আসসালামু আলাইকুম।

প্রিয় বন্ধুরা,  আপনারা সবাই কেমন আছেন, আশা করি খুব ভাল আছেন এবং আগামি তে যেন সব সময় ভালো থাকেন এই কামনা রইলো।

ফেসবুক বর্তমান দুনিয়ায় সামাজিক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম। প্রযুক্তি দুনিয়ায় যাদের পদচারণা রয়েছে তাদের ফেসবুক এ্যাকাউন্ট নেই এমন সংখ্যা বোধ হয় নেই বললেই চলে। মোবাইলে ফেসবুকের সুবিধা সৃষ্টি এ জগতের সদস্য সংখ্যা অভাবনীয় হারে বাড়িয়ে দিয়েছে।

কী ছেলে, কী বুড়ো ফেসবুক না হলে যেন চলেই না। ফেসবুক নিয়ে এই উন্মাদনার মধ্যে একটি সমস্যাও রয়েছে। আর তা হল এ্যাকাউন্ট ব্লক হয়ে যাওয়া। ব্যবহারকারী জানতেই পারেন না যে কেন তার ফেসবুক এ্যাকাউন্ট ব্লক হয়ে গেছে। এর প্রধান কারণ হল- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম পরিচালনার নিয়ম-কানুন না জানা।

ফেসবুকের সঙ্গে জড়িত কিছু বিশেষজ্ঞ বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো কিছু নিয়মনীতি অনুসরণ করে। ব্যবহারকারীরা তা না মানার কারণেই ব্লকের ঘটনা ঘটে। তাহলে চলুন, ফেসবুক এ্যাকাউন্ট ব্লক হওয়ার কয়েকটি কারণ জেনে নেই।

নিয়ম মেনে পোস্ট না করা : ফেসবুকের নীতি অনুসারে কোনো একটি পোস্ট দেওয়ার কমপক্ষে পাঁচ মিনিট পর অন্য একটি পোস্ট দিতে হয়। কিন্তু আমরা অনেকে হয়তো সেটি জানি না। আবার যারা জানি তারা যথাযথভাবে মানি না। তাই পোস্ট দেওয়ার ক্ষেত্রে বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

একই জিনিস একাধিকবার পোস্ট : ফেসবুক ব্যবহারকারীর অনেকেই আছেন যারা একই পোস্ট একাধিকবার দিয়ে থাকেন। এটি ফেসবুকের নীতিমালা বহির্ভূত কাজ। এ রকম নিয়মিত হলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার এ্যাকাউন্ট ব্লক করে দিবে আপনি বুঝতেই পারবেন না।

নকল জিনিস পোস্ট : ফেসবুক সাধারণত অন্যকোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের পোস্ট করা জিনিস নতুন করে গ্রহণ করতে চায় না। যেমন- আপনি যদি গুগল থেকে নেওয়া কোনো কনটেন্ট পোস্ট করতে থাকেন। তাহলে এ ব্যাপারে গুগল ফেসবুকের কাছে অভিযোগ করলে আপনার এ্যাকাউন্টটি ব্লক হয়ে যেতে পারে।

ফেক আইডি : অনেকে ভুয়া আইডি বা ভুয়া ঠিকানা দিয়ে ফেসবুকে এ্যাকাউন্ট তৈরি করেন। আপনি হয়তো মনে করছেন, ফেসবুক এটি আইডেন্টিফাই করতে পারবে না। কিন্তু তা নয়। ফেসবুকের অবশ্যই কিছু পলিসি রয়েছে যা দিয়ে আজ হোক কিংবা দু’দিন পরে হোক আপনাকে শনাক্ত করতে পারবে। অথবা ভুল আইডির কারণে আপনাকে সঠিকভাবে আইডেন্টিফাই করতে পারছে না। তখন আপনার আইডি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্লক হয়ে যাবে।

নকল ইমেজ ব্যবহার : অনেকেই বিখ্যাত লোকদের ইমেজ ব্যবহার করে ফেসবুক আইডি তৈরি করেন। এমন অনেকে রয়েছেন যে নিজে সলিমউদ্দিন হয়ে ওবামার ছবি দিয়ে আইডি চালায়। এক্ষেত্রে ওবামার পক্ষ থেকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করা হলে সলিমউদ্দিনের আইডি ব্লক হয়ে যাবে।

নগ্ন ছবি আপলোড : আপনি মানুন বা না মানুন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিন্তু ভদ্র লোকদের যোগাযোগের একটি প্লাটফর্ম। এর মধ্যে অবশ্য কিছু লোক রয়েছেন যারা ফেসবুকে অশ্লীল ছবি বা ভিডিও পোস্ট করতে ভালবাসেন। কিন্তু এটি ফেসবুকের নীতিমালার চরম লঙ্ঘন। ফলে যা হবার তাই হয়।

ট্যাগের ক্ষেত্রে অসতর্কতা : ফেসবুকে অনেকে বিভিন্ন লিংক শেয়ার বা ট্যাগ করেন। কিন্তু এটি করার আগে সে বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে দেওয়া উচিত যে সূত্রটির বৈধতা আছে কি না।

ব্যবসায়িক প্রচার : ফেসবুক পেজকে আপনার ব্যবসায়িক প্রচারের প্লাটফর্ম বানাবেন না। ব্যক্তির নামে আইডি খুলে সেখানে বিভিন্ন পণ্যের বা ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। তা নাহলে আপনার এ্যাকাউন্ট ব্লক হয়ে যেতে পারে।

একাধিক আইডি খোলা : ফেসবুকের নীতিমালা হল- পৃথিবী নামক এই গ্রহের প্রত্যেকটি ব্যক্তি একটি করে এ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। সেখানে বিভিন্ন ইমেইল এ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে একাধিক আইডি চালালে তা ব্লক হয়ে যেতে পারে।

সর্বোপরি ফেসবুক ব্যবহারে সততা ও সঠিকতার নীতি অনুসরণ করুন। এ সম্পর্কে আরও জানতে হলে ফেসবুকের নিয়মনীতি জেনে নিতে পারেন।

সবাইকে ধন্যবাদ। সুস্থ্য থাকুন,ভালো থাকুন এবং সব সময় Trickbd.Com এর সাথেই থাকুন।

2 thoughts on "ফেসবুক আইডি ব্লক? জেনে নিন সমাধান !"

  1. Xoker Xoker Contributor says:
    I know


Leave a Reply