আসসালামুয়ালাইকুম ! TrickBD তে সবাইকে স্বাগতম। কোনো ভুল হলে দয়া করে ক্ষমা করবেন। বেশি কথা না বলে শুরু করছি।

আমি সোহাগ ! আবারো হাজির হলাম আপনাদের মাঝে অন্য একটি পোষ্টে, আজকের পোস্ট শুরু করা যাক !

তাড়াহুড়ো করে পড়বেন না এতে আপনার সময় নষ্ট ছাড়া কিছু হবে না, তাই মনোযোগ দিয়ে পড়ুন হয়তো আপনার কিছু হলেও লাভ হবে।

যখন‌ই আপনি নতুন কোনো স্মার্টফোন কিনেন বা কোনো স্টোরেজ ডিভাইস কিনেন মেমোরি কার্ড, হার্ডডিস্ক, পেনড্রাইভ তো আপনি স্টোরেজের খেয়াল অবশ্যই রাখেন। কেননা আজকালকার সময়ে আমাদের বেশি স্টোরেজ প্রয়োজন বেশি ডেটা স্টোর করার জন্য।

কিন্তু আপনি একটা বিষয় অবশ্যই খেয়াল করেছেন যে, আমরা মার্কেট থেকে যে স্টোরেজ ডিভাইস কিনি, স্মার্টফোন কিনি তো এখানে আমাদের Actual Size দেখানো হয়, বলা হয়-

উদাহরণ হিসেবেঃ

আপনি 16GB সাইজের একটি পেনড্রাইভ অথবা মেমোরি কার্ড কিনেছেন। কিন্তু যখন আপনি সেটা আপনার স্মার্টফোনে ঢোকান বা কম্পিউটার বা ল্যাপটপে কানেক্ট করেন তখন সেটা ১৬ জিবির কম দেখায়। যেমন যদি ১৬ জিবির মেমোরি কার্ড বা পেনড্রাইভ হয় তাহলে সেখানে 14.9GB দেখায়। তো এখানে প্রায় 1.1GB স্টোরেজ উধাও।

তো এরকম কেন হয় ? স্টোরেজ ডিভাইস বানানো কোম্পানিগুলো আমাদেরকে ধোঁকা দিচ্ছে ? এটা আপনার অবশ্যই জেনে রাখা প্রয়োজন! তো জানার জন্য এই পোস্ট মনোযোগ দিয়ে পড়ুন আশা করছি আপনার যেসব অজানা সেসব‌ও জানতে পারবেন।

স্টোরেজ ডিভাইসে যে Actual Size দেখানো হয় আমরা তার কম কেন পাই ? এটা জানার আগে আপনাকে প্রথমে এটা জানতে হবে যে Memory Units কি ?

তো আমি আপনাকে সহজ এবং সিম্পল ভাষায় বলি, যে আপনি যখন কোনো স্টোরেজ ডিভাইস কিনেন, স্মার্টফোন কিনেন এবং যখন সেটার ইন্টারনাল স্টোরেজ চেক করেন তো আপনি কিভাবে জানতে পারেন যে এই স্টোরেজ ডিভাইসে, এই ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজে, এই মেমোরি কার্ডে, এই হার্ডডিস্কে, এই পেনড্রাইভে শুধু এতখানি‌ই ডেটা স্টোর করতে পারবেন এর বেশি ডেটা আপনি স্টোর করতে পারবেন না। এসব আপনি জানতে পারেন Memory Units এর মাধ্যমে।

হ্যাঁ ! যতগুলো স্টোরেজ ডিভাইস থাকে, যতগুলো স্মার্টফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকে সেখানে আপনাকে বলা হয় এর যে স্টোরেজ ক্যাপাসিটি আছে সেটা ১৬ জিবি পর্যন্ত, ৩২ জিবি পর্যন্ত, ৮ জিবি পর্যন্ত ইত্যাদি এর থেকে বেশী আপনি ডেটা স্টোর করতে পারবেন না। তো এইসব‌ই আপনি মেমোরি ইউনিটস এর কারণে জানতে পারেন। এখানে আপনার Units of Computer Memory Measurements জেনে রাখা প্রয়োজন।

Units of Computer Memory Measurements

1 Bit = Binary Digit
8 Bites = 1 Byte
1024 Bytes = 1 KB [Kilo Byte]
1024 KB = 1 MB [Mega Byte]
1024 MB = 1 GB [Giga Byte]

1024 GB = 1 TB [Terra Byte]
1024 TB = 1 PB [Peta Byte]
1024 PB = 1 EB [Exa Byte]
1024 EB = 1 ZB [Zetta Byte]
1024 ZB = 1 YB [Yotta Byte]
1024 YB = 1 Bronto Byte

জেনারেলি যতগুলো কম্পিউটার থাকে সেটা মেমোরি কে মেজার করার জন্য নিজস্ব মেমোরি ইউনিটস এর স্ট্যান্ডার্ড কে ফলো করে। এদের কাছে 1GB মানে 1024MB কিন্তু এখানে যতগুলো Manufacturers হয়, যা মেমোরি কার্ড, হার্ড ডিস্ক, পেনড্রাইভ ইত্যাদি স্টোরেজ ডিভাইস তৈরি করে এদের কাছে 1GB মানে 1000MB

নরমালি যদি আমরা কাউকে জিজ্ঞাসা করি যে ভাই, ৮ জিবির মেমোরি কার্ড মানে আপনার কাছে কতখানি ? তখন বেশিরভাগ লোকই বলবে ৮ জিবি মানে ৮ হাজার এমবি, এটাকে হাজারে মাল্টিপ্লাই করে দেয়।

তো এখানেও একই ভাবে যে Manufacturers হয় এদের কাছেও ১ জিবি মানে ১ হাজার এমবি। কিন্তু কম্পিউটার বা ডিভাইসের জন্য ১ জিবি মানে ১০২৪ এমবি। হুম, তো এইখানেই হিসাব ওলোটপালোট !

যার কারণে আপনি মার্কেটে ১৬ জিবির কোনো মেমোরি কার্ড, পেনড্রাইভ, হার্ডডিস্ক ইত্যাদি বলা হয় কিন্তু স্টোরেজ হয় ১৪.৯ জিবি। আসুন ছোট একটি উদাহরণ হিসেবে জানিয়ে দিই।

মনে করুন, একটি মেমোরি কার্ড যার Actual Size হলো 16GB তো এখন কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইস এটাকে কতখানি ধরবে ?

কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইসের জন্য 1GB = 1024MB যদি আমরা 1GB কে Bytes এ কনভার্ট করি তাহলে 1GB = 1073741824 Bytes হবে। ঠিক এভাবেই 16GB কে 16GB = 17,179,869,184 Bytes হিসেবে ধরবে।

কিন্তু Manufacturers এর কাছে 1GB = 1000MB যদি আমরা Manufacturers এর হিসেবে 1GB কে Bytes এ কনভার্ট করি তাহলে 1GB = 1000,000,000 Bytes হবে। ঠিক এভাবেই 16GB কে 16GB = 16,000,000,000 Bytes হিসেবে ধরবে।

এখানেই দেখা যায় দুটোর মধ্যে তফাৎ কতখানি। তো যখন‌ই আপনি মেমোরি কার্ড কে কম্পিউটার বা অন্য ডিভাইসে ইনসার্ট করেন তো এখানে Manufacturers আপনাকে যতখানি স্টোরেজ প্রোভাইড করেছে, যত Bytes এর স্টোরেজ প্রোভাইড করেছে ঠিক ততখানি‌ই বাইটস স্টোরেজ কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইস আপনাকে দেখায়।

এটার একটি খুবই সহজ এবং ছোট হিসাব করলে যা ফলাফল হবে তা হলোঃ ↓↓↓

16GB Storage

Computer/Other Devices

1GB = 1024MB
1GB = 1073741824 Bytes
(1024x1024x1024)
16GB = 17,179,869,184 Bytes

Manufacturers

1GB = 1000MB
1GB = 1000,000,000 Bytes

(1000x1000x1000)
16GB = 16,000,000,000 Bytes

16,000,000,000 Bytes/1073741824 = 14.9 Approx

যার মানে হলো Manufacturers আমাদের আসলে ১৬ জিবির পরিবর্তে ১৪.৯ জিবি স্টোরেজ দিচ্ছে। ঠিক এই কারণেই আমরা কম স্টোরেজ পাই। কারণ এখানে Manufacturers এর হিসেবে 1GB = 1000MB কিন্তু কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইস এটাকে 1GB = 1024MB হিসেবে ধরে।

আর এখানে কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইস তাদের নিজস্ব Memory Units Standards কেই ফলো করবে, না তো Manufacturers এর Memory Units কে। তো এখানে বেশি প্রাধান্য কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইসের মেমোরি ইউনিটস এর।

এছাড়াও আপনি আরেকটা বিষয় খেয়াল করেছেন যে, স্মার্টফোনের যে Actual Internal Storage দেখানে হয় কিন্তু আপনি তার থেকে খুবই কম স্টোরেজ পান।

যেমন, যদি ৩২ জিবির ইন্টারনাল স্টোরেজ দেয় ফোনে তাহলে আপনি ২১ থেকে ২৪ জিবির আশেপাশে ইন্টারনাল স্টোরেজ পান, কারণ এখানে ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ Installed Apps/Games, Inbuilt Apps, System, Others এর জন্য জায়গা ব্যবহৃত হয়।

তো এই হলো জায়গা কম পাওয়ার কারণ।

আরও পড়ুনঃ এশিয়া কাপ ২০২২ লাইভ

আরও পড়ুনঃ অল্টার কত প্রকার ও কি কি এবং অল্টার এর নাম

এই পোষ্ট এতটুকুই ! এতক্ষণ সময় নিয়ে পোস্ট পড়ার জন্য ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন সবাই, আল্লাহ হাফেজ। 🙂

কোনো সমস্যা অথবা কোনো প্রয়োজন হলে আমার Facebook I’d

13 thoughts on "কেন Internal Storage এবং Memory Card সহ অন্যান্য Storage Devices এ জায়গা কম পাওয়া যায়? [Important]"

  1. TAHER Author says:
    সুন্দর পোস্ট, চালিয়ে যান ❤️
    1. Sohag21 Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ ভাই 💚
  2. Minhaj sakib Author says:
    informative ❤️
    1. Sohag21 Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ আপনাকে 💚
  3. Levi Author says:
    Manufacturer রা 1GB = 1000MB কেনো ধরে? 1GB=1024 ধরে না কেনো?
    1. Sohag21 Author Post Creator says:
      ম্যানুফ্যাকচারিং হল যন্ত্রপাতি, শ্রম, মেশিন, টুলস এবং রাসায়নিক বা জৈবিক প্রক্রিয়াকরণ বা ফর্মুলেশনের সাহায্যে পণ্য তৈরি বা উৎপাদন। এটি মেমোরি বা স্টোরেজ ডিভাইসের ক্ষেত্রে তার নিজস্ব ডেভেলপার দ্বারা পরিচালিত স্ট্যান্ডার্ড ফলো করে, ম্যানুফ্যাকচার এটা দেখে না যে 1GB কে অন্যান্য স্টোরেজ ডিভাইস কতখানি ধরবে বা ধরে! ম্যানুফ্যাকচার সেই ইউনিটস এবং ক্যাপাসিটি প্রোভাইড করবে যতটা তার নির্মাতা তাকে দিয়েছে। এখানে নির্মাতা কেন এরকম করেছে সেটা তারাই ভালো জানেন। যেমনটা আমরা জানি যে মেমোরির জায়গা ফুল করা ঠিক না এতে সমস্যা হতে পারে তাই কিছুটা হলেও জায়গা ফাঁকা রাখতে হয়, এটাও একটা কারণ হতে পারে। ম্যানুফ্যাকচারের কোনো ঠ্যাকা পড়েনি যে সে তার নির্দেশের বাইরে কাজ করবে। অপরদিকে, কম্পিউটার এবং অন্য ডিভাইস এটা দেখে না যে মেমোরির ম্যানুফ্যাকচারিং কেমন, মোট অ্যাপ্রোক্স কতটুকু। তারা সেটাই শো করে যেটা ইলেকট্রিক কম্পোনেন্ট যেটা নির্মাতা দ্বারা তৈরি এবং মেমোরি ক্যাপাসিটি সেট করা আছে। এখন এরকম কেন করেছে সেটা তারাই ভালো জানেন‌। এখানে তাদের‌ও ঠ্যাকা পড়েনি যে ক্রেতাদের সর্বোচ্চ গুণাগুণ সম্পন্ন পণ্য প্রদান করবে। তারা যথাসম্ভব Random Storage Units দেয় এতে ১৯-২০ হবেই। এটাকে কারো কাছে Bugs, Error মনে হতে পারে আবার কারো কাছে সামান্য সমস্যা।
    2. Shakib Author says:
      Oww vai etto boro reply 😅
    3. Levi Author says:
      আপনার কথার সারাংশ হচ্ছে, Manufacturer রা জানে না যে 1GB=1024 MB । 😄
    4. Sohag21 Author Post Creator says:
      আপনি হয়তো আমার কথা বুঝতে পারেন নি, ম্যানুফ্যাকচার কোনো মানুষ না। ম্যানুফ্যাকচারকারী হলো মানুষ। ম্যানুফ্যাকচারে কতটুকু মেমোরি ইউনিটস দিয়েছে সেটা তাদের ভালো জানা। আর ম্যানুফ্যাকচারকারী অবশ্যই জানে যে ১জিবি = ১০২৪ এমবি। কিন্তু তারা ২৪ এমবি বেশি প্রাধান্য দেয় না, তাই ইলেকট্রিক কম্পোনেন্ট এর দিকে তারা ১ জিবি = ১০০০ এমবি‌ই ধরে। এখন যদি আমি আপনাকে বলি যে ১০০০ এমবি ইন্টারনেট আপনাকে ১৩ টাকায় দেওয়া হবে এবং ১০২৪ এমবি আপনাকে ২৩ টাকায় দেওয়া হবে। তাহলে আপনি কোনটা নিবেন ? ১০ টাকা বেশি দিয়ে বাড়তি ২৪ এমবি নিবেন নাকি ১০ টাকা কমে ১০০০ এমবি ? ঠিক এভাবেই সাধারণ মেমোরি কার্ড ব্যবহারকারীদের কাছে ১.১ জিবি কমে যাওয়া বা কম জায়গা পাওয়া খুব বেশি সমস্যা না। কিন্তু তাদের মনে প্রশ্ন জাগে যে কেন জায়গা কম দেওয়া হয় ? তো এখানে ১.১ জিবি কম জায়গা পাওয়ার জন্য তো আর আমি বা আপনি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা বন্ধ করবো না। আর আমি আপনি তো এই ১.১ জিবি জায়গা ফেরৎ আনতে পারবো না। তো ম্যানুফ্যাকচারকারী যেটা করে তা হলো তারা ঠিকই জানে যে ১ জিবি = ১০২৪ এমবি। কিন্তু তারা এই ২৪ এমবি কে গুরুত্ব দেয় না কেন দেয় না সেটা যদি আমি আপনি ম্যানুফ্যাকচারকারীকে গিয়ে জিজ্ঞেস করি যে ভাই আপনি ১৬/৩২/৬৪ জিবি মেমোরি তে ১.১ জিবির মতো কম দেন কেন ? তখন কি তারা আপনাকে বলবে যে আমি এই কারণে বা ঐ কারণে ঐ জায়গা কম দিয়েছি ! বলবে না কারণ তাদের ঠ্যাকা পড়ে নি। আপনি রাগ করে বা কম জায়গা পাওয়ার কারণে যদি মেমোরি কার্ড ব্যবহার নাও করেন তাতেও ম্যানুফ্যাকচারকারীর চুল‌ও ছিঁড়বে না। আপনি না নিলেও যাদের প্রয়োজন তারা ঠিকই নিবে তারা ১.১ জিবি কমের কারণে মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা বন্ধ করবে না। সারাংশ যেটাই হোক মূল কথা হলো ম্যানুফ্যাকচারকারী কেন জায়গা কম দিয়েছে সেটা তারাই ভালো জানেন এবং হয়তো কোনো কারণ রয়েছে সেই জন্য কম দেন। কথায় আছে না কোনো কিছুই অতিরিক্ত ভালো না। আশা করছি আপনি বুঝতে পেরেছেন আমি কি বলতে চেয়েছি, তারপরেও যদি না বুঝতে পারেন তাহলে আমাকে মাফ করবেন।
  4. 4HS4N Author says:
    বাহ। অনেক কিছু জানলাম। THANKS 🫡
    1. Sohag21 Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ 💚 চেষ্টা করবো যেন আগামী তে আরো কিছু জানতে পারেন।
  5. SGR Author says:
    Well writing! 💜
    1. Sohag21 Author Post Creator says:
      Thank you

Leave a Reply