“বোবা ধরা” শব্দটার সাথে কম বেশি আমরা সবাই পরিচিত।আমাদের অনেকেরই ঘুমের মধ্যে এই ধরনের অভিজ্ঞতা হয়েছে। অনেকেরই এটার সাথে পরিচিত হলেও এর সঠিক নাম আমরা জানিনা। মনোবিজ্ঞানের ভাষায় এর নাম স্লিপ প্যারালাইসিস।অনেক সময় হঠাৎ ঘুম থেকে জেগে মনে হয় কেউ একজন অন্ধকার ঘরে আপনাকে চেপে ধরে রেখেছে। আপনি চাইলেও নাড়াচাড়া করতে পারছেন না। চিৎকার করছেন কিন্তু কেউ শুনছে না। মনে হছে কেউ একজন আপনার বুকের উপর বসে আপনাকে চেপে ধরে রেখেছে। যদি এই রকম কিছু আপনার সাথে ঘটে থাকে তাহলে আপনিও স্লিপ প্যারালাইসিসেআক্রান্ত হয়েছেন।কিন্তু এইস্লিপ প্যারালাইসিস কেনো হয় এবং এর থেকে পরিত্রাণের উপায় আমাদের অনেকেরই এখনো অজানা। একটি গবেষণায় দেখা গেছে শতকরা ২০ থেকে ৬০ ভাগ মানুষের ক্ষেত্রে এটি একটি সাধারন ব্যাপার।

মনে করা হয় ঘুমের সময় পরিবর্তন, পরিমাণের তুলনায় কম ঘুমানো এবং অতিরিক্ত পরিশ্রমের কারনেও “বোবা ধরা” বা স্লিপ প্যারালাইসিস হয়ে থাকে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক এই “বোবা ধরা” বা স্লিপ প্যারালাইসিস কেনো হয় এবং এর চিকিৎসা কি?”বোবা ধরা” বা স্লিপ প্যারালাইসিস আসলে কিঃবিশেষজ্ঞদের মতে, বোবায় ধরা বা স্লিপ প্যারালাইসিস স্রেফ একটা ইন্দ্রিয়ঘটিত ব্যাপার। যখন শরীর গভীর ঘুমের এক পর্যায় থেকে আরেক পর্যায়ে যায়, তখনই এটা ঘটে থাকে। বোবা ধরলে একেজনের একেক রকম অভিজ্ঞতা হয়। কেউ ঘরের ভেতর ভৌতিক কিছুর উপস্থিতি টের পান, কেউ দুর্গন্ধ পান, কেউ বা ভয়ানক কোনো প্রাণি দেখতে পান। মোট কথা তখন একটা হ্যালুসিনেশনের মতো অবস্থার সৃষ্টি হয়। গভীর ঘুমের এক পর্যায় থেকে আরেক পর্যায়ে যাবার সময় মস্তিষ্ক সতর্ক হয়ে ঘুম ভেঙে গেলেও শরীর আসলে তখন ঘুমেই থাকে। ফলে অভিজ্ঞতাটা অন্যরকম থাকে। বিশেষ করে ইন্দ্রিয় তখন আচ্ছন্ন থাকায় মানুষ অদ্ভুত কিছু দেখে এবং শ্বাসকষ্ট অনুভব করে। সাধারণত যাদের ঘুমের সমস্যা থাকে তারাই বেশি স্লিপিং প্যারালাইসিসে ভোগে। অনেকেই এটা বিশ্বাস করে অতিলৌকিক কোনো কিছু এ ব্যাপারটি ঘটায়। আসলে এটা স্রেফ একটি শারীরবৃত্তীয় ব্যাপার।এমন হওয়ার কারণ কিঃবোবায় ধরা বা স্লিপ প্যারালাইসিসের পেছনে বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে। এর অন্যতম কারণ হলো চাপের মধ্যে থাকা এবং যথেষ্ট পরিমাণে বিশ্রামের অভাব। অনিয়মিত ঘুমও এর আরেকটি কারণ। ঘুম বিশেষজ্ঞরা এটাও বলেন যে, যখন ঘুমের এক ধাপ থেকে আরেক ধাপে যাবার সময় শরীর সাবলীলভাবে নড়াচড়া করতে পারে না, তখনই মানুষ বোবা ধরা বা স্লিপিং প্যারালাইসিসে আক্রান্ত হয়। এছাড়া আরও কিছু ব্যাপার বোবা ধরার কারণ হতে পারে। যেমন ঘুমের নির্দিষ্টতা না থাকা, মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা, ঘুমের সঙ্গে জড়িত অন্যান্য সমস্যা, হাত-পায়ের মাংসপেশিতে খিঁচ ধরা, অনিদ্রা, বিষণ্নতা ইত্যাদি।”বোবা ধরা” বা স্লিপ প্যারালাইসিস থেকে পরিত্রাণেরউপায়ঃবোবায় ধরা বা স্লিপিং প্যারালাইসিস থেকে বাঁচার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং সহজ উপায় হলো ঘুমের নির্দিষ্ট সময় মেনে চলা। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এই সমস্যাটা সাময়িক। কিন্তু যদি এটা ঘন ঘন হতে থাকে এবং কোনো শারীরিক বা মানসিক সমস্যার জন্ম দেয়, তাহলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে।
প্রতিদিন ৩০০-৪০০ টাকা ইনকাম করুন 😉 🙂 😀

2 thoughts on "ঘুমের মধ্যে “বোবা ধরা” বা স্লিপ প্যারালাইসিস থেকে পরিত্রাণের উপায় !"

  1. DigitalMaMa DigitalMaMa Subscriber Post Creator says:
    রানা ভাই, আমাকে টিউনার থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে কেন?
    প্লিজ বলুন আমি তো সবসময় মান্সম্মত পুস্ট করি। আসা করি টিউনার করে বধিত করবেন।


    1. Ex Programmer Ex Programmer Author says:
      রানা ভাই এর কাজ নাইতো তাই!

Leave a Reply