বাংলা মাস্টারক্লাস সিনেমা’
পর্ব – ০১
যাদের বাংলাদেশী সিনেমা নিয়ে এলার্জি আছে তাদের জন্য কিছু বাংলা মাস্টারক্লাস কিংবা প্রথম সারির সিনেমার লিস্ট।
লিস্টটা একান্তই আমার ব্যক্তিগত,যারা নিজের দেশের সিনেমাকে জানতে আগ্রহী তারা দেখতে পারেন সিনেমাগুলো।
প্রতিটি পর্বেই দশটি করে,মোট পাঁচটি পর্বে পঞ্চাশটি দারুন ছবির খোঁজ দেয়ার প্রচেষ্টা থাকবে।বেশিরভাগ সিনেমাই ইউটিউবে আছে।

🎬— ‘ভাত দে’
আমজাদ হোসেন মানেই বিশেষ কিছু।কনটেন্ট বেসড সিনেমার গুরু মানি উনাকে।এই সিনেমার থীম সাজানো হয়েছে,‘জরি’ নামের এক দরিদ্র নারীর ট্রাজেডিক লাইফ কে ঘিরে।সিনেমাটা দেখার পর মনে হবে,ক্ষুধার রাজ্যে কালো মেঘগুলোকেও গোস্তের পিন্ডের মতো মনে হয়।
সিনেমার মূল চরিত্রে অভিনয় করেছিল শাবানা,এছাড়াও ছিলেন আলমগীর,আনোয়ারা,রাজিব।
আই.এম.ডি.বি: ৮.২
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’
আমজাদ হোসেনের আরেক কালজয়ী সিনেমা।যা নির্মান করা হয়েছিল,‘ধ্রুপদী এখন ট্রেনে’ উপন্যাস অবলম্বনে।আমাদের সিনেমার সোনালী সময়ে শক্তিশালী আর্টিস্টদের নিয়ে কম্পিটিশন হতো।তেমনি শাবানা,ববিতার ইমেজ অনুযায়ীই বলা যায়,‘ভাত দে এবং গোলাপী এখন ট্রেনে’র জন্ম।
সিনেমায় ‘গোলাপী’ নামের এক নিচু শ্রেনীর নারীর জীবনকে তুলে ধরা হয়েছে।
মূল চরিত্রে অভিনয় করেছিল ববিতা,ছিলেন ফারুক,আনোয়ারা,তারানা হালিম,রওশন জামিল,এ.টি.এম শামসুজ্জামান।
আই.এম.ডি.বি : ৮.৫/১০
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘সারেং বউ’
শহীদুল্লাহ কায়সারের ‘সারেং বউ’ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত সিনেমা।একজন সারেংয়ের অপেক্ষায় থাকা তার স্ত্রী’র জীবনের ট্রাজেডিকেই তুলে আনা হয়েছে গল্পে।
অভিনয় করেছিলেন,ফারুক এবং কবরী এছাড়াও ছিলেন গোলাম মোস্তফা।

আই.এম.ডি.বি : ৮/১০
ব্যক্তিগত : ৮/১০

🎬— ‘আলোর মিছিল’
মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটকে ঘিরে শক্ত প্লটের,বাংলাদেশে হাতেগোনা কয়েকটি সিনেমা রয়েছে।তার ভেতরে ‘আলোর মিছিল’ অন্যতম।সিনেমার সেই গানটি ‘এই পৃথিবীর তরে’ এখনও মানুষ সমান তালে পছন্দ করে।
দারুন অভিনয় করে অজস্র দর্শকের চোখে অশ্রু এনে দিয়েছিল ববিতা।এছাড়াও ছিলেন রাজ্জাক,আনোয়ার হোসেন,সুজাতা আজিম,ফারুক,রোজী সামাদ,খলিল।
আই.এম.ডি.বি : ৮.৬/১০
ব্যক্তিগত : ৯/১০

🎬— ‘জীবন থেকে নেয়া’
জহির রায়হানের কালজয়ী সৃষ্টি।ভাষা আন্দোলনকে ঘিরে আমাদের সিনেমাপাড়ায় কয়েকটি সিনেমা নির্মান হয়েছে মাত্র।সিনেমার গল্প একটি পরিবারের গল্পকে ঘিরে,রুপক ভাবে জহির রায়হান কথার স্বাধীনতাকে নির্দেশ করেছিল।সিনেমাটিতে অভিনয় করেছিল খান আতাউর রহমান,রাজ্জাক,রোজি সামাদ,সূচন্দা,শওকত আকবর এবং রওশন জামিল।
আই.এম.ডি.বি : ৯.৪/১০
ব্যক্তিগত : ৯/১০

🎬— ‘অভিযান’
আমার কাছে এই সিনেমাকে গরীবের টাইটানিক লাগে।সিনেমায় হয়ত রোজ নেই তবে রোজের থেকেও সুন্দরী রোজিনা আছে।একটা জাহাজে দূর্ঘটনাক্রমে এসে পরে একটি মেয়ে,এবং তাকে ঘিরেই জাহাজের প্রধান তিন কর্মচারী বন্ধুর প্রেমের বহিঃপ্রকাশ,টানা পড়েন কে ঠিকঠাক উপস্থাপন হয়েছে।এই সিনেমাতে দেখা মিলবে,রাজ্জাক,জসীম,ইলিয়াস কাঞ্চন কে একই সাথে।তাদের বিপরীতে আছেন দ্য স্ট্যানিং বিউটি রোজিনা।
আই.এম.ডি.বি : ৭.২/১০
ব্যক্তিগত : ৭/১০

🎬— ‘রংবাজ’
‘হোয় হোয় হোয় রঙ্গিলা রঙ্গিলা রে’ অথবা ‘ সে যে কেন এলোনা’ এই গান দুটির নতুন ভার্সন আমরা মিউজিক লাভাররা শুনেছি।গান দুটি মূলত রংবাজের সুপার ডুপার হিট গান।ঐ সময়ে তরুনদের প্যাশেনেট গানও বলা যায়।বেপারোয়া এক ব্যক্তির গল্প।এই সিনেমার মাধ্যমেই বাংলা সিনেমায় প্রথম এন্টি হিরো চরিত্রের ইন্ট্রোডাকশন হয়। অভিনয় করেছিলেন রাজ্জাক,কবরী,আনোয়ার হোসেন।
আই.এম.ডি.বি : ৮/১০
ব্যক্তিগত : ৭.৫/১০

🎬— ‘অবুজ মন’
‘শুধু গান গেয়ে পরিচয়’,বাংলা সিনেমার এই গানের সাথে পরিচয় হয়েছে সবারই।তবে সিনেমাটির সাথে পরিচয় হয়ত অনেকেরই নেই।অসাধারণ মিষ্টি প্রেম,টুইস্ট,বিরহ সবমিলিয়ে প্রেমের কমপ্লিট প্যাকেজ।এবং রাজ্জাক,শাবানার দারুন কেমিস্ট্রি আপনার মনে এই সিনেমা জায়গা করে নিবে।ঐ সময়ে বাংলা সিনেমায় ইন্টার কমিউনিটির উপর বেসড করে এরকম গল্প কতখানি সাহসের ব্যাপার ছিল,ভাবতেই অবাক লাগছে।
আই.এম.ডি.বি : ৮.১/১০
ব্যক্তিগত : ৯/১০

🎬— ‘দুই পয়সার আলতা’
নামটা শুনেই কেমন জানি একটা রোমান্টিক ব্যাপার আছে,কিন্তু ঐ যে দুই পয়সা শব্দটা একটা করুন সুর একে দিয়েছে পুরো গল্পে।এই গল্পে
টিও একটি মেয়েকে ঘিরে,যার বাবা মৃত্যুর সময় তার জন্য কিছুই রেখে যায়নি।আমজাদ হোসেন এই সিনেমাতেও সাকসেস।
অভিনয়ে ছিলেন শাবানা,রাজ্জাক,নতুন,আনোয়ারা।
আই.এম.ডি.বি : ৬/১০
ব্যক্তিগত : ৭.৫/১০

🎬— ‘মরনের পরে’
এই সিনেমা শৈশবে দেখেছিলাম,তখন কেঁদে ভাসিয়ে দিয়েছিলাম।গল্পে এত কষ্ট মানা পসিবল ছিলোনা।বড় হয়ে যখন দেখেছি,তখন শুধু ভেবেছি আহা!কি জোশ আর ইউনিক কনটেন্ট।দর্শকদের হৃদয়ে কষ্ট দিতে যথেস্ট এর গল্প,মেকিং,অভিনয়।গল্পের প্রথম থেকে শেষ অবধি একটা কথাই মনে হবে,মা-বাবা তো মা-বাবাই।তারা মৃত্যুর দুয়ারে দাড়িয়েও প্রার্থনা করে,আমার সন্তানরা ভাল থাকুক।অসাধারন হার্ট টাসিং অভিনয় করেছিল শাবানা,আলমগীর,আনোয়ারা।
আই.এম.ডি.বি : ৯.১/১০
ব্যক্তিগত : ৯.৫/১০

টু বি কন্টিনিউ. . . . .

Leave a Reply