প্রথমেই সকলকে জানাই ঈদের পরের দিনের.
শুভেচ্ছা।

যদিও সাম্প্রতিক ঘটে
যাওয়া কিছু কারণে তেমন খুশি
থাকার কোন কারণ নেই। :-

(যাহোক,আজকের টিউনটিও এসব বিষয়
নিয়েই করছি।)

আগে দেখাযাক,অটোলাইক কী এবং
কীভাবে কাজ করে।অটোলাইক এক
বিশেষ ধরনের এপ।এর কাজের ধরনটা
একটা উদাহরণের মাধ্যমে বোঝানোর
চেস্টা করছি।যদিও বেশিরভাগই এটা
জানে।মনেকরুন,আপনি অটোলাইক
সাইট থেকে টিউন বা অন্য কিছুতে
বেশ কিছু লাইক নিলেন।তখন লাইক
নেওয়ার আগে আপনার থেকে Sony বা
HTC অথবা এমন কোন এপ এর পারমিশন
নেবে।এ পারমিশন Allow করার ফলে
পরবরতীতে তারা আপনার আইডি
থেকে তাদের পছন্দ মতো টিউন বা
পেজে লাইক,টিউমেন্ট,শেয়ার
ইত্যাদি একশন করতে পারবে।আর অন্য
যারা তাদের সাইটে লগিন করে
অটোলাইক নেবে,তাদের লাইক
দেবে আপনার আইডি সহ অন্যান্য কিছু
আইডি থেকে।আপনি যখন লাইক বা
টিউমেন্ট নিয়েছিলেন,তখনও
এমনিভাবে অন্যের আইডি থেকে
আপনাকে লাইক বা টিউমেন্ট দেওয়া
হয়েছিল!
.

.
.
.

.
এ অটোলাইকের বিভিন্ন নেতিবাচক
দিক রয়েছে।যার একটি আমি
ইতিমধ্যে আলোচনাও করে ফেলেছি!
হ্যা,ঠিকই ধরেছেন।আপনার আইডি
থেকে আপনার কোন ইচ্ছা না
থাকলেও বিভিন্ন টিউনে
লাইক,টিউমেন্ট হয়ে যাবে।যদিও এ
অবস্থা থেকে মুক্তির উপায়ও আচগে।
.
..
.
.
.

যাহোক,সেটি আজকের টিউনের
বিষয়বস্তু নয়।আরো একটি নেতিবাচক
দিক রয়েছে,আর তা হলো আপনি
আপনার আসল আইডি দিয়ে অটোলাইক
সাইটে লগিন করলে হারাতেও
পারেন আপনার প্রিয় আইডিটি!
এখন আসা যাক যে এর সাথে
জঙ্গিবাদী অপরাধে জড়িয়ে পড়ার
কী সম্পর্ক?
.
.
..

একটু আগেই বাংলাদেশ পুলিশ দপ্তর
থেকে একটি ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

আর তা হলো, সামাজিক যোগাযোগ
সাইটে কোন প্রকার জঙ্গিবাদী টিউন
বা ফটো আপলোড করলে তো
বটেই,এমনকি এ ধরণের কোন টিউনে
লাইক,টিউমেন্ট বা শেয়ার করলেও সে
ব্যক্তিকে দেশের তথ্য-প্রযুক্তি আইন
অনুযায়ী বিচারের আওতায় আনা হবে।
.
..

এটা ঠিক যে আমাদের দেশের

প্রেক্ষাপটে এভাবে সবাইকে আইনের
আওতায় এখনি আনা সম্ভব নয়।কিন্তু মনে
রাখবেন, এমনটা হলে দেশের আইন
অনুযায়ী কিন্তু আপনি হবেন অপরাধী!

.
.
.
আর অটোলাইক সাইটের মাধ্যমে
যেহেতু কোন বাছ-বিচার ছাড়াই
আপনার ইচ্ছা বহির্ভূতভাবে
লাইক,টিউমেন্ট,শেয়ার হয়ে যাচ্ছে,
তাই কিছুটা হলেও কিন্তু এমন অপরাধ
না করেও আপনার এমন অপরাধে শাস্তি
পাওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যায়!তাই এ
বিষয়ে সাবধানতা অবলম্বন করে সতর্ক
হোন এখনই!
..
..
.

ধন্যবাদ!আজ এটুকুই।সাবধানে থাকবেন।
চোখ-কান খোলা রাখবেন।

সংগ্রহিত

জিপি
ফ্রী নেট টিপস
এখানে ক্লিক
করুন

10 thoughts on "ফেসবুকে অটোলাইক ব্যবহারে সতর্ক হোন,জংগীবাদী অপরাধ থেকে বাঁচুন।"

  1. MD SHAWAL MD SHAWAL Author says:
    thanks


    1. Princezzzzz Contributor Post Creator says:
      welcome 🙂 😉
  2. Sami Contributor says:
    COPY FROM TECHTUNES.COM.BD
  3. Mi Monir Mi Monir Contributor says:
    copy post from techtunes.com.bd but important post sobay k abar jananor jonno tnx.
  4. sany sany Contributor says:
    আমিও ত অটো লাইক নিয়েছি। এটা বন্ধ করা যাবে কি করে?
  5. Md Khalid Khalid Author says:
    ভালো পোস্ট – এবার লিখুন যারা ব্যাবহার ককরেছে তারা বাঁচবে কিভাবে?

    (আমি নি নাই অটো লাইক ,আর আপনি না লিখলে আমি লিখবো বিকেলে ইনশাআল্লাহ )

    1. Princezzzzz Contributor Post Creator says:
      ভাই আপনি লিখে পোস্ট করে দিয়েন
    2. Md Khalid Khalid Author says:
      ওকে ভাই। জানি এক্সপার্ট রা জানে আর এটাই স্বাভাবিক, কিন্তু এই কাম তারাই করে (পোস্ট তাদের দরকার) যারা ভুল করে, নতুন, ইত্যাদি
  6. Shariar Mdshariar khan Contributor says:
    বন্ধ করার system টা আমি জানি. 1 st আপনি আপনার ফেসবুক এর setting,s এ ঢুকবেন তারপর apps এ clicks করে দেখতে পারবেন ঐ app,s গুলো । এখন আপনার কাজ ঐ app গুলোর permission রিমুভ করে দেওয়া. 1 টা ১টা করে remove করো । কাজ শেষ । . .:p

Leave a Reply