আকাশ থেকে দেখলে মনে হতে পারে আশ্চর্যজনক সৈকত এবং ঘন বন সঙ্গে একটি সরল শান্ত ও মনোরম দ্বীপ। কিন্তু বাস্তবে মোটেও তা নয়। পর্যটক কিংবা জেলে কেউ দ্বীপটিতে পা রাখার সাহস করলে ভুল করবেন।


দ্বীপটির নাম উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপ। এটি ভারত মহাসাগরীয় দ্বীপ নামে পরিচিত।

বার্তা সংস্থা ডেইলি মেইল অনলাইন এ খবর নিশ্চিত করেছে। এই দ্বীপটি ৬০ হাজার বছরের পুরানো। কিন্ত এখনও দ্বীপটি আধুনিক মানুষের কাছে রহস্যময়ই হয়ে আছে! ভয়ংকর সব কাজের জন্য দ্বীপটি মানুষের কাছে এখনও রহস্যময়।

অতীতে যেসব পর্যটক ওই দ্বীপটি পর্যবেক্ষণ করার চেষ্টা করেছেন কিংবা কাছে গিয়েছেন তারা প্রত্যেকেই দ্বীপটির রহস্যময় উপজাতিদের দ্বারা হামলার শিকার হয়েছেন। দ্বীপটিতে এখনও আধুনিকতার ছোঁয়া পরেনি। তাই ওই দ্বীপটির বাসিন্দারা আধুনিক যুগের মানুষের সাথে কোনো যোগাযোগ করতে চায় না।

উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপটিতে কোনো বাহিরের লোক দেখলে সেখানকার অধিবাসীরা তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। ২০০৬ সালে একবার ২ জন জেলে অবৈধভাবে দ্বীপটিতে মাছ ধরতে গেলে স্থানীয়রা তাদেরকে আর ফিরে আসতে দেয়নি। নির্মর্মভাবে তাদেরকে হত্যা করা হয়।

বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত, উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপটি ভারত তথা বর্হিবিশ্বের কাছে ৬০ হাজার বছর ধরে রহস্যই রয়ে গেল। আধুনিক সভ্যতার লোকজন এখনও দ্বীপটির মানুষের ভাষা, ধর্মানুষ্ঠান এবং তাদের বসত বাড়ির রহস্য খুব কমই জানতে পেরেছেন।

আধুনিককালে অত্যাধুনিক সব ক্যামেরা থাকা সত্ত্বেও ওই দ্বীপের মানুষের স্পষ্ট কোনো ছবি তোলা সম্ভব হয়নি। কিছু কিছু ছবি তেলা হলেও তা স্পষ্ট নয়।

ভারত সরকারও অনেক চেষ্টা চালিয়ে দ্বীপটিতে প্রবেশের অনুমতি পায়নি। ২০০৪ সালে সুনামির সময় দ্বীপটিতে কি পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তাও জানা যায়নি।

প্রসঙ্গত, আধুনিককালে মানুষ যেখানে সুন্দর সব পোশাক পরিধান করে তাদের লজ্জা নিবারণ করছে।

সেখানে উত্তর সেন্সিনেল দ্বীপটির বসতীরা প্রায় নগ্ন থেকে জীবিকা নির্বাহ করছে। তারা গাছের ছাল বা বাকল দিয়ে নিজেদের লজ্জা নিবারণ করছে।

বর্তমান সময়ে মানুষ যেখানে উন্নতমানের সব খাবার খাচ্ছে, সেখানে ওই দ্বীপের লোকেরা সমুদ্রের মাছ খেয়ে জীবিকা নির্বাহ করছে।

3 thoughts on "৬০ হাজার বছর ধরে রহস্য হয়ে আছে যে ভয়ংকর দ্বীপ.. !"

  1. Rafi66 Contributor says:
    আমি কাল ওই দ্বীপে যাইতাছি।আমার পরিবার সহ।


Leave a Reply