আমরা সাধারণত যারা Windows অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারী আছি তারা বিভিন্ন ধরনের কমান্ড প্রদানের জন্য একটি কমান্ড প্রম্পটের সাথে পরিচিত রয়েছি। যা CMD নামে বেশ পরিচিত। এই কমান্ড অপশনটি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের একদম শুরু থেকেই রয়েছে। কিন্তু উইন্ডোজ এখন সিএমডি এর পাশাপাশি আরো দুইটি কমান্ড অপশন নিয়ে এসেছে। যেগুলোর একটি হলো PowerShell এবং আরেকটি হলো Terminal নামক কমান্ড অপশন। পাওয়ারশেল উইন্ডোজ এক্সপি থেকে শুরু হয় আর টার্মিনাল উইন্ডোজ ১০ থেকে আত্মপ্রকাশ করে। তো চলুন এগুলো সম্পর্কে নিচে থেকে বিস্তারিত জানা যাক।

Command Prompt বা CMD:

Command Prompt বা CMD প্রাথমিকভাবে Command.com নামে পরিচিত। এটি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ৯৫ এবং ৯৮ ভার্সনে প্রকাশ করা হয়। আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ উইন্ডোজ ব্যবহারকারী এই কমান্ড-লাইন টুলটিকে MS-DOS হিসাবে জেনে থাকে। কারণ, এটি প্রধানত DIR কমান্ড হিসাবে DOS কমান্ডগুলি চালানোর জন্য ব্যবহৃত হত। এটি ইন্টারনেটের গতি পরীক্ষা চালানোর জন্যও ব্যবহৃত হয়েছিল।

মাইক্রোসফট পরবর্তীতে উইন্ডোজ নিউ টেকনোলজিতে (এনটি) কমান্ড প্রম্পট চালু করে। এখন এই CMD বিভিন্ন উন্নত Administrative কার্য সম্পাদন করতে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এটি দিয়ে স্ক্রিপ্ট এবং ব্যাচ ফাইলগুলি চালিয়ে বিভিন্ন ধরণের উইন্ডোজ সমস্যা সমাধান করতেও ব্যবহৃত হয়।

Windows PowerShell:

উইন্ডোজ এক্সপি অপারেটিং সিস্টেমে ২০০৬ সালে উইন্ডোজ পাওয়ারশেল চালু হয়েছিল। এটি দিয়ে আপনি কমান্ড প্রম্পটে যা কিছু চালাতে পারেন বা কমান্ড করতে পারেন তা উইন্ডোজ পাওয়ারশেল দিয়েও করতে পারবেন। তবে এই PowerShell হল একটি কমান্ড শেল এবং স্ক্রিপ্টিং ভাষা যা বিভিন্ন সিস্টেমের প্রশাসনিক কাজ সম্পাদন করার জন্য তৈরি করা হয়।

Windows Terminal:

পূর্বের দুইটি কমান্ড অপশনের পাশাপাশি নতুন করে Windows Terminal নামে একটি কমান্ড অপশন চালু করা হয়েছে। প্রথম দুইটি থেকে এটি একদম ভিন্ন। কারণ এটি একটি ওপেনসোর্স সিস্টেম যা GitHub এর মাধ্যমে কাজ করে।উইন্ডোজ টার্মিনালে আপনি কমান্ড প্রম্পট, উইন্ডোজ পাওয়ারশেল, লিনাক্স ও পাশাপাশি WSL-এর কমান্ডগুলি চালাতে পারবেন।
Windows টার্মিনাল Windows 10 অপারেটিং সিস্টেমের পাশাপাশি সর্বশেষ Windows 11 অপারেটিং সিস্টেমেও ব্যবহার করতে পারবেন। যা সিস্টেমের সাথে ইনস্টল করা থাকে। এমনকি আপনি Microsoft স্টোর থেকেও এটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

তিনটি কমান্ড অপশনের কোনটি ব্যবহার করবেন:

সর্বশেষ উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে এখন তিন ধরনের কমান্ড অপশন রয়েছে। যা আমরা উপরের আলোচনা থেকে জেনেছি। এখন আপনি হয়তো বলতে পারেন আমি কোনটি ব্যবহার করব। আমি বলব আপনার ইচ্ছা। তবে যেহেতু একদম লেটেস্ট হচ্ছে টার্মিনাল। সেটি ব্যবহার করার জন্য আমি সাজেস্ট করবো। কারণ এটি দিয়ে সিএসডি এবং পাওয়ারশেল সহ আরো অ্যাডভান্স লেভেলের কমান্ডের ব্যবহার করতে পারবেন।

আপনাদের সুবিধার্থে আমি আমার টিপস এন্ড ট্রিকসগুলি ভিডিও আকারে শেয়ার করার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করেছি। আশা করি চ্যানেলটি Subscribe করবেন।

সৌজন্যে : বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং বর্তমান সময়ের বাংলা ভাষায় সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ক টিউটোরিয়াল সাইট – www.TutorialBD71.blogspot.com নিত্যনতুন বিভিন্ন বিষয়ে টিউটোরিয়াল পেতে সাইটটিতে সবসময় ভিজিট করুন।

7 thoughts on "Windows CMD, PowerShell এবং Terminal কি আসুন জেনে নেই।"

  1. MD Musabbir Kabir Ovi Author says:
    লেখায় ধরন টা বেশ ভালো ছিল
  2. Saimum Raihan Author says:
    টার্মিনালের কাজের সময় অনেকেই বুঝতে পারেনা সেটা কি জিনিস 😅 বুঝিয়ে দিতে হয়, এখন থেকে এই পোস্টের লিংক দিয়ে দিবো,,
    ধন্যবাদ আপনাকে!
  3. Xein Ahmed Author says:
    Shajiye likhte perechen I lyk simple blogs lyk this
  4. Tahasan Tanvir Contributor says:
    Help Full Post

Leave a Reply