কাজের সুবিধার্থে আমাদের ল্যাপটপ বা ডেস্কটপে বেশ কিছু ফিচারের দরকার পড়ে। কিছু কিছু অনেক বেশি গ্রাফিক্সের কাজের জন্য, গেম খেলার জন্য, এডিটিং আবার কিছু সাধারণ টুকিটাকি রেগুলার কাজ। প্রফেশনালদের জন্য যেমন প্রফেশনাল ডিভাইস আছে, তেমন নন প্রফেশনালদের জন্য তাদের চাহিদা অনুসারে আছে ডিভাইস। কিন্তু সমস্যা এসে দাঁড়ায় যখন নন প্রফেশনালদের কিছু কাজের ক্ষেত্রে প্রফেশনাল ডিভাইসের দরকার। সেই কথা মাথায় রেখে এইচ পি ই এন ভি ওয়াই এক্স ৩৬০ সিরিজের বেশ কিছু ডিভাইস বাজারে এনেছে। টেকরাডারের তথ্য অনুসারে, ২০২১ সালের সর্বাধিক জনপ্রিয় এই সিরিজটি একই সাথে ট্যাবের কাজ করবে আর ল্যাপটপ তো আছেই। ১৩ ইঞ্চি এবং ১৫ ইঞ্চি মডেলের কিছু ল্যাপটপ আছে এই সিরিজের। প্রসেসর হিসেবে ইন্টেল আই ৭, এ এম ডি রাইজেন যেমন পাবেন সাথে পাবেন দূর্দান্ত গ্রাফিক্স কার্ড। এইচ পি সিরিজের অন্যান্য ল্যাপ্টপের মত এই কিবোর্ড সিস্টেম অসাধারণ। গেম খেলতে কিংবা অন্য কাজে অস্ততি হবে না। ব্যাটারি ব্যাক আপ ভালো থাকায় দীর্ঘসময় ব্যবহার করতে পারবেন। এক দিকে গেম খেলতে পারবেন, অন্যদিকে অন্যান্য কাজ করতে বেগ পেতে হবে না। তবে তুলনামূলক ভারী হওয়াতে বহন করতে কিছুটা অসস্তিতে পড়তে হয়। 

 এই মডেলগুলো আপনি কাস্টোমাইজড করে নিতে পারবেন নিজের মত করে। এইচ পির নিজস্ব ওয়েবসাইটের মতে গত কয়েক মাসের মধ্যে HP ENVY x360 Convert 13-ay1035nr এটি সবার চেয়ে এগিয়ে আছে এর প্রসেসর, গ্রাফিক্স কার্ড সহ সকল সুবিধা এবং ক্রয়সীমার মধ্যে মূল্য থাকার কারনে। যেহেতু এই সিরিজের প্রতিটি ল্যাপটপ নির্দিষ্ট গ্রুপ কে মাথায় রেখে তৈরি করা কেনার আগে ভালো করে যাচাই করে নিতে হবে ঠিক কোনটি আপনার বাজেটের মধ্যে আপনার জন্য সেরা হতে পারে। চলুন এইবার বিস্তারিত আলোচনা করা যাক এই মডেলটি নিয়ে। এই ডিভাইসগুলির বর্তমান মূল্য সম্পর্কে জানতে এখানে ভিজিট করতে পারেন

 

প্রসেসর

এইচপি তাদের HP ENVY x360 মডেলটি ল্যাঞ্চ করেছে ভিন্ন ভিন্ন ভেরিয়েন্ট প্রাইস এর উপর ভিত্তি করে যার কারনে দাম এবং ভেরিয়েন্ট অনুসারে পরিবর্তন হয়েছে প্রসেসর ও। এ মডেলটিতে ভেরিয়েন্ট অনুসারে যে সমস্ত প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে: AMD Ryzen™ 5, Intel® Core™ i5, AMD Ryzen™ 7 processor,Intel® Core™ i7 ইত্যাদি। এই প্রসেসরগুলিকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই তবে কিছু কথা না বললেই নয়। এই প্রসেসরগুলির এভারেজ বেস ফিক্রোয়েন্সি হলো 3.0 GHz থেকে 5.0 GHz পর্যন্ত যা আর বলার অপেক্ষা রাখে না কতটা দুর্দান্ত এই প্রসেসরগুলি।  সবর্চ্চো cache রয়েছে HP ENVY x360 Core i7 এর ভেরিয়েন্টে যা 12 MB. এই প্রসেসরগুলি ব্রাউজিং থেকে শুরু করে গেমিং বা ইডিটিং ও ভালো পারর্ফমেন্স দিতে সক্ষম। তবে যারা একটু  ভালো গেমিং বা হেভি ইউজিং করে থাকেন তাদের জন্য HP ENVY x360 Core i7 অথবা AMD Ryzen 7 এর ভেরিয়েন্টিই সেরা পছন্দ হবে। দাম কিছুটা বেশি হলেও এর দুর্দান্ত পারর্ফমেন্স আপনাকে সেটি ভাবতেও দিবে না। 

 

ডিসপ্লে

এইচ পি তাদের ভেরিয়েন্টের উপর বেস করে প্রসেসর চেঞ্জ করলেও তারা মডেলটির ডিসপ্লে সেকশনে তেমন একটা চেঞ্জ করে নেই। HP ENVY x360 এর বেশিরভাগ ভেরিয়েন্টই FHD ডিসপ্লে দিয়ে গড়া। এই ডিসপ্লেটি সেই প্রথম থেকেই জনপ্রিয়তার শিখরে নিজের জায়গা করে নিয়েছে। ডিসপ্লে দুর্দান্ত পারর্ফমেন্স সাথে কালার এক্কুরেসি এবং ভিজ্যুাল উজ্জ্বতা কারনে অনেক ক্রেতার মন কেড়ে নিয়েছে। ডিসপ্লেটির রেজুশন সক্ষমতা (1920 x 1080) যা ভালোই বলা চলে। তবে সমস্যা তখন এসে দাড়িঁয়েছে যখন OLED ল্যাঞ্চ করা হয়েছে। এই ডিসপ্লে লঞ্চ হবার পর থেকেই বেশ বড় একটা ধাক্কা খেয়েছে FHD ডিসপ্লে। তবে আজও ডিসপ্লেটির ব্যবহারে তেমন ঘাটতি লক্ষ করা যায় নি। এ ল্যাপটপটি মিড লেভেল থেকে প্রিমিয়াম সেগমেন্ট ও এবং বেশ ভালো পারর্ফম করছে ডিসপ্লেটি। তবে বাঙালি মানেই একটু বেশি চাওয়া যদি OLED ব্যবহার করা হত তবে এই ল্যাপটপটি আরো গ্রহনযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা পেত।

 

গ্রাফিক্স

গ্রাফিক্স হিসেবে মডেল ভেরিয়েন্টগুলিতে ব্যবহার করা হয়েছেে ইন্টেল এর  Iris® Xe রাইজেনের AMD Radeon™ Graphics এবং NVIDIA® GeForce® MX450 গ্রফিক্স সিস্টেম। যেগুলির মধ্যে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে যেমন ইন্টেলের Iris® Xe এবং AMD Radeon™  কিছুটা পুরোনো প্রসেসর হিসেবে গন্য করা হয় অন্যদিকে GeForce® MX45 এই প্রসেসরটি ১৫ই আগস্ট ২০২০ এ ল্যাঞ্চ করা হলেও অনেকটা আপগ্রেডেড এবং এখন পর্যন্ত এই প্রসেসরটি প্রিয়িমাম এবং লেটেস্ট ডিভাইসগুলিতে ব্যবহার করতে দেখা দিচ্ছে। কিছু সংক্ষিপ্ত ধারনা দেওয়া যাক প্রসেসরগুলির সক্ষমতা বা পারর্ফমেন্স উপর। ইন্টেলর Iris® Xe গ্রাফিক্স সিস্টেমটিতে যদি আপনি গেমিং করেন তবে এই গ্রাফিক্সটি  আপনাকে 1080p 60FPS পর্যন্ত পারর্ফমেন্স যা গেমিং এর জন্য খুব ভালো ঠিক একই ভাবে AMD Radeon™ প্রসেসরটির গেমিং পারর্ফমেন্সও রয়েছে এর কাছাকাছি । তবে  GeForce® MX450 এর বুস্ট ক্লক স্পিড দেওয়া হয়েছে 1575 MHz যেটির আপনার গেমিং এক্সেপিরিয়েন্সকে করে তুলবে আরো ফাস্ট এবং সম্মুথ। এ গ্রফিক্স সিস্টেমটিতে তুলনা অনেকটা বেশি FPS  এবং সম্মুথনেস পাওয়া যাবে Iris® Xe। আপনি যদি একটি ভালো  ইডিটিং বা গেমিং করে থাকেন বা করতে চান তবে আপনার GeForce® MX450 এর ভেরিয়েন্টিই হবে একটি ভালো পছন্দ

 

আমার মতামত

ল্যাপটপগুলির সব দিক বিবেচনা করে  এই কথা একবারে না বললেই নয় যে এই প্রাইস রেঞ্জে এর ভালো বিকল্প পাওয়া খুবই কঠিন। তবে কোনো ডিভাইস ক্রয়ের পূর্বে সেই ডিভাইস কতটুকু পারর্ফমেন্স দিতে সক্ষম এবং কতটা ভ্যালু ফর মানি হবে সেটা সর্বপ্রথম যাচাই করা উচিত। যদি আমার নিজস্ব মতামত চান যে আমি কত রেটিং দিবো এই মডেলটিকে এবং আমার মতামত কি এই ল্যাপটপটার উপরে তবে আমি বলবো এই মডেলটি দেওয়া স্পেসিফিকেসন এর সাথে প্রদান করা প্রাইস বা মূল্যটা অর্থযোগ্য। তবে আমি অবশ্যই পরামর্শ দিবো ক্রয়ের পূর্বে এর সিমিলিয়ার মডেলগুলোর স্পেক’স এবং মূল্য বিবেচনা করে দেখতে। এবং আমি মডেলটিকে ১০ = ৮.৮ রেটিং দিবো। আপনাদের মতামত আমাকে জানান। ধন্যবাদ সাথে  থাকার জন্য

3 thoughts on "২০২০ এ রিলিজ পাওয়া ল্যাপটপগুলির মধ্যে যেই ল্যাপটপটি সবচেয়ে বেশি সাড়া ফেলেছে"

  1. Limon Sarkar Contributor says:
    এটা কেমন পোষ্ট ছিল ভাই 🙄
    পিকচার তো নাই ই তারপরে আবার লেখার ধরন দেখে বুঝলাম এইডা কোনো রিভিউ না ব্লগ স্টাইল ছিল 😆
    1. Mamun Ahmed Author Post Creator says:
      এইটা রিভিউ না বুঝার কি আছে? আর ছবি খুব জরুরি একটা পোস্ট এর জন্য
  2. Limon Sarkar Contributor says:
    এইডা রিভিউ না ব্লগ ছিল 🤘

Leave a Reply