is that!

Is it complicated to put RevenueHits on my Website?

No not at all!

Once you’re logged into RevenueHits dashboard.

Click on ‘Placement’ Tab

Select the ad format that you like. Ad format includes Banners, Popunders, Slider, Shadow Box, Top Banner, 158*21 button and Footer ads.

RevenueHits recommends Shadow Box and so do we for high conversion rates and great revenue.

Once you click on Shadow Box or any other ad type you’d want, Revenuehits asks for ad size and description about it.

Though you may skip the description part but it is highly recommended to fill it, so as advertisers understand what is your purpose behind creating a particular ad or where are you going to place it.

Once everything is done. Click on ‘Save

You can now get the ad code by clicking on ‘</>’ button towards the right. The best part is you even get to preview your ad before you implement it.

 

One thought on "ব্লগিং করে প্রতি মাসে আয় করুন ১০০ থেকে ১৫০+ ডলার, বাংলা ইংলিশ বা যে কোন ভাষার ব্লগ থেকে (ভিডিও টিঊটোরিয়ালসহ)"

  1. muhammad shuvo Contributor says:
    ব্লগিং Account করব কি ভাবে আর আপনার যোগাযোগ নাম্বার দিন।


Leave a Reply