IFTTT এর নাড়ি-নক্ষত্র।


IFTTT , অনেকে আবার এটাকে স্মার্টলি বলে ইফট।

IFTTT দিয়ে আপনি চাইলে আপনার সোশ্যাল মিডিয়াকে অটোমেট করতে পারেন।সব গুলোকে একসাথে ইন্টিগ্রেট করে একটা সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করলে বাকি সবগুলো সোশ্যাল মিডিয়াতে অটো শেয়ার হয়ে যাবে এই অপশনটা অন করতে পারেন।চাইলে আপনার বাসায় থাকা ইলেকট্রনিকের কাজ অটোমেশন করতে পারবেন।

IFTTT এর পূর্ণরূপ কি?

IFTTT এর পূর্ণরূপ হচ্ছে If This Then That। IFTTT কে আমরা ২টি অংশে ভাগ করতে পারি।যেমন – IF THIS এবং Then That । প্রথম অংশ টুকু IF THIS কে বলা হয় Trigger এবং দ্বিতীয় অংশ Then That কে বলা হয় Action । এটাকে একটা কন্ডিশন বলা যায়।অর্থাৎ , যদি এটা হয় , তবে ঐটা ঘটবে। একটা উদাহরণ দিলে বুঝবেন : যদি সূর্য ডুবে যায়, তবে আমার রুমের লাইট জ্বলে যাবে। এখানে সূর্য ডুবে যাওয়া টা একটা ট্রিগার এবং আমার রুমের লাইট জ্বলে যাওয়া টা একটা অ্যাকশন।

সোশ্যাল মিডিয়া দিয়ে একটি উদাহরণ দেই। যেমন – যদি আমি ফেইসবুকে একটি পোস্ট করি , তবে টুইটার এ সঙ্গে সঙ্গে সেই পোস্টটি শেয়ার হয়ে যাবে।পুরো ব্যাপার টা হবে অটোমেটিক।এখানে ফেইসবুকে পোস্ট করা টা একটা ট্রিগার এবং টুইটার এ ও পোস্ট হয়ে যাবে(শেয়ার না) সেটা একটি অ্যাকশন।

IFTTT ২টি ভাগে বিভক্ত

  1. Services
  2. Applets

Service

Service হচ্ছে যে প্ল্যাটফর্ম গুলো আপনারা ইউজ করেন সেগুলোই।এর মাঝে রয়েছে ফেসবুক, টুইটার , ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব , লোকেশন ,আপনার হাতের অ্যান্ড্রয়েড ফোনটিও একটি সার্ভিস , ব্লগার, গুগল ড্রাইভ , কিংবা আপনার বাসায় যদি গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট/ আমাজন অ্যালেক্সা ইত্যাদি।সবগুলো সার্ভিস এর লিস্ট IFTTT তে পেয়ে যাবেন।

Applets

Applets হচ্ছে যেগুলো আমরা তৈরি করবো।যেমন – সূর্য ডুবার ফলে আমার রুমের লাইট জ্বলে যাবে।এটি একটি Applets । ফেইসবুকে পোস্ট করলে টুইটার এ ও পোস্ট হয়ে যাবে এটিও একটি Applets ।

অসংখ্য Applets রয়েছে IFTTT তে। আপনি চাইলে সেগুলো ইউজ করতে পারেন কিংবা নিজেও একটি Applets বানিয়ে সেটি ইউজ করতে পারেন। যেমন – ফেইসবুকে পোস্ট করলে বাকি সবগুলো সোশ্যাল মিডিয়া তে পোস্ট হয়ে যাবে , ব্লগারে পোস্ট করলে ফেসবুক পেজে শেয়ার হয়ে যাবে , এমনকি আপনি অন্য ওয়েবসাইটের সাথে আপনার ওয়েবসাইট কানেক্ট করে দিতে পারেন আরএসএস ফীড এর মাধ্যমে।এতে করে উক্ত সাইটে পোস্ট হলে সঙ্গে সঙ্গে আপনার সাইটেও পোস্ট হয়ে যাবে।পুরোটাই একটি অটোমেশন সিস্টেম।

আপনারা হয়তো অটো-ব্লগিং শব্দটি শুনে থাকবেন।অটো ব্লগিং IFTTT দিয়েই করা হয়।AUTO-BLOGGING এর মাধ্যমে আপনি অন্য যেকোনো সাইটের সাথে আপনার সাইট IFTTT দিয়ে কানেক্ট করে দিলে উক্ত সাইটের পোস্ট আপনার সাইটের তৎক্ষণাৎ পোস্ট হয়ে যাবে।

IFTTT এর ওয়েবসাইট IFTTT.COM

IFTTT এর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ও পেয়ে যাবেন প্লে – স্টোরে। ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী পোস্টে দেখাবো কিভাবে IFTTT দিয়ে অটো ব্লগিং করবেন।দেখা হচ্ছে পরবর্তী পোস্টে, ততক্ষণ ভালো থাকবেন।সুস্থ থাকবেন।আল্লাহ হাফেজ।


প্রিমিয়াম টেমপ্লেট পেতে BlogrTool ভিজিট করুন

আমাদের সঙ্গে যুক্ত থাকতে জয়েন করুন টেলিগ্রাম গ্রুপ এবং নিত্যনতুন আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল।

One thought on "IFTTT এর নাড়ি-নক্ষত্র।"

  1. saihum Contributor says:
    Ei type er app gular mddhe Macrodroid best🔥

Leave a Reply