আমরা কিছু পুরুষ আছি যারা কিচুদিন
পর পর শেভ করে থাকি । কিন্ত এই ঘন ঘন
শেভ করা কিন্ত একবারে ঠিক নয় ।
পুরুষদের দাড়ি রাখা আজকাল
ফ্যাশনে পরিণত হয়ে গেছে।
ভিন্ন ধরণের স্টাইলিশ ও ফ্যাশনেবল
লুক পেতে ছেলেদের দাড়ি রাখার
আইডিয়াটা মন্দ না। এছাড়াও দাড়ি রাখার বেশ কিছু
উপকারিতাও রয়েছে। আসুন তবে সেগুলো জেনে
নেওয়া যাক:

১। দাড়ি না কেটে আপানি নিজের
একটি
ঝাপসা, সাহসী এবং আকর্শনীয় ফেস
তৈরি
করতে পারেন।

২। নিউ সাউথ ওয়েলস
বিশ্ববিদ্যালয়ের
একটি গবেষণার পর তারা পুরুষদের আরও
বেশি আকর্ষণীয় হয়ে হয়ে উঠেতে
স্টাইলিশ দাড়ি রাখার প্রস্তাব
করেছে।

৩। বস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি
গবেষণা
অনুযায়ী একজন মানুষ তার জীবনের
প্রায়
১৩৯ দিন দাড়ি কাটতে গিয়ে অপচয়

করে
ফেলে।
আপনি যদি একজন সময় সচেতন মানুষ হয়ে
থাকেন তাহলে আজই দাড়ি কাটা
বন্ধ করে
দিন।

৫। দাড়ির আরও অনেক স্বাস্থ্য
উপকারিতা আছে। সরাসরি রোদ
ত্বকে লাগা, শেভ করার সময় ও শেভ
করার পর নানা ধরণের কেমিক্যাল
জাতীয় প্রোডাক্ট ব্যবহার
করা ইত্যাদি স্কিন ক্যান্সারের ঝুঁকি
অনেকাংশে
বাড়িয়ে দেয়।

৬। অনেকের ত্বক খুব সেনসিটিভ হয়ে
থাকে।
তারা যদি বারবার শেভ করেন
তাহলে
ত্বকের সেনসিটিভিটির কারণে
শেভিং র্যা শের
সৃষ্টি হয়। দাড়ি রাখার অভ্যাস এই
সমস্যা
থেকে মুক্তি দেবে।

৭। পুরুষদের ক্ষেত্রে
ডারম্যাটোলজিস্টগণ
স্কিন ক্যান্সার থেকে রক্ষা পেতে
দাড়ি
রাখার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

৮। পুরুষের ত্বকেও ব্রণ ওঠে থাকে।
শেভ করার প্রোডাক্ট ও ধুলো-বালি

এই সমস্যা
আরও বাড়িয়ে তোলে। যারা দাড়ি
রাখেন তারা নিয়মিত দাড়ির যত্ন
নিলে এই ধরণের
সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন খুব
সহজেই।

৯। যারা দাড়ি রাখেন তাদের ত্বকে
বয়সের ছাপ ধীরে পড়ে।
ডারম্যাটোলজিস্ট ডঃ অ্যাডাম
ফ্রাইডম্যান বলেন, ‘মুখের ত্বক
দাড়ি দিয়ে ঢাকা থাকার ফলে
সূর্যের আলোর
মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব থেকে মুক্ত
থাকা সম্ভব হয়।

১০। শেভ করলে পুরুষদের অনেকটা শিশুর
মত
দেখায়, যা আপনি নন। অনেকটা
স্কুলের
বালকের মতো চেহারা।

সৌজন্যঃ Tunebd24.Com

One thought on "যে ১০ টি কারণে পুরুষদের শেভ করা উচিত নয় “"

  1. fardil fardil Author says:
    apnar dari achey ni bhai????


Leave a Reply