কম্পিউটার স্লো হওয়ার মত হতাশা আর কিছুই নেই, তবে আপনি চাইলে কয়েকটা উপায় অবলম্বন করে আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ আরও বেশি ফাস্ট বানিয়ে নিতে পারেন।

১. হার্ডডিস্কে পর্যন্ত পরিমান জায়গা আছে কিনা চেক করুন।

সর্বদা চেষ্টা করুন আপনার হার্ডডিস্কের ১৫% জায়গা ফাকা রাখতে এতে আপনার কম্পিউটার আরও বেশি ফাস্ট হবে।
কম্পিউটার ধীর গতিতে চললে আপনি চেইক করে নিতে পারেন আপনার হার্ডডিস্ক। যদি সম্ভব হয় তাহলে Solid State Drive (SSD) ব্যাবহার করুন, SSD অনেক বেশি ফাস্ট হয় HDD এর তুলনায়। এছাড়া অনকে ক্লিনিং আ্যাপ রয়েছে যেগুলো অস্থায়ী ফাইল, ব্রাউজারের কুকিজ ও বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় ফাইল, ডেটা ডিলেট করে থাকে। যে কোন একটি ক্লিন সফটওয়ার ব্যাবহার করে হার্ডডিস্কের cookies, History ডিলেট করতে পারেন।

2. Close Unused Tabs /অব্যবহৃত ট্যাব ক্লোজ করুন।


আপনি বড় কোন প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছেন কিন্তু অপনার মনে হচ্ছে আপনার কম্পিউটার ঠিকভাবে পার্ফমেন্স দিচ্ছে না। যদি এমন মনে হয় সেক্ষেত্রে আপনার ব্রাউজারে যদি একাধিক ট্যাব ওপেন করা থাকে তাহলে সেখান থেকে অপ্রয়োজনীয় ট্যাব ক্লোজ করুন৷ একাধিক ব্রাউজার ট্যাবের কারনে কম্পিউটার অনেকটা স্লো হয়ে পড়ে।

৩ আপনার কম্পিউটার এর র‍্যাম চেক করুন, প্রয়োজন হলে আরও র‍্যাম যুক্ত করুন।

র‍্যাম হলো আপনার কম্পিউটার এর অস্থায়ী মেমোরি । যতবেশি অ্যাপ বা প্রোগ্রাম ব্যাবহার করবেন তত বেশি র‍্যাম এর প্রয়োজন হবে সুতরাং পর্যাপ্ত র‌্যাম না থাকলে আপনার কম্পিউটার ধীর হয়ে যেতে পারে, বিশেষত বড় ফাইলগুলি ওপেন করার সময় বা একসাথে একাধিক কাজ করার সময় র‍্যাম এর প্রয়োজন হয়৷

৪. ডিজেবল স্টাটআপ অ্যাপ্লিকেশন।


কিছু কিছু সফটওয়্যার আছে যেগুলো কম্পিউটার অন করার সাথে সাথে চালু হয়ে যায় পরবর্তীতে ব্যাকগ্রাউন্ডে সেগুলো চলতে থাকে, একাধিক আ্যাপ চালু থাকার কারনে আপনার কম্পিউটার আরও বেশি স্লো হয়ে যায়।

প্রথমে উইন্ডোজ সেটিংস থেকে startup অপশনে গিয়ে সকল আ্যাপগুলো বন্ধ করুন।

এরপর মাউসের রাইট বাটন চেপে Task manager > startup অপশনে গিয়ে background এ চলতে থাকা আ্যাপ বন্ধ করুন।

৫. থার্টপাটি এন্টিভাইরাস থেকে দূরে থাকুন।


অনেক ধরনের এন্টিভাইরাস আছে যেগুলো আপনার কম্পিউটারকে অনেক স্লো করে তোলে তাই মাইক্রোসফট এর দেওয়া Microsoft Defender ব্যাবহার করুন।
Microsoft Defender ভাইরাস ম্যালওয়্যার এর জন্য যথেষ্ট।

৬. Don’t use Google Chrome

আপনার ল্যাপটপ / কম্পিউটারের কনফিগারেশন বা র‍্যাম যদি কম হয় তাহলে জনপ্রিয় গুগল ক্রোম ব্যবহার করা উচিৎ না।
কেননা ক্রোম অনেক বেশি power consume করে থাকে।
ব্রাউজার ওপেন করে আপনার সিপিউ এর পারফর্মেন্স চেক করলে বুঝতে পারবেন গুগল ক্রোম কত বেশি প্রেশার করে।
আমি রিকমেন্ড করবো যে কোন ব্রাউজার ব্যাবহার করতে গুগল ক্রোম ছাড়া।

৭ Change Power Plan


আপনি যদি ল্যাপটপ ইউজার হয়ে থাকেন তাহলে ব্যাটারি সেটিংস থেকে পারফমেন্স ১০০% করে রাখুন এতে করে প্রয়োজনে শতভাগ এনার্জি আপনার ব্যাটারি থেকে CPU কে প্রদান করবে এতে আপনার ল্যাপটপ আরও বেশি ফাস্ট হবে।

8 thoughts on "কম্পিউটার ফাস্ট রাখার উপায় গুলো জেনেনিন । Make your PC more faster"

  1. AJ AJFahad Contributor says:
    Nice post


    1. Shakil khan Shakil khan Author Post Creator says:
      Thank you so much.
  2. Ashim Ashim Contributor says:
    গুগুল ক্রোম ব্যাবহার ছাড়তে পারবো না; এটি আমার কলিজা;
  3. Saad Saad Contributor says:
    nice post
  4. Ahad Ahad Author says:
    একটা SSD কিনে সেখানে Windows ইন্সটল করে ইউজ করলেই হয়, এসব ভংচং খেয়াল রাখা লাগে না।
    1. Fole Rabby Fole Rabby Contributor says:
      Thik
  5. Mikasa Ackerman Alan Walker Contributor says:
    use MemReduct for clean ram

Leave a Reply