আসসালামু আলাইকুম। আল্লাহর কৃপায় নিশ্চয় ভালো আছেন।
আর ভালো থাকবেনই না বা কেন? কারন,ট্রিকবিডির সাথে থাকলে সবাই ভালো থাকে। যাইহোক,মূল আলোচনায় আসি।

আমার আজকের টিউনের বিষয় হচ্ছে,যেকোনো অনলাইন ভিত্তিক অ্যাপস থেকে কিভাবে অ্যাপসটির সার্ভার সহজে বের করা যায়। সচিত্র বর্ননাসহ একদম সাবলীল ভাষায় টিউনটি করার চেষ্টা করবো। তবে আমার এই টিউনের ব্যাপারে যেসব ভাইয়েরা অলরেডি এক্সপার্ট,তারা ভদ্রভাবে টিউনটি এড়িয়ে যেতে পারেন।

কারো মনে প্রশ্ন আসতে পারে,অ্যাপস সার্ভার দিয়ে কি করবো?
আসলে যারা ফ্রিনেট তৈরী করেন,তাদের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সহজ কথায়,ফ্রিনেট তৈরীর জন্য সর্বাগ্রে যেটি প্রয়োজন,সেটি হলো একটি ওয়ার্কিং ফ্রি সার্ভার।।

তো চলুন,এবার কয়েকটি সচিত্র ধাপে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা যাক =====>>>

সর্বপ্রথম,আপনাদেরকে “Debug Proxy” নামক অ্যাপসটি ডাউনলোড করতে হবে।
অ্যাপসটির এপিকেপিওর ডাউনলোড লিংকঃ Debug Proxy

এখন, “Debug Proxy” অ্যাপসটি ওপেন করুন।
দেখুন,বামদিকে কর্নার সাইডে তিনটি দাগ দেওয়া আছে। ওখানে ক্লিক করুন।

Throttling settings এ যান–

Throttle presets: থেকে 3G এনাবল করে দিন (যেহেতু,বর্তমানে প্রায় সব এলাকাই থ্রীজি নেটওয়ার্কের অন্তর্ভুক্ত)।

এখন,সেটিংস থেকে Certificate অংশে গিয়ে ট্যাপ করুন।এখান থেকে নেটওয়ার্ক মনিটরিং করার জন্য কাস্টম সার্টিফিকেট ইনস্টল করতে হবে। (এক্ষেত্রে কোনো ডাটা খরচ হবেনা,শুধু পারমিশনটা অন করলেই কাজ শেষ)।

তাহলে,নিচের মত একটি পেজ শো করবে। ওকে দিন।

যেহেতু,কাস্টম সার্টিফিকেট সেট আপ করা হচ্ছে,সেহেতু সিকিউরিটি জনিত কারনে নিচের মত আপনার ডিভাইসের পাসওয়ার্ড চাইতে পারে। যদি চায়,তাহলে পাসওয়ার্ড দিয়ে Continue তে ক্লিক করুন।

পাসওয়ার্ড সেট করে সফলভাবে কাস্টম সার্টিফিকেট ইনস্টল করে নিন।

ব্যাস,এবার অ্যাপসটির হোমপেজে গিয়ে অ্যান্ড্রয়েড আইকনে ক্লিক করুন–

আপনার ডিভাইসের সকল অ্যাপস শো করবে। আপনি যে অ্যাপসটির সার্ভার মনিটরিং করতে চান সেটি (সার্চ করে) সিলেক্ট করুন। উদাহরণস্বরূপ,আমি এয়ারটেল সীমে ফ্রিতে ব্রাউজ করা যায় এরকম একটি অ্যাপস “MyPlan” সিলেক্ট করলাম।

নিচের চিত্রের মতো করে প্লে আইকনটিতে ক্লিক করুন। আসলে,প্লে আইকনটিতে ক্লিক করলে একটা ভিপিএন সার্ভিস চালু হবে,যেটার মাধ্যমে আপনাদের পূর্বে সেটাপকৃত কাস্টম সার্টিফিকেটের সহায়তায় টার্গেটকৃত অ্যাপসের সকল সার্ভার মনিটরিং করা শুরু হবে।

এবার “Debug Proxy” অ্যাপসটি মিনিমাইজ করে সার্ভার বের করার লক্ষে যে অ্যাপসটি সিলেক্ট করেছিলেন,সেই অ্যাপসটি ওপেন করুন এবং অ্যাপসটির ভেতরে থাকা অবস্থায় কিছুক্ষণ বিভিন্ন অপশনে ক্লিক করুন।

এখন,এই অ্যাপসটি মিনিমাইজ করে আগের মিনিমাইজকৃত “Debug Proxy” অ্যাপসটি ওপেন করুন। তাহলে,নিচের চিত্রের মতো দেখতে পাবেন। (যেখানে,অ্যাপস রিলেটেড অনেকগুলো সার্ভার প্রদর্শিত হবে)।

তারপর,যেকোনো লিংকে ক্লিক করে লিংকটির ডিটেইলস দেখা যাবে। যেমন -আমি “api.airtelmyplan.com” এই লিংকে ক্লিক করেছি (অ্যাপসটির মেইন সার্ভার)।

Contents (কন্টেন্টস) এ ক্লিক করলে আরো বিস্তারিত দেখা যাবে। যেমনঃ- লিংকের হোস্ট/রিমোট অ্যাড্রেস,অ্যালোয়িং মেথড ইত্যাদি।

তো,আজকে এই পর্যন্তই। কষ্ট করে টিউনটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।
আর ভূল-ত্রুটি হলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।
ভালো থাকবেন সবাই। ☺
আমার ফেসবুক আইডি লিংকঃ
Find me on Facebook

10 thoughts on "ফ্রিনেট তৈরীর অন্যতম পূর্বশর্ত হচ্ছে ফ্রি সার্ভার। এবার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল দিয়ে যেকোনো অনলাইন ভিত্তিক অ্যাপস/সফটওয়ারের সার্ভার বের করুন একদম সহজ উপায়ে। (সচিত্র বাংলা টিউটোরিয়াল)।।"

  1. Smbulbul Smbulbul Author Post Creator says:
    ধন্যবাদ,ভাই। ☺ [b]YeasinAR[/b]
  2. mehedi8603 mehedi8603 Contributor says:
    khub valo post arokom aro post cai
  3. Smbulbul Smbulbul Author Post Creator says:
    ধন্যবাদ,ভাই। ইনশাআল্লাহ,আরো ভালো কিছু দেওয়ার চেষ্টা করবো। #mehedi8603
  4. Smbulbul Smbulbul Author Post Creator says:
    Tnx a lot ? #mdmizan
  5. S A JONY S A JONY Contributor says:
    Sei…
    My gp app er server gulo ber korun free choltew pare ???????
  6. Smbulbul Smbulbul Author Post Creator says:
    আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ,ভাই ☺। “Mygp” এই অ্যাপের সার্ভার (mygp.grameenphone.com) অলরেডি বের করে দেখা শেষ ✌। আসলে,ভাই শুধু সার্ভার হলেই চলবেনা,সেটাকে সবদিক থেকে ওয়ার্কিং হতে হবে ?। #S A JONY
  7. Shakib Farzana Contributor says:
    স্যার ওনেক পূরনো হলেও পোস্টা কিন্তু সেই।।।***** ইস্টার দিলাম।।।

    স্যার আপনি কোন এপ দিয়ে ইস্কৃনসট নিছেন।।।প্লিজ বলবেন।।

  8. Smbulbul Smbulbul Author Post Creator says:
    গঠনমূলক মন্তব্যের জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ,ভাই। 😍
    আসলে,আমার পোষ্টে উল্লেখিত স্ক্রিনশটগুলো প্রথমে ফোন থেকে নেওয়া হয়েছে। তারপর,”Screener” নামক অ্যাপস দিয়ে স্ক্রিনশটের জন্য আইফোনের ফ্রেম এবং “PicSay Pro” অ্যাপস দিয়ে বিভিন্ন সিম্বল (অ্যারো,কার্সার) ইত্যাদি এডিটিংয়ের কাজ করা হয়েছে।
    #Farzana

Leave a Reply