আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । আমি আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি ।আসলে কেউ ভালো না থাকলে TrickBD তে ভিজিট করেনা ।তাই আপনাকে TrickBD তে আসার জন্য ধন্যবাদ ।ভালো কিছু জানতে সবাই TrickBD এর সাথেই থাকুন ।

Truecaller কিভাবে কাজ করে..?

একটা মোবাইল অ্যাপ আমাদের মধ্যে খুবই জনপ্রিয় এবং প্রচুর মানুষ আছে যারা এই মোবাইল অ্যাপ টা কে ব্যবহার করে আর এর নাম হলো ট্রু কলার । ট্রু কলার অ্যাপ এর সাহায্যে আমরা আননোন নাম্বারের পরিচয় জানতে পারি কিন্তু আপনি যদি এই অ্যাপটা আপনার ফোনে ইন্সটল করে রাখেন তাহলে আপনি কার সঙ্গে কি কথা বলেন কার সঙ্গে কি চ্যাট করেন

এই সমস্ত ইনফরমেশন এমনকি আপনার কল রেকর্ডিং এই অ্যাপটা আপনার ফোন থেকে নিয়ে চলে যাচ্ছে তবে কিভাবে ওই অ্যাপটা এসমস্ত কাজগুলো করে সেটা জানার জন্য আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ুন।চলুন আজকে জেনে নেওয়া যাক ট্রু কলার অ্যাপ এর সম্পর্কে

তবে সবার আগে জেনে নেওয়া যাক যে এই ট্রু কলার অ্যাপ আসলে কাজ কিভাবে করে তো ব্যাপারটা খুবই সিম্পল ট্রুকলার এমন একটা মোবাইল অ্যাপ যেটাকে যে যে নিজের ফোনে Install করে অ্যাপটা তাদের ফোন থেকে সমস্ত ডেটা তুলে নিজের সার্ভার স্টোর করে নেয় এবার হয় কি আপনার যত কন্টাক্ট আছে আমার যত কন্টাক্ট আছে মানে যারা যারা এই এপটা কে ডাউনলোড করে রেখেছে তাদের কন্টাক্ট গুলো এই অ্যাপটা কালেক্ট করে নিজের সার্ভার স্টোর করে রাখে

তারপর সার্ভারে একটা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স কে ইউজ করে প্রত্যেকটা নাম্বারের সঙ্গে কোন একটা নাম কি ম্যাথ করিয়ে দেওয়া হয় এটা তারা করে কারো একটা ফোন নাম্বার কে অনেকে অনেক রকম ভাবে সেভ করে রাখে প্রত্যেকের কাছ থেকে যখন ডেটা নেবে তখন সে গুলোকে ম্যাচ করিয়ে যে জিনিসগুলো কমন আসবে সেই জিনিস গুলো কে ওই নাম্বারের সঙ্গে ম্যাচ করিয়ে দেওয়া হয়

এবার যখনই ওই নাম্বার থেকে আপনার ফোনে তে ফোন আসবে তখন ট্রুকলার নিজের সার্ভার থেকে খুঁজেবে যে ওই নাম্বারের সাথে কোন নামটা জড়িত আছে এবং সেটাকে আপনার ফোনে তে শো করবে তার মানে সোজা ভাষায় বললে আমাদের কাছ থেকেই ফোন নাম্বার এবং কন্টাক্ট নিয়ে এই অ্যাপটা আমাদেরকেই ওই নামগুলোর দেখার।

মানে ব্যাপারটা খুবই ইজি আপনি আপনার পাড়ায় যাবেন পাড়াতে প্রত্যেকটা বাড়িতে কে কে থাকে তাদের নাম কন্টাক্ট গুলো আপনি একটা খাতায় লিখে দিতে বলবেন এবং তারপর বলবেন যে যদি কারো নাম কন্টাক্ট এর দরকার হয় তারা যেন আপনার কাছে আসে এই প্রিন্সিপাল এই কাজ করে ট্রু কলার অ্যাপ অতএব আপনি বুঝতেই পারছেন যে এই অ্যাপটা আমাদের প্রাইভেসির ওপর কত ইফেক্ট করে যখনই আমরা একে install করব। গুড়িয়ে ফিরিয়ে আমাদের ডেটাগুলো সব কালেক্ট করে নেয়

এবার চলুন এদের ওয়েবসাইটে যাওয়া যাক এবং দেখা যাচ্ছে এরা কোন কোন ডেটে আমাদের ফোন থেকে কালেক্ট করে আপনি এদের ওয়েব সাইটে যাবেন এবং প্রাইভেসি পলিসি তে গেলে আপনি দেখতে পাবেন ওখানে আছে ইনস্টলেশন এন্ড ইউজ দেখুন এখানে কি লেখা আছে When you install and use the services truecaller will collect person information From you and any devise you may use in your interaction with our services

মানে ওরা নিজেরাই বলছে যে আপনার পার্সোনাল ইনফরমেশন ওরা কালেক্ট কোরবে এবার কি কি ইনফরমেশন সেটাও এখানে লেখা আছে জিও লোকেশন, your ip address, ডিভাইস আইডি অর ইউনিক আইডেন্টিফায়ার, ডিভাইস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড টাইপ, ডিভাইস এন্ড হার্ডওয়ার সেটিংস, সিম কার্ড ইউজ অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল অন ইয়োর ডিভাইস মানে ফোনে কি কি এপ্লিকেশন ইন্সটল করা আছে ওটা ওদের জানতে হবে আর কী। তাছাড়া আইডি ফর অ্যাডভার্টাইজমেন্ট আড্ডাটা, অপারেটিং সিস্টেম, ওয়েব ব্রাউজার, অপারেটর আইএসআই, কানেকশন ইনফর্মেশন, স্ক্রিন রেজুলেশন

ইউসেজ স্ট্যাটাস ডিফল্ট কমিউনিকেশন অ্যাপ্লিকেশনস অ্যাকসেস টু ডিভাইস অ্যাড্রেসবুক। এছাড়াও আরো অনেক কিছু তো এই সবকিছু আপনি জানতে পারেন না যখন আপনি অ্যাপটা ইন্সটল করেন এবং প্রাইভেসি পলিসি তে আপনি টিক মার্ক দিয়ে দেন। তখন থেকেই এরা এই সমস্ত ইনফরমেশন গুলো ইউজ করতে শুরু করে দেয়।

সোজাসুজি ভাবে বললে সবার ডেটা একজায়গায় কালেক্ট করে এবং সেই ডেটে থেকেই সাধারণ মানুষকে সার্ভিস দেওয়া এই প্রচেষ্টাকে বলা হয় ক্রাউডসোর্সিং। মানে সাধারন মানুষের কাছ থেকে এটা নিয়ে সাধারণ মানুষকেই সার্ভিস দেওয়া অনেকে বলতে পারে যে এই অ্যাপটা তো একচুয়ালি আমাদের হেল্প করে আননোন নাম্বার থেকে ফোন আসে তাদের ইনফর্মেশন আমরা জানতে পারি।

প্লাস কোন নাম্বারটা আছে সেটাও আমরা এই অ্যাপের সাহায্যে জেনে যেতে পারি তবে একটু আগেই দেখলেন যে এই অ্যাপটা ইন্সটল করার জন্য আপনাকে কোন কোন জিনিসের পারমিশন দিতে হয় যখন আপনি এদের প্রাইভেসি পলিসিতে Agree করেন তার সাথে কিন্তু ওরা এটাও লিখে দেয় যে যদি আপনার পছন্দ না হয় তাহলে আপনি আনইন্সটল করে দিতে পারেন আর যদি ইনস্টল করেন তাহলে আমাদের এই শর্তগুলো কে আপনাকে মানতে হবে

এ কারণে আপনি যদি আপনার ফোনের প্রাইভেসিকে compromise করতে না চান তাহলে এই সবকিছু আপনাকে ভেবে নেওয়া দরকার একবার। আসলে আপনি নিজেও জানতে পারবেন না যে কোন কোন ডেটে এই অ্যাপটা আপনার ফোন থেকে তুলে নিয়ে চলে যাবে। এবার ব্যাপার হলো তাহলে কি আমরা জানতে পারব না যে আননোন নাম্বার থেকে কে ফোন করছে আমাকে তার নাম কি হ্যাঁ নিশ্চয়ই আমরা জানতে পারব ।

এমনকি ট্রুকলার কে ব্যবহার করেই জানতে পারবো কিন্তু এর জন্য আপনার ফোনে সিকিউরিটি টাকে কম্প্রোমাইজ করতে হবে না আপনি খুব নিশ্চিন্তে এ ট্রুকলার কে ব্যবহার করতে পারেন ।এবং আননন নাম্বার থেকে কে আপনাকে ফোন করছে তার পরিচয়টাও জানতে পারেন এজন্য আপনি কি করবেন আপনি একটা নতুন ইমেইল আইডি ক্রিয়েট করে নেবেন।

জিমেইল আইডিতে আপনার কোনো পার্সোনাল ইনফরমেশন থাকবে না একেবারে নতুন জিমেইল আইডি এবং এরপর ট্রুকলার এর যে ওয়েবসাইটটা আছে মানে ব্রাউজারে যে ওয়েবসাইট টা ওপেন হয় অ্যাপ নয়। সেই ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনি আপনার মেইল দিয়ে সাইন আপ করে নেবেন এবং তারপর আপনি ওই ওয়েবসাইটে কোন নাম্বার দিয়ে সার্চ করে দেখতে পারেন যে ওটা কার নাম্বার খুবই ইজি প্রসেস এর জন্য আপনাকে ফোনে অ্যাপ টা কে ইন্সটল করতে হবে না অথচ আপনি এর ফিচারগুলো ইউজ করতে পারবেন

আপনার হয়তো মনে হতে পারে যে এই ট্রু কলার অ্যাপ টাকা কিভাবে কামাই এর জন্য এদের কাছে মোটামুটি তিনটে প্রসেস আছে সবার প্রথমত অ্যাডভার্টাইজমেন্ট থেকে এদের যে ওয়েবসাইট আছে সেখানে অ্যাডভার্টাইজমেন্ট চলে তার সাথে আপনার ফোনে তো মাঝে মাঝে পপ আপ অ্যাড চলে আসে তো সেই সমস্ত অ্যাড গুলো থেকে ট্রুকলার ইনকাম করে।

তবে অ্যাডভার্টাইজমেন্ট এর থেকেও বেশি টাকা ইনকাম করে এরা ডেটাশেয়ারিং করে বর্তমানের টাকা, ডলার ,পাউন্ড এর থেকেও বেশি মূল্যবান হলো ডেটা। আমি জানিনা এটা কতটা সত্যি তবে এরকম জানা যায় এরা এদের যে সমস্ত থার্ড পার্টি ওয়েবসাইট আছে থার্ড পার্টি কম্পানিজ আছে যাদের হিউজ পরিমান পাবলিক ডেটার দরকার পড়ে তাদের সাথে ট্রু কলার ডেটা শেয়ারিং করে এদের কাছে যেমন সবার কন্টাক্ট নাম্বার থাকে সেই সাথে এদের কাছে কন্টাক্ট লোকেশনের থাকে।

মানে ধরুন ঢাকাতে কত ইউজার আছে তারা ডেটা যদি কোন কোম্পানীর দরকার পড়ে তাহলে সেটা ট্রুকলার এর কাছ থেকে তারা কালেক্ট করে নিতে পারে আর অবশ্যই ট্রুকলার সেই কোম্পানির কাছ থেকে এর জন্য অনেক টাকা চার্জ করে

এরপর টাকা ইনকাম করার আরেকটা প্রসেসর ট্রুকলার ফর বিজনেস।দরুন আপনার কোন বিজনেস আছে যার জন্য আপনাকে রেনডম মানুষকে ফোন করতে হয় এজন্য সাধারন মানুষ কি করে সেই ফোন নাম্বার গুলোকে স্পেম করে রাখে মানে কারো ফোনে যদি আপনার কোম্পানি থেকে ফোন যায় তাহলে তার ফোনে স্পেম দেখাবে।

এর জন্য ওই কোম্পানি গুলো কি করে ট্রুকলার কি এক্সট্রা করে টাকা দিয়ে দেয় যাতে তাদের লিস্ট থেকে ওই নাম্বার গুলো কে যেন স্প্যাম হিসেবে না দেখায় আর এইভাবে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের নাম্বার গুলো কে হোয়াইটওয়াশ করে নেয়। এই সবকিছু মিলিয়ে এদের প্রচুর বড় বিজনেস আর আমাদের কাছ থেকে ডেটা নিয়ে আমাদেরকে বিক্রি করে ইচ্ছে মতো পয়সা ইনকাম করছে।

তো বন্ধুরা শুধু ট্রুকলার নয় যেকোনো অ্যাপ নিজের ফোনে ইন্সটল করার সময় একবার ভালো করে দেখে নেবেন ভালো করে বোঝার চেষ্টা করবেন যে অ্যাপটা কিসের আর সেই অ্যাপটা আপনার ফোন থেকে কি কি জিনিসের পারমিশন নিচ্ছে ধরুন আপনি একটা মেসেজের অ্যাপ ইন্সটল করলেন। সেই অ্যাপটা আপনার ফোন থেকে ক্যামেরার পারমিশন চাইছে, গ্যালারির পারমিশন চাইছে, মাইক্রোফোনের পারমিশন চাইছে তবে মেসেজ করার জন্য কি ক্যামেরার প্রয়োজন হয় নাকি প্রয়োজন হয় মাইক্রোফোনের এই জন্য অ্যাপ ইনস্টল করার সময় ফোনের পারমিশন গুলো একটু ভেবেচিন্তে দেবেন।

তাহলে আপনার ফোনের এবং আপনার প্রাইভেসি টা ঠিকঠাক মেন্টেন হবে তা না হলে যাতা অ্যাপ স্টোর থেকে আপনি ডাউনলোড করবেন আর আপনার ফোন থেকে ডেটা নিয়ে তারা নিজের সার্ভারে আপলোড করে নিবে আর সেখান থেকে ধেধার টাকা ইনকাম করবে

আশা করি সবাই সবকিছু বুঝতে পেরেছেন। কোথাও সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাবেন অথবা ফেসবুকে জানাতে পারেন ফেসবুকে আমি

2 thoughts on "Truecaller কিভাবে কাজ করে..? এরা কিভাবে টাকা ইনকাম করে..?"

  1. reaz101 Contributor says:
    নাম্বারে জিমেল খোলা থাকলে ঐটার নাম শো করে জিমেল এর নাম আর জিমেল খোলা না থাকলে শো করে না সোজা হিসাব


    1. MD Shakib Hasan MD Shakib Hasan Author Post Creator says:
      তারা তো আপনার সব Contacts নাম্বার আগের নিয়ে নেয়। এভাবে সবার সবার নাম্বার তাদের কাছে আছে

Leave a Reply