গুগলের যত ফেইল প্রোজেক্ট । পর্ব ১

গুগল, নামটা শুনে নাই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মনে হয় সোনার হরিণ খুঁজে পাওয়ার থেকেও কঠিন। আমাদের প্রত্যেকের জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে আছে এই অসাধারণ শব্দটি। প্রাত্যাহিক জীবনে যখন ই আমরা কোন কিছু খুঁজি কিংবা কোন ভিডিও দেখি কিংবা যে ফোন ইউজ করি তার সবকিছুর সঙ্গে প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ ভাবে জড়িয়ে আছে গুগল।

গুগলের রয়েছে ইউটিউব, জিমেইল, সার্চ ইঞ্জিন সহ আরো অনেক অনেক প্রোডাক্ট বা প্রোজেক্ট। কিন্তু এত এত সফলতার ভিড়ে গুগলের ও রয়েছে বেশ কিছু ফেইল প্রোজেক্ট। যেগুলো বেশ কিছুদিন পাবলিক সার্ভিস দিলেও শেষ অবধি হারিয়ে গেছে এই বিশাল জগতে।
আজকে এমন ই কিছু ফেইল প্রোজেক্ট নিয়ে কথা বলব। চলুন শুরু করা যাক
Google Plus | Wikipedia
Google Plus | Wikipedia
১। গুগল প্লাস
গুগল প্লাস নিশ্চয় দেখেছেন কিংবা হয়ত ব্যবহার ও করেছেন। গুগল প্লাস, ফেসবুক-টুইটার এর মতোই একটি সোশ্যাল মিডিয়া ছিল। কিন্তু ২০১১ সাল থেকে ২০১৯ সাল অবধি ৮ বছরেও এর জনপ্রিয়তা ফেসবুক ইউটিউব এর ধারে কাছেও যায় নি। এছাড়া ছিল অনেক মেজর সিকিউরিটি ইস্যু। শেষ অবধি ২০১৯ সালে এসে গুগল এটির সার্ভিস অফ করে দেয়।
Google Video | Wikipedia
Google Video | Wikipedia
২। গুগল ভিডিও
২০০৫ সালের কথা, যখন ইউটিউব বেশ জনপ্রিয় এবং ভিডিও সার্ভিস এর শেয়ার এ ভাগ বসাতে সে সময় গুগল নিয়ে আসে “গুগল ভিডিও” যা ইউটিউব এর মতোই ভিডিও হোস্ট সার্ভিস। কিন্তু সেরকম সাড়া না পাওয়ায় “গুগল ভিডিও” কে বিদায় জানিয়ে ইউটিউবকে কিনে নেয় গুগল।
Google Answer | Screenshot
Google Answer | Screenshot
৩। গুগল অ্যানসার
আমরা এখন যেমন গুগল এ যে কোন প্রশ্ন খুঁজি এবং বেশিরভাগ সময় নানান ধরনের উত্তর পায়। অনেক সমস্যা পোহাতে হয় সঠিক টি বেছে নিতে। ঠিক এই সমস্যা সমাধানের জন্য গুগল নিয়ে আসে “গুগল অ্যানসার” যেখানে আপনি একটা প্রশ্ন করে সেই প্রশ্নের জন্য নির্দিষ্ট ফি বরাদ্দ করবেন এবং ঐ বিষয়ক রেজিস্টার্ড কোন গবেষক আপনার উত্তর দিয়ে দিবে। কিন্তু পর্যাপ্ত ইউজার না থাকায় গুগল এই সেবাকে ২০০৬ সালেই অফ করে দেয়।
Knol | Wikipedia
Knol | Wikipedia
৪। নল
২০০৮ সালে উইকিপিডিয়াকে টেক্কা দেয়ার লক্ষ্যে গুগল নিয়ে আসে তাদের মুক্ত জ্ঞান চর্চার প্লাটফর্ম “নল”। যেখানে যে কেউ রেজিস্টার করে কন্টেন্ট লিখতে পারত। কিন্তু সবাই যেহেতু উইকিপিডিয়ায় অলরেডি লিখছে এবং উইকিপিডিয়াতে রয়েছে অনেক অনেক কন্টেন্ট সেখানে নল একদম নতুন হওয়ায় তেমন কোন ইউজার ছিল না। আর এভাবেই মাত্র ৪ বছরের মাথায় ২০১২ সালে শেষ হয় নল এর আয়ু
Jaiku | Wikipedia
৫। জাইকু
২০০৭ সালে গুগল কিনে নেয় জাইকু কে। এটি মুলত টুইটারের মতোই একটি বিকল্প সেবা। গুগল এটার সিকিউরিটি ফোকাস করানোর জন্য এর কোডবেইজ ওপেন সোর্স করে দেয়। কিন্তু এটাও কম ইউজার এর কারণে হারিয়ে যায় এবং গুগল ২০১২ সালে এটার সেবাও অফ করে দেয়।
 
এই তো গেল গুগলের অনেক অনেক ফেইল প্রোজেক্ট এর মধ্যে থেকে খুব খুব সামান্য কিছু অংশ। সামনের পর্বে থাকবে আরো ৫ টি প্রোডাক্ট যেগুলো গুগল এর ফ্লপ প্রোডাক্ট এর মধ্যে অন্যতম।
সেই অবধি ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন। যেকোন মতামত লিখুন কমেন্টে। ধন্যবাদথান,সুস্থ থাকুন। কমেন্টে জানান থাকুন, সুস্থ থাকুন। কমেন্টে জানান আপনার মতামতইবধি ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন। কমেন্টে জানান আপনার
আরো ভালো আর্টিকেল পেতে চলে যান এই লিংক এ লিনাক্সের জন্য সেরা ৩ টি ভিডিও এডিটর

6 thoughts on "গুগলের যত ফেইল প্রোজেক্ট । পর্ব ১"

  1. Sakibur Rahman Sakibur Rahman Contributor says:
    সবদিক একসাথে খেতে গেলে যা হয় আরকি।😹


  2. Dip Dey - Walker #57341 Dip Dey - Walker #57341 Contributor says:
    সবাই সব পারে নাহ এটা গুগল কে বলতে হবে
  3. Dark_Superman (Mr. Merciless) Dark_Superman (Mr. Merciless) Contributor says:
    এনছার নাকি অ্যানসার?
    বানান ঠিক রাখবেন পোস্টে।
    1. Shahriar Ahmed Shovon Shahriar Ahmed Shovon Author Post Creator says:
      সরি ভাই, ভুল হয়ে গেছে। আপনাকে ধন্যবাদ ধরিয়ে দেবার জন্য। 😊
    2. Dark_Superman (Mr. Merciless) Dark_Superman (Mr. Merciless) Contributor says:
      ভুল স্বীকার করলেন, এইটাই বড় কথা,
      মাফ চাইতে হবে না।
      সামনের পোস্টে বানান শুদ্ধ রাখবেন, তাতেই হবে।

Leave a Reply