আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ। সুপ্রিয় ট্রিকবিডি এর বন্ধুগণ আশা করি সকলেই ভাল আছেন! ইউটিউব হল সারা বিশ্বের জনপ্রিয় একটি প্লাটফর্ম! যেখানে আপনারা কিংবা যেকোন লোকেরা চাইলেই কিন্তু ইনকাম করতে পারে। ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করতে হয়?

ইউটিউব কিভাবে আপনাকে টাকা দিবে এবং হাতে পর্যন্ত টাকা কিভাবে আসবে? এ বিষয়ে যদিও আগে একটি আর্টিকেল পাবলিশ করেছিলাম! তো আজকের আর্টিকেলে আমরা ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার, সেরা তিনটি উপায় নিয়ে আলোচনা করব! অর্থাৎ আপনারা কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার, সেরা তিনটি পদ্ধতি অবলম্বন করে ইনকাম করতে পারবেন? এই পুরো বিষয়গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব!

কেন আপনারা ইউটিউব টাকা ইনকাম করবেন?

ইউটিউব থেকে ইনকামঃ ইউটিউব থেকে ইনকাম করার জন্য ফাস্টে আমাদের জানা প্রয়োজন, আমরা যে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করব সেটা কেন? প্রথমেই বলে রাখি ইউটিউব হল সারা বিশ্বের জনপ্রিয় একটি প্ল্যাটফর্ম! এমনকি অনলাইনে সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম এর অন্যতম প্লাটফর্ম হল ইউটিউব! এমনকি অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সবচেয়ে নিখুঁত এবং বিশ্বাসযোগ্য মাধ্যম হলো ইউটিউবিং করা।

আর যে কেউ চাইলে সম্পূর্ণ ফ্রিতে ইউটিউবে একটি চ্যানেল তৈরি করে, টাকা ইনকাম করতে পারবে। এমনকি ইউটিউব এই সুযোগ শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দিয়ে আসছে। তাই এই সুযোগ আমরা অপচয় না করে অনলাইনে, যদি ইচ্ছা থাকে তাহলে ইউটিউবিং করতে পারি। যদিও আমরা অনলাইনে এদিকে ওদিকে অনেকটা সময় ব্যয় করি। আর যারা এই সময় অপচয় না করে, অনলাইনে আয় করতে আগ্রহী, তারা চাইলেই অনলাইনে ফ্রিতে ইউটিউবিং করতে পারবেন। আশা করি আমরা কেন ইউটিউবিং করব এ বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন!

ইউটিউব থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় সংক্ষিপ্ত আকারে জেনে নিন চলুন!

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকামঃ একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে খুব সহজে অনলাইনে টাকা ইনকাম সম্ভব হবে। তার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে সেখানে ভিডিও আপলোড করতে হবে। এবং ভিডিওগুলো নিজের অন্য কারোর হলে হবে না। তারপর সেই ভিডিওতে মানুষের প্রয়োজনীয় হতে হবে যেন, আপনার ইউটিউবে ভিউজ আসতে সক্ষম হয়। এককথায় আপনার একটি চ্যানেল তৈরি করে মানুষের প্রয়োজনীয় ভিডিও আপলোড করতে হবে।

ভিডিও আপলোড করতে করতে যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেলে, 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং 1000 সাবস্ক্রাইব কমপ্লিট হবে। তখন কিন্তু আপনারা চাইলেই ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম শুরু করতে পারবেন। দেখেন 1000 সাবস্ক্রাইবার এবং 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম, এপর্যন্ত কিন্তু আপনাকে ইউটিউবে কাজ করতে হবে। যদি 1000 সাবস্ক্রাইব 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম কমপ্লিট করতে পারেন। তাহলে কিন্তু আপনারা ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম শুরু করতে পারবেন।

4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং 1000 সাবস্ক্রাইব কমপ্লিট করে, আপনারা মনিটাইজেশন এর জন্য এপ্লাই করবেন। আপনার চ্যানেল মনিটাইজেশন অন হয়ে গেলেই টাকা ইনকাম শুরু হবে। প্রিয় বন্ধুরা আশাকরি আপনারা ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম শুরু কিভাবে হয়? এ বিষয়ে বিস্তারিত না জানলেও সংক্ষিপ্ত আকারে বুঝতে পেরেছেন! যদি আপনাদেরকে বিস্তারিত বললে আর্টিকেল অনেক লম্বা হয়ে যাবে, এ কারণেই আপনাদেরকে সংক্ষিপ্ত আকারে ইউটিউব থেকে ইনকাম সম্পর্কে ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করলাম!

ইউটিউবে থেকে টাকা ইনকাম করার সেরা তিনটি পদ্ধতি?

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার সেরা তিনটি পদ্ধতিঃ

এক নম্বর পদ্ধতি Google AdSense

দুই নম্বর পদ্ধতি Affiliate marketing

তিন নম্বর পদ্ধতি Photo sale

Google AdSense থেকে ইউটিউবে টাকা ইনকাম?

গুগল এডসেন্স গুগলের একটি নিজস্ব নেটওয়ার্ক। যে কেউ চাইলে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারে অনলাইনে। তাই আপনি যদি ইউটিউব থেকে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে ইনকাম করেন, তাহলে অবশ্যই আপনিও গুগল এডসেন্স থেকে ইউটিউবে আয় করতে সক্ষম হবেন। এমনকি গুগোল অ্যাডসেন্সে মাত্র 100 ডলার জমা হলেই টাকা উত্তোলন করা যায়।

গুগল এডসেন্স এর কাজ, আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেওয়া। এই বিজ্ঞাপন গুলো যত লোক দেখবে আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে, ততোই বেশি ইনকাম হবে। এমনকি ইউটিউব এর মাধ্যমে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন গুলো, আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিও তে বসিয়ে সহজে ইনকাম করা যায়। তাছাড়া গুগল এডসেন্স আপনাকে ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পেমেন্ট করবে। আশা করি গুগল এডসেন্স থেকে ইউটিউবে ইনকাম সম্পর্কে ধারণা পেয়েছেন।

Affiliate marketing করে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম যেভাবে করবেন?

অনলাইনে আয় করার অন্যতম জনপ্রিয় একটি পদ্ধতি হলো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। যদিও অ্যাপলেট মার্কেটিং করার বিষয় নিয়ে, আগেই কয়েকটি আর্টিকেল পাবলিশ করেছিলাম। আপনারা চাইলেই আগের আর্টিকেলগুলো পড়ে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে আরও বিস্তারিত ধারণা নিতে পারেন। আর সংক্ষিপ্ত আকারে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে চলুন একটু ধারনা নিয়ে আসি।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হল, অনলাইনে কোন প্লাটফর্মে যুক্ত হয়েছে সেখানকার। প্ল্যাটফর্মের প্রডাক্ট কিংবা সার্ভিসগুলো আপনাকে প্রচার করতে হবে। যদি আপনার প্রচার করা কোনো গ্রাহক তাদের কোম্পানি থেকে সেই পণ্য বা প্রডাক্ট ক্রয় করে তাহলে, তার বিনিময় আপনি কিন্তু সেই প্ল্যাটফর্ম থেকে কিছু কমিশন পাবেন। ঠিক এভাবেই করে আপনারা অনলাইনে অ্যাপলেট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারেন। আর এই কাজ আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে সহজে, অল্প সময়ে নির্দিষ্ট গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দিতে সক্ষম হবেন।

Photo sale করে ইউটিউব থেকে ইনকাম করবেন যেভাবে?

ফটোসেল বর্তমান সময়ে খুবই প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। অনলাইনে বিভিন্ন কাজ কর্মের জন্য আমাদের ফটোর প্রয়োজন হয়। যেমন একটি ওয়েবসাইটের সৌন্দর্য কিংবা কোন প্ল্যাটফর্ম কে ভালো ভাবে সাজাতে, তাছাড়া নিজের ব্যবসা মানুষের সার্ভিস ইত্যাদি গুলো সুন্দর ভাবে পৌঁছে দেওয়ার জন্য। আমাদের অনলাইনে অনেক সময় ফটো প্রয়োজন হয়। শুধু আপনার প্রয়োজন হয় তা কিন্তু নয়, অনলাইনে অনেক বড় বড় প্ল্যাটফর্ম এর কোম্পানির এই ফটো প্রয়োজন হয়।

ঠিক এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আপনি, যে কোন প্লাটফর্মে যুক্ত হয়ে ফটো সেল করতে পারেন। এবং আপনার ফটো গুলো নির্দিষ্ট গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য, আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করতে পারেন ভিডিওর মাধ্যমে। ভিডিওর মাধ্যমে প্রচার না করে আপনারা চাইলে আবার দেস্ক্রিপশন এর মাধ্যমেও বিস্তারিত জানাতে পারেন। ঠিক এভাবে করে আপনারা কোন প্লাটফর্মে যুক্ত হয়ে, সেখানে ফটো বিক্রি করে গ্রাহকের জন্য ইউটিউবে প্রচার করে ইনকাম করতে পারেন।

প্রিয় বন্ধুরা এতক্ষণ ধৈর্য ধরে আর্টিকেলটি পড়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। আশা করি আপনারা সবাই আমাদের আজকের এই আর্টিকেলের, মূল বিষয়বস্তু বিস্তারিত বুঝতে পেরেছেন। যদি তবুও আর্টিকেল সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন অথবা মতামত থাকে, সেটা কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন অবশ্যই রিপ্লে দেওয়ার চেষ্টা করব। বরাবরের মতো আমাদের আজকের আর্টিকেলটি এ পর্যন্তই। সবাই ভাল সুস্থ ও নিরাপদে থাকবেন। দেখা হবে অন্য কোন আর্টিকেলে আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ।

4 thoughts on "YouTube থেকে টাকা ইনকাম করার সেরা তিনটি উপায়?"

    1. Md Manik Author Post Creator says:
      Ki vai
    1. Md Manik Author Post Creator says:
      Hmm

Leave a Reply