ঈদের বাজার। চলছে ধুমছে কেনাকাটা। কোথাও ফিক্সট রেট আর কোথাও দরদাম করতে না পারলে একদম ঠকে বাড়ি ফিরতে হচ্ছে। এই সময়ে কীভাবে টাকাও বাঁচাবেন আবার পছন্দের জিনিসটিও কিনবেন এই চিন্তা এখন সবার মাথায়। কেনাকাটায় দরদামে অবশ্য আমরা উপমহাদেশীয়রা সিদ্ধহস্তই বলা চলে। আসুন জেনে নিই কীভাবে দরদাম করলে আর ঠকবেন না আপনি।

শপিং-এ যান একদম সকালে

বিক্রেতারা কিছু নিয়ম মেনে চলেন। যেমন, একদম সকালে দোকান খুলেই তারা ক্রেতা ফিরিয়ে দিতে চান না। তখন দরদাম করে পছন্দের পণ্যটি কিনে নিতে পারেন সস্তায়। আর সকালে আপনি ভীড়ও কম পাবেন। সব দোকানে ঢুকে দেখতেও পারবেন শান্তিমত।

বিক্রেতার মনোভাব বুঝুন

বিক্রেতা কি আসলেই বিক্র্যে উতসাহী নাকি ইতিমধ্যে তার দিনের বিক্রয় টার্গেট পূরণ হয়ে গেছে সেটা খেয়াল করুন। টার্গেট পূরণ হয়ে গেলে তিনি আপনাকে আর কমে নাও দিতে পারেন। আবার বিক্রেতার বাচনভঙ্গি থেকে খেয়াল করুন তার মনোভাব। অনেক সময় হয়ত আপনি রিজনেবল দামই বললেন, কিন্তু বিক্রেতা এমন ভাব করলেন যে, আপনি কিছুই জানেন না এমন পণ্যের ব্যাপারে। দমে যাবেন না। এগুলো বিক্রেতাদের কৌশল।

অভিজ্ঞ কাউকে সাথে নিন

আপনি যে পণ্য কিনবেন সেক্ষেত্রে অভিজ্ঞ কাউকে সাথে নিন। যেমন, এই ঈদে আপনি যদি একটি জামদানি শাড়ি পড়তে চান তাহলে জামদানি চেনে এমন কাউকে সাথে নিন। অন্য পণ্যের ক্ষেত্রেও করুন এই কাজটি। মান, গুণ এবং দর সব কিছুতেই জিতবেন তাহলে!

যাচাই করুন

শুধু একটি দোকান না দেখে কয়েকটি দোকান দেখুন। সব দোকানিই তাদের পণ্যকে বলে বাজারের সেরা। অন্য দোকানে পাওয়া গেলেও তা হবে মানে খারাপ! বিক্রতাদের এসব কৌশলে ফেঁসে যাবেন না। আশেপাশের দোকানে এমনকি সম্ভব হলে ভিন্ন মার্কেটে দেখুন। দামে অনেক পার্থক্য খুঁজে পাবেন, কিন্তু পণ্য একই। আবার মানের পার্থক্যও থাকতে পারে। তাই ভাল করে দেখে নিন।

অফার খেয়াল করুন

অনেক বুটিক শপ ঈদের সময় বিশেষ অফার দেয়। এসব দোকান থেকে বরং অন্য সময়ের চেয়ে ঈদের সময়ই কম মূল্যে পণ্য পেতে পারেন আপনি। অফার মানেই পণ্য খারাপ নয়। এই দোকানগুলো হয়ত ঈদেই সর্বোচ্চ বিক্রয় করতে এই কৌশল গ্রহণ করেছে। তাদের কৌশল থেকে সুবিধা নিন আপনিও।

একদরের ক্ষেত্রে বেছে নিন ব্র্যান্ড শপ

ঈদের সময় অনেক যেমন তেমন দোকানেও একদরের সাইনবোর্ড লাগানো দেখা যায়। আর ভেতরে গেলে দেখা যায় সব পণ্যের আগুনঅসম দাম। এক্ষেত্রে ব্রান্ডশপগুলো বেছে নিন। ব্রান্ডশপগুলো কখনোই ঈদ উপলক্ষ্যে বাড়তি দাম যোগ করে না। মোটামোটি রেগুলার দামে অনেক বৈচিত্রময় পোশাক আনে তারা। মানের ক্ষেত্রেও নিশ্চিন্ত হওয়া যায়।

“স্পেশাল টিপস”

ইফতারের আগ মুহুর্তে এবং ঠিক পরমুহুর্তেও কিন্তু দরদাম করে শান্তি পাবেন আপনি। কারণ বিক্রেতারা ইফতারের সময়কে একটি দিনের শেষ এবং এরপর আবার বিক্রিয় শুরু করাকে আরেকটি দিনের শুরু হিসেবে দেখে।

9 thoughts on "ঈদের শপিং-এ দরদাম করবেন যেভাবে? সাথে ঈদ শপিং করার কিছু স্পেশাল টিপস ।"

  1. এত মাস পর পোস্ট করতে ইচ্ছে হলো?
  2. Hridoy Hridoykid Contributor says:
    ha ha ha copy lol
  3. A M My_idiea Contributor says:
    😁😁😁
  4. Md mht Contributor says:
    vai! ei post dekhe to bikreta raw sabdhan hoye jabe,tahole?

    #Good Post!

  5. Hi wakil, i was looking for you…
    plz inbox me Here
    1. Mahbub Pathan Mahbub Pathan Author says:
      amar mone hoy copy post kore.

Leave a Reply