আস-সালামু ‘আলায়কুম। Windows এতো বড় একটা Operating System যে এর শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সবকিছুর ব্যাপারে জানা কারও পক্ষেই হয়তো সম্ভব না। তাই এই System নিয়ে নানা জল্পনা-কল্পনারও শেষ নেই। আজ আমরা কথা বলবো লোকমুখে ছড়িয়ে থাকা Windows নিয়ে এমনই কিছু অদ্ভুত ধারণা নিয়ে।

 

১. C Drive Format করা ছাড়া Windows Install দেওয়া যায় না/Windows Install দিলে C Drive Format হয়ে যায়!

এই ধারণাটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। সম্ভবত মানুষের মুখে মুখে ব্যাপারটি প্রসার লাভ করেছে। Windows Install দেওয়ার ক্ষেত্রে C Drive Format করা বা না করা সম্পূর্ণ আপনার ইচ্ছানির্ভর। আপনি যদি C Drive Format না করে Windows Install দেন তবুও Windows Install হবে, আর আপনার পূর্ববর্তী Windows-এর ব্যবহৃত Files-গুলো Windows.old নামক একটি ফোল্ডারে জমা হবে। একইভাবে আপনি যদি আবারও C Drive-এ Windows Install দেন তবে সেগুলো যথক্রমে Windows.old.000, Windows.old.001, Windows.old.002 ইত্যাদি নামে একে একে জমা হতে থাকবে। তবে C Drive Format করে Windows Install দেওয়া ভালো, কারণ এতে করে পূর্ববর্তী Wondows-এর Temporary/Junk File-গুলোসহ কোনো Virus থাকলে সে Virus-এর নতুন Windows-এ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি কমে। এছাড়াও এতে করে পূর্ববর্তী Wondows-এর ব্যবহৃত একটা বড় Space ফাঁকা হয়।

 

 

২. C Drive-এ কোনোকিছু রাখতে হয় না!

এই ধারণাটিও মূলত পূর্ববর্তী ধারণা হতেই এসেছে। কারণ আপনি যদি C Drive-এ কোনোকিছু রাখেন আর যদি আপনাকে পরবর্তীতে নতুন Windows দিতে হতে পারে, তাহলে হয়তো সেগুলো চলে যাবে! না, এটা ভুল কথা। আর বাস্তবেও কিন্তু আমরা প্রত্যেকেই C Drive-এ আমাদের প্রয়োজনীয় অনেক কিছু রাখি। কীভাবে জানেন? আপনার This PC/My Computer Open করলে উপরে দেখবেন Documents, Musics, Pictures, Videos, Downloads ইত্যাদি নামের Folder থাকে, যেখানে আপনি আমি প্রতিনিয়তই File রাখি। আর এই সবই C Drive-এই জমা হয়। যদি বিশ্বাস না হয় তাহলে আপনার C Drive-এ গিয়ে Users Folderটা খুলে দেখুন তো, মিল খুঁজে পান কিনা! এখন আপনার মনে হতে পারে যে, যদি সত্যি সত্যিই C Drive Format করা ছাড়াই Windows Install দেওয়া যায়, তাহলে আমাদের আগের Windows-এ থাকা এই গুরুত্বপূর্ন Fileগুলো কোথায় পাবো? হ্যাঁ, যদি আপনি/আপনি যাকে দিয়ে নতুন Windows দিয়ে নিয়েছেন তিনি যদি C Drive Format করা ছাড়াই নতুন Windows Install দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনি এই আগের Windows-এ রাখা প্রয়োজনীয় File-গুলো সেই Windows.old Folder-এর ভিতরের Users Folder-এ গেলে পেয়ে যাবেন। এতোকিছু যখন বললাম, তখন আরেকটা কথাও বলে রাখি। C Drive-এ File রাখবেন, রাখুন। কিন্তু আপনার Windows-এ যদি অনেক App Install করা থাকে/আপনি Photoshop,Illustrator এর মতো ভারি Application চালান; তাহলে সবসময় চেষ্টা করবেন আপনার C Drive-এর Capacity-এর থেকে কমপক্ষে 10GB ফাঁকা রাখতে। নতুবা আপনার Windows-এর উপর চাপ পড়বে।

 

 

৩. Crack File কোনো প্রকার ক্ষতির কারণ নয়!

Crack ছাড়া তো অনেকেরই চলে না। কিন্তু জানেন কি, আমাদের Windows-এ সবথেকে বেশি Virus আসে এই Crack থেকে? হ্যাঁ, এটা একদম সত্য। যেসব Crack File Application (.exe) আকারে থাকে সেগুলো সবথেকে ঝুঁকিপূর্ণ। তাই সবসময় চেষ্টা করবেন Product Key দিয়ে Active করতে। এটা Crack থেকে অনেক নিরাপদ। আমি বলছি না যে সব Crack-ই Virus বহন করে, কিন্তু অধিকাংশ Crack-ই এমন। আর এই ব্যাপারটা যারা দীর্ঘদিন ধরে Computer ব্যবহার করেন তারা বেশ ভালোই জানেন।

 

 

৪. সবথেকে অকাজের Antuvirus হচ্ছে Windows Defender!

Windows Defender নিয়ে চারদিকে ট্রোলের শেষ নেই। কেউ বলে শুধু Crack File কে ধরার জন্যই এর জন্ম, তো কেউ বলেন এর থেকে অকাজের Antivirus আর একটাও নেই। কিন্তু সবথেকে বড় সত্য কথা হচ্ছে Windows Defender হচ্ছে Windows-এর জন্য সবথেকে নিরাপদ আর কাজের একটা Antuvirus। হ্যাঁ, এটা সঠিক যে Windows Defender প্রায়শই Crack File কে ধরে অনেক ঝামেলা করে, অনেক Software File কে Suspecious বলে ঠিকই; কিন্তু এটাই আপনার Wondows কে সবথেকে বেশি Protect করে। আর Windows Defender আপনার Windows এর Hang এর কারণ হয় না। আপনি হয়তো Third-Party Antivirus ব্যবহার করে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন। কিন্তু অন্যান্য Antivirus-এর নিকট আপনার তথ্য কতটুকু নিরাপদ? বেশ বড় বড় Antivirus-এর Data চুরি করার ঘটনা কিন্তু নতুন নয়!

 

 

৫. Windows Update Disable করলে ঝামেলামুক্ত হওয়া যায়!

Microsoft কয়েক মাস পরপরই তদের Windows 10-এর নতুন Version বের করে আর আপনার Wondows-এ ইন্টারনেট থাকলে Automatic Update হওয়া শুরু করে। আপনারা অনেকেই অপচয় ঠেকাতে Services থেকে Windows Update কে Disable করে দেন। কিন্তু আপনি যদি এই কাজ করেন, তাহলে আপনার Windows-এর অনেকগুলো System Application ঠিকমতো কাজ করবে না; এমনকি এমন সমস্যাও দেখা যায় যে, System Application Open করা মাত্রই সাথে সাথে Close হয়ে যায়। তাই এই পদ্ধতি অবলম্বন না করে Settings থেকে Windows Update-এ গিয়ে Pause Windows Update for 7 Days, 7 More Days…… এভাবে বেশ কয়েকবার Click করে কিছুদিনের জন্য Pause করে দিবেন। এভাবে কিছুদিন পরপর করে Pause করলে অন্তত এইসব ঝামেলা পোহাতে হবে না।

 

Windows নিয়ে মানুষের এমন আরও অনেক ধারণা রয়েছে, যা অনভিজ্ঞতার ফলে জন্ম হয়েছে। এগুলো ক্ষেত্রে সঠিক জ্ঞান থাকা আবশ্যক। নতুবা আপনার কম্পিউটারের কোনো বড় ধরনের ক্ষতিও হয়ে যেতে পারে। তাই কোনো বিষয়ে সন্দেহ জন্মালে আগে অভিজ্ঞ কারো পরামর্শ নিন এবং বিষয়টি সম্মন্ধে বিস্তারিত জানুন। তাহলে সে বিষয়টি সম্মন্ধে জ্ঞানলাভের পাশাপাশি হয়তো কম্পিউটারের ক্ষতির হাত থেকেও বাচঁতে পারেন।

 

যাই হোক, আমি একটা নতুন Blog Open করেছি। খুব বেশি Post নেই। চাইলে Visit করে আসতে পারেন।

আমার Blog

আপনাদের মনে কি Windows নিয়ে এমন কোনো ভুল ধারণা আছে, অথবা একটা কথা মানুষের কাছে শুনেছেন-কিন্তু কখনো সত্যতা যাচাই করেননি, এমন কোনো কথা আছে? থাকলে কমেন্ট বক্সে জানাত পারেন। আজ এই পর্যন্তই। আস-সালামু ‘আলায়কুম।

 

10 thoughts on "Windows-এর ক্ষেত্রে আমাদের কিছু ভুল ধারণা"

  1. Mr_Triple_X Mr_Triple_X Contributor says:
    Vai re, oi update amr mb gulare kaye fele…vabtesi win 7 install dibo…
    1. Anwarul Azim Anwarul Azim Author Post Creator says:
      ঐযে বললাম, Settings>Update and Security>Windows Update-এ গিয়ে Pause Windows Update for 7 Days, তারপর আবার Pause Windows Update for 7 More Days এভাবে বেশ কয়েকবার Click করে Pause করে দিবেন। এভাবে কিছুদিন পরপর করুন। নতুবা আপনি Services থেকে Windows Update কে Disabled না করে Enabled (Manual) করে রাখবেন।

      আর আপনার Windows 7 দেওয়া উচিত হবে না। কারণ Microsoft Windows 7-এর Security Patch উঠিয়ে নিয়েছে। তাই সেটা আপনার কম্পিউটারকে আরো বিপদের মুখে ফেলে দিবে।

  2. Sk Rakibul Islam Sk Rakibul Islam Contributor says:
    Windows 10 ransomware কে কতটা ডিফেন্ড করতে পারে ভাই?
    1. Anwarul Azim Anwarul Azim Author Post Creator says:
      হ্যাঁ, Windows 10 Defender-ও Ransomware ধরতে পারে। কিন্তু নিরাপত্তা আপনার হাতে। সব Antivirus-ই আপনাকে সতর্ক করবে। কিন্তু Ransomware-এর ব্যাপারটা ভিন্ন। এটা এমন একটা জিনিস, যেটা আপনার কম্পিউটারকে বাজেয়াপ্ত করলে কোনো Antivirus-এরই তেমন কিছু করার থাকে না। তাই আপনাকে Warning দেওয়ামাত্রই নিজ দায়িত্বে সেটাকে Disallow করা উচিত।
  3. (θ‿θ) Obaidullah Author says:
    Windows 10 kmspcio(from official site) diye active korle ki somossa Hobe?
    1. Anwarul Azim Anwarul Azim Author Post Creator says:
      প্রথমত, KMSpico Microsoft-এর Official কোনোকিছু না। আর দ্বিতীয়ত, মরে গেলেও অন্তত এই জিনিসটা দিয়ে Office Active করবেন না। কারণ আমার PC-র সর্বনাশ করেছে এই KMSpico। এটা আমার PC তে Ground.exe নামের একটা Trojan ঢুকিয়ে দিয়েছে, যেটা অনেক মারাত্মক।
    2. (θ‿θ) Obaidullah Author says:
      তবে কি দিয়ে অ্যাক্টিভ করবো?
    3. Anwarul Azim Anwarul Azim Author Post Creator says:
      ভাই আপনি Command Prompt দিয়ে Active করতে পারেন। আপনি YouTube-এ Video দেখতে পারেন। নতুবা আপনি Re-Loader Activator ব্যবহার করতে পারেন (যদি Office 2016 বা তার নিচের Version ব্যবহার করেন)। আর নাহলে সবথেকে ভালো হয় getintopc.com থেকে Office নামিয়ে সেটার সাথে যে Activator দেয় সেটা দিয়ে Active করা।
    1. Anwarul Azim Anwarul Azim Author Post Creator says:
      ধন্যবাদ

Leave a Reply